• বুলবুলভাজা  ইস্পেশাল  ইদের কড়চা  ইদের কড়চা

  • অবাধ অভীপ্সা

    দীপেন ভট্টাচার্য
    ইস্পেশাল | ইদের কড়চা | ২৮ মে ২০২১ | ৪১২ বার পঠিত | ১ জন
  • পছন্দ
    জমিয়ে রাখুন পুনঃপ্রচার
  • এই লেখাটির কথাগুলো আপনি যে পড়বেন সেই ব্যাপারটা হয়তো আপনার অদৃষ্টে আছে, অথবা আপনার স্বাধীন ইচ্ছায় পড়বেন না, কিন্তু সেই সিদ্ধান্তটিও যে স্বাধীন তার তো কোনো নিশ্চয়তা নেই। এসবই বলতেন অধ্যাপক ক – তাঁর চিন্তা ছিল মৌলিক, আমি ছিলাম তাঁর ছাত্র, পরে আমাকে পণ্ডিতমহল চিনেছিল অধ্যাপক ক-র কাজের ওপর গবেষণার জন্যই। এজন্য আমি তাঁর কাছে ঋণী ছিলাম।

    রেবাকে আমি ঠিক ভালবাসতাম কিনা বুঝে উঠতে পারতাম না, ভালবাসার ব্যাপারটা ইচ্ছাস্বাতন্ত্র্যের ওপর তো নির্ভর করে না, নাকি করে – এই ব্যাপারে আমার দ্বন্দ্ব ছিল। রেবা আমার সহপাঠী ছিল। রেবা যখন বিয়ের জন্য চাপ দিল অধ্যাপক ক-র কাছে গিয়েছিলাম পরামর্শের জন্য। ওনাকে ‘স্যার’ বলে সম্বোধন করতাম। স্যার বললেন, সমস্ত চাপের উর্ধে উঠে ব্যাপারটা ভাবতে।

    ওনার হোমিওপ্যাথির সখ ছিল, দুটি কারুকাজ করা একইরকমের শাল কাঠের বাক্স ছিল তার, ছোট ছোট শিশিতে ভর্তি। ‘বিয়ে’ আর ‘বিয়ে নয়’ এরকম দুটি চিরকুট লিখে একটি বাক্সে রাখলেন, অপর বাক্সটিতেও ওরকম দুটি চিরকুট রাখলেন। আমাকে বললেন, চোখ বন্ধ করে ডালা খুলে প্রতিটি বাক্স থেকে একটা করে চিরকুট বের করে আনতে। দুটো চিরকুটেই দেখলাম লেখা ‘বিয়ে নয়’। স্যার হাসলেন, বললেন, “তুমি যে দুবারই ‘বিয়ে নয়’ পেলে তা কি পুনর্নিধারিত ছিল? তা তো হতেই পারে না, তুমি আর আমি জানি এটা নিতান্তই সম্ভাব্যতার একটা ফলাফল। অন্যদিকে তোমার স্বাধীন চিন্তা এখানে কোনো কাজেই লাগছে না। কাজেই অবাধ অভীপ্সা কি নিয়তিবাদ দুটোই আসলে বিভ্রম।”

    এর কয়েকদিন বাদেই অধ্যাপক ক মারা গেলেন, মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ। ক-র দর্শনচিন্তার ওপর আমার একটা বই বের হল, খুব দুঃখ হল যে উনি ছাপা অক্ষরে বইটি দেখে যেতে পারলেন না, বইটি ওনাকেই উৎসর্গ করেছিলাম। টেলিভিশনের টক শোতে আমন্ত্রণ পাচ্ছিলাম।

    মাস ছয়েক বাদে রেবাকে বিয়ে করলাম। বিয়ের কিছুদিন পরে টেলিভিশনে অধ্যাপক ক-র ওপর আর এক শো’তে ডাক পেলাম। এবার রেবা নিজেকে ধরে রাখতে পারল না, আমাকে বলল অধ্যাপক ক তাকে নিপীড়ন করেছে, যৌন নিপীড়ন। জিজ্ঞেস করলাম এতদিন কেন বলনি, রেবা উত্তর দিল, “কী মনে হয় তোমার, কেন বলিনি?” টক শোতে গেলাম না, আমার বুদ্ধিজীবী জীবনের একমাত্র অবলম্বন ছিল ক-র দর্শন নিয়ে গবেষণা, সেটি আর না করার সিদ্ধান্ত নিলাম।

    এর এক সপ্তাহ পরে ক-র বাড়ি গিয়েছিলাম। ওনার স্ত্রী, যিনি আমাকে নিকট আত্মীয় ও আপনজনের মতো দেখতেন, তাঁকে বললাম হোমিওপ্যাথির বাক্সদুটো দেখব। উনি বাক্স নিয়ে এলে পরে ডালা খুলে দেখলাম এখনো প্রতিটি বাক্সে দুটো করে চিরকুট রয়ে গেছে। চারটে চিরকুটেই লেখা ‘বিয়ে নয়’। ক-র দর্শন নিয়ে যে গবেষণা বন্ধ করেছি তা নিয়ে আর ক্ষোভ হল না, ভাবলাম ক আসলে ভাল দার্শনিক ছিলেনই না। উনি বলতেন স্বাধীন চিন্তা ও অদৃষ্টবাদ দুটিই বিভ্রম, কিন্তু সেটা যে বিভ্রম নয় তা প্রমাণ করতেই হয়তো আমি রেবাকে বিয়ে করেছিলাম। আমার স্বাধীন চিন্তাকে প্রতিষ্ঠা করতে যে আমি যে এটা করব সেটা ওনার বোঝা উচিত ছিল। ক নিজের দর্শনে বিশ্বাস না করে নিম্নমানের এক পদ্ধতিতে আমাকে প্রভাবিত করতে চেয়েছিলেন, যৌন-নিপীড়করা বোধহয় তাদের বৌদ্ধিক দর্শন জীবনে আরোপ করতে পারে না। ফিরে এসে রেবাকে কথাটা বলতে ও বলল, “তাহলে ক সবকটা চিরকুটে ‘বিয়ে’ লিখলে তুমি আমাকে বিয়ে করতে না – শুধুমাত্র তোমার স্বাধীন ইচ্ছার তত্ত্বকে প্রতিষ্ঠা করতে?”

    আমি চুপ করে রইলাম। এর উত্তর আমার জানা ছিল না, রেবাও এই নিয়ে আমাকে আর আমাকে প্রশ্ন করে নি। এই কাহিনির শেষ এখানেই। এবার বলুন, পাঠক আপনি কি আপনার অবাধ অভীপ্সায় এই লেখাটি পড়লেন, নাকি লেখাটিকে পড়ার অদৃষ্ট নির্ধারিত ছিল?

  • বিভাগ : ইস্পেশাল | ২৮ মে ২০২১ | ৪১২ বার পঠিত | ১ জন
  • পছন্দ
    জমিয়ে রাখুন পুনঃপ্রচার
  • কোনোরকম কর্পোরেট ফান্ডিং ছাড়া সম্পূর্ণরূপে জনতার শ্রম ও অর্থে পরিচালিত এই নন-প্রফিট এবং স্বাধীন উদ্যোগটিকে বাঁচিয়ে রাখতে
    গুরুচণ্ডা৯-র গ্রাহক হোন
    গুরুচণ্ডা৯তে প্রকাশিত লেখাগুলি হোয়াটসঅ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হোন। টেলিগ্রাম অ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলটির গ্রাহক হোন।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • সুমি খান | 45.249.102.22 | ২৯ মে ২০২১ ০১:১৪106526
  • আমার অবাধ অভীপ্সায় এই অসাধারণ লেখাটি পড়লাম।  ক' জাতীয় জীব দ্বারা নিজের একটি ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতা মনে পড়ে গেলো! ভুলে থাকি অথবা চাপা পড়া অতীতের দুঃসহ কোন মুহুর্ত! 

  • Sahin Sarwar Islam | ২৯ মে ২০২১ ০১:৩৬106528
  • Nemesis er akta byapar thake...kintu Sahrukh Khan er dialogue tao kintu sotti...


    "Jokhon apni Kono kichuke pobitro Mone Chan, puro kainat sei iccha puron korar jonnyo uthe pore lage"

  • Prativa Sarker | ২৯ মে ২০২১ ২০:০১106587
  • অদৃষ্ট না অভীপ্সা জানি না, কিন্তু একটা খুব অন্যরকম লেখা পড়া হল। একটা বহুস্তরীয় লেখা, যার স্বল্প গন্ডিতে হাজার কথা বলা হয়েছে।

আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। যুদ্ধ চেয়ে প্রতিক্রিয়া দিন