ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • বুলবুলভাজা  খবর  টাটকা খবর

  • মরিয়ম মুরমুর ধর্ষিত লাশ অথবা প্রশ্নবিদ্ধ আদিবাসীর মানবতা

    সমর মাইকেল সরেন ও বিপ্লব রহমান লেখকের গ্রাহক হোন
    খবর | টাটকা খবর | ১২ জুলাই ২০১১ | ৮৩১ বার পঠিত
  • বিশিষ্ট সান্তাল আদিবাসী লেখক মিথুশিলাক মুরমু'র বিধবা স্কুল শিক্ষক বোন মরিয়ম মুরমুকে (৫৫) গত রোববার সন্ত্রাসীরা রাজশাহীর গ্রামের বাড়িতে গণধর্ষণ ও বিভৎস শাররীক নির্যাতনের পর হত্যা করেছে। পৈশাচিক ঘটনাটি এখান®ই শেষ নয়, হত্যার পর সন্ত্রীরা আদিবাসী বোনটির নগ্ন লাশ গাছে ঝুলিয়ে রেখে প্রতিহিংসাও মিটিয়েছে। একই জেলার গোদাগাড়ী উপজেলায় মাত্র চার মাস আগেই গণধর্ষণের পর বিচার না পেয়ে কিশোরী শেরাপিনা মার্ডি (১৫) গায়ে কেরোসিন ঢেলে আত্মহত্যা করে। আদিবাসী সমাজ শোক কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই মরিয়ম মুরমুর এই নৃশংস হত্যার ঘটনা। এ ঘটনায় উত্তরবঙ্গের সান্তাল আদিবাসী সমাজ চরম ক্ষোভে ফেটে পড়েছেন।...

    "খুনের পর আদিবাসী নারীর লাশ গাছে বেঁধে রাখা হলো' শিরোনামে গত ১১ জুলাই সংবাদপত্রের খবরে বলা হয়:

    "রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার সিমলা দীঘিপাড়া গ্রাম থেকে গতকাল রোববার সকালে বিবস্ত্র অবস্থায় গাছে বেঁধে রাখা আদিবাসী নারী মরিয়ম মুর্মুর (৫৫) লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। পুলিশের ধারণা, ধর্ষণের পর হত্যা করে দুর্বৃত্তরা তাঁর লাশ গাছে বেঁধে রাখে।

    মরিয়ম মুর্মু গোদাগাড়ীর সিমলা দীঘিপাড়া গ্রামের একটি বয়স্ক শিক্ষা বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করতেন। এ ছাড়া আদিবাসী পরিচালিত একটি বেসরকারি সংস্থার সঙ্গেও যুক্ত ছিলেন। তাঁর স্বামীর বাড়ি তানোর উপজেলার কমলা ইউনিয়নের চৈতপুর গ্রামে। ২০০৩ সালে স্বামীর মৃত্যুর পর থেকে গোদাগাড়ীতে বাবা রাজেন মুর্মুর বাড়িতেই ছিলেন তিনি।

    এলাকাবাসী জানান, রাজেন মুর্মুর বাড়ির সামনে বাঁশঝাড়ের ভেতরে থাকা একটি বরইগাছের সঙ্গে মরিয়মের লাশ গলায় রশি পেঁচানো অবস্থায় ঝোলানো ছিল। লাশটি ছিল বিবস্ত্র। শরীর থেকে ঝরছিল রক্ত। গতকাল ভোর ছয়টার দিকে গ্রামের অঞ্জলী মুর্মু প্রথমে লাশটি দেখতে পান। পরে তাঁর চিৎ কারে আশপাশের লোকজন ছুটে গিয়ে লাশটি কাপড়ে ঢেকে থানায় খবর দেন।

    স্থানীয়রা বলেন, রাজেন মুর্মুর মাটির তৈরি দোতলা বাড়ির প্রধান দুটি দরজা সকালে খোলা পাওয়া গেছে। বাড়ির আলমারি ও ট্রাঙ্ক ছিল খোলা। এর মধ্যে থাকা কাগজপত্র, জামা-কাপড় ও অন্যান্য জিনিসপত্র তছনছ অবস্থায় পাওয়া গেছে।

    এলাকাবাসী বলেন, রাজেন মুর্মু একজন সাবেক জরিপকারী (সার্ভেয়ার)। তিনি তাঁর বৃদ্ধ স্ত্রী ও বিধবা মেয়েকে নিয়ে বাড়িতে থাকতেন। তাঁর অন্য চার মেয়ে ও এক ছেলে থাকেন বাইরে। মরিয়মের একমাত্র ছেলেও চাকরির সুবাদে বাইরে থাকেন। মেয়ের বিয়ে হয়েছে নওগাঁর নজিপুরে।

    প্রতিবেশীরা বলেন, রাজেন মুর্মু খুবই অসুস্থ। ঠিকমতো চোখে দেখতে পান না। কানেও কম শোনেন। তাঁর স্ত্রীর অবস্থাও ভালো নয়। তাই তাঁরা বাড়িতে থাকলেও ঘটনার কিছুই টের পাননি।

    মরিয়মের খালাতো ভাই আন্দ্রিয়াস মুর্মু বলেন, প্রতিদিনের মতো মরিয়ম শনিবার রাতেও বাড়ির বারান্দাতেই ঘুমিয়ে ছিলেন। কিন্তু রাতে দুষ্কৃতকারীরা তাঁর ওপর পাশবিক নির্যাতন চালিয়ে তাঁকে হত্যা করেছে।

    মরিয়মের ছেলে উইলসন (৩২) বলেন, তাঁর মাকে কে বা কারা আগে থেকেই মেরে ফেলার হুমকি দিতেন। কিন্তু তাঁর মা কারও নাম বলতেন না। তবে তিনি বলেন, জমি নিয়ে চাচার সঙ্গে তাঁদের ঝগড়া চলছে। এর বাইরে কারও সঙ্গে তাঁদের শত্রুতা নেই।

    গতকাল রাজেন মুর্মুর বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, "বিছানায় পড়ে তিনি কাঁদছেন। তিনি এতটাই অসুস্থ যে উঠে মেয়ের লাশের কাছেও যেতে পারছেন না। তাঁর স্ত্রী মেয়ের লাশের পাশে বসে কাঁদছেন।'... [লিংক]

    এভাবে এক টুকরো জমি বা সামান্য শেষ সস্বলের জন্য আর কতো আদিবাসী নারীকে ধর্ষিত হতে হবে? প্রাণ দিতে হবে? [লিংক] আদিবাসী পর্যবেক্ষক মাত্রই জানেন, পাহাড় ও সমতলে রাষ্ট্রীয় নিপীড়ন, সংখ্যাগুরু বাঙালি জনগোষ্ঠি, কি সামাজিক সন্ত্রাসের কাছে সাধারণ আদিবাসী মানুষ কতো অসহায়! [লিংক]

    আমরা দেখেছি, কিশোরী শেরাপিনাকে গত বছর ৪ এপ্রিল চার জন বখাটে যুবক ধর্ষণ করার পরেও পুলিশ তাদের গ্রেফতার করেনি। আসামীরা মাত্র দেড় লাখ টাকায় ধর্ষণের ঘটনা ধামাচাপা দিতে চাইলে ১০ মাস ধরে আপমানের জ্বালা সয়ে শেরাপিনা এ বছর ১৭ ফ্রেব্রুয়ারি গায়ে কেরোসিন ঢেলে আত্মহত্যা করে। সে সময় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়সহ উত্তরবঙ্গের আদিবাসীদের সম্মিলিত তীব্র আন্দোলনের মুখে পুলিশ এজাহারভূক্ত আসামীদের গ্রেফতার করতে বাধ্য হয়। আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার দায়ে মোট ১৩জনকে আসামীও করা হয়। আজও এ ঘটনার বিচার হয়নি। [লিংক]

    স্মরণ করা যেতে পারে, দখলদারদের থাবা থেকে খাস জমি, তথা আদিবাসী গ্রাম রক্ষা আন্দোলনের শহীদ উত্তবঙ্গের সান্তাল নেতা আলফ্রেড সরেনের কথা। ২০০০ সালের ১৮ আগষ্ট নওগাঁর ভীমপুরে নিহত আলফ্রেড সরেন হত্যার বিচারের দাবিতে আদিবাসী ও প্রগতিমনা বাঙালিরা যৌথ আন্দোলন গড়ে তুলেছিল। জাতীয় পর্যায়ে অনেক সভা-সমাবেশ, মিছিল, বিক্ষোভ, সাংবাদ সম্মেলন, স্মারকলিপি পেশ, মানববন্ধন হয়েছে। আলফ্রেড সরেন পরিনত হয়েছেন আন্তর্জাতিক সংবাদে। কিন্তু গত ১০ বছরেও এ হত্যা মামলাটি উচ্চ আদালতের চৌকাঠ পেরুতে পারেনি। আলফ্রেড সরেনের বোন রেবেকা সরেন ভাইয়ের বিচার চাইতে গিয়ে সংসার ভেঙেছেন, ভীমপুর আদিবাসী গ্রাম জনশূন্য হয়েছে, স্বপ্ন ভেঙেছে শত শত আদিবাসী নারী-পুরুষের। এর দায়ভার কে নেবে? এখনো আলফ্রেড সরেন হত্যার আসামীরা প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে। [লিংক] বছর দশেক আগে ধর্ষিতা ও অপহৃত ছোট বোনের লাঞ্ছনার বিচার চাইতে গিয়ে টাঙ্গাইলে খুন হয়েছেন গারো আদিবাসী মেয়ে গিদিতা রেমা, অরণ্যের অধিকার রক্ষা তথা ইকো-পার্ক ঠেকাও আন্দোলনে বন রক্ষীর গুলিতে প্রাণ দিয়েছেন মধুপুরে পিরেন স্নাল, এক-এগারোর সেনা সমর্থিত বিগত তত্ত্বাবধয়ক সরকারের সময় যৌথ বাহিনী পিটিয়ে খুন করে একই আন্দোলনের নেতা চলেশ রিছিলকে। আদালতের মহফেজখানায় থেকে এ হত্যা মামলাটিরও বন্দিদশা ঘোচেনি। [লিংক]

    অন্যদিকে, জমির বিরোধকে কেন্দ্র করে পার্বত্য চট্টগ্রামে একের পর এক সহিংস সন্ত্রাসী ঘটনা ঘটেই চলেছে। সেনা বাহিনীর প্রত্যক্ষ মদদে পাহাড়ে অভিবাসিত বাঙালি সেটেলাররা গত বছর ১৯-২০ ফেব্রুয়ারিতে খাগড়াছড়ি ও বাঘাইছড়িতে সশস্ত্র হামলা চালিয়ে অন্তত চার জন আদিবাসী পাহাড়িকে খুন করে। জ্বালিয়ে দেওয়া হয় শত শত আদিবাসীর ঘরবাড়ি, স্কুল, বৌদ্ধ বিহার। এ বছর ১১ এপ্রিল খাগড়াছড়ির রামগড়ে সেটেলার অধ্যুষিত এলাকায় আবারো পাহাড়িদের গ্রামে আগুন দেওয়া হয়েছে। প্রায় দেড় দশক আগে স্বাক্ষরিত পার্বত্য শান্তিচুক্তিটির মৌলিক শর্তসমূহ বাস্তবায়ন তথা পার্বত্য সমস্যা সমাধানে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি -- উভয় সরকারই সীমাহীন উদাসিনতা দেখিয়ে চলেছে। সম্প্রতি সংশোধিত সংবিধানে উপেক্ষিত হয়েছে আদিবাসীদের সাংবিধানিক স্বীকৃতি দানের প্রাণের দাবি। [লিংক]

    এমনই নানান নিষ্পেষণের জাঁতাকলে পিষ্ট ও শ্বাসরূদ্ধকর পরিস্থিতিতে রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে আদিবাসী লেখক মিথুশিলাক মুরমুঞ্চর বয়স্ক বিধবা বোন মরিয়ম মুরমুকে নিষ্ঠুর নির্যাতন, ধর্ষণ ও খুন করা হলো। এ ঘটনা আদিবাসী সমাজকে আবারো নিরাপত্তাহীন এবং বিপন্ন করে তুলেছে। এ নিয়ে আমরা যাদের সঙ্গেই কথা বলেছি, তারাই এ ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। অনেক আদিবাসী সাধারণ মানুষ বলেছেন, এ দেশে কোনো সরকারই আদিবাসীদের পক্ষে নয়। আবার অনেকে হতাশা প্রকাশ করে বলেছেন, মরিয়ম মুরমু আদিবাসী বলে, নারী বলে, সামান্য স্কুল শিক্ষক বলে -- এ হত্যার বিচার হয়তো আর হবে না!

    এই নির্মম হত্যাকাণ্ডের নিন্দা জানানোর ভাষা আমাদের জানা নেই। তবে আমরা হতাশও নই। তাই আমরা চাই, এর নেপথ্যে যারাই থাকুক না কেন তাদের যেনো উপযুক্ত বিচার এবং শাস্তি হয়। আমাদের দাবি অবিলম্বে যেনো হত্যাকাণ্ডটির সুরাহা হয়, এই মামলাটি যেন দ্রুত বিচার আইনের আওতায় এনে যতদ্রুত সম্ভব মরিয়ম মুরমুর খুনিদের বিচার করা হয়। সর্বশেষ খবর পাওয়া গেছে, মরিয়ম মুরমুকে হত্যার প্রতিবাদে আদিবাসী সাংস্কৃতিক উন্নয়ন সংস্থা এবং জাতীয় আদিবাসী পরিষদ মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি নিয়েছে। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা একই দাবিতে লাগাতার রাজপথের কর্মসূচি গ্রহণ করেছে।

    আমরা মিথুশিলাক মুরমুকে আন্তরিক সমবেদনা জানাই। নিহত আদিবাসী বোনটিকে জানাই বিনম্র শ্রদ্ধা। আদিবাসী ভাই-বোনদের আহ্বান জানাই, শোককে শক্তিতে পরিনত করে আগামী দিনের মুক্তি-সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়ার। জয় হোক মুক্তিকামী মানুষের!

    মরিয়ম মুর্মুর এপিটাফ:

    চয়ন খায়রুল হাবিব
    ------
    শব্দের
    সম্ভ্রম
    না
    ভেঙ্গে
    শব্দের সম্ভ্রম পুরাপুরি চুরমার

    ব্রিটানির বিষদে হঠাত পশলা পশলা
    বাংলদেশি বর্ষার মুন্ডুকাটা ধড়
    জিন্দাফরাশ সময়ের গরম বাকড়

    দিঘিপাড়ায় নতজানু রংধনুর সোয়াদ পুড়ায়ে পুড়ায়ে
    আপাত দুরান্তের গোধুলিতে ফুরালো আইসক্রিমওয়ালার ঘন্টা

    শব্দের
    সম্ভ্রম
    না
    ভেঙ্গে
    শব্দের সম্ভ্রম পুরাপুরি চুরমার


    ---

    আদিবাসী বাংলা ব্লগ ও ফেসবুক গ্রুপ "পাহাড়ের রূদ্ধকণ্ঠ CHT Voice'-এর পক্ষে প্রকাশিত হল।
  • | বিভাগ : খবর | ১২ জুলাই ২০১১ | ৮৩১ বার পঠিত
  • আরও পড়ুন
    মা  - রজত দাস
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • Biplob Rahman | 212.164.212.14 (*) | ০৮ জুলাই ২০১২ ১১:৫৬89209
  • পাহাড়ে কি সমতলে আদিবাসী নারীর প্রতি নিষ্ঠুরতা চলছেই। অধিকাংশ সময়ই এসব ঘটনার বিচার হয় না। এসব ক্ষেত্রে অনেক সময়ই বৃহত্তর বাঙালি জনগোষ্ঠির সুশীল সমাজ, মানবাধিকার সংস্থা, রাজনীতিক গং আশ্চর্য জনকভাবে নিরব থাকেন। কতিপয় গণমাধ্যম উগ্র বাঙালি জাত্যাভিমানের কারণে অভিযুক্ত ধর্ষক ও খুনীর পক্ষে সাফাই গায়--এমন নজিরও আছে। সম্প্রতি ঘটে যাওয়া এমন কিছু ঘটনার টুকরো খবর::
    ...........................
    ০১। রাঙামাটি শহরের ভেদভেদীর উলুছড়ি এলাকা থেকে বলিমিলা চাকমা নামে আদিবাসী এক নারীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত বলিমিলা বরকল উপজেলার সুগরী পাতা গ্রামের দুর্গ চাকমার স্ত্রী। ঘটনাটি জানাজানি হলে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে। কোতোয়ালি থানার পুলিশের তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মোল্লা জাহাঙ্গীর জানান, পূর্বশত্রুতার জের ধরে এই হত্যাকাণ্ড ঘটে থাকতে পারে। ধারালো অস্ত্রের মাধ্যমে গলার পেছনের দিকে কেটে তাকে হত্যা করা হয়েছে। http://www.shokalerkhabor.com/online/details_news.php?id=86994&&+page_id=+7

    ০২। সমকাল :: টেকনাফে আদিবাসী পল্লীতে পুলিশের নির্যাতনের অভিযোগ ::
    http://www.samakal.com.bd/details.php?news=14&action=main&menu_type&option=single&news_id=264297&pub_no=1070&type

    ০৩। A minor indigenous Jumma girl allegedly killed after rape in Longadu in CHT

    On 9 May 2012 a minor indigenous Jumma girl named Ms Sujata Chakma (11 years), daughter of late Mr. Jyotish Chandra Chakma and Ms. Mongala Devi Chakma of Ultachari mouza area of Atarakchara union under Longadu upazila in Rangamati hill district was allegedly killed after rape by a Bengali settler. The victim was a student of class 4 of Ultachari Government Primary School. The girl was brutally killed by chopping on the neck with sharp weapon.

    It is learnt that the incident happened around 2.30 pm on that day, when Sujata Chakma along with her nephew (5 year old) named Triratna Chakma was grazing cows half a kilometer from the village.

    According to Triranta Chakma’s statement, a bearded Bengali man came and forcibly took Sujata away towards upward of Sadachara. She then ran to the village to give the news.

    The villagers rushed to the spot, but by then the culprit had ran away after raping and killing her. After being informed, the police reached the spot and recovered the body of Sujata.

    As per the statement of Sujata’s nephew, it is learnt that the Bengali settler was wearing a pant and red shirt.
    ----
    Kapaeeng Foundation
    (A Human Rights Organization for Indigenous Peoples of Bangladesh)
    Shalma Garden, House # 23/25, Road # 4, Block # B, PC Culture Housing, Mohammadpur, Dhaka-1207, Telephone: +880-2-8190801
    E-mail: [email protected], [email protected], Web:

    ০৪। রাঙামাটির লংগদু উপজেলায় এক আদিবাসী নারীকে কুপিয়ে জখম

    রাঙামাটির লংগদু উপজেলায় গত ২৯ ‍এপ্রিল ২০১২ আল্পনা চাকমা নামের এক আদিবাসী নারীকে বহিরাগত সেটেলার বাঙালিরা কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে।জানা যায়, ঘটনার দিন দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে জারুলছড়ি গ্রাম থেকে আল্পনা (৪৬) গুলশাখালী বাজারের দিকে যাচ্ছিলেন। আমতলা এলাকায় পৌঁছলে মুর্শিদাবাদ গ্রামের মো. রিমেল ও অপর এক অপরিচিত যুবক তাঁর পথ রোধ করেন। যুবকেরা তাঁর কাছ থেকে পাঁচ হাজার ৩০০ টাকা, সোনার চেইন ও নাকের ফুল ছিনিয়ে নেন। এবং তাঁকে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে। এ ঘটনায় ৩০ ‍এপ্রিল ২০১২ মো. রিমেলসহ অজ্ঞাতনামা আরেকজনের বিরুদ্ধে লংগদু থানায় মামলা হলেও আসামীদের এথনও গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। খবর নিয়ে জানা যায়, বতর্মানে এ ঘটনার সাথে জড়িত সেটেলার বাঙালিরা পরিবারসহ গ্রাম থেকে পালিয়ে গেছে।....

    [আরো জানতে ক্লিক করুন ফেবু গ্রুপ "পাহাড়ের রূদ্ধকণ্ঠ CHT Voice" https://www.facebook.com/groups/CHTVoice/]
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। সুচিন্তিত মতামত দিন