• হরিদাস পাল  ব্লগ

  • অভিজিৎকে কি আমি চিনতাম?

    সৈকত বন্দ্যোপাধ্যায় লেখকের গ্রাহক হোন
    ব্লগ | ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ | ৭২৮ বার পঠিত
  • জমিয়ে রাখুন পুনঃসম্প্রচার
  • আমি একটু নড়েচড়ে গেছি। অভিজিৎ রায়ের প্রোফাইল এখনও জ্বলজ্বল করছে ফেসবুকে। পাঁচ ঘন্টা আগে শেষ আপডেট। বিডি নিউজের একটা লেখার লিংক। অভিজিতেরই লেখা। সাত্র নাথিংনেস বিজ্ঞান এসব নিয়ে লেখা একটা ছোট্টো প্রবন্ধ।তার প্রথম লাইন "কেন কোনো কিছু না থাকার বদলে কিছু আছে?" আর সেই আপডেটের ঘন্টা পাঁচেক পরে পড়ছি বিডি নিউজেরই আরেকটা লিংক। এটা খবর। "একুশের বইমেলার থেকে ফেরার পথে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিতে কুপিয়ে আহত করা হয়েছে মুক্তমনা ব্লগের প্রতিষ্ঠাতা লেখক অভিজিৎ রায় ও ব্লগার রাফিদা আহমেদ বন্যাকে। তাদের দুজনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অভিজিতের মাথায় গুরুতর জখম হয়েছে, আঙুল বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে তার স্ত্রী রাফিদার।" শুনছি, আহত নয়, মারাই গেছেন অভিজিত। শেষ লেখার লাইনটা শুধু উল্টে গেছে। কিছু থাকার বদলে কোনো কিছুই আর নেই। প্রশ্নটাও থেকেই গেছে। কেন কোনো কিছু থাকার বদলে নেই হয়ে গেছে? কেন?

    সোজাসুজি জানার কোনো উপায় নেই। কিন্তু তাও আমি একটু নড়েচড়ে গেছি। কেন? অভিজৎকে কি আমি চিনতাম? বলা কঠিন। খুব অনুসরণ করেছি তো নয়, মুক্তমনার লেখক হিসেবে একরকম করে চিনতাম। গুরুতে একটা লেখা ছাপা হয়েছিল, তার কিঞ্চিৎ সম্পাদনা করেছি। দু-চারটি বাক্য বাদ দিয়েছি, নাড়াচাড়া করেছি। মেল চালাচালি হয়েছিল কি? নিশ্চয়ই হয়েছিল, কিন্তু মনে পড়েনা। খুঁজে বার করা যেতে পারে, কিন্তু এখন, ঠিক এই মুহূর্তে খুঁজে বার করতে চাইছিনা। পারবও না, ইচ্ছেও নেই। কখনও সাক্ষাৎ, ফোনে কথাবার্তা? হয়নি। তাহলে কেন লিখছি? কারণ, আমি নড়েচড়ে গেছি। কেন? একটা লোক, যে এতদিন পাশেই ছিল, নেট দুনিয়ায় গা ঘেঁষে ছিল, ইচ্ছে হলেই টুক করে ফেসবুকে একটা মেসেজ কিংবা মেল করে দিলেই ধরে ফেলা যেত, সে তো আমার পড়শীই ছিল এতদিন। আমার পড়শী, আমার পাশের বাড়ির লোক, স্রেফ বাংলা লেখার জন্য, বাংলা ভাষায় লেখার জন্য, বাংলা ভাষায় নিজের চিন্তা প্রকাশ করার জন্য লাশ হয়ে যাবে, এটা অচিন্তনীয় না? সন্ত্রাস-টন্ত্রাস তো পৃথিবীর অন্যপ্রান্তের বিষয় ছিল। যা নিয়ে তত্ত্ব করতে হয়, মূল্যবান মতামত দিতে হয়। কিন্তু ঠিক পাশের বাড়ির লোকের মুন্ডু কেটে নিয়ে গেলে কেঁপে যাবনা?

    আমি নড়েচড়ে গেছি, কারণ, আমি এসবকে এতদিন দূরের জিনিস ভেবেছি। দূরবীন দিয়ে দেখা বৃহস্পতির উপগ্রহের মতো। এই তো কদিন আগে নেটে চেনা এক মহিলার উপরে ফতোয়ার কথা পড়লাম নেটে। মহিলা নিজের অসম্ভব উদ্বেগের কথা লিখছিলেন। চিৎকার করে জানাচ্ছিলেন মৌলবাদীদের কথা। লোকে নানা মতামত দিচ্ছিল। পক্ষে বিপক্ষে। কোন মতামতটা হিন্দু মৌলবাদীদের পক্ষে যাবে, কোনটা বিপক্ষে, এইসব। আমি দূর থেকে বসে দেখেছি, নিস্পৃহতায়। কেন? দূরের জিনিস ভেবেছি বলেই তো। তত্ত্বকথা ভেবেছি বলেই তো। আজ দুম করে সব কাছে চলে এসেছে, আজ আমি মহিলার নাম আর লিখছিনা। ভয়ে লিখছি না। কারণ এসব আর শখের তত্ত্বচর্চা নয়, লেখার জন্য এখন আমার পাশের বাড়ির লোককে কুপিয়ে মারা হয়। মহিলার নাম নিলে, কি জানি, তাঁরও মুন্ডু উড়ে যেতে পারে। বৃহস্পতির উপগ্রহ দূবরীনে দেখার পর গ্যালিলিওর ও এরকমই হয়েছিল নিশ্চয়ই। এটা তো ঠিক মহাজাগতিক ব্যাপার নয়, বৃহস্পতির উপগ্রহই হোক আর বিশ্বজগৎ, সে তো দূরের কিছু নয়, স্রেফ ওইটুকু দেখার জন্যই মানুষকে যেতে হতে পারে ইনকুইজিশনে।

    আমি নড়েচড়ে গেছি, কারণ, লেখার জন্য জীবন দেওয়া আর দূরের জিনিস নয়। এ যেন ব্রেখটের নাট্যতত্ত্ব, নিদারুণ বিচ্ছিন্নতায় অন্য একটা নাটকের দৃশ্যাবলী দেখার পর, দুম করে অনুভব করা, আরে এ তো আমারই কথা বলছে। আমার বা আমার পাশের বাড়ির। কিন্তু শুধু সেটুকুই নয়। এখানে রয়ে গেছে আরেক পরত ম্যাজিক রিয়েলিজম। কাঁটাতারের বেড়া। একই ভাষায় কথা বলি, আমি আর অভিজিৎ। বলি নয়, বলতাম। একই বিষয় নিয়ে তক্কো করতাম। করিনি, কিন্তু করতেই পারতাম। ভালোবাসতে পারতাম, ঝগড়া করতে পারতাম। নেট জগতে, গুরুর গ্রুপে, গুরুর পাতায়, যেখানে খুশি। সেজন্যই তো পাশের বাড়ির লোক মনে হয়, হচ্ছে, বা হবে। কিন্তু তারপরেও অভিজিৎ মারা গেলে আমার কিচ্ছু করার নেই। আমি নন্দীগ্রামের মিছিল দেখেছি, কলরবের মিছিল দেখেছি, থাকি বা না থাকি, উত্তাপ নিয়েছি, মতামত দিয়েছি। কাউকে কোথাও একটা জবাব দিয়েছি বলে মনে হয়েছে। আমার জবাব দেবার একটা জায়গা আছে বলে মনে হয়েছে। কিন্তু এখানে? আমার পড়শী খুন হয়ে গেলে আমার কিচ্ছু করার নেই। কারণ ওটা অন্য দেশের ব্যাপার। ওটা বাংলাদেশ। ওরা ওদের ব্যাপার নিজেরা বুঝে নেবে। কারণ মধ্যে আছে কাঁটাতার। আমার পড়শী খুন হবে, খুন হয়ে যাবে, মাথায় বাড়ি খেয়ে ছটফট করবে, আমারই মাতৃভাষায় চিৎকার করবে, আর আমি কাঁটাতারের এপাশ থেকে জুলজুল করে দেখব। এতেও যদি নড়ে না যাই তো কিসে যাব?

    ছোটোবেলায় গণসংগীত শুনতাম। সাথীদের খুনে রাঙা পথে দেখো, হায়নার আনাগোনা। কাঁটাতারের এপার থেকে এখন আমি হায়নার আনাগোনা দেখছি। আমি বহু হাজার মাইল দূর থেকে অফিস ফাঁকি দিয়ে শুধু লিখছি। নিরাপদে বসে। কারণ আমি এটুকুই পারি। মিছিলে আমার অধিকার নেই। ওদের ঝুঁকি ওদের, আমার নয়। ওদের ভূখন্ড ওদের, আমার নয়। আমার হাত-পা বাঁধা। আমার তেমন দুখ নেই, নড়ে-চড়ে যাওয়া আছে। আর আছে একটু ক্রোধ। আর মাঝে-মাঝে ঝিলিক মারছে একটা সুখস্বপ্ন। কোনো ভাবে এই কাঁটাতারটা ওপড়ানো যায়না? মৌলবাদকে রোখা যায়না একসঙ্গে?

    এ হয়তো ঠিক লেখা হলনা। কতো কিছু জরুরি কথা বাদ গেল। এবং এ সবই ইনস্ট্যান্ট কফির মতো চটজলদি আবেগের কথা। অফিসের ডেস্কে বসে ১০ মিনিটে লেখা। তবে নড়ে গেছি কথাটা মিথ্যে নয়। আর ক্রোধটাও আশা করি জাস্ট এই কি-বোর্ড পিষেই উবে যাবেনা। বাংলাদেশের বন্ধুরা হাত বাড়ান। সঙ্গেই আছি।

  • বিভাগ : ব্লগ | ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ | ৭২৮ বার পঠিত
আরও পড়ুন
বিভাব - Avi Samaddar
আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • শ্রী সদা | 126.75.65.125 (*) | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ০৪:৫৭68877
  • হ্যাঁ এই "ইহা সহি ইসলাম নহে" টাইপের ঢ্যামনামোগুলো এবার প্লীজ বন্ধ হোক। আর নেওয়া যাচ্ছেনা।
  • de | 69.185.236.54 (*) | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ০৫:১৪68843
  • কি ভয়ানক খবর!! কোথায় চলেছি আমরা!
  • aranya | 83.197.98.233 (*) | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ০৫:২১68844
  • 'সাথীদের খুনে রাঙা পথে দেখো, হায়নার আনাগোনা' - এই গানটা আমারও কানে বাজছিল। হঠাৎ মনে হল চোখে জল, চোখ মুছে দেখি আঙুল ভিজে গেছে। শেষ কবে কেঁদেছিলাম মনে পড়ে না, হয়ত বাবা মার যাওয়ার পর, একুশ বছর আগে।
    আজ আফিসে কাজ করতে অসুবিধা হচ্ছিল। বসকে বললাম, আমার এক বন্ধু মারা গেছে - বন্ধু, সুহৃদ, কমরেড, আমার পূর্বপুরুষের দেশের এক অনন্য ব্যক্তি, যার সাথে সাক্ষাৎ পরিচয় ছিল না।
    এক্জন মানুষের মত মানুষ, যার মৃত্যু সত্যিই পাহাড়ের মত ভারি, যে বেঁচে থাকলে দেশের বহু মানুষের অনেক উপকার হত।
  • aranya | 83.197.98.233 (*) | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ০৫:২৪68845
  • দুটো ছবিতে এক পলকের বেশি চোখ রাখতে পারি নি। একটা বিডি নিউজের, অভিজিতের মৃতদেহ, সাদা কাপড়ে ঢাকা, কাপড়ের তলায় মাথাটা নেই মনে হল, চোখের ভুলই হবে।

    আর একটা ছবি, অজয় রায়ের, অভিজিতের বাবা। সন্তান হারানোর কষ্ট যে কি কষ্ট, এই শোক কোন ভাবেই মাপা যায় না
  • a x | 138.249.1.202 (*) | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ০৫:২৮68878
  • সদার এই কমেন্টটা ইস পার্ট অফ দ্য প্রবলেম বলে আমি মনে করি। এবং এখন থেকে যতবার দেখব, সেটা বলব।
  • Reshmi | 129.226.173.2 (*) | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ০৫:২৯68846
  • হতাশ লাগে।
    এই ভয়ংকর শক্তির বিরুদ্ধে লড়তে গেলে বোধহয় লড়াইটা যতটা গুরুত্বপূর্ণ, ঠিক ততটাই জরুরি প্রত্যেকটা পদক্ষেপ নিতে যথেষ্ট সাবধানতা অবলম্বন করা। যদিও জানি না সেটা কী করে সম্ভব। এই সাইটে অনেক কিছু খোলা পাতায় আলোচনা হয়, পড়ে মাঝে মাঝে ভয় করে কারো কারো বিপদের কথা ভেবে।
    লড়াইটা দরকার, ততটাই বেঁচে থাকাটাও, কারণ "এক্জন মানুষের মত মানুষ, যার মৃত্যু সত্যিই পাহাড়ের মত ভারি, যে বেঁচে থাকলে দেশের বহু মানুষের অনেক উপকার হত।"
  • সিকি | 192.69.198.21 (*) | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ০৫:৩১68847
  • কাল থেকে সময়ে সময়ে আমারও বার বার চোখে জল চলে আসছে। মনে মনে গাইছি - সাপের মাথায় পা দিয়ে সে নাচে। কান্না কেন, কান্না কেন তোর?
  • শ্রী সদা | 126.75.65.125 (*) | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ০৫:৩৯68879
  • বুঝলাম না। কী প্রবলেম ? যথেষ্ট পলিটিক্যালি কারেক্ট নয় ?
  • a x | 138.249.1.202 (*) | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ০৫:৪২68880
  • এই প্রবল অসহিষ্ণুতা - এটাই প্রবলেম। এই যারা হাত বাড়াতে চায় তাদেরকেও ঠেলে দেওয়া। এই লেবেল লাগানো - এটা প্রবলেম।

    ঢ্যামনামি শব্দের প্রয়োগ ও তার অর্থ আপাতত বাদ রেখেই বললাম।
  • ranjan roy | 113.242.196.115 (*) | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ০৫:৪৫68848
  • কোন সহজ সরল রাস্তা নেই। আমরা নাস্তিকেরা আজ সংখ্যালঘু। বিশ্বাসে আঘাত লেগেছে, সম্মানে আঘাত দিয়েছে-- এই অভিযোগে আরও কোতল হবে,-- প্যারিসে, ঢাকায়,দিল্লিতে, হরিয়ানায়, মুম্বাইয়ে, বঙ্গের গাঁয়ে গঞ্জে।
    এই আমাদের নিয়তি মেনে কাজ করে যেতে হবে এক স্টোয়িক মেন্টালিটিতে।
    কন্ঠস্বর থামলে চলবে না।
  • lcm | 118.91.116.131 (*) | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ০৫:৪৭68849
  • সেকি! মুক্তমনার অভিজিত....
  • শ্রী সদা | 126.75.65.125 (*) | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ০৫:৪৮68881
  • কারা হাত বাড়াতে চায় ? কিছু সুবিধেবাদী মধ্যপন্থী ধর্মভীরু লোকজন যারা মুখে সহানুভূতি দেখায়, নিজের ধর্মের দোষ ঢাকার জন্যে সহি ইসলামের দোহাই পাড়ে আর মনে মনে বলে বেশী বাড়াবাড়ি করলে এই হয় ? এদের হাত বাড়ানো বা না বাড়ানোয় কী আসে যায় ? ধর্মের মূল ঘাপলাগুলোকে প্রশ্ন না করে তার প্রয়োগকর্তার ঘাড়ে দোষ চাপিয়ে দু নৌকায় পা দেওয়া ছদ্ম মানবতাবাদীরা ঐ ফারাবীদের থেকে আলাদা কিসে ? এদের জন্যে ঢ্যামনা শব্দটা খুব মোলায়েম।
  • Du | 230.225.0.38 (*) | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ০৫:৫২68850
  • কি অবস্থা!
  • pi | 24.139.221.129 (*) | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ০৫:৫৩68851
  • আনসার বাংলার পোস্ট্গুলো থাকুক। এর পরেও যদি এদের ধরা না হয় ..
    https://twitter.com/AnsarBn_7
  • a x | 138.249.1.202 (*) | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ০৫:৫৫68882
  • সদা কি ইন্টার্নেটের কয়েক পংক্তি লেখা পড়ে প্রোফাইলিং করতে শিখে গেছে? এরা সুবিধেবাদী কিনা, এরা মনে মনে কী বলে, এই সবও এই কয়েক লাইন থেকেই বোঝা যায়?
  • Tim | 101.185.27.29 (*) | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ০৫:৫৮68883
  • অতি অবশ্যই যারা হাত বাড়াতে চায় তাদের খুব দরকার। কিন্তু এই "পাশে থাকা"র নানা রকমফের আছে। এই মুহূর্তে মৌলবাদ বিরোধী এবং একইসঙ্গে কোন ধর্মের ধ্বজার নিচে নেই যাঁরা, তাঁদের লড়াইটা খুব কঠিন। সুতরাং, অন্যরা যাঁরা পাশে থাকতে চান, আপন আপন ধর্মাচরণ করেই চান, তাদের পাশে থাকাটাও একটু কঠিনই হবে, এটা বোঝার সময় এসেছে। আমি পরিষ্কার দেখতে পাচ্ছি আমার ঘরে আগুন লেগেছে, প্রশ্ন হলো, যাঁরা পাশে থাকতে চান, তাঁদেরও সেইটাই মনে হচ্ছে কিনা। যদি হয়, সেক্ষেত্রে এই কঠিন সময়ে তাঁদের স্বাগত। এবং আমি আশা করবো কঠিন লড়াইটা একটু কষ্ট করে প্রত্যেকে নিজের ঘর থেকেই শুরু করবেন।

    ধর্মবিশ্বাসীদের কাছে যদি বিপদটা এখনও যথেষ্ট বড়ো না মনে হয়, সেক্ষেত্রে আমি আরো অপেক্ষাই করবো সেদিনের জন্যে যেদিন নিজ নিজ বিশ্বাসকে ওঁরা প্রশ্ন করবেন। ততদিন নৈতিক সমর্থন আছে, ভালোই, কিন্তু সেটা সান্ত্ত্বনা পুরষ্কারের মত লাগবে। হাজার হোক, অভিজিত রায় খুন হয়েছেন বিশ্বাসের ভাইরাস তাড়াতে গিয়ে।
  • Tim | 188.91.253.22 (*) | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ০৫:৫৮68852
  • শুধু ধরে তো লাভ নেই, রাজনৈতিক ফায়দাহীন যে শাসনব্যবস্থা এদের সারাজীবন জেলেই রেখে দিতে পারে তা কোথায় পাওয়া যাবে? বরং প্রতিটি স্বল্পকালীন কারাদন্ডই আখেরে ভিত শক্ত করবে এদের।
  • a x | 138.249.1.202 (*) | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ০৬:০১68884
  • পাকিস্তানে ৬০,০০০ -মুসলমান- মারা গেছে তালিবানি হত্যায়। এদের বেশিরভাগ, প্রায় সবাই, প্র্যাক্টিসিং মুসলমান। এরা বোঝেনি এদের ঘরে আগুন লেগেছে কিনা?
  • শ্রী সদা | 126.75.65.125 (*) | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ০৬:০৪68885
  • ইন্টারনেটে এই নিয়ে তো খুব কমদিন পড়ছিনা ঃ) মডারেট মুসলিমদের লেখা প্রচুর জায়গায় পড়েছি, সব শেয়ালের একই রা। ইসলাম খুব ভালো, কিছু দুষ্টু লোক এ মিলে আমাদের বদনাম করছে। তার মধ্যে একটা বড় অংশকে এরকম লিখতে দেখি - "না, মানে ফতোয়া জারি করা, কল্লা নামানো এসব সহি ইসলাম নহে, কিন্তু অমুকের তো বোঝা উচিত যে ধর্মকে অসম্মান করা উচিত নয়, তাছাড়া উনি কেন যে শুধু মুসলিমদের পেছনে পড়েছেন ..." বেশীদূরে যেতে হবে না, আসিফের স্টেটাসে চোখ রাখলেই এরকম বিভিন্ন ফ্লেভারের ছাগু ও মডু দেখতে পাওয়া যাবে।
    এই মুহূর্তে দ্ব্যর্থহীন ভাবে কোরানে যাই লিখুক না কেন ইসলামের সংস্কার চাই বলার মতো দম না থাকলে, যতই মানবতা ফলাতে আসুক ঢ্যামনামোই বলবো।
  • riddhi | 146.165.191.10 (*) | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ০৬:০৭68886
  • বিপ্লব দার সাথেই কোন এক তর্কের সময় প্রথমবার মুক্তমনা আর অভিজিতের নাম শুনি। বিপ্লবদার একটা পার্সোনাল একাউন্টঃ
    http://biplabbangla.blogspot.in/2015/02/blog-post_26.html
    (পড়ে খুব ভাল লাগল)।
  • Tim | 101.185.27.29 (*) | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ০৬:০৮68887
  • সেকথা আমায় জিগ্যেস করে কী হবে? আমি তো এই বিষয়ে অধিকারী নই। আমি সহি গলত কোনরকম প্র্যাক্টিসেই নেই।
    আমি পাকিস্তানের পরিস্থিতিতে পড়লে কি করতাম সে প্রশ্নও অবান্তর, কারণ আমি সেই পরিস্থিতিতে নেই।
    অভিজিতের মত পরিস্থিতি আমার হতে পারে, সুতরাং আমি সেটা নিয়েই ভাবছি। যিনি সিরিয়ায় আছেন তিনি আইসিসের ডাইরেক্ট অ্যাকশনের মধ্যে আছেন, রিয়ালিটি তো সবার জন্য সমান না।
  • a x | 138.249.1.198 (*) | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ০৬:১০68888
  • কিন্তু এখানে তো কেউ ধর্মকে অসম্মান করা, কেন মুসলিমদের পেছনে পড়েছে, এইসব লেখেনি। এখানে একজনই অ্যাপারেন্টলি ধর্মবিশ্বাসী মানুষ লিখেছেন, যিনি দ্বর্থ্যহীন ভাষায় এর নিন্দা করেছেন, যিনি মতপ্রকাশের সব রকম স্বাধীনতার পক্ষেই কথা বলেছেন।

    টিম, সেখানে এদেরকে যারা অন্যের মতকে মার্যাদা দেবার কথা বলছেন, তাদের আইসোলেট করে আমার সুরক্ষা এক্স্যাক্টলি কীভাবে বাড়ছে?
  • lcm | 118.91.116.131 (*) | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ০৬:১১68853
  • মুক্তমনার সাইট কাজ করছে না।
    যাই হোক, আর্কাইভ.অর্গ -এ ফ্রেব্রুয়ারী ৫ এর আর্কাইভ রয়েছে।
    http://web.archive.org/web/*/mukto-mona.com
  • riddhi | 146.165.191.10 (*) | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ০৬:১৪68889
  • সদার সাথে একেবেরারেই এগ্রি করি না। ফেবুগুরুতে লিখছিও এই নিয়ে অনেকবার। খুব ছোট করে, মডারেট মুস্লিম হিন্দুদের কোন দায় নেই কোন কিছু করার। ওদেরকে এলিএয়েনেট করে এক পাও এগুনো যাবে না। কেননা ওরাই প্রায় সবাই। 'ধর্মকেই এটাক কর' এই স্টান্স টায় অতি-ক্ষুদ্র লিবেরাল গোষ্ঠীর আত্মতুষ্টি ছাড়া কিছু হবে না। আর প্রাক্টিকালি করা তো অসম্ভব।

    বরং বিজ্ঞানের কথা অভিজিতের মত ক্লিয়ারলি লিখে যাওয়া। হ্যাঁ সবসময় সেন্টিমেনেটের কথা ভেবে লিখলে হয়তো মুক্তমনাও হত না , কিন্তু ঐ ফাইন ব্যলেন্স্টা দরকার । এই স্ট্রাটেজি যে সফল, তা মৌলবাদীদের reaction দেখেই বোঝা যাচ্ছে।
  • শ্রী সদা | 126.75.65.125 (*) | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ০৬:১৬68891
  • ধর্মবিশ্বাসী আর মতপ্রকাশের স্বাধীনতা - এক্ষেত্রে মিউচুয়ালি এক্সক্লুসিভ নয় কী ? যেখানে আল্লাস্যারের বাণী নিঃসংশয়ে মেনে নেওয়াই একমাত্র পথ, সেখানে মতপ্রকাশের স্বাধীনতা, মুক্তচিন্তা, এসব আসে কোদ্দিয়ে ? আর অভিজিৎ এর মৃত্যুর নিন্দা করে কী হবে, নিজের প্রিয় ধর্মগ্রন্থের ভাটগুলোকে সমালোচনা করুক না দম থাকলে, যেগুলো দিয়ে নিজেদের মগজ ধোলাই করে লোকজন অভিজিৎ এর মাথায় চপার মেরেছে।
  • riddhi | 146.165.191.10 (*) | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ০৬:১৬68890
  • অক্ষদার সাথে একমত।
  • a x | 138.249.1.202 (*) | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ০৬:২১68892
  • ধর্মবিশ্বাসী আর মতপ্রকাশের স্বাধীনতা কিভাবে এক্সক্লুসিভ??

    একদল বলছে এইসব গ্রন্থে নেই, বরং উল্টো আছে, অন্যদল বলছে এইসবই আছে।

    কোরান, বাইবেল, ওডেসি, মহাভারত, ক্যাপিটাল - লিস্ট গোস অন।
  • Tim | 101.185.27.29 (*) | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ০৬:২৩68893
  • অক্ষ
    আমার প্রথম পোস্টেই লিখেছি তো, আইসোলেট করতে চাইনা। ওঁদের পাশে থাকার প্রয়োজন স্বীকার করলাম তো। কিন্তু একজন মুক্তমনা ব্লগার খুন হলেন, আর সেটার জন্যে লড়াই করার পাশাপাশি ধর্মবিশ্বাসীদের প্রশ্নহীন আনুগত্যও চলতে থাকলো, এটা কি ঠিক?
  • hu | 101.185.27.29 (*) | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ০৬:২৬68895
  • যে বইয়ের ইন্টারপ্রিটেশন নিয়ে এত ধোঁয়াশা, আর যে বইয়ের তথাকথিত ভুল ইন্টারপ্রিটেশনে মানুষ খুন করা যায় সেই বইকে হাতের কাছে রাখা উচিত কি অনুচিত তা নিয়ে প্রশ্ন করা যাবে না?
  • riddhi | 146.165.191.10 (*) | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ০৬:২৬68894
  • না একেবাঅরেই এক্স্ক্লিউসিব না। কোরান অযৌক্তিক, মৌলবাদীরা কোরান অক্ষরে মানে, আর ধার্মিক রাও কোরান মানে, অতএব মৌল্বাদের বীজ সব ধার্মিকের মধ্যে আছে, এই ইকুয়েশান খুব লিনিয়ার।

    খুব ছোট্ট যুক্তিঃ মেজরিটি মানুষ আমাদের চারিপাশে ঐ মডারেট ধার্মিক। মৌল্বাদের স্টিমুলাস পেয়ে সবাই তো আর জেহাদি হচ্ছে না। এরা গীতা বা কোরানের সামনে নেকুপুষু করবে, অনেক বিষয়েই কম্ফিউস্ড থাকবে, আবার মাঝে মাঝে দাঙ্গায় অন্য ধর্মের লোকদেরো বাঁচাবে(এটা ফ্যাক্ট)।
আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। ভেবেচিন্তে প্রতিক্রিয়া দিন