• খেরোর খাতা

  • কানহাইয়া কুমার সম্পর্কে দু একটি কথা যা আমি জানি

    Kausik Ghosh লেখকের গ্রাহক হোন
    ০২ অক্টোবর ২০২১ | ৪৪৬ বার পঠিত
  • স্বার্থসর্বস্ব রাজনীতির যুগে একটা ইয়াং ছেলে যাকে সবাই দলছুট ভাবে, এমনকি ঘোর অ-সিপিআইকেও দেখেছি তার নাম উচ্চারণের সময় স্বর পাল্টে যায়, সে হঠাৎ করে একটা হাক্কা চাউমিন মার্কা দলে ঢুকে গেলো, তা মেনে নেওয়া উনিশশো ষাট থেকে আশি যাদের জন্ম, তাদের পক্ষে মনে হয় একটু কঠিনই।

    কিন্তু এটাও ঠিক যে আমাদের ছোটবেলা থেকে ভারতীয় রাজনীতিতে কিছু কিছু ক্ষেত্রে একটা প‍্যাটার্নের মতো দেখতে পাচ্ছি।

    হিমন্ত বিশ্বশর্মা বা লালুপ্রসাদ যাদব, বা আমাদের ঘরের ছেলে ঋতব্রত, এরা ঐ প‍্যাটার্নের খুব ভালো উদাহরণ। ছাত্র রাজনীতি দিয়ে শুরু‌। তারপরে ছাত্র রাজনীতি থেকে একটু মাঝবয়সের দিকে কিছুদিন ট্রেড ইউনিয়নটাও দুটো বা তিনটে টার্ম করে এলে আরো ভালো। রাজ‍্য সরকারের অফিসারদের যেমন উত্তরবঙ্গে পোস্টিং নিয়ে ঘুরে এলে চাকরির ক্ষেত্রে পরবর্তীতে পোস্টিং পাবার বেলায় সুবিধা হয়, একটু ওজন বাড়ে। আমি তো নর্থ বেঙ্গল করে এসেছি দু'বার, এবার থেকে কোলকাতা বা তার আশেপাশে পোস্টিং নেবো। নানা ওঠানামার মধ‍্যে দিয়ে শেষে বয়স ষাটের আশেপাশে পৌঁছে গেলে আই এ্যাম অন দ‍্য টপ, অন দ‍্য টপ, অন দ‍্য টপ। 

    এই ছকে ঋতব্রত কিন্তু হিমন্ত বা লালুর থেকে আলাদা, এখনো পর্যন্ত। ঋতব্রতর পুরনো দলে মুখ‍্য হওয়া কঠিন ছিলো। কারণ ঋতব্রত যে সময় ঋতব্রত হচ্ছেন, সে সময় পুরনো দলের ঝরে পরার কাল, আর কিছুদিনের মধ‍্যে দেখা যাবে দল ক্ষমতায় নেই, অদূর ভবিষ্যতে আসার সম্ভাবনাও নেই।

    ঋতব্রত মনে হয় এখন নতুন দলে ঐ নর্থ বেঙ্গলের পোস্টিং নিয়ে আছেন, মানে ট্রেড ইউনিয়নের দায়িত্বে। নতুন দলে মুখ‍্য যদি না-ও হন, বয়স পঞ্চাশের আশেপাশে গেলে স্বরাষ্ট্র বা অর্থ না পাবার কারণ নেই। পুরনো দলে একই ধাঁচে ঋতব্রতর পূর্বসূরী কারাত বা ইয়েচুরিও আছেন।

    এঁরা হলেন দীপ জ্বেলে যাই ছবির অনিল চাটুজ‍্যের শ্রেণীর, ছবিটা বসন্ত চৌধুরী এবং সুচিত্রা সেনের বটে, কিন্তু আপনি প্রেসে যথেষ্ট কভারেজ পাবেন এবং পোস্টারে আপনার মুখের একটা প্রোফাইলও যাবে, আবার এমনকি আপনার লিপে 'এমন বন্ধু আর কে আছে' গানটা পিন্টু ভট্টাচার্য্যকে না দিয়ে মান্না দে-কে দিতে ফিন‍্যানসার, প্রোডিউসার বা মিউজিক ডিরেক্টর কার্পণ‍্য করবে না, উপরন্তু গান এবং গানে আপনার লিপ দেবার শট কালজয়ী বলে স্বীকৃতি পাবে।

    সম্ভবত এঁরা বাম বলেই অমন, কং হলে অন‍্যরকম হতো। তার জন‍্য এঁদের খুব দুঃখ আছে বলেও মনে হয় না, ইটালি ফিটালিতে ছুটি কাটাতে যান বলে শুনতে পাই নিন্দুকদের মুখে। ২০১২-র রতন টাটা অবশ‍্যই ২০১২-র সাইরাস পুনাওয়ালার থেকে অর্থপ্রতিপত্তিতে বড়ো। কিন্তু  রতনের হাজার হাজার কোটি ইজ্ এ্যাট স্টেক এ্যাট সিঙ্গুর, সাইরাসের তা নয়। রাহুল-সোনিয়ার মতো টাটা হবার চেয়ে কারাত ইয়েচুরির মতো পুনাওয়ালা হলে বেশি নিশ্চিন্তে থাকা যায়, নয় কি?

    হিমন্ত সম্পর্কে অসমের বাসিন্দা বন্ধুদের কাছে একটা গল্প শুনেছি। হিমন্ত তখনো ছাত্র রাজনীতিতে, তুলকালাম রাজনীতির পাশাপাশি তোলপাড় প্রেম চলছে। চিত্রনাট‍্যের নিয়ম মেনে প্রিয়তমার পিতাঠাকুর কমল মিত্রের আদল নিলেন। হৃৎকমলে 92 বিটস পার মিনিট নিয়ে প্রিয়তমা জিগ্যেস করলেন, "কাকে বিয়ে করতে চাই জানতে চাইলে বাবাকে কি বলবো ?"
    স্মার্ট হিমন্তর ততোধিক স্মার্ট জবাব, "টেল হিম দ‍্যাট ইউ আর গোয়িং টু ম‍্যারি দ‍্য ফিউচার সিএম অভ্ অসম।" সে কবেকার ঘটনা, হিসেব করেছেন ? কয়েক দশক আগে।

    স্টিভ জবস্ বা দেশী কোনো সফল স্টার্ট আপের শুরু কোন্ গ‍্যারেজে বা কার গোয়ালের চালার নিচে হয়েছিলো যখন পড়ি, তার সঙ্গে হিমন্তর উত্তরের খুব তফাৎ আমি দেখতে পাই না। স্বপ্ন দেখতে জানতে হয়, দেখে মেপে পা ফেলতে জানতে হয়। জানলে তবে না  আপনি জবস্ হয়ে এ্যাপল তৈরি করবেন বা বিনি বনসল হয়ে ফ্লিপকার্ট। ঐ পর পর ঠিক ঠিক পা ফেলা জানতেই হবে আপনাকে।

    কানহাইয়া কারাতীয়-ইয়েচুরিয় বাঁধা গৎ ছেড়ে বেরিয়েছেন। অনিল চাটুজ‍্যে বা সাইরাস পুনাওয়ালা নয়, কানহাইয়া রাজনীতির উঠোনে সুচিত্রা সেন বা রতন টাটা হয়ে ওঠার দিকে হাঁটতে শুরু করলেন মনে হচ্ছে। 

    "বাবাকে কি বলবো ?" কান্নাভেজা গলায় বলার মতো যদি কেউ থেকে থাকে, উত্তর ঐ হিমন্ত বিশ্বশর্মার মতো হবে।

    টেল হিম দ‍্যাট ইউ আর গোয়িং টু ম‍্যারি দ‍্য ফিউচার সিএম। বয়স যা এখন, সামনে অনন্ত সময় এবং ষাট হতে হতে কয়েকবার কোএ্যালিশন সরকারের সম্ভাবনা (কেন্দ্রে বা কানহাইয়ার নিজের রাজ‍্যে। পাশের রাজ‍্যে তো 'ছমাস তুই, ছমাস মুই' কোয়‍্যালিশন পর্যন্ত হয়ে গেছে, শেষে সিএম আর পদ ছাড়তে চায় না, কি কান্ড ! মিস্টার বিনও এতো মজার না)। ...ম‍্যারি দ‍্য ফিউচার পিএম বললেও খুব ভুল হবে না।

    সাইরাসের সাথে রতনের, অনিলের সাথে সুচিত্রার, গ্ল‍্যামারের লেভেলের তফাৎ আছে, সে আপনি মানুন বা না-ই মানুন। আই মাস্ট বি এ্যাট দ‍্য টপ, এ্যাট দ‍্য টপ, এ্যাট দ‍্য টপ। শাস্ত্রে তবে আর কেরিয়ার পলিটিশিয়ান কথাটা বলেছে কেন ?

     

  • আরও পড়ুন
    শরীরী - Kausik Ghosh
  • বিভাগ : অন্যান্য | ০২ অক্টোবর ২০২১ | ৪৪৬ বার পঠিত
  • কোনোরকম কর্পোরেট ফান্ডিং ছাড়া সম্পূর্ণরূপে জনতার শ্রম ও অর্থে পরিচালিত এই নন-প্রফিট এবং স্বাধীন উদ্যোগটিকে বাঁচিয়ে রাখতে
    গুরুচণ্ডা৯-র গ্রাহক হোন
    গুরুচণ্ডা৯তে প্রকাশিত লেখাগুলি হোয়াটসঅ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হোন। টেলিগ্রাম অ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলটির গ্রাহক হোন।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • r2h | 2405:201:8005:9947:657b:feb5:e29c:2a44 | ০২ অক্টোবর ২০২১ ০২:২৪498961
  • টপে যাওয়ার আশা নিয়ে এই বাজারে কি কেউ কংগ্রেসে যাবে?
  • কৌশিক ঘোষ | ০২ অক্টোবর ২০২১ ০২:৪৭498962
  • কোথাও থেকে তো শুরু করতে হবে। খেলাটা দিল্লির মাঠে খেলতে চাইলে, প্রেসের ফ্ল‍্যাশের ঝলকানির সামনে খেলতে চাইলে, কং এখনো বেশ ভালো প্ল‍্যাটফর্ম। জাতীয় স্তরে বিজেপি আর আঞ্চলিক স্তরে আপ হয়তো বেটার অপশন। কিন্তু যোগদানকারী পাকা খেলোয়াড়, দিল্লির মাঠ হাতের পাতার মতো চেনে।
    কিন্তু যোগ দেওয়া মানে তো চিরকাল থেকে যাওয়া নয়।
    বেরিয়ে আসার পথ তো খোলাই আছে। বাবুল তো রাজনৈতিক গানও বেঁধেছিলেন, তখনকার বিরোধীরা এখন ওঁর আপনতম জন।
  • Amit | 203.0.3.2 | ০২ অক্টোবর ২০২১ ০৪:০৬498963
  • দিল্লীতে প্ল্যাটফর্ম চাইলে কানহাইয়ার পক্ষে আপ হয়তো বেটার হতো। আপের ক্রেডিবিলিটি এখন কংগ্রেসের থেকে অনেক বেশি।  ইভেন তৃণমূল অনেক বেটার এই মুহূর্তে। যাকগে।

    তবে যতদিন এই রাহুল গান্ধী প্রিয়াঙ্কা গান্ধীরা থাকবে , ততদিন কংগ্রেস মোটামুটি খরচের খাতায়। বিজেপিকে সরানো যাবেনা যদি নিজেরা না ছড়িয়ে ফেলে। যদি রাহুল গান্ধীকে বিরোধী দলের মুখ হিসেবে তোলা হয় আর প্রধানমন্ত্রী হবার রিমোটেস্ট চান্স ও থাকে তবে লোকে সবসময় মোদিকে ভোট দেবে -এস সিম্পল এস দ্যাট। 

    বরং আমার ​​​​​​​আশা ​​​​​​​যদি ​​​​​​​চিদাম্বরম , শশী থারুর , সিবাল , গুলাম ​​​​​​​নবী ​​​​​​​-এরা ​​​​​​​সবাই ​​​​​​​মিলে ​​​​​​​গাঁন্ধী দেরকে ​​​​​​​একেবারে গলাধাক্কা ​​​​​​​দিয়ে ফরএভার বাইরে বার করে দিয়ে ​​​​​​​কংগ্রেসের ​​​​​​​হাল ​​​​​​​ধরতে ​​​​​​​পারে, তবে সেটা কংগ্রেসের ভবিষ্যতের পক্ষে বেটার হবে। এমনিতেও ​​​​​​​পাঞ্জাবের ​​​​​​​ফিয়াস্কো ​​​​​​​আরো একবার দেখিয়ে ​​​​​​​দিলো গান্ধী ​​​​​​​সিবলিং রা পরিমান ​​​​​​​অপদার্থ। 

    রাহুল ​​​​​​​গান্ধীর ​​​​​​​প্রতি ​​​​​​​আমার ​​​​​​​পার্সোনাল ​​​​​​​কোনো ​​​​​​​বিদ্ধেষ ​​​​​​​নেই। লোকটা ভদ্রলোক। কিন্তু he's just too incompetent & not a fighter. ইন্ডিয়ায় ​​​​​​​পলিটিক্স ​​​​​​​একটা ​​​​​​​ফুল ​​​​​​​টাইম ​​​​​​​জব।  মাঠে ঘাটে ​​​​​​​নেমে ​​​​​​​লড়তে ​​​​​​​হয়।  ইসু খুঁজে খুঁজে নিজে লড়ার দায়িত্ব নিতে হয়। আর হারলে তার দায়ও  নিতে হয়।  সেখানে দায়িত্ব থেকে পালিয়ে পালিয়ে বেরিয়ে কয়েকটা কলেজে বা টিভি ইন্টারভিউ তে লেকচার দিয়ে বেড়ানোটা  পার্ট টাইম কন্সালটেন্সি হতে পারে ফুল টাইম পলিটিক্স হয়না। নিজে পার্টি প্রেসিডেন্ট হবার সাহস নেই , কিন্তু পেছন থেকে পার্টির সবকিছুতে কাঠি নাড়া চাই। জাস্ট ​​​​​​​ফ্যামিলি সারনেমের ​​​​​​​জোরে ​​​​​​​একজন জীবনে কিছু ​​​​​​​না করেও কোম্পানির ​​​​​​​সিইও ​​​​​​​হয়ে ​​​​​​​যাবে , এই ​​​​​​​ফিউডাল মাইন্ডসেট আস্তে ​​​​​​​আস্তে ​​​​​​​মুছে ​​​​​​​যাচ্ছে। আর স্ট্রং লোকাল লিডারদের সাইড লাইন করে দেওয়া বা মিস্টিরিয়াসলী এক্সিডেন্ট এ মারা যাওয়া কংগ্রেসের পুরোনো ঐতিহ্য। যাতে কোনো কালে গান্ধী ফ্যামিলিকে কোনো চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে না হয়। 
  • কৌশিক ঘোষ | ০২ অক্টোবর ২০২১ ০৭:৫৮498964
  • অমিত যা বললেন, সে তো অবশ‍্যই দামী। শেষের দিকে দিকে একটা অদ্ভুত জিনিস পয়েন্ট আউট করলেন। মাধবরাও সিন্ধিয়া বা রাজশেখর রেড্ডির কথা মনে পড়ে যাচ্ছে। আর উদাহরণ যদি থাকে, একটু মনে করে বলুন তো।
  • Amit | 203.0.3.2 | ০২ অক্টোবর ২০২১ ০৮:১১498965
  • ওপরের দুজন ছাড়া 
     
    রাজেশ পাইলট.
    লালিত নারায়ণ মিশ্র 
    সর্দার বিয়ন্ত সিং - অবশ্য এটা বলে খালিস্তানি এটাক
    ওম প্রকাশ জিন্দাল 
     
    লাল বাহাদুর শাস্ত্রীকে এর মধ্যে ধরা যাবে কিনা জানিনা।  অথবা শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জি। এদের ডেথ গুলো ও কিছুটা মিস্টিরিয়াস। 
  • কৌশিক ঘোষ | ০২ অক্টোবর ২০২১ ০৮:৫৫498967
  • বাঃ, দারুণ দিলেন তো। থ্রিলার বেরোয় যদি কারো কলমে, জমে যাবে গল্প। শ‍্যামাপ্রসাদকে দিয়ে শুরু, লালবাহাদুর হয়ে বিয়ন্ত বা মাধবরাও।
    ব‍্যঙ্গ করছি না কিন্তু। উদাহরণগুলো পর পর পড়তে পড়তে কেমন যেন শিরশিরে অনুভূতি হচ্ছিলো।
    এতোগুলো মৃত্যু, সবগুলোই আশ্চর্য এ্যাক্সিডেন্ট ? শ‍্যামাপ্রসাদ আর লালবাহাদুরকে হিসেবে ধরে নিয়েই বলছি।
  • Amit | 203.0.3.2 | ০২ অক্টোবর ২০২১ ০৯:০৯498969
  • নাঃ সবকটা নিশ্চয় মিস্টিরিয়াস নয়। হয়তো আসলে একটাও নয়। কিন্তু এরকম কয়েকটা ঘটনা থেকেই তো মিথ বা গল্প তৈরী হয়- যেমন বারমুডা ট্রায়াঙ্গল। তারপর কল্পনার আকাশে গরু গাছে চড়ে   :)  :) 
     
    তবে কংগ্রেস কে এই পারপেচুয়াল গান্ধি ফ্যামিলি র স্লেভারী থেকে না বের করতে পারলে মুশকিল। এই যে রাহুল গান্ধী মোদী সরকারের ইন্টোলারেন্স নিয়ে এতো জায়গায় গলাবাজি করে , দুদিন আগে ইয়ুথ কংগ্রেস এর লুম্পেন গুলো কপিল সিবালের বাড়ির সামনে গিয়ে গুন্ডাগর্দি করেছে সেটা নিয়ে এখনো অবধি একটাও স্টেটমেন্ট দিতে পেরেছে ? লোকে কিন্তু সবকিছুই দ্যাখে আর বোতাম টেপার সময় মনে রাখে। 
  • কৌশিক ঘোষ | ০২ অক্টোবর ২০২১ ০৯:৩২498971
  • বের না করতে পালে মুশকিল, ঠিক কথা। কিন্তু এই করে করে চালিয়েও তো দিলো আশি বছর।
  • Amit | 120.22.224.147 | ০২ অক্টোবর ২০২১ ০৯:৪১498972
  • সে চলেছে ঠিকই। কিন্তু সময় ও পাল্টাচ্ছে। লোকে সামনে মোদিকে দেখছে. আর পাশাপাশি রাহুল গান্ধীকেও দেখছে। আর নেতা হিসেবে রাহুল যে নেহেরু ইন্দিরার লেভেলের ধারে কাছেও আসেনা এতদিনে এটা তো পরিষ্কার? 
     
    আগামীকাল কি হবে কেউই জানেনা। কিন্তু সেই শেয়ার বা মিউচুয়াল ফান্ড এপ্লিকেশন এ যেমন লেখা থাকে না  -past performances are only for record and doesn't warrant future returns- এই আশি বছর টেকাটাও অনেকটা তাই। 
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:

কুমুদি পুরস্কার   গুরুভারআমার গুরুবন্ধুদের জানান


  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। যা খুশি মতামত দিন