• খেরোর খাতা

  • উচ্চমাধ্যমিক: পরিচয় বিতর্ক: একটা সংকলন

    Emanul Haque লেখকের গ্রাহক হোন
    ২৪ জুলাই ২০২১ | ১৩৮ বার পঠিত
  • #রুমানা #প্রথমা

    বিতর্ক তাঁরা পছন্দ করেন, পড়বেন। বিতর্ক আর খেউড় এক নয়। উচ্চমাধ্যমিকে প্রথমার পরিচয় নিয়ে বিতর্ক পক্ষে বিপক্ষে নানা যুক্তি। কিছু পাশাপাশি সাজাচ্ছি।

    অনেকেরই মত 'মুসলিম লেডি', 'মুসলিম গার্ল' এগুলো বলা উচিত হয় নি। আমার নিজের প্রাথমিক প্রতিক্রিয়াও তাই। শুধু নাম ও জেলা বললেই হতো। এই মতের পক্ষে বলেছেন যাঁরা তাঁদের সিংহভাগ জন্মসূত্রে 'মুসলিম'। আমার নিজের প্রাথমিক প্রতিক্রিয়াও তাই ছিল। পরে দেবতোষ দাস, জয় সাহা, সোমা মুখোপাধ্যায়, পূজা মৈত্র, পর্ণা মুখোপাধ্যায়, সোনা শেখ ভিন্নমতের লেখা লেখেন। এই লেখাগুলো আমাকে ভাবিয়েছে।

    আমার নিজের মত, মাধ্যমিক উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার খাতায় নাম লেখার কু-সংস্কৃতি বন্ধ হোক। চাকরির ইন্টারভিউতে নাম রাখা বন্ধ হোক। অনেকেই নামের কারণে অসুবিধায় পড়েন।

    বাড়ি ভাড়া মেলে না। ব্যঙ্গ ও অসুবিধার মুখে পড়তে হয়। চুণী কোটাল থেকে রুমানা সবার এক সমস্যা। ভারতের প্রথম আদি বাসিন্দা মহিলা উপাচার্যকেও কটূক্তি শুনতে হয়েছে।রোহিত ভেমূলাকে মরতে হয়েছে। এসসি/এসটি কোটা নিয়ে ব্যঙ্গ আছে, অথচ রাজ্যে চাকদহের অরূপ দাস এসসি হয়েও মাধ্যমিক উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় প্রথম হলে তখন এসসি কেউ বলেন না। কারণ এই এসসি পজিটিভ।

    ব্যঙ্গ বিদ্রূপ তাচ্ছিল্যেয় ন্যারেটিভকে বিপদে ফেলে।

    #

    নেগেটিভ হলে ধর্ম পরিচয় জাতি পরিচয় দেখো, ইতিবাচক হলে দেখো না -- এই সামাজিক মনোভাব যেখানে সেখানে নাম লেখা অনুচিত। পদবী বর্জন খুব জরুরি। পদবী বাড়তি সুবিধা অসুবিধা দুই আনে। নাম-ও। শাক আর মাছের ঝোলের মতো। পরে এই লেখাগুলোও আমাকে ভাবিয়েছে।

    দুপক্ষের মত সাজাচ্ছি।

    ১/১ Subrataa Ghosh Roy লিখেছেন:
    সমাজবিরোধী হলে মুসলিমকে মুসলিম কেন মোল্লাও বলা যায়! ভালো কিছু করলে - মুসলিম বললে তা ঘোর অপরাধ! মেনে নিতে উঃ, কী কষ্ট!!

    ১/২ Bipul Roy লিখেছেন:
    তিনবার করে মুসলিম বলার পরে নামটা পর্যন্ত উচ্চারণ করলো না! এতো তাচ্ছিল্য? ছিঃ! ধিক্কার জানাই।

    ১/৩ Raktim Chakma:
    2007 সালে আরিফ প্রথম হয়েছিল মাধ্যমিকে। কেউ "মুসলিম বয়" বলে উল্লেখ করেনি।

    ১/৪ Puja Maitra লিখেছেন:
    রাজিবুল ইসলাম ফার্স্ট হওয়াতে সংখ্যালঘু আর অনগ্রসরের উন্নয়নের ঢোল সরকারই পিটিয়েছিলো।নন্দনে মেধাতালিকায় থাকাদের প্রাইজ ডিস্ট্রিবিউশনে ছিলাম তো সেবছর,মনে আছে।

    ১/৫ Hafijur Rahaman লিখেছেন:
    মুসলিম বিজ্ঞানী - ঠিক আছে
    মুসলিম কবি- ওকে
    মুসলিম সাহিত্যিক - ওকে
    মুসলিম ইতিহাস- ওকে
    মুসলিম চিকিৎসক- ওকে
    সবকিছুর একটা মুসলিম ভার্সন আছে। এতে কারো জাত যায় না। যেইনা বিপক্ষদলের একজন মুসলিম ছাত্রী বলেছে অমনি গেলো গেলো গেলো। অনুভূতি দণ্ডটা বিশেষ বাতাস ছাড়া নড়েওনা চড়েওনা৷ আজিব চিজ হে এ দণ্ড।

    ####

    ২. সেখ সাহেবুল হক লিখেছেন:
    রাজনীতির প্রয়োজনে এই উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বিভাজন বাংলাকে আরও বিপজ্জনক জায়গায় নিয়ে যাবে৷ অতীতে রাজিবুল ইসলাম, আরিফ শেখ, মহম্মদ মাসুম আখতারও মেধা তালিকায় প্রথম সারিতে এসেছিলেন৷ এমন ধর্মের উল্লেখ আগে দেখি নি৷

    ####

    ৩. Madhusree Bandyopadhyay লিখেছেন:

    একটি ছাত্রী প্রথম হয়েছে। তার জাত বংশ ধর্ম ইত্যাদি ব্যাখ্যা করে ফল প্রকাশ অনভিপ্রেত। শুধু অনভিপ্রেত নয়, ভয়ংকর অন্যায়।
    প্রথমত, এতে সেই ছাত্রীর শিক্ষাগত কৃতিত্বকে ঢেকে তার ধর্ম পরিচয়কে গুরুত্ব দেওয়া হল।
    দ্বিতিয়ত, যে মানসিকতা ওই মেসেজে প্রকাশ পেল তার ফল কারা লুটবে সেটা ভাবনা করা দরকার ছিল। এটা নিঃসন্দেহে হিন্দুত্ববাদের হাতে অস্ত্র তুলে দিল। এভাবেই আমরা ক্রমাগত ভবিষ্যৎকে অন্ধকারে ঠেলে দিচ্ছি।

    ৪. Sakti Sadhan Mukhopadhyay লিখেছেন:
    // জিজ্ঞাসে কোন জন //
    'হিন্দু না ওরা মুসলিম ওই জিজ্ঞাসে কোন জন ?'
    কাজী নজরুল ইসলাম ১৯২৬ এর দাঙ্গার প্রেক্ষিতে 'কাণ্ডারী হুঁশিয়ার' কবিতায় লিখেছিলেন এই ছত্র।
    রবীন্দ্রনাথ সেই একই সময়ে লিখেছিলেন 'ধর্মমোহ' কবিতাটি যাতে আছে 'ধর্ম কারার প্রাচীরে বজ্র হানো ।'

    তারপর প্রায় একশো বছর কেটে গেছে। দেশের মানুষের মানসিক অবস্থান সেই একই জায়গায় ঘুরপাক খাচ্ছে। একদল ওদের ডিএনএ এক না আলাদা তাই নিয়ে ভাবিত, এমন একটা উপকারী আইন লাগু করতে হবে যাতে ওদের জব্দ করা যায় ; অন্যদল বলছে (আমরা থাকলে) পরীক্ষায় ওরাও ভালো ফল করতে পারে। শিক্ষা পরিচালনার দায়িত্বে যারা আছেন তাদের এই অবস্থা ! মাধ্যমিক কর্ত্রীর ফলাফল ঘোষণার ভাষায় সেটাই প্রকট হয়ে উঠল। কৃতী ছাত্রীর ছাত্রী পরিচয়টা যথেষ্ট নয়, তাই তার ধর্ম পরিচয়টা একবার নয় দুবার নয় তিনবার বলতে হল। অনুপ্রেরণার উপকারী ইমেজটা দাগা বুলিয়ে বুলিয়ে মোটা করে ফেলতে হবে। বলে বলে কানে বিঁধে দিতে হবে। যাতে সময়ে কাজ দেয়।

    কাকে বলবেন? যেমন দেবা তেমনি দেবী।

    এগুলোই ট্রেন্ড।

    -- এরপর ট্রেন্ডের বিপক্ষেরগুলো এবং বিপরীত মত --

    ৫. Pranabes Bhattacharyya একজন বামপন্থী অধ্যাপক, তাঁর লেখা:
    ওরা অশিক্ষিত,
    ওরা অসভ্য,
    ওরা জঙ্গী,
    ওরা করোনা স্প্রেডার,
    এসব শুনতে তো খারাপ লাগেনি সংখ্যাগুরুর।
    আচমকা ওদের মেয়ে প্রথম শুনেই বলছেন উল্লেখ করার কি দরকার ছিল।
    দরকার একশ বার ছিল।
    রক্তিম অভিনন্দন রুমানা।
    এভাবেই গর্বিত করবে আমাদের ভবিষ্যতেও,
    শুভেচ্ছা রইল অফুরান।

    ##৳##

    ৬. parna piu mukherjee লিখেছেন:

    বির্তক হোক
    ........................
    রুমানা সুলতানা শুধু ছাত্রী নয়, শুধু বাঙালী নয়....
    আরও পড়ুন
    বাধা - Tanima Hazra
    আরও পড়ুন
    Little Rock Nine  - AR Barki

  • বিভাগ : অন্যান্য | ২৪ জুলাই ২০২১ | ১৩৮ বার পঠিত
  • কোনোরকম কর্পোরেট ফান্ডিং ছাড়া সম্পূর্ণরূপে জনতার শ্রম ও অর্থে পরিচালিত এই নন-প্রফিট এবং স্বাধীন উদ্যোগটিকে বাঁচিয়ে রাখতে
    গুরুচণ্ডা৯-র গ্রাহক হোন
    গুরুচণ্ডা৯তে প্রকাশিত লেখাগুলি হোয়াটসঅ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হোন। টেলিগ্রাম অ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলটির গ্রাহক হোন।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • Anindita Roy Saha | ২৪ জুলাই ২০২১ ১০:০৩496048
  • ফলাফল ঘোষণার সময় উল্লেখ করাটা অপ্রয়োজনীয়, অরুচিকর। কিন্তু বৃহদর্থে কথাটা তাত্পর্যপূর্ণ । যেখানে সবসময় মুসলমানরা অনগ্রসর,জনসংখ্যা শিক্ষার হার ইত্যাদির সুবাদে দেশের অনুন্নয়নের অন্যতম কারণ হিসাবে সর্বদা চিহ্নিত হচ্ছেন , সেখানে এই আলোচনার নিশ্চয় প্রয়োজন আছে। 

  • Somenath Guha | ২৪ জুলাই ২০২১ ১৪:৩৭496055
  • মেয়েটা একটু আনন্দ করুক। ওঁর পরিচয় নিয়ে এত আলোচনা বন্ধ হোক। ওঁর সাফল্য উপভোগ করুক।

আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। ঠিক অথবা ভুল মতামত দিন