বার পঠিত
ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • খেরোর খাতা

  • বিবিধ মেথি

    Avi Samaddar লেখকের গ্রাহক হোন
    ১৪ অক্টোবর ২০২০ | ১৪৪৪ বার পঠিত | রেটিং ৪.৫ (২ জন)


  • আঁতের চই নৈশদেব
    শাঁসের লিপিকর

    এবং জটিলে
    যে সরল তাঁত
    মুকুলিত কিরণ বুনে দেয়

    আমি তার ঘুনাক্ষরে
    আনন্দ প্রতিবেশী

    বিগলিত মাসুম হই
    ভেতর কুঁড়িটিতে

    ফলত কুসুম ঘটে
    সকল সঘনে



    চলো অবশেষ
    ছায়ার কুসুমে
    দু'একটি নির্জন কুহু
    খুঁটে নিক, গহনবধূটি
    কি সে বিষয়
    আর কে বিষয়ী
    বিবিধ মিশেলে
    তরিকা-অশেষ কভু পাই তোমাকে

    হে আমার তল সবুর আলো
    হে আমার সখ্য চুরচুর



    খুব বেশি দূরে নয়
    ঘনবনকাটা

    দুদিকেই ঝিকিম
    বোঝাই পথ

    জোনাকি-গোলকে
    ভেঙে যায়
    যোগব্রতজন

    আলালের মদিরপুঞ্জে
    দুলাল শ্রীপতি

    শিকড়ের শর্করা হেতু
    টুকে রাখে

    টুকু টুকু দিনকালকথা



    জলসদনের আঁজলা
    মনপাতন
    মরচে
    আহা নম্র!
    ঝেঁপে আসা চর্ম শেকলে

    স্বপ্ন দরোজা হল না

    জলীয় আন্ধার এলো
    দু'কলির জিন্দা যোগী

    গুনগুন দানা স্বল্পে

    জারণ, নিরন্ন হলো না



    অ্যাতো আলতো শালীন
    অ্যাতো ক্লান্ত হরিৎ
    আমাকে তুমি গ্লাস ভরে নাও
    আমাকে তুমি ত্রাস ভরে নাও
    আমি ডুবলো তরী মদ চাই
    উঠল ফাল্গুন হাওয়া আর
    হাওয়ায় হাওয়ায় শাল লগ্ন সাঁঝ
    একটু একটু টলপ্রতিম সাঁঝ
    যেন পথ
    ওই সুদূর কুয়াশা
    যেন মন
    আজো দূর মেথি রং



    কোয়া কোয়া
    পান্থ বিরল
    মনচরা
    ভ্রমণবতুতা
    ভাবি, নীর-ঝুম জারুলে
    স্মৃতি কি দ্রিদিম কোন পাখি !
    রোজ রোজ
    সাকার সমূহে
    রিক্তসকল
    ছলকে ওঠে

    মরচে কিছু
    অক্ষর মহিমা



    সজল ফুটেছে
    তলসই নিবাস মহুলে

    এই দেহ
    তিমিরনিটোল !

    টোকা দিলে ঝরে পড়ে
    ছোট ছোট
    বৃত্তবিবাহকণা

    ছোট ছোট ফলন শীৎকার

    যেন ঘোরালো তারার আবহাওয়ায়
    ছড়ানো শিমুল পরিধি

    যেটুকু ছলকালো
    ঝুঁকে আসে
    কারু আত্মন্ আর

    গুল্মগোঁয়ার হয়ে থাকি



    আলো-কে এক সলতে
    সান্ধ্য দু'পেগ
    বাড়িয়ে নিচ্ছি
    টলস্থিতি

    তবে কি জলভরণের
    মনছৌ

    দৃশ্যে নড়ছে
    নিভৃত নিভৃতি
    আঁজলা যৌনে
    ঝাঁঝরা মেরু
    গঠন দিচ্ছি
    কব্জিনিবিড়
    ফুটিত আলোর
    আদর মাখছে
    ডালিম দু'টি

    সেও কী তবে
    শীর্ষফলন

    নিভৃত নিভৃতি!



    ভ'রে ওঠা
    তল তরু

    কারু ছায়ার
    মাদুলিমোহন

    মমবিম্ব
    আর
    নাজুক দোতারা

    চিরটলটল
    তবক লাগে

    লিখনে কি ঘটে
    হে রাধে

    পংক্তিগোপালে
    মিহিন বুনে যাই

    ১০

    রাতের স্থির রং
    কথন মাধুকরী

    যোজন ফুটে থাকে
    জোছন-ভাসানে

    কোথায় সাকিন
    আর
    কতোটা হাঁটাপথ

    বলো তো গ্রামদেশ
    মৃদুল কথাগুলি

    হৃদি'র পরবাস
    কেন যৌথ মুগ্ধ

    বেদন ঝরে যায়
    অথানে বিথানে

    ১১

    হৃদি কেয়ারি আলো
    দু'পাশে দীর্ঘ শালবন

    মাত্রা দিচ্ছি মৃত্তিকা-কে
    মর্মবৎসল

    মর্ম আমার সীবনঋতু
    তন্তুময়ী জ্বর

    প্রতি অঙ্গ ভাসাই লো রে
    অনিদ্রা-তরল

    তরলগুলি ত্রাণ করো হে
    প্রাণ যদি অক্ষর

    রাস্তা আমার দাস্তাঁ অনু
    যতো মন মৌজী ঈশ্বর !

    ১২

    শীর্ণগুলি ফুটে
    ওঠে
    রোজ
    শিমূলগুলি ফেটে যায়
    ফেটে যায় টলটলের আদল

    যেন নিচু নিভু
    নিভু নিচু তলে

    বুনে যায় কতো মন্ময় বরোজ

    বরোজ বুনন
    দিনগুলি
    আহা, একলা মজুরির ডুবো রং !

    ১৩

    ছিট কথার ছাতিম
    চাঁদ ফিট করা সন্ধ্যে

    এই অর্ধে

    যতোটুকু শোরগোল
    ততো কি স্থা-টি
    নড়ে ওঠে

    মনে হয়, নির্জন মেখে দাঁড়াই
    মন হয়, দূরের তরীডাক

    চূড়াবিথীদেহে
    কুহুচুর
    ছলাৎ !

    ১৪

    কি যে অঝোর
    আর
    কি যে ফ্রেম করি

    ছড়ানো
    শাঁসের উপশমেে

    চলিত নিঝুম দানাগুলি

    এঁকে দেয়
    প্রতি শব্দের
    তকদীর গাথা

    দেহটি প্রাচীন
    মধু
    সুরাটি প্রাচীনা

    দূরাসীন
    ছলকে ওঠা

    কেন যে পাঁজর পুড়ে যায়!

    ১৫

    তোমার স্পর্শমন। যতো কথনসারি।

    সামান্য তো শ্রাবণ
    আর
    গজল বোতাম খুলি
    আর
    সটান নীরব হয়

    তরুতলে জ্যেষ্ঠ শরীর হয়

    অকারণ অভ্রে
    হয় কি হয়
    রুখুসুখু
    পলকও

    ওহ্ অনিদ্রা, কোথাও কি ফুটেছে পশম !

    ১৬

    হৃদি-কেয়ারি আলো
    দু'পাশে দীর্ঘ শালবন

    আর মরচেতনার পাশে
    এই পানশালা
    এখানে টম্বুর হয়
    রক্ত ও তিতাসে
    রোজদিনের সরল বিশ্বাসে

    যে অক্ষ ঘূর্ণমান

    যে অক্ষ বিম্ব নির্মিত

    তার চলার প্রবণে

    জংটুকটুকেমন !

    হৃদি-কেয়ারি আলো
    দু'পাশে দীর্ঘ শালবন

    ১৭

    অনন্ত মোরাম
    তার টান টান কুহু

    যেন এক পশলায়
    আকণ্ঠ উল্লাস

    খুঁজে ফেরা

    আর অন্ধ ছুঁয়ে
    আহুত হয় মন

    তখন মনে,ও ছাতিমে
    কি যে একক চুরমার

    কি যে টুপার্ত
    অঝোর সাঁই

    যদিও মর্মচরে ধূধূ

    ১৮

    তুমি বলছো কব্জিকারু

    আর আমি মোরাম বরাবর
    যাকিছু নিনড় আয়োজন

    টুকে রাখছি

    এই স্তিরাস্থির টপ্পায়

    বলো তুমি কি সরলপ্রধান!
    বলো তুমি কি তরলপ্রধান!

    সখা হে

    গুটি শ্রমের দিকেই
    বারবার খুলে যায়

    স্মৃতির জখম !

    ১৯.

    এই চলার রুহ্
    মিঠানিম

    নিশিমন সাঁই
    ছুঁলেই
    শুনশান আসরে
    টুপার্ত বিলীন
    ঝরে পড়া
    এতো সাঁঝিম ছায়াতল
    যেন একা তন্তুর রোপনে
    আলতো মুর্শিদ
    সীবনে
    দীঘলপুরিয়া
    চারণে
    হৃদিম্ মাধুকরী
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • r2h | 73.106.235.66 | ১৪ অক্টোবর ২০২০ ১৮:০৯98457
  • বাহ! শব্দগুলি নিয়ে খেলা, পরীক্ষা ইন্টারেস্টিং লাগলো, অন্য লেখাগুলিও পড়ে এলাম।

  • Avi Samaddar | ১৪ অক্টোবর ২০২০ ১৮:১২98460
  • ধন্যবা।। আমারও শুভেচ্ছা জানবেন।

  • π | ১৭ অক্টোবর ২০২০ ১৫:১০98574
  • আমারো বেশ লাগল।অন্যরকম !

  • Avi Samaddar | ১৭ অক্টোবর ২০২০ ১৮:২৮98583
  • ধন্যবাদ।

  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। ঝপাঝপ মতামত দিন