• টইপত্তর  অন্যান্য

  • পাকিস্তান : পাকিস্তানবাসীর চোখে

    pi
    অন্যান্য | ০৩ আগস্ট ২০১১ | ২৫১৭ বার পঠিত
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • শ্রী সদা | 129.82.107.93 | ১৭ ডিসেম্বর ২০১৪ ০০:৪০482243
  • টিমদা, একটা জিনিস দেখে এই অসম্ভব বাজে দিনটায় একটু হলেও স্বস্তি পাচ্ছি - ফেসবুকে প্রচুর ভারতীয় পাকিস্তানের সাধারণ মানুষদের সাথে সলিডারিটি জানাচ্ছেন। এই তালিবান আইসিস বোকো হারাম জাতীয় বোকাচোদাগুলোকে কাউন্টার করার সবচেয়ে দীর্ঘমেয়াদী উপায় এটাই হতে পারে - গোটা পৃথিবীর শান্তিকামী সাধারণ মানুষের রুখে দাঁড়ানো। ড্রোন হানা ইত্যাদি অনেক তো হচ্ছে, সেই চোখ এর বদলে চোখ এর ফান্ডা থেকে বেরোতে আর পারলো কই। জানি একদিনে হবে না, কিন্তু মনে মনে খুব চাইছি বদলটা আসুক, সন্ত্রাস আর পাল্টা সন্ত্রাসে সবচেয়ে বেশী যারা মরে সেই স্টুপিড কমন ম্যান দের থেকেই আসুক। এই বাচ্চাগুলোর জীবন দেওয়া যেন ব্যর্থ না হয়।
    মার্জান সাত্রাপির লেখা থেকে সেই বিখ্যাত কোটেশনটা খুব মনে পড়ছে।
  • Tim | 101.185.30.61 | ১৭ ডিসেম্বর ২০১৪ ০০:৫৮482244
  • সদা, উপমহাদেশের সাধারণ মানুষ যে শান্তিকামী সেটা অনেকদিন ধরেই মোটামুটি প্রতিষ্ঠিত, সেই ওয়ার অ্যান্ড পিস ডকুতেই দেখানো হয়েছিলো পাকিস্তান ও ভারতের সাধারণ মানুষ কি চান। এই সেদিন মুম্বই তে যা হলো বা পাকিস্তানে প্রায় রোজ যা হয় সেগুলোতে দুই দেশের মানুষই সলিডারিটি দেখিয়ে থাকেন। এটা যেমন ফ্যাক্ট তেমনি এটাও ফ্যাক্ট যে এইসব সলিডারিটি দেখিয়েও রিপিটেটিভ ভায়োলেন্স বন্ধ হয়নি। দুই দেশ থেকেই এখনও রাজনৈতিক সুবিধার্থে যুদ্ধ যুদ্ধ খেলা চলে, দুই দেশেই মৌলবাদ ক্রমশ আখের গুছিয়েছে। দুই দেশেই সংসদীয় গণতন্ত্রের নামে চূড়ান্ত ধাপ্পাবাজী চলছে। খুনী আর চোরেদের সরকার, যাদের একমাত্র ভালো কাজ লাশ পড়লে কনডেম করা।
    সন্ত্রাস চাইনা, বদলা ও চাইনা। কিন্তু শান্তি দূর অস্ত এই বিশ্বাস দৃঢ় হচ্ছে। এই বাচ্চাগুলোর জীবন ব্যর্থই, ভবিষ্যতে সো কল্ড শান্তির পারাবার এলেও ব্যর্থ, না এলে তো কথাই নেই। আগে ভাবতাম এ আমার সিনিসিজম, আশা আছে ইত্যাদি। ভুল ভাবতাম।
  • PT | 213.110.246.230 | ১৭ ডিসেম্বর ২০১৪ ০৮:০৫482245
  • পাকিস্তানিরা একদা আগুন নিয়ে খেলেছিল। আমেরিকার সঙ্গে হৃদয়ে হৃদয়, কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে তালিবানের সৃষ্টি করেছিল। সেই আগুন এখন তাদের সমাজ সংসার ধ্বংস করছে। এই হতভাগ্য বাচ্চারা তাদের বাপ-ঠাকুর্দার বালখিল্য রাজনীতি/বিদেশনীতির মূল্য চোকাচ্ছে।

    এটা দেখলে বোঝা যাবে যে কি ধরণের ফ্রাঙ্কেস্টাইনের দৈত্য পাকিস্তান সৃষ্টি করেছিলঃ


    এই রক্তবীজের ঝাড় এখন কোথায় যাবে? পাকিস্তানই তাদের শেষ আশ্রয়।
  • dd | 132.172.74.145 | ১৭ ডিসেম্বর ২০১৪ ০৮:২৪482246
  • না,এই পাগলামি শুধু তো তালিবানেই সীমাবদ্ধ নয়।

    আছে বোকা হারাম ,চলছে আইসিস। আরো ফ্রীঞ্জ গ্রুপ আছে নানান দেশে। সেগুলোর ও কোনো রাখ ঢাক নেই। লোক দেখিয়ে খুন করে, পরাজিতদের স্লেভ হিসেবে কেনা বেচা করে ইঃ। এ সবই হয় আল্লাহু আকবর ধ্বনি দিয়ে।
  • PT | 213.110.246.230 | ১৭ ডিসেম্বর ২০১৪ ০৮:৩১482247
  • ঠিক। তবে আমি শুধু পাকিস্তানের কথা বলেছি।
  • সিকি | ১৭ ডিসেম্বর ২০১৪ ০৯:৩৬482248
  • এর পরেও অ্যানালজি টানা হয় ধর্মের সাথে বিজ্ঞানের।
  • দেব | 133.63.241.33 | ১৭ ডিসেম্বর ২০১৪ ১১:২৯482249
  • তখনও লড়াই শেষ হয় নি। তার মধ্যেই শুরু হয়েছে ষড়যন্ত্র তত্ত্ব। এই আক্রমণের পেছনে ভারতের হাত খুঁজতে শুরু করেছেন কিছু 'সাংবাদিক'। দাবী - ভারত টিটিপিকে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে প্রক্সি হিসেবে ব্যবহার করছে।

  • সিকি | ১৭ ডিসেম্বর ২০১৪ ১৬:২০482251
  • হুঁ। মেয়ের স্কুলেও হয়েছে।
  • 4z | 79.156.23.68 | ১৭ ডিসেম্বর ২০১৪ ১৭:১৬482253
  • এখানে সব স্কুলে পতাকা হাফ মাস্ট থাকবে শুক্রবার পর্যন্ত।
  • dd | 132.171.125.94 | ১৭ ডিসেম্বর ২০১৪ ১৭:১৮482254
  • ষড়যন্ত্র তত্ব?

    এই হামলার পিছনে "র" ? পাকিস্তানী তালিবান নিজের থেকে স্বীকার করে নেওয়ার পরেও? বুক ফুলিয়ে বলার পরেও? সারা দুনিয়া জুড়ে এক্ষাম্পল স্বত্তেও?

    অবকোর্স। দেখুন ,এই গুচর পাতাতেই। খাগড়াগড় থেকে মুম্বাই ব্লাস্ট।মালালার উপর আক্রমন। "মহত্বের নেশায়" বিভোর হিলেলিদের পোস্ট। দ্যাখেন,দ্যাখেন।

    খামোখা দু মিনিটের সাইলেন্স কার জন্নো করেন?
  • de | 69.185.236.54 | ১৭ ডিসেম্বর ২০১৪ ১৭:২৬482255
  • ওই কচি মুখ গুলোর জন্যে - আবার কার জন্যে!
    বদমাশ লোকেরা তো পৃথিবীর সর্বত্র - কিন্তু খামোখা এই নিষ্পাপ মানুষগুলো জীবন শুরুর আগেই যে দাবার বোড়ে হয়ে গেলো - তাদের একটু স্মরণ করি -
  • Abhyu | 192.66.23.113 | ১৭ ডিসেম্বর ২০১৪ ১৯:৪১482256
  • উজবুক পৃথিবীর সর্বত্র। আজ বিধাননগর থেকে কল্যাণী ট্রেনে এলাম। শুনে এলাম যে যারা মারা গেছে তাদের মধ্যে ভবিষ্যতের জঙ্গিরাও ছিল। সুতরাং...
  • Arpan | 125.118.148.84 | ১৭ ডিসেম্বর ২০১৪ ২২:১০482257
  • http://m.ndtv.com/article/india/hafiz-saeed-on-tv-threatens-terror-attacks-against-india-636072

    পাকিস্তানি জনপ্রতিনিধিদের আত্মসমীক্ষা করার সময় এসেছে এইসব ছাগলদের কতদিন তারা প্রশ্রয় দিয়ে যাবেন।

    নিশ্চুপ থাকাটাও এই মুহূর্তে প্রশ্রয়েরই নামান্তর।
  • a x | 138.249.1.206 | ১৮ ডিসেম্বর ২০১৪ ০২:৩৮482258
  • http://kafila.org/2014/12/17/human-rights-commission-of-pakistan-slams-killing-of-children-in-taliban-attack/

    “This cold-blooded slaying of our children should drive home once for all what the fight against the extremist militants is all about. And if this too does not wake up all those who have been choosing their words carefully only with reference to the Taliban, who have buried their heads in the sand or who have refused to see the logic in launching operations against the barbaric bands responsible for killing tens of thousands of citizens then nothing else will.

    “HRCP calls upon the federal and all provincial governments to pursue this battle with the unison the task demands and particularly make it an urgent priority to punish the puppet masters who ordered the children’s massacre. The Khyber Pakhtunkhwa government must also rethink its policy of hospitality towards militants and side, through both acts and deeds, with the citizens suffering from the militants’ brutality.

    “The fight against Taliban is literally the fight for the lives of Pakistan’s children and to secure for them a future safe from the barbaric brutalities that the Taliban and their ilk stand for.”
  • দেব | 111.221.130.161 | ১৯ ডিসেম্বর ২০১৪ ২১:২৬482259
  • তারিক আলী -

  • আমি সুশীল | 181.207.237.251 | ০৫ জানুয়ারি ২০১৫ ১৯:৫১482262
  • যেহেতু বোটটি ধ্বংস হয়েছে, তাই সুশীলদের আবার পাকিস্তানের শোকে আহা উহু চোখে জল চলে এসেছে। ওই বোট যদি আরেকটা ২৬/১১ ঘটাত তখন আবার সেটাকে বানরসেনার গোপন কীর্তি বলত। আর ঐদিকে পাকিস্তান লকভি কে ছেড়ে দিচ্ছে, পাকসেনা প্রতিদিন বর্ডার ক্রস করছে, ফায়ারিং করে জওয়ান, সাধারণ মানুষ মারছে, সেব্যাপারে সুশীলসেনা চুপ।
  • PM | 53.251.90.189 | ১৮ আগস্ট ২০১৫ ০০:২৭482265
  • তারীক ফতেহর নতুন ইন্টার্ভিউ-



    তারীকের কোনো কোনো চিন্তা আমার মনে হয় কল্লোলদার সাথে খুব মেলে-

    " (পাকিস্তান)টুটনে সে হাল নিকলেগা।জেলকি দিওআরে টুটেঙ্গে তো কয়েদি আজাদ হোঙ্গে। জবতক দিওয়ার নেহি টুটতি, কয়েদি অন্দর-হি বন্দ রহতে।"

    পাকিস্তানের জায়্গায় ভারত বসালেই মনে হবে কালোলদার ( নৈরাজ্য বিষয়ক ) পোস্ট ঃ) ঃ)
  • PM | 149.5.229.233 | ১২ মার্চ ২০১৭ ১৮:৩৭482266
  • পারভেজ হুডবয় হলেন পাকিস্তানের এক্জন পদার্থ বিদ্যার অধ্যাপক , বিজ্ঞানী ও বুদ্ধিজীবী । MIT থেকে মাস্টার্স আর PhD করেছেন, কার্নেগী মেলনে পড়িয়েওছেন কিছুকাল। প্রান হাতে নিয়ে ওদেশে বৈজ্ঞানিক চিন্তা ছড়ানোর জন্য কাজ করে চলেছেন। ওনার নামে ব্লাস্ফেমীর অভিযোগ ও উঠেছে ক্লাসে তথাকথিত ধর্ম বিরোধী কথা বলায়। ভারতের সাম্প্রতিক কিছু ডেভেলপমেন্ট নিয়ে ওনার একটা ইন্টার্ভিউ শুনে মনে হলো এটা নিয়ে এখানে আলোচনা হওয়া উচিত। উনি বলছেন ভারত পাকিস্তানের পদক্ষেপ অনুসরন করার চেষ্টা করছে বিজ্ঞানের ধর্মীয়করনের চেষ্টায় যা ওনাকে কষ্ট দিচ্ছে।

  • pi | 57.29.129.194 | ১৩ মার্চ ২০১৭ ১৮:১৯482267
  • ইনি এসেছিলেন আমাদের ইন্স্টিটিউটে, ওঁর বানানো ডকুমেন্টারি নিয়ে। কাশ্মীর ঘিরে ভারত পাকিস্তান। বেশ ভাল ছিল। দিয়েছিলাম এখানে মনে হয়।
    অত বছর আগেও আক্ষেপ করেছিলেন বিজ্ঞানীদের ভিসা পাওয়ার, চর্চা আদানপ্রদান করার সমস্যা নিয়ে, দু'দেশেই।
  • pi | 57.29.215.55 | ২৯ মার্চ ২০১৭ ১১:১৩482268
  • এখানেই তো পিঙ্গোর পোস্টগুলো ছিল। এটাও থাক।

    আদি ওয়াসিম
    2 জানুয়ারি 2016
    ## এক কাফের মুসলমানের কিসসা ##

    জন্ম এক সাধারন মধ্যবিত্ত পরিবারে।বাবা অধ্যাপক, মা শিক্ষিকা। জন্মসূত্রে ভারতীয়, ধর্মসূত্রে মুসলিম আর অঞ্চল..... এই পশ্চিমবাংলা।এখনও যেটাকে আদিবাড়ি হিসেবে জানি সেই গ্রামে আমায় নিয়ে সাতপুরুষের বাস। আমার ছেলেবেলা থেকেই কেটেছে শহরে। গ্রামের বাড়ি মানে যাবতীয় নিয়মের বাইরে, বাবা আর মায়ের মার আর স্কুলের বই এর বাইরে একটা নিঃশ্বাস নেবার ধুলোমাখা খোলা আকাশ, সকাল থেকে বই এর বদলে ক্রিকেট নিয়ে মাতামাতি।

    শুনতে শুনতে ততদিনে জানি আমরা মুসলমান। অতশত জানিনা কিন্তু দেখেছি বাড়ির বড়রা নামাজ পড়ে, মেয়েরা সিথিঁতে লাল রঙ লাগায়না।আঁকাবাঁকা হরফে লেখা একটা মোটা বই মাঝে মাঝেই খুব যত্ন নিয়ে মাথায় টুপি বা ঘোমটা দিয়ে সুর করে পড়া হয়। আরেকটু বড় হয়ে বুঝলাম ওটা আমাদের পবিত্র ধর্মগ্রন্থ কোরান। GK তে পড়েছিলাম গীতা আর বাইবেলও পবিত্র।কিন্তু বাড়িতে তো পড়া হয়না।মনে পড়ে তখুনি দৌড়ে গিয়েছিলাম বাবাকে জিজ্ঞেস করতে যে কেন বাড়িতে পড়া হয়না ওই বই দুটো।বাবা তখন কয়েকজন লোকের সাথে কথা বলছিল।ভদ্রলোক শব্দটা ব্যবহার করা উচিৎ ছিল হয়ত।কিন্তু আজকে আর "ভদ্র" শব্দটা ব্যবহার করতে ইচ্ছে করছেনা।কারনটা বলি।প্রশ্নটা শুনেই বাবা কিছু বলার আগেই এক বয়স্ক লোক, মাথায় টুপি গালে দাড়ি ফট্ করে বলে বসলেন- আরে বেটা, ছি ছি।এসব কি বলিস। ওগুলো কাফেরদের বই।কাফেরদের সাথে বেশী মিশবি না।ওরা বজ্জাত হয়। আর ওই বইগুলো পড়লে তোরও পাপ হবে ইত্যাদি ইত্যাদি। কি গেরো! কাফের আবার কি বস্তু! বাবাকে আবার জিজ্ঞেস করতে গিয়ে তাকিয়ে দেখলাম বাবার মুখ থমথমে। ওই লোকটি আবার কিছু বলার আগেই বাবা বলল- বই পড়ে কখনো পাপ হয়না।পাপটা পাপ করলে হয়।গীতা হিন্দুদের আর বাইবেল খ্রীস্টানদের ধর্মগ্রন্থ। কোরান যেমন আমাদের কাছে পবিত্র, তেমনি গীতা হিন্দুদের আর বাইবেল খ্রীস্টানদের কাছে পবিত্র। তুই এখন কিছু বুঝবিনা।বড় হয়ে যদি তোর পড়তে ইচ্ছে হয় তুই অবশ্যই পড়বি।এতে কোন পাপ হবেনা তোর।যা, এবার ভেতরে যা। বাকিরাও দেখলাম মাথা নেড়ে বাবাকেই সমর্থন করল। বাবা চায়নি আমার মাথায় হিন্দু মুসলিম জিনিসগুলো তখনই ঢুকে যাক,তাই হয়ত জোর করেই ভেতরে পাঠিয়ে দিয়েছিল।
    ধর্মসহিষ্ণুতার প্রথম পাঠ আমার বাবার কাছ থেকে পাওয়া।ঈদ গ্রামের বাড়ি গিয়ে পালন করা হত।ঘটনাচক্রে আমার সমবয়সী বা সামান্য ছোট বড় কিছু তুতো কাকু পিসি আর ভাই বোন ছিল। একসাথে হুল্লোড় হত।আগের দিন রাতের বেলা হরেক রকমের মিষ্টি বানানো ছিল আবশ্যক।শহুরে ছেলে বলে আমার পোষাক আর ভাষা একটু আলাদা ছিল।কিন্তু বলতে না পারলেও ওদের ভাষা বুঝতে কোন অসুবিধে হতনা।ঈদটাকে তখন সত্যিই উপভোগ করতাম।এখন সব আলাদা হয়ে গেছে।বোনেরা বিয়ে হয়ে শ্বশুরবাড়ি।নিজের কাকু আর পিসিরা পশ্চিমবঙ্গেরই বিভিন্ন কোনায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে নিজ নিজ সংসারে হাবুডুবু খাচ্ছে।মৃতপূরী সামলায় দাদি(ঠাকুমা),বাবা আর মা।ভাই বিদেশে।আমি হসপিটালের ডিউটির চাপে সব ঈদে বাড়িও যেতে পারিনা।মনে আছে প্রত্যেক ঈদের দিন বিকেলে বাবার কলিগরা সপরিবারে গ্রামের বাড়িতে আসত।বামুন কায়েত মুসলিম সবরকমই ছিল।কখনো আলাদা ধর্ম ব্যাপারটা অনুভব করিনি সেই বয়সগুলোতে।কলিগদের ছেলে মেয়েদের সাথে প্রচুর খেলাধূলা হত।ভবিষ্যতে এদেরই একজনের সাথে আমার প্রেম হয়।
    পূজোর দিনগুলোতে হেব্বি মজা হত।বাবার এক বামুন কলিগ একসাথে নিজের নিজের পরিবার নিয়ে পূজো দেখতে বেরোতো।প্রথমে আমরা দুই পরিবারের ছোটরা, দ্বিতীয় ট্রিপে সেই কাকুর বাবা মা।কখনো ধর্মটা বাধা হয়ে দাঁড়ায়নি।পূজোর প্রসাদ আর পীরের সিন্নিতে তফাৎ সেদিনও করতে পারিনি, আজও পারিনা।খোদায় মালুম কেন পারিনা..... হয়ত অক্ষমতা।আমি আর আমার ভাই দুজনেরই পড়াশোনা রামকৃষ্ণ মিশনে।যেদিন ভর্তির পরীক্ষা দিতে যাই সেদিন এক গার্জেন আমার সামনেই বাবাকে বলে ওঠেন- এটা রামকৃষ্ণ মিশন বিবেকানন্দ বিদ্যামন্দির।এখানে মুসলিমদের কেন পরীক্ষা দিতে দিচ্ছে যে কেন। ওদের ঘাড়ধাক্কা দিয়ে তাড়িয়ে দেওয়া উচিৎ।বাবা দাড়ি কোনদিনই রাখত না, আজও রাখেনা।ওই ভদ্রলোক বুঝতে পারেননি যে আমাদেরকেই ঘাড়ধাক্কা দেবার কথা বলছেন।প্যান্ট শার্ট মুসলিমরা পরেনা এটাই বোধহয় ওনার ধারনা।আজও এই ঘটনাটা ভুলতে পারিনি।
    ছয় বা সাত বছর বয়সে আমার মুসলমানি হয়।মানে circumcission। মুসলিম হওয়ার আর কোন তথাকথিত চিহ্ন আমার শরীরে নেই আজও, দাড়ি তাবিজ বা মাথায় সবসময়ের টুপি কোনটাই না।নাম না বল্লে আজও কেউ বোঝেনা আমার জন্মগত ধর্মপরিচয়।কোন উদ্দেশ্য নিয়ে না, শুধু আমার ইচ্ছে করেনা তাই দাড়ি টুপি তাবিজের ধার ধারিনা।আমার দাদি খুব খেদ নিয়ে বলেছিলেন আমি নাকি কাফেরদের মত থাকি।খুব খুশী হয়েছিলাম শুনে।
  • aranya | 83.197.98.233 | ৩০ মার্চ ২০১৭ ০৩:৩১482269
  • বাঃ, ভাল লাগল 'এক কাফের মুসলমানের কিস্যা'
  • tania | 165.57.254.1 | ৩০ মার্চ ২০১৭ ২৩:০৪482270
  • এই মানুষগুলো, তাদের কাহিনীগুলো আরো বেশী করে সামনে আসা দরকার। শুরুর দিকে অ্যানেকডোটাল শোনাবে, কিন্তু আরো বেশী বেশী ঘটনা, গল্প সামনে এলে ধীরে ধীরে ইমেজটা বদলাবে। It is an evolution we are talking about ধৈর্য রাখতে হবে। গুরুচন্ডালিকে অজস্র ধন্যবাদ কাফের মুসলমানের কিস্যা শেয়ার করার জন্য। যা দিনকাল পড়েছে, ঘনিষ্ট বন্ধুরা দিনদিন অচেনা হয়ে উঠছে, কারো সঙ্গে কথা বলতে ভয় লাগে। এই পোস্টগুলো তবু কিছুটা ভরসা জোগায়, আশা দেয়।
  • PM | 149.5.229.43 | ২৩ মে ২০১৭ ২৩:২৭482271
  • সামাজিক/রাজনৈতিক ধার্মীয়করনের চুড়ান্ত বিরোধী পাকিস্তানী বুজী ও সাংবাদিক হাসান নিসারের ভারতের বর্তামান পরিস্থিতি নিয়ে এই বক্তব্য টা শেয়ার করতে ইচ্ছা হল-

    " আমরা যে বীজ পুতেছি তা আমরাই কাটছি, মুল্য চোকচ্ছি জীবন দিয়ে । আমরা এই খেলায় ভারতের থেকে ৩০-৩৫ বছর এগিয়ে । অভিজ্ঞ্তা থেকে বলছি ওপথে যাবেন না "

  • S | 184.45.155.75 | ২৩ মে ২০১৭ ২৩:৩৬482272
  • হাসান নিসারকে আমার দারুন লাগে। আমি মাঝে মাঝেই ইউটিউব খুলে উনার বক্তব্য শুনি। মন ভালো হয়ে যায় যে এমন একজন লোকও আছেন।
  • PM | 149.5.229.43 | ২৩ মে ২০১৭ ২৩:৪৩482273
  • একমত ঃ)
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:

কুমুদি পুরস্কার   গুরুভারআমার গুরুবন্ধুদের জানান


  • কোনোরকম কর্পোরেট ফান্ডিং ছাড়া সম্পূর্ণরূপে জনতার শ্রম ও অর্থে পরিচালিত এই নন-প্রফিট এবং স্বাধীন উদ্যোগটিকে বাঁচিয়ে রাখতে
    গুরুচণ্ডা৯-র গ্রাহক হোন
    গুরুচণ্ডা৯তে প্রকাশিত লেখাগুলি হোয়াটসঅ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হোন। টেলিগ্রাম অ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলটির গ্রাহক হোন।
    • কি, কেন, ইত্যাদি
    • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
    • আমাদের কথা
    • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
    • বুলবুলভাজা
    • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
    • হরিদাস পালেরা
    • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
    • টইপত্তর
    • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
    • ভাটিয়া৯
    • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
    গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
    মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


    পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। আদরবাসামূলক মতামত দিন