• খেরোর খাতা

  • একলব্যের কাটা আঙুল 

    Bandana Mitra লেখকের গ্রাহক হোন
    ২৮ এপ্রিল ২০২১ | ১০৬ বার পঠিত
  • পছন্দ
    জমিয়ে রাখুন পুনঃপ্রচার
  • মৃত্যু মিছিল। এবারে বড় কাছে, বড় ঘনিষ্ঠ। এমন কেউ যার সঙ্গে স্কুলে এক্কা দোক্কা খেলেছি। কলেজে আড্ডা মেরেছি, অফিসের অবসরে লাঞ্চ খেয়েছি, সন্ধ্যায় এক কাপ কফি নিয়ে তুমুল তর্ক বিতর্ক করেছি। শৈশবে স্নেহ কেড়েছি। তারা এমন চলে গেল, যেন এত সহজে চাইলেই যাওয়া যায়! যেন পর্দা তুলে এ ঘর থেকে ওঘর যাওয়া। অথচ এরপর হাজার লক্ষ বার চাইলেও সেই পর্দা তুলে আর কখনও এ ঘরে ফিরে আসা যাবে না। পূর্ণচ্ছেদ। অসুখ? এমন অসুখ হয়? নিঃশ্বাস না নিতে পেরে অতল জলের তলায় ডূবতে ডুবতে , শেষ সময়ে আপনজনের চোখে জল না দেখে, পৃথিবীতে ভালবাসা যে এখনও বেঁচে আছে এই বিশ্বাসটুকু সঙ্গে পাথেয় না নিয়ে , এমন পরিত্যক্ত অবাঞ্ছিত বিদায় কেউ নেয়! একে মৃত্যু বলে? এই যে প্লাসটিক মোড়া একটির পর একটি স্তুপ ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে কখন তারজন্য বরাদ্দ তিন হাত ভূমি কর্তৃপক্ষ মঞ্জুর করবেন সেই করুণ অপেক্ষায়। যুদ্ধে অস্ত্রধারণের সুযোগ না দিয়ে পরাজয় স্বীকার করতে বাধ্য করা! শুধুমাত্র একটা বেড, একটা অক্সিজেন সিলিন্ডার, একটা ওষুধ –তারজন্য পিঁপড়ের মত সারিবেঁধে, কৃমির মত বুকে হেঁটে, অপেক্ষা, অনুনয়, ভিক্ষা, আর শেষ পর্যন্ত অপারগ অক্ষমের নিস্ফল কান্না। মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ার দাবীটুকুও করা যাবে না, কারণ যুদ্ধ করার অস্ত্র নেই, সরঞ্জাম নেই, সৈন্য নেই। প্রিয়জন মারা গেলে মানুষের যে শেষ সম্বল থাকে, শেষ সান্ত্বনা – যতটুকু সাধ্য ছিল করেছি, আর কিছু করার ছিল না – “ তোমায় আমি রেখে এলাম ঈশ্বরের হাতে”  সেই আশ্বাসটুকুও নেই। মানুষ মরণশীল, তার আয়ু কয়েকটি দিনের মধ্যে সীমাবদ্ধ। কিন্তু মৃত্যুর মুখ থেকে কয়েকটা দিন আপনজনের জন্য ছিনিয়ে আনার যে যুদ্ধ, এমনকি সে যুদ্ধে  জয়ের সম্ভাবনা নেই জেনেও শুধু লড়ার জন্যই লড়ে যাওয়া, সেই তো আমাদের, মানে ছাপোষা, নিরীহ গৃহস্থদের একমাত্র কুরুক্ষেত্র, কাছের মানুষকে আগলে রেখে ভালবাসা জানানোর একমাত্র পথ।

    করোনা এসেছে, আসুক, পৃথিবীর ইতিহাসে এমন অতিমারী কি মহামারী এসেছে অনেক। অসুস্থ হচ্ছে মানুষ, তাতেও আফশোষ নেই, জরা ব্যাধি মৃত্যু – এই তিন নিয়েই তো সংসার, এই তো মারের প্রকৃত রূপ। কিন্তু সেই মারের চোখে চোখ রেখে একটু আমাদের লড়তে দেবে না? হাসপাতালে বেড থাকবে না? নিঃশ্বাস নেওয়ার বায়ু থাকবে না? ঠিক হোক ভুল হোক চিকিৎসা করার ওষুধ থাকবে না! কৃমির মত, পিঁপড়ের মত, বার্ড ফ্লুতে আক্রান্ত মুরগীর মত মানুষ পটাপট মরে যাবে আর আমাদের তাকিয়ে দেখা ছাড়া, অন্যদিকে চোখ সরিয়ে নেওয়া ছাড়া, নেতাদের কটুক্তি করা ছাড়া, নিঃসীম আতঙ্কে “এরপর কে” ভাবতে বসা ছাড়া কিছু করার নেই? জানি না, এই দুঃস্বপ্ন কবে কাটবে। এখন আর কোন ভিক্ষা  নেই, শুধু নতজানু প্রার্থনা করি , ধারালো ছুরিতে একলব্যের বুড়ো আঙুলটা এভাবে কেটে নিও না, ওকে ধনুকে বাণ যোজনা করতে দাও। তারপর বুঝে নেওয়া যাবে। দিনের শেষে অন্তত এইটুকু সান্ত্বনা থাকুক – “ জানি উনি অনতিক্রম্য, কিন্তু খেলায় আমরাও হারি নি।“  

          

  • ২৮ এপ্রিল ২০২১ | ১০৬ বার পঠিত
  • পছন্দ
    জমিয়ে রাখুন গ্রাহক পুনঃপ্রচার
  • কোনোরকম কর্পোরেট ফান্ডিং ছাড়া সম্পূর্ণরূপে জনতার শ্রম ও অর্থে পরিচালিত এই নন-প্রফিট এবং স্বাধীন উদ্যোগটিকে বাঁচিয়ে রাখতে
    গুরুচণ্ডা৯-র গ্রাহক হোন
    গুরুচণ্ডা৯তে প্রকাশিত লেখাগুলি হোয়াটসঅ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হোন। টেলিগ্রাম অ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলটির গ্রাহক হোন।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • aranya | 2601:84:4600:5410:196f:c9e9:40f7:b6ac | ২৮ এপ্রিল ২০২১ ২১:২৩105254
  • ঠিকই, লড়াই-টা করতে দাও , এটুকুই তো চাওয়া 

আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। খারাপ-ভাল প্রতিক্রিয়া দিন