• হরিদাস পাল  আলোচনা  স্বাস্থ্য

  • ভ্যাকসিন নিন প্রথম সুযোগেই, কিন্তু কোভিড বিধি ভুলে যাবেন না

    Dr. Koushik Lahiri লেখকের গ্রাহক হোন
    আলোচনা | স্বাস্থ্য | ১৪ মার্চ ২০২১ | ৫৬৯ বার পঠিত | ১ জন
  • পছন্দ
    জমিয়ে রাখুন পুনঃপ্রচার
  • এটা একটা অতিমারী পরিস্থিতি, যেটা অভূতপূর্ব না হলেও, ভয়ঙ্কর !


    বিশ্বে এ যাবৎ প্রায় ১২ কোটি মানুষ কোভিডের কবলে পড়েছেন ! প্রাণ হারিয়েছেন সাড়ে চব্বিশ লক্ষ মানুষ ।


    আমাদের দেশে এ যাবৎ আক্রান্ত  এক কোটি তেরো লক্ষ মানুষ, প্রাণ গেছে প্রায় এক লক্ষ ষাট হাজার জনের !


    গতকাল সারা দেশে ২৭৫১২  জন নতুন রোগী ধরা পড়েছেন। মারা গেছেন ১৫৭ জন !


    ১৩ ডিসেম্বর, ২০২০ (২৭৩৩৬ )র পর এই প্রথম এক দিনে এতো রোগী ধরা পড়লেন।


    দ্বিতীয় ঢেউ বলার সময় এসেছে কি না তা নিয়ে বিতর্ক থাকলেও এই প্রবণতা যথেষ্ট আশঙ্কার। 


    অনেক হাসপাতালে আবার কোভিড আইসিইউ এবং এইচডিইউগুলি ভর্তি হয়ে থাকছে, কোভিড আইসিইউ বা এইচডিইউ-তে বেড পাওয়া যাচ্ছে না, পাওয়া যাচ্ছে না ফ্রিতে ভেন্টিলেটর।


    বিশ্বজুড়ে বিজ্ঞানীর দল, সময়ের সঙ্গে এক অসম লড়াই লড়ে আমাদের হাতে এনে দিয়েছেন হাফ ডজন কার্যকরী ভ্যাকসিন ! 


    এতো তাড়াতাড়ি কোনো টীকা উদ্ভাবন থেকে প্রয়োগ মানবসভ্যতায় এই প্রথম !


    আর সেটাও আপৎকালীন প্রয়োগ ! 


    তাই কী বলা হয়েছিল, কোন টীকা কতখানি কার্যকারী তথ্যগত সে সব কুটকাচালির সময় এটা নয় ! 


    একটা জিনিস মনে রাখতে হবে কোন প্রতিষেধকই কিন্তু একশ শতাংশ কার্যকরী নয় ! কোভিডের ক্ষেত্রেও তাই ! এটা একটা ইভলভিং বা ক্রমস্ফুটায়মান পরিস্থিতি!


    আমরা এখনো জানিও না এটা মারীর শুরু, শেষ না মাঝামাঝি ! 


    সবিনয়ে বলি এটা অন্যমত, সহমত, বহুমত, ভিন্নমতের সময় নয় ! 


    বিতর্ক চলুক কিন্তু নিজের, নিজের পরিবার পরিজনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করে তারপর ! 


    অনেকে বলছেন ভ্যাকসিন নিয়েও কেস বাড়ছে কেন ?


    কোন সময়ে কোন দেশে ভ্যাকসিন প্রয়োগ হচ্ছে সেটাও বিচার্য ! 


    মার্কিন মুলুক আর ইংল্যান্ডে টিকাকরণ শুরু হয় তাদের ভয়াবহ দ্বিতীয় বা তৃতীয় তরঙ্গ শীর্ষে! 


    সেসব দেশে ভ্যাকসিনের পর কেস সংখ্যা নেমে এসেছে হুহু করে!


    আমাদের দেশে, মধ্যপ্রাচ্যে, টীকাকরণ শুরু হয় মারীর প্রথম তরঙ্গ শেষে ! 


    আমাদের দেশে জনসংখ্যার মাত্র দেড় শতাংশ প্রথম ডোজ পেয়েছেন !


    সমীক্ষা অনুযায়ী আমাদের দেশে জনসংখ্যার মাত্র এক চতুর্থাংশ থেকে এক তৃতীয়াংশের মধ্যে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে। সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষ  এখনো কোভিড থেকে নিরাপদ নন। 


    আমাদের ১০ কোটি রাজ্যবাসীর মধ্যে   টীকা পেয়েছেন মাত্র ২০.৩ লক্ষ জন টীকা পেয়েছেন সব মিলিয়ে। অর্থাৎ এঁদের মধ্যে কেউ একটিমাত্র বা কেউ দুটি ডোজ পেয়েছেন। আর পরীক্ষা হয়েছে ৮৭ লক্ষের কিছু বেশি মানুষের।


    ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ডোজের দু সপ্তাহ পরই শরীরে প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে ওঠে । 


    তাই কেস সংখ্যা বাড়তে শুরু হওয়ায় গেলো গেলো রব তোলার কিছু নেই !


    আর, কোভিডের ফিরে আসার মূলে কোভিড বিধি নিয়ে আমাদের গয়ংগচ্ছ মনোভাব !


    রাজ্যে আসন্ন নির্বাচনে উপলক্ষে সব রাজনৈতিক দলের মিছিল মিটিং সমাবেশের প্রতিযোগিতায় কোভিড বিধি উধাও। 


    অংশগ্ৰহণকারী সাধারণ মানুষ, নেতা-নেত্রীরা, এমনকি নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা পুলিশ, রক্ষীবাহিনীর অধিকাংশের মুখে মাস্ক নেই, থাকলেও তা থুতনিতে নামিয়ে রাখাটাই রীতি হয়ে গেছে, দূরত্ববিধি মানার কোন লক্ষণ নেই। অর্থাৎ সংক্রমণ ছড়ানোর প্রতিটি কর্মই পালিত হচ্ছে এবং সমস্ত রাজনৈতিক দলগুলি নানা বিষয়ে পরস্পরকে বিরোধিতা করলেও এই বিষয়ে সবদলই সহমত। 


    পাশাপাশি চলছে টীকাকরণ ! 


    এখন এটাই দেখার আমরা দ্বিতীয় তরঙ্গ কে কতখানি বিলম্বিত বা খর্বিত করতে পারি !


    বাড়ির বয়োজ্যেষ্ঠদের অতি অবশ্যই টীকা দেওয়ার ব্যবস্থা করুন।


    নিজে পঁয়তাল্লিশ ঊর্দ্ধ হলে, কোমর্বিডিটি থাকলে, প্রথম সারির যোদ্ধা হলে নিজে অবশ্যই টীকা নিন।


    আর হ্যাঁ, নাক ঢেকে মাস্ক পড়ুন, দুগজের শারীরিক দূরত্ব মেনে চলুন, হাত জীবাণুমুক্ত রাখুন ।


    এটা একমাত্র উপায়, অস্তিত্বরক্ষার ! ভ্যাকসিন নিন প্রথম সুযোগেই, কিন্তু কোভিড বিধি ভুলে যাবেন না https://thedoctorsdialogue.com/take-corona-vaccine-at-your-first-chance/

  • বিভাগ : আলোচনা | ১৪ মার্চ ২০২১ | ৫৬৯ বার পঠিত | ১ জন
  • পছন্দ
    জমিয়ে রাখুন গ্রাহক পুনঃপ্রচার
  • কোনোরকম কর্পোরেট ফান্ডিং ছাড়া সম্পূর্ণরূপে জনতার শ্রম ও অর্থে পরিচালিত এই নন-প্রফিট এবং স্বাধীন উদ্যোগটিকে বাঁচিয়ে রাখতে
    গুরুচণ্ডা৯-র গ্রাহক হোন
    গুরুচণ্ডা৯তে প্রকাশিত লেখাগুলি হোয়াটসঅ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হোন। টেলিগ্রাম অ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলটির গ্রাহক হোন।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • Raja Bhattacharyya | ১৪ মার্চ ২০২১ ২২:৫২103664
  • অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ তথ্য। প্রথম সুযোগেই ভ্যাকসিন নিন সবাই। নিজে বাঁচুন অন্যদের বাঁচান। 

আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। সুচিন্তিত মতামত দিন