• টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। যে কোনো নতুন আলোচনা শুরু করার আগে পুরোনো লিস্টি ধরে একবার একই বিষয়ে আলোচনা শুরু হয়ে গেছে কিনা দেখে নিলে ভালো হয়। পড়ুন, আর নতুন আলোচনা শুরু করার জন্য "নতুন আলোচনা" বোতামে ক্লিক করুন। দেখবেন বাংলা লেখার মতো নিজের মতামতকে জগৎসভায় ছড়িয়ে দেওয়াও জলের মতো সোজা।
  • উবের ডক

    h
    বিভাগ : অন্যান্য | ১৪ এপ্রিল ২০১৭ | ১৯৫ বার পঠিত
  • আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা ভাইরাস

  • পাতা : 1 | 2
  • h | 184.79.160.147 | ২৫ মে ২০১৭ ১২:১২366171
  • ১৯৬৬ তে প্রকাশ।সালটা বললাম, আচেবে , ফ্যানো দের প্রভাব তখন কত বেশি ভাবো।
  • lcm | 109.0.80.158 | ২৫ মে ২০১৭ ১২:১৫366172
  • আরেন্না, এই টই-টা খেয়াল করি নি আগে। হেব্বি হচ্ছে... গুড আইডিয়া...
  • lcm | 109.0.80.158 | ২৫ মে ২০১৭ ১২:২১366173
  • এ পাড়ায়, আমার এক জাভা প্রোগ্রামার বন্ধু উবের-এ গাড়ী চালিয়েছিল কিছুদিন - সাইড জব হিসেবে - উইকেন্ডেই নিত বেশি। ওর ধারণা ছিল গাড়ী খারাপ টারাপ হলে উবের-এর পয়সায় সারাবে। তো উবের সেই পয়সা না দেওয়ায় ছেড়ে দিয়েছে।
  • Arpan | 116.77.185.95 | ২৫ মে ২০১৭ ১২:৩৯366174
  • এটা খুবই আগ্রহের সাথে পড়ছি।

    জব লসের ডকুমেন্টেশনটা কর। এইরকম ক্যজুয়ালি। কে কারা কী ভাবছে। ফিউচারকে কীভাবে বোঝার চেষ্টা করছে। এইসব।
  • h | 184.79.160.147 | ২৭ মে ২০১৭ ০৩:৩৯366175
  • লেডিজ ম্যান খ

    --হে, হাউ আর ইউ টুডে?
    --এই চলছে, তোমার খবর বলো।
    --ইস দিস দ্য ফার্স্ট কফি
    --নো দ্য সেকন্ড।
    --ও, দ্যাট ইজ টল।
    --ইউ ডোন্ট লাইক কফি?
    --নাঃ, আমাদের ওদিকে কেউ কফি খায় না।
    উই জাস্ট মেক কফি বিনস, অ্যান্ড দেন সেল ইট অফ।
    -তাই নাকি ও, চা খাও।
    --ও ইয়া ওয়ান্স আ ডে টপস। তা এইরকম বোরিং জায়্গায় এসছো কি করতে
    --ওয়েল ফর কফি অ্যান্ড ওয়ার্ক।
    --হাহা, এত বোরিং শহর জীবনে দেখেছো? দেখ ভাই একটা মানুষের জীবনে লাগে টা কি, মোটামুটি এক দুটো জব, এক দু টো বৌ, আ সাপলাই অফ সিগার অ্যান্ড আ ফিউ ড্রিংক্স। অ্যান্ড নেকেড উইমেন ওন দ্য উইকেন্ড, টেল মি দ্যাট ইজ আ হোলসাম পিকচার, ইফ ইউ অ্যাড দ্য ব্রেকফাস্ট।

    বুঝলাম রসিক লোক। সে লাইনে কথা না বললে, শুধুইই ওয়েদার হবে। -----

    --তা এখানে স্ট্রিপ ক্লাব আছে, পোল ডান্সিং হয়?
    --একটু দূরে , আছে। আই ক্যানট বিলিভ এত হোটেল আছে এখানে, একটা একটু ভালো নাইট ক্লাব নেই কিস্যু নেই। কি যে করবে এখন তুমি, রাতের বেলা, দিস ইজ লাইক আ সেমেটেরি।
    আমি খুব বোকা জানো, আমি আমস্টারডাম হয়ে এশছি এখানে, ওহ্কানেই থাকা উচিত ছিল। আরো। ইট ইজ আ বিউটিফুল প্লেস। শপ্স, ফ্লাওয়ার্স, মারিজুআনা অ্যান্ড গার্ল্স। বিউটিফুল। দে রিয়েলি আন্ডার্স্ট্যান্ড আস। দে নো হোয়াট ডাজ আ ট্রাভেলিং ম্যান ওয়ান্ট। দ্য বেস্ট ফ্লাওয়ার মার্কেট ইন দ্য ওয়ার্ল্ড ইজ বাই দ্য বেস্ট ফ্লেশ মার্কেট, দ্য বেস্ট টোবাকো শপ্স আর নিয়ার বাই, অ্যান্ড ম্যান দ্য বিয়ার ইজ ফ্যান্টাস্টিক, ইফ ইউ আর ফিলিং এক্সপেন্সিভ, ইউ ক্যান গো টু আ বার। অ্যামেজিং, স্ট্রীট ফুল অফ শপ্স, লাইক আফ্রিকান বাজার। ম্যান আই অ্যাম ডাইং হিয়ার, আই শুড হ্যাভ স্টেড ব্যাক দেয়ার ইন আমস্টারডাম। দে ইভেন হ্যাভ দ্য ফানি স্ট্রীট ট্রেনস।
    --- ঃ-))
  • h | 184.79.160.147 | ২৭ মে ২০১৭ ২৩:৪৬366176
  • পাকিস্তান, নেপাল ও বাংলাদেশের তিনজন যুবক। এবং দুজন শ্বেতাংগ যুবক, সম্ভবত পূর্ব ইউরোপীয় এবং আমেরিকার ইংরেজি ভাষী।

    এই লেখাটার মধ্যে প্রস্তাবনায় একটা ফাঁক আছে। যেহেতু টই মাত্র, ওয়ার্ক ইন প্রোগ্রেস, বই না গবেষণাও না, তাই বলে এই ফাঁক টা ভরাট করার দরকার নেই তা না, অন্তত একটা স্বীকারোক্তি দরকার।

    ট্রাম্পের নির্বাচন, হিলি বিলি কান্ট্রি গোছের অতি সুলিখিত প্রবন্ধের খবরে এবং স্যান্ডার্স এর উত্থানের সংবাদে র প্রেক্ষাপটে আমি যখন এখানে আসি তখন সবে নতুন প্রেসিডেন্ট এর ইনগরেশন হয়েছে। নির্বাচনের ঘোর কাটেনি, তখন আমি হয়তো মনে মনে সেই সব লোক খুজছিলাম, যাঁরা হোয়াইট ওয়ার্কিং ক্লাস মেল, প্রেফারেবলু মিড লাইফ। ট্রাম্পের সমর্থক হওয়ার সম্ভাবনা। আমি এই বিষয়ে ব্যক্তি গত ভাবে এই সময় পত্রিকায় একটা প্রবন্ধ ও লিখি, যে এই আহত শ্বেতাংগর গল্পটা আমার সেরকম বিশ্বাসযোগ্য মনে হচ্ছে না। কিন্তু নিজের চোখে দেখা আর বই পত্র পড়া আলাদা, তো নিজের চোখে খুজছিলাম। দেখাও পেয়েছি। কয়েকজনের কথা বলেও ছি, একজনের কথা বিশেষ ভাবে মনে আছে, তিনি বছর চল্লিশেক, বলছিলেন, ক্লিন্টন এবং ডেমোক্রাটিক পার্টির র দোষ যে এবার ট্রাম্প নির্বাচিত হয়েছে। আমি নিজে ট্রাম্প কে ভোট দিয়েছি। ক্লিন্টন ইজ অল অ্যাবাউট মানি অ্যান্ড পাওয়ার, শি ইজ নট সেকশুয়াল অ্যাট অল, এই জন্যেই ওর বর কে অন্য মহিলার খোজে ঘুরে বেড়াতে হয়। তার পরে বলছিলেন, মেডিকেড থাকায় উনি কি বান্চা বেঁচে গেছেন, মেয়ের অ্যাক্সিডেন্ট হয়েছিল। এখন তারা বড় হয়েছে, কোথায় যে পড়বে কি যে করবে চিন্তায় পড়েছেন। নিউ ইংগ্ল্যান্ডে শুধু লোকাল ট্রাক চালিয়ে মাসে চার থেকে ছ হাজার ডলার রোজকার করে ফেলেন মাঝে মাঝে, বাকি সময়ে উবের চালান। তো আমি এই ন্যারেটিভ এর প্রতি সিম্প্যাথেটিক হতে পারিনি, বিশেষত মহিলা বিরোধী অংশটায়, আবার হতে পেরেছি পরিবারের জন্য আশ্চর্য্য পরিশ্রম করা এই মানুষ্টির প্রতি, আমার নিজের চাকরির অনিশ্চয়তার গল্পের থেকে একে কিছু আলাদা অনে হয় নি, ক্যাজুয়ালাইজ্ড লেবার এর পরিচিত কাহিনী তো ছিলই। কিন্তু ফাক তাহলে কি ছিল, আমি ধরে নিয়েছিলাম, শুধু মধ্যবয়সী দের চাকরি ই গেছে বলে তারা খচে গেছে, থিয়োরেটিকালি জানতাম বার্নি সমর্থক রা মূলত অল্পবয়সী, তার যারা ভালো উচ্চশিক্ষা পেতে চান, সেই মিলেনিয়াল রাও তাঁর সঙ্গে আছেন, কিন্তু যে ডেমোগ্রাফিক টা খেয়াল করিনি, তারা সেই সব পঁয় ত্রিশ এর নীচের লোক জন, যাঁরা চাকরি পা্ছেন না। উচ্চশিক্ষা যাঁদের শেষ হয়েছে। আর যেহেতু এটা ফর্মাল সার্ভে না, তাই মাইনের কথা জিজ্ঞাসা করা যায় না, চাই ও না। কিন্তু জানা গেলে রেকর্ড করাটা খারাপ না। তো এই ফাঁক গুলো ছিল, সেটা ভরাট হয়েছে কিছুটা হল, এই পাঁচ জনের সঙ্গে দেখা হয়ে।
  • h | 184.79.160.147 | ২৮ মে ২০১৭ ০০:১২366177
  • বাংলাদেশী যুবক। চাকরি পাচ্ছেন না, কমিউনিটি কলেজে আইটি কোর্স করে ফেলেছেন। অনেকগুলো প্রাইভেট কোর্স করে ফেলেছেন। এস কি এল, জাভা সি শার্প জানেন, তবে কাজ পাচ্ছেন না, এই স্কিলে একবার মাস ছয়েক কাজ পেয়েছিলেন, তার পরে আর পান নি। প্রচন্ড দুশ্চিন্তায় আছেন। দু তিনটে চাকরির পরিশ্রম নিতে পারছেন না। বয়স পঁয়্ত্রিশের নীচে, বিবাহ করতে লজ্জা পাচ্ছেন, আর্থিক নিরাপত্ত পরিবার কে দিতে পারবেন কিনা নিশ্চিত নন।

    নেপালি যুবক তিরিশ বছ র বয়স। বস্টনে ভালো ইউনি ভার্সিটি তে গ্র্যাজুয়েশন করেছেন, ভালো ছাত্র। চাকরি পাচ্ছে না। উবুন্টু আর পাইথন স্ক্রিপ্টিং ভালো বাসেন, টুক টাক অ্যাপ বানান বন্ধুদের বা পরিচিত দের টেক অ্যাওয়ে রেস্তোরা র জন্য, কিন্তু আত্মীয়ের দাক্ষিন্যে থাকতে হছ্হে, কোনো কোনো মাসে এক হাজার ডলার ও যোগাড় করতে পারেন না। বিবর্ন বিরস দিন কাটে বলছিলেন, কিন্তু দেশে ফিরতেও লজ্জা পান। টু লিভ উইথ শেম অফ বি-ইঙ্গ আ জবলেস অ্যাডাল্ট ইজ টু টাফ। যদিও আশা ছাড়েন নি। নিউ ইংগ্ল্যান্ড ছেড়ে যেতে চান না, বস্টন শহরের কোশার মিট থেকে ব্যাগেল সুফ্লে, চার পাষের নতুন ছাত্র দের উৎসাহ ভরা জীবন এগুলো র মধ্যে থাকতে ভালোবাসেন, বোরিং সাউথে একটু জব বেশি হলেও যেতে চান না। আমি বুঝলাম এই সেই পুরোনো জবলেস এজ এর বামপন্থী ছাত্র নেতার নেপালি আমেরিকান সংস্করণ, যার কলেজ চত্তর ছাড়ার আগেই বয়স হয়ে যায় ৪৫, যৌবনের মায়া , কবিতার মায়া, পরিবর্তনের মায়া কাটাতে পারে না, ছোটো শহরের বাড়িতে ফিরতেও ইচ্ছে করে না, কার ফেরোনো বা এগোনো দুটোতেই অনেক প্রশ্নোত্তর লাগে।

    পাকিস্তানি যুবক - সাংঘাতিক সচিন ভক্ত, মানি ব্যাগ খুলে দেখালেন, মিসবা আর সচিনের ছবি। কোহলি কে পছন্দ করেন বুঝলাম, কিন্তু বড্ড শো অফ। দ্রাবিদ আর লক্শমন সম্মান পান নি বলে মনে করেন, করাচীর লোক। আমি কলকাতার লোক শুনে বিস্ফারিত নেত্রে প্রথম প্রশ্ন আমি ইডেনে খেলা দেখি কিনা। তো ইনি গ্যাস স্টেশনের ম্যানেজার ছিলেন, বাড়ির কাছে, ঘন্টায় ১৪ ডলার পেতেন, যেটা অসাধারণ রেট। দুই ছেলেমেয়ে আর বউ কে নিয়ে সংশার। কিন্তু মালিকের ভাই এসে যাওয়ায় চাকরি গিয়েছে। উবের চালাচ্ছেন মাসে ৮০০ ডলার হয়ে যায়। তাতে এত রসিক ক্রিকেট প্রেম থাকে কি করে জ্জ্ঞাসা করিনি, নামার সময়ে জড়িয়ে ধরে বল্লেন, দাদা কো পেয়ার দেনা, হাম লোগ উনকে চাহনে ওয়ালে হ্যায়, জ্যাসে উনহোনে ইনজামাম কে বারে মে মোহব্বত সে বাত কিয়া হাম কভি নহী ভুলেঙ্গে। তো দাদার সে কথা মনে আছে কিনা জানা নেই ঃ-)

    পূর্ব ইউরোপীয় যুবক ---পাশ দিয়ে একটা বাইক যাওয়ায় চমকে উঠলেন, ভেবে ছিলেন তাঁর গাড়িতে ওরকম বিদঘুটে আওয়াজ বেরোছে, তাঁর নাকি অতো পয়সা নেই , গাড়ি সারাবার। সবে সারিয়েছেন। রুফিং করেন, ঠান্ডার মধ্যে ভোর থেকে কাজ, সবসময়ে রোজগার থাকে না। অবসরে উবের চালান উইকেন্ডে, কিন্তু উবের এ কিসু হয় না। এখন পরের রুফিং এর কাজের অপেক্ষায় আছেন। এক মহিলা নাকি সম্প্রতি $৮০ এর ভাড়ায় $৩০ ডলার ক্যাশ টিপ দিয়েছেন। সম্প্রতি।

    জন্মসুত্রে ইংরেজীভাষী যুবক -সাউন্ড ইঁযীনীয়ারিং পড়েছেন, হলিউড স্টুডিও তে কাজ করতেন। খুব ই তরুন চেহারা, চাকরি তে টিঁকতে না পারার মজার কারন বললেন যে মিউজিশিয়ান দের বিচিত্র শিডিউল / স্কেডিউল সামলাতে পারছেন নাম। ফিল্মের ডাবিং বা সোপ এর রেকর্ডিঙ্গ হয় ভোরে। দুপুর থেকে শুরু হয় রক মিউজ এর রেকর্ডিং।। মধ্যরাত পর্যন্ত। একেবারে রাত্রে আসেন র‌্যাপার বা গ্যারেজ মিউজিশিয়ান রা। বিজ্ঞাপন ইত্যাদি এর মাঝে মাঝে। তো এই রুটিন আর টানতে পারছেন ন। এখন নতুন করে দ্বিতীয় একটা ডিগ্রি করে নিচ্ছেন, অনেকটাই জানেন আইটি, কিন্তু জব পাচ্ছেন না, টুক টাক সাপোর্ট জব ছাড়া। আবার হয়তো সাউন্ড ইঞ্জীনীয়ারিং এ ফিরে যেতে বাধ্য হবেন
  • . | 193.82.199.156 | ২৮ মে ২০১৭ ২৩:৩৪366178
  • বোধির এই লেখা দেখে আমারও প্রাক উবের যুগের ট্যাক্সি্চালক মহম্মদ ভাইয়ের কথা মনে পড়ে গেল। সেটা ২০০৪-০৫ হবে ডেট্রয়েটে গিয়েছিলাম কাজে। তিনমাসের কাজ, রেন্টে গাড়ী নেওয়ার আগে ESA থেকে পেয়েছিলাম মহম্মদ ভাইয়ের নম্বর, অফিস নিয়ে যাওয়ার পথে করাচীর এই ভদ্রলোকের সঙ্গে এক অদ্ভুত সম্পর্ক হয়ে গিয়েছিল। নিজের মেয়ে আর বঊকে ১৪ বছর আগে ফেলে এসেছেন, ভিসার চক্করে ফিরে যেতে ভয় পান আর তাদের আনতেও পারেন না।
    আমার স্ত্রী আর মেয়ে আনতে যখন আমি সাউথফিল্ড থেকে ডেট্রয়েট এয়ারপোর্টে ৪০ ডলার কড়ারে যাই আর গিয়ে জানতে পারি তাদের ফ্লাইট ক্যান্সেল, তখন মহম্ম্দ ভাই বিনা দ্বিধায় আমার সঙ্গে ৪ ঘন্টা অপেক্ষা করে তাদের ঐ একই ভাড়ায় ফিরিয়ে নিয়ে যান।
    ঐ সময়েই আমার বউয়ের সঙ্গে এক পাকিস্তানী বুড়ী মহিলার আলাপ হয় যিনি ইংরাজী বলতে ও বুঝতে পারেন না। ছেলের কাছে যাবেন আট্লাণ্টায় ডেট্রয়টে নেমে কিন্তু সে ফ্লাইট তো চলে গেছে। তাকে নিয়ে এয়ারলাইন্সের কাউন্টারে গিয়ে কথা বলে হোটেলের বন্দোবস্ত করে, নামিয়ে দিয়ে যখন আমার আস্তানায় পৌঁছাই তখন ১০ ঘন্টা অতিবাহিত, কিন্তু ভাড়া নিলেন (৪০+৪০)=৮০ ড্লার।
    আমি গাড়ী নিয়ে অফিস চলে গেলে, বউ আর মেয়েকে ঘুরিয়ে আনতে হলে মহ্ম্মদ ভাইকে ডাক দিলেই হত। পরে সপ্তাহের শেষে আমার কাছ থেকে পয়সা নিয়ে নিতেন।
    পন্টিয়াকের কাছে আমার গাড়ী অ্যাক্সিডেন্টের দিন হসপিটালে বসে আমি মহম্মদ ভাইকে ডাকি আর উনি সাউথফিল্ড থেলে এসে আমাকে বাড়ী নিয়ে যান।
    যেদিন চলে আসি উনি ওনার মেয়ের কথা মনে করে আমার কন্যাকে একটি সোনার দুল উপহার দিয়ে আমাদের চমকে দেন। আমি নিতে না চাইলে উনি প্রায় কেঁদে ফেলে বলেন আমার মেয়ে ওনাকে ওঁর পাকিস্থানে ফেলে আসা মেয়েকে মনে করিয়ে দিয়েছে আর এর মাধ্যমে উনি নিজের মেয়েকেই কিছু দিচ্ছেন। এরপর আমি অভিভুত আর কিছু বলতে পারি নি।
  • h | 184.79.160.147 | ২৮ মে ২০১৭ ২৩:৪৮366179
  • থ্যান্ক্স। আমার একটা বিষয় জানার ইচ্ছে , এখানে কেউ ফিলিপিনো বা অন্য ধরনের ডোমেস্টিক হেল্প এম্প্লয় করেছেন? অভিজ'ণতা শেয়ার করার মত অ্যাজ এম্প্লয়ার? বা রিক্রুটার বা এম্প্লয়ার হিসেবে ফর্ম্য সেক্টরেও কি কারো অভিগ"ণতা আছে??
  • h | 184.79.160.147 | ২৮ মে ২০১৭ ২৩:৪৯366181
  • বুকটা মোচড় দিয়ে গেলো আগের পোস্ট Rাত।
  • h | 184.79.160.147 | ০৫ জুন ২০১৭ ০০:২৯366182
  • কয়েকটা ছোটো ট্রিপ

    --চলে এসেছি, আপনাকে দেখতেও পাছি।
    --ও দাঁড়ান, এক সেকন্ড, আমি আসলে ভাবিনি, এত দামী গাড়ি , এই ইকোনোমি রাইডে আসবে।
    --আমি জানো তো বেশ লাকি। নতুন গাড়ি পেয়ে গেলাম একটা অ্যাক্সিডেন্ট এর পরে। এক বড়লোকের ব্যাটা মোবাইল এ টেক্স্ট করতে করতে প্রায় দেড় লাখ ডলারের একটা গাড়ি আমার গাড়ি তুবড়ে দিলো। কি ভাগু বাচ্ছাটা বা আমার কিছু হয় নি। মানে একটু কপালে কেটে গেছিলো তার বেশি কিছু না। আমি চিকিৎসার খরচ, গাড়ির খরচ সব ই পেলাম।
    --ও মাই গড, ভালো আউটকাম, কিন্তু বিপদ হতে পারতো, আচ্ছা, আপনাকে আমি একেবারে উল্টো দিকে নিয়ে যাছি না তো?
    --আরে না, আমি তো উবের চালাছি, রিফিউজ করার বা গ্রাম্বল করার প্রশ্ন নেই। তবে আমার জানোতো সময়্টা খারাপ যাচ্ছে না।
    নতুন গাড়ি পেলাম, দেখে শুনে রিসার্চ করে আমার মত বেঁটে লোকের কি পোশায় সেই দেখে গাড়ি নিলাম, আবার ডিভোর্স টাও কমপ্লিট হয়েছে কদিন আগে, কিন্তু কোনো ঝামেলা হয় নি। আমাদের আলাদা থাকতে ইচ্ছে হল, আলাদা হয়ে গেলাম। লিগাল খরচ কিছু লাগে নি, কারণ আমি নিজে অ্যামিকেবল সেটলমেন্ট করেছি, শি অলসো ডিড অগ্রি। আমি তিনটে চাকরি করি বুঝলে, একটা ইনডাস্ট্রিয়াল সেফটির কনসেপ্ট বা বেচি, বিভিন্ন ইকুইপমেন্ট কোম্পানীর সঙ্গে কাজ করি, আরেকটা হল, ইনশিওরান্স পলিসি বেচি, আমার লাইসেন্স কস্ট দিব্য উঠে যায়, প্লাস উবের চালাই। কোনো নেশা টেশা করি না, ব্যায়াম করি, কুকুর টাকে সময় দি, ও আমায় একটু মিস করে।
    --আই সি, বাব তুমি তো সাঁঘাতিক বিজি। আজ আমরা কয়েকজন বন্ধু একটা রেস্তোরা যাছি বুঝলে। তাই মনে এট্টু ফুর্তি, নইলে সব সময়ে মেয়ের জন্য মন খারাপ করে। আমার সমস্যা হল, এমন একটা বয়স, একটু পুরোনো স্কিল, ম্যানেজমেন্ট পারি না, টেকনিকাল কাজ ই অল্প সল্প করি, প্রোজেক্ট রিফিউজ করার জায়্গায় নেই। তোমাকে দেখে ইন্স্পায়ার হচ্ছি বুঝলে, ভাবছি দু তিনটে জব করলে, আমার একটা জবের উপরে নির্ভরতা থাকবে না।
    --শোনো দুটো কথা বলি, আইটি ছারো। আইটি করে কিস্যু পারবে না। এত টাইম কনজিউমিং কাজ, টেকনোলোজি গুলো বোরিং টাইপের, আমি কিছুদিন করেছি জানি। ইউ আর আ গুড ম্যান। এখানে ড্রিংক্স নিয়ো না, ফাল্তু দাম নেবে। ওদের একটা পাস্তাই ভালো, সেটা আর স্যালাড খেয়ে বাড়ি চলে যেতো। যদি ইচ্ছে করে একটা এসপ্রেসো খেয়ে নিয়ো। সেটার সঙ্গে লাভলি বিসকুট দেয় একটা। এক গ্লাস হাউজ ওয়ান চেয়ে নিয়ো, ওটা ফ্রি অথবা কোক খেয়ো। মানে একটা ড্রিংক ফ্রি।
    ওকে এনজয়। আর শোনো ডাক্তার দেখিয়ো এরকম ভাবে কদ্দিন চ্লবে। ইউ লুক মাচ ওল্ডার দ্যান ইউ আর প্রোবাবলি।
  • h | 184.79.160.147 | ০৫ জুন ২০১৭ ০০:৪০366183
  • --গুরু তুমি লেজি কেনো? এটুকু হাটতে পারছো না, এটুকুর জন্য তুমি দশ মিনিট দাঁড়ালে।
    --আর বোলো না, একটু ল্যাদ খেলাম।
    --আমার গাড়িটা কেমন
    --ঝকঝকে করে রেখেছো দেখছি।
    --হু হু বাবা, এই গাড়িটা কপাল করে পেয়ে গেলাম। শস্তায়। বহুত যত্ন করি, আমার মা বলে, বেটা বিয়ে করে না কিছু না, সারাদিন গাড়ি আর গাড়ি। মা কে ছাড়া আমি পারি না বুঝলে, মাকে বলেছি তুমি যদ্দিন বেঁচে আছো আমার কাছে থাকো। অন্য ছেলে মেয়েদের কাছে যেয়ো না। আমার হিন্গ্সে হয়। মামা লাভ্স মি, শো শোজ শি ইজ অ্যাঙ্গরি।
    ---তোমার মা কোথায় থাকেন
    --আমার কাছে নিউ অরলিয়ান্সে থাকেন, এখন এখানে আমার ভাই বোন দের কাছে এসেছেন। আমি ওনাকে নিয়েই ফিরবো। ম্যান লং ড্রাইভ।
    --হ্যাঁ কি করবে?
    --মা থাকবে তো, আস্তে অস্তে যেতে হবে, নইলে আমি নিউ ইয়র্কে বড় হয়েছি বুঝলে, আমি দেড়শোর নিচে গাড়ি চালানো কে ইন্সালটিং মনে করি। আহাহাহা। জানো তো আমার ইন্ডিয়ান কালচার ভালো লাগে। তোমাদের কালচারের মতই আমরাও বাবা মাকে স~গে রাখি।
    --আই সি, হ্যাং আমাদের বাবা মা রাও আমাদের কাছেই থাকেন।
    ---ম্যান দ্যাট ইজ গুড, ইন্ডিয়া ইজ ম্যাসিভ সিভিলাইজেশন। ইউ নো সামওয়ান টোল্ড মি, আন্ডার দ্য তাজমহল দেয়ার ইজ আ হিন্দু টেম্পল। ম্যান দ্যাট ইজ ম্যাসিভ, ওয়ার্ল্ড ইজ ওয়েটিং ফর দ্যাট টু কাম আপ। ইন টার্ম্স অফ সিভিলাইজেশন ইউ আর লাইক আস, ম্যসিভ হিস্টরি।
    --এসে গেছি, খুব ভালো লাগছিল, আরেকটু গল্প করি চলো।
    --না ব্রো, আমায় যেতে হবে, তবে রিমেম্বার মি, আই অ্যাম ফ্রম নিউ অরলিয়ান্স, হু লাভ্স হিজ মাম্মা, অ্যান্ড ইজ নট গুড অ্যাট এনিথিং বাট কারস, আই লাইক স্টোরিজ দো।
  • h | 184.79.160.147 | ০৫ জুন ২০১৭ ০০:৪৩366184
  • শোনো রেটিং টা ভালো দিয়ো ব্রো। এটা ইম্পর্টান্ট, দ্য ফিড ব্যাক অ্যাবাউট কার , ড্রাইভার অ্যান্ড দ্য ট্রিপ।
  • h | 184.79.160.147 | ০৫ জুন ২০১৭ ০১:০২366185
  • এমনি সিটি ট্যাক্সি। উবের না। উবের সেদিন পাওয়া যায় নি।

    --অ্যাই তুমি তো কিস্যু জানো না। আমি তোমায় ফলো করছি, তুমি আমায় ফলো করছি, এরকম করে নাকি, একটা জায়গায় চুপ করে দাঁড়াবে তো। এর মধ্যে সব বাজার ও হাত থেকে ফেলে দিলে। কিসুই পারো না
    --হ্যা, রাইট।
    ---শোনো এটা বেসিক, তুমি এক জায়গায় দাঁড়াবে, আমি গাড়িটা তোমার সুবিধে করে দাঁড় করাবো। সব জিনিস তুলেছো, নাকি পয়সা গচ্ছা দিলে। আজকালকার লোকেরা এত পয়সা নষ্ট করে, দেখলে রাগ হয়।
    ---রাইট
    --রাইট আবার কি, ইউ নেভার শুড ফরগেট দিস।
    কোথায় যবে বলো, রাস্তা চেনো, আমার কিন্তু জিপিএস উড়ে গেছে।
    --হ্যা চিনি
    --যাক নিজের বাড়িটা অন্তত চেনো। বলো।
    --এই তো এদিক দিয়ে বাঁদিকে কোয়ার্টার মাইল, তার পরে দু মাইল, তার পরে ডান দিকে দুশো গজ।
    --ওকে চলো। ধুর আমার আর এখানে ভালো লাগে না। আগে এই শহরে কত লোক ছিল, এখন সন্ধের পরে একটা স্ট্রীট লাইট অব্দি জ্বালায় না। আমি মুভ করে যাঅছি ভাই , কলোরাডো তে। নিউ ইয়র্ক , নিউ ইংল্যান্ড ইজ ডেড।
    --তুমি কি কলোরাডোর লোক? রিটায়ার করবে।
    --রিটায়ার কেনো করবো, মোটামুটি ফিট আছি, গাড়ি চালাবো। এটা ইজি জব। আমি আগে আর্মি তে চিলাম, আমি এই শহরের ই লোক, কিন্তু আমি পনেরো বার এই শহর ছেড়ে গেছি, আমার চলে এসেছি, আমার বন্ধু গুলো এতো পাজি, মুভ করতে চায় না , একসকিউজেস অ্যান্ড এক্সকিউজেস। অ্যাজ ইফ দিস প্লেস হ্যাস অল দ্য গার্ল্স অফ ১৯৭৮। কামিং টু থিংক অফ ইট নান অফ দেম ডায়েড, অল অ্যালাইভ, দ্যাট ইজ অ্যানাদার থিং, নান অফ আস ডাইং ইন ফিয়ার অফ মিসিং ইচ আদার। হাহাহাহাহাহা। বাট দিজ প্লেস ইজ ডেড, আই অ্যাম মুভিং টু মিড ওয়েস্ট। পার্মানেন্ট, নো লুকিং ব্যাক।

    (রাগী দাদু এর পরে আমায় নামিয়ে দিয়ে বাই বলে চলে গেলেন। আমি নিশ্চিত দাদু যতই ট্রাম্প সাপোর্টার হোক না কেন, দাদু কলোরাডো থেকে ফিরে আসবেই, বিকজ দ্য গার্ল্স অফ ১৯৭৮ আর নট ডেড, অ্যান্ড দে আর নট শোইঙ্গ এনি সাইন্স আইদার ঃ-)))) )
  • h | 184.79.160.147 | ০৫ জুন ২০১৭ ০১:১৫366186
  • -হেল্লো , কেমন আছেন, কোথায় যাবেন?
    - এই তো দক্ষিন পূর্ব ১০ মাইল।
    --সিট বেল্ট বেঁধে ফেলুন,
    --আচ্ছা আজ ট্রাফিক কেমন, কাল বাসে দেড় ঘন্টা লেগেছিল, অনেক জবাবদিহি করেছি। আমি ঐ জন্য আপনাকে ডাকলাম।
    --ডোন্ট ওরি, এতো ভোরে বেরিয়েছো, পৌছে দিচ্চি, মিটি ং কটায়
    --মিনিট চল্লিশেক পরে
    --হয়ে যাবে চলো। আচ্ছ একটা কথা জিগ্যেস করবো, তুমি দেখতে ইন্ডিয়ান কিন্তু তোমার নামটা রাশিয়ান দেখে আমি ভাড়া টা নিলাম
    --মেরেছে রাশিয়ান কোথায় পেলে?
    --ঐ যে তোমার নামে একটা ভ আছে না, দেখে আমি নাম দেখে ভাবলাম তুমি রাশিয়ান। যাক গে ইন্ডিয়ান হলেও আমার কাজ হয়ে যাবে, গুরু তুমি বিশ্বনাথন আনন্দ কে চেনো, দেখেছো?
    --উরিস্সালা তুমি কি দাবা ফ্যান নাকি। এই জন্যে প্যাসেঞ্জার মধ্যে রাশিয়ান খোঁজো?
    --বলো না , চেনো?অ
    --আরে না, ও চেন্নাই এর লোক। আমি কোলকতার লোক, দেড় হাজার কিলোমিটার দুরে। তুমি কোথাকার।
    --আমি দক্ষিন ফিলিপিন্স। একটু নোটোরিয়াস জায়গা। মুসলমান ভার্সাস গভরনমেন্ট চলছে। আমি অবশ্য, পলিটিক্সে নেই, আমি ঐ শহরের দাবা চাম্পিয়ন হতে পারিনি, আমার ভাই হয়েছিল, আমি সেমি ফাইনালে হেরে যাই। এখন আমার ফাইড রেটিং শ এর ঘরে। তবে আমি খেলা ছড়িনি। বলো না আনন্দ কিছু টিভি তে টিপ্স দেয়?
    --আমি সত্যি বলছি জানি না কিচ্চ্ছু।
    --ওখানে কি ছোটো থেকে দাবা খেলে সবাই।
    --অনেকেই খেলে
    --গুড। এই জন্যে তোমাদের ব্রেন আ্ছে।
    --আলাদা করে কিছু আছে কিনা জানি না।
    --শোনো তুমি দাবার টিপ্স কিছু থাকলে আমাকে ফোন কোরো, এই নাও আমার নাম্বার।
  • গবু (erstwhile বোকা) | 57.15.8.225 | ০৮ জুন ২০১৭ ১০:৩৮366187
  • আর ট্যাক্সি চড়ছেন না? সব ঠিকঠাক তো? যে রকম পিঠের ব্যথার কথা বলছেন, ভয় লাগে।
  • h | 184.79.160.147 | ০৯ জুন ২০১৭ ১২:১৮366188
  • আমি ঠিকাছি, থ্যাংক ইউ।
  • h | 184.79.160.147 | ১৩ জুন ২০১৭ ০৭:৩৭366189
  • - আপনি কি ভারতীয় এবং আইটি কনসালটান্ট?
    --হ্যাঁ, কনসালটান্ট কিনা জানিনা, ঐ আর কি, আইটি ওয়ার্কার, বিট ওল্ড দ্যাট ইজ অলঃ-)
    ---ইউ আর ফানি, টেল মি, হোআট ডু ইউ হ্যভ টু ডু? আর দেয়ার জব্স ফর টেস্টিং?
    ---ইউ লাইক আইটি?
    ---ও আই গট ট্রেন্ড, বাট আই হ্যাভ নো কনফিডেন্স আই ক্যান ডু ইট। ইট ইজ আ প্রাইভেট কোম্পানি হোয়ার আই গট ট্রেন্ড, বাংলাদেশী অ্যান্ড ইন্ডিয়ান পিপল টিচিং টেস্টিং। আ ফ্রেন্ড গট জব, বাট আই ডোন্ট নো ইফ আই ক্যান।
    ---হোয়াই। ইউ ক্যান ট্রাই, ইফ আই ক্যান , হোয়াই কান্ট ইউ?
    --ইজ মাই ইংলিশ অলরাইট?
    --অফ কোর্স, হাউ ইজ মাইন?
    --ইউ আর ওক।
    --হোয়ার ডিড ইউ গ্রোপ আপ?
    --আই ওয়াজ ইন টার্কি?
    --ও মাই গড, আই অলওয়েজ ওয়ান্টেড টু সি দ্য বসফোরাস অ্যান্ড আই লাভ টার্কিশ ফুড।
    --ওকে, ডু ইউ থিংক আই ক্যান?
    --হোয়াট ইজ বদারিং ইউ?
    --ওয়েল দেয় পুট আ লট অন মাই সিভি অ্যান্ড আই হ্যাভ নো কনফিডেন্স।
    --সি ইউ আর হনেস্ট, দিস উইল হেল্প ইউ অল ইয়োর লাইফ। ওয়ীল আই অ্যাম নোবোডি, বাট আই অ্যাম সারভাবিভিং সো ক্যান ইউ।
    --গুড ম্যান। থ্রি মিনিট্স বিফোর ইউ কেম আই ওয়াজ তেলিং আলা, হু শুড আই টেক অ্যাডভাইজ ফ্রম, দ্য লাস্ট ইন্ডিয়ান আইটি পার্সন হু গট ইন্টো মাই কার, ওয়াজ জাস্ট লিসেনিং টু মিউজিক, নেভার আন্সার্ড মাই কোশ্চেন্স। টেল মি হোয়াট ডাজ আ টেস্টার ডু?
    --টেস্তের্স ফাইন্ড আউট ইফ দেয়ার আর ইসুস অ্যান্ড প্রবলেম্স উইথ অ পিস অফ অ্যাপ্লিজেশন। দেয় ফাইন্ড আউট ফ্রম স্পেসিফিকেশন্স হোয়াট ওয়াজ এক্সপেক্টেড।।
    --আই সি, ডু ইউ থিংক আই ক্যান?
    --শিয়োর, হান্ড্রেড পার্সেন্ট। ক্যান আই টেল ইউ সামথিং?
    --ইয়েস।
    --ই লাভ আ নভেলিস্ট ফ্রম ইয়োর কান্ট্রি।
    --ইজ ইট অরহান পামুক? হোয়াট হ্যাভ ইউ রেড?
    --স্নো, মিউজিয়াম অফ ইনোসেন্স, ইসতানবুল।
    --গুড, ওয়েল আই অ্যাম স্যাড এগেন।
    --হোয়াই,
    --দে ডোন্ট লাইক হিম ইন টার্কি।
    --হোয়াই
    --পলিটিক্স
    --ও আই অল্সো লাভ আ পোএট ফ্রম ইয়োর কান্ট্রি।
    --ইজ ইট হিকমেট?
    --ও ইয়া। ইন মাই ল্যাঙ্গুয়েজ বেঙ্গলি, দেয়ার ওয়াজ অ গ্রেট পোএট, সুভাষ মুখোপাধ্যায়, হি ট্রান্সলেটেড হিকমেত ইন ৬০স।
    --আই ক্যানট বিলিভ আই অ্যাম স্যাড এগেন
    --হোয়াই।
    -- হ্যাভ ইউ রেড ইয়াসের কামাল?
    --আই হ্যাভ হার্ড অ্যাবাউট হিম, হি ইজ লেজেন্ড।
    --ওয়েল ইউ সি, দেয়ার ইজ অ ফানি থিং অ্যাবাউট পলিটিক্স। ইট কিল্স,ইট কোরাপ্ট্স, ইট ডাজ পলিটিক্স ইন এভরিথিং, ইট ক্যান বি রিয়ালি চোক ইউ। বাট ইট হ্যাজ দ্য এবিলিটি টু মেক ইউ স্যাড, ইফ ইউ লাভ পিপল। বেস্ট রাইটার্স ওয়ান্ট টু টেল ইউ দ্যাট বাট দে মেক ইট ডিফিকাল্ট ফর আস টু ইন্টারপ্রেট আন্ডার্স্ট্যান্ড। আই উইশ উই কুড টক মোর মাই ফ্রেন্ড।

    -- আমি বুঝলাম কোন একলা একসাইলের সঙ্গে ট্যাক্সি চড়া হল, বা হলেও হতে পারে।
  • d | 144.159.168.72 | ১৩ জুন ২০১৭ ১৩:৩১366190
  • :-(
  • pi | 162.158.167.163 | ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ২০:৫৬729643
  • এটা শেষ?
  • করোনা ভাইরাস

  • পাতা : 1 | 2
  • গুরুর মোবাইল অ্যাপ চান? খুব সহজ, অ্যাপ ডাউনলোড/ইনস্টল কিস্যু করার দরকার নেই । ফোনের ব্রাউজারে সাইট খুলুন, Add to Home Screen করুন, ইন্সট্রাকশন ফলো করুন, অ্যাপ-এর আইকন তৈরী হবে । খেয়াল রাখবেন, গুরুর মোবাইল অ্যাপ ব্যবহার করতে হলে গুরুতে লগইন করা বাঞ্ছনীয়।
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত