• খেরোর খাতা

  • মলমাস প্রসঙ্গে টুকরো কথা 

    Swarnendu Sil লেখকের গ্রাহক হোন
    ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ | ১৪১ বার পঠিত
  • ৪/৫ (১ জন)
  • জমিয়ে রাখুন পুনঃসম্প্রচার
  • মলমাস প্রসঙ্গে একটা আলোচনায় ফেসবুকে একটা গ্রুপে এইটা লিখেছিলাম, এখানেও থাক।

    আমি জ্যোতিষের কিছু বুঝি না, বোঝার দরকারও মনে করি না। কিন্তু মল মাসের সাথে জ্যোতিষের কিছু নেই, নিছক ক্যালেন্ডারের হিসেবের ম্যাথেমাটিক্স। যদিও অঙ্কটা সরল নয়, কিন্তু কনসেপ্টটা খুবই সরল। আর এক শতাব্দীতে একবার আসে এরকম মোটেই না, গড়ে এক দশকের একটু বেশিতে একটা করে হওয়ার কথা, এক্স্যাক্ট হিসেবটা ভুলে গেছি।

    যাই হোক, কনসেপ্টে আসি। ক্যালেন্ডার বানানোর চিরকালীন সমস্যা পৃথিবীর বার্ষিক গতি, আহ্নিক গতি, চাঁদের চক্র আর সূর্যের রাশি সংক্রমণের গতিগুলোর বিদঘুটে গরমিল। দিন হয় আহ্নিক গতির হিসেবে, আর একটা সৌর বছর ( যা বার্ষিক গতির হিসেব ) পূর্ণ সংখ্যক দিনে নয়। তাই কোন একটা দিনের মাঝখানে ( মাঝখানটাও প্রতি বছর আলাদা আলাদা সময়, নইলে দিনের মাঝখান কথাটার কোন মানে নেই, দুপুর দুটোও দিনের যেমন মাঝখান, রাত বারোটাও দিনের ততখানিই মাঝখান ) বছর শেষ হচ্ছে, এমন বিদঘুটে জিনিস না করতে চাইলে এই সমস্যা কোনও একটা ভাবে সমাধান করতে হবে। মানুষের ইতিহাসে সব সভ্যতা যারা ক্যালেন্ডার বানিয়েছে, তারা এইটা এক এক ভাবে সমাধান করেছে।

    ইংরেজি ক্যালেন্ডার সমাধান করে চার বছর অন্তর লিপ ইয়ার এ একটা দিন জুড়ে, তাতে আবার উল্টোদিকে ভুল হয়, তাই ১০০ দিয়ে ভাগ যাওয়া সালে সেইটা নেই, তাতেও আবার তার উল্টোদিকে একটু ভুল হয়, তাই ৪০০ দিয়ে ভাগ গেলে আবার এক্সট্রা দিনটা আছে।

    আমাদের ক্যালেন্ডারে ওইভাবে সমাধান করা শক্ত, কারণ আমাদের ক্যালেন্ডার এমনিই পৃথিবীর জটিলতম। চাঁদ আর সূর্য দুইয়ের হিসেব রাখে বলে। প্রসঙ্গত সেই গরমিলগুলো বলে নি। পৃথিবী সূর্যকে একপাক ঘুরে আসার পথে সূর্যের পিছনে বারোটা নক্ষত্রমণ্ডলীকে দেখা যায়, যাদের এক একটাকে রাশি আর সবকটাকে একসাথে রাশিচক্র বলে। এক সৌর মাস হচ্ছে সূর্যের এক এক রাশিতে থাকার সময়। সূর্যের এক রাশি থেকে আর এক রাশিতে যাওয়াকে বলে সংক্রমণ, দিনটাকে সংক্রান্তি। তাই সৌর মাস হল এক সংক্রান্তি থেকে পরেরটা। এবার সবকটা সৌরমাস সমান নয়, তবে কাছাকাছি। এবারে চাঁদ পৃথিবীকে একপাক ঘুরে আসতে যা সময় নেয় সেটাও পূর্ণ সংখ্যক দিন নয়, আবার একটা গোটা সৌর মাসও নয়। তাই চান্দ্রমাস ( মানে এক অমাবস্যা থেকে পরেরটা, বা এক পূর্ণিমা থেকে পরেরটা ) আর সৌরমাসেরও গরমিল আছে, আর এক সৌর বছরে যেখানে বারোটা সৌরমাস হতে বাধ্য, বাই ডেফিনিশন, সেখানে এক সৌর বছরে চান্দ্রমাসের সংখ্যা বারোটার বেশি, আবার পূর্ণসংখ্যা নয় সেটাও।

    এই হিসেবের গরমিলটা মেলাতেই মলমাস ( মিলিয়ে দেওয়ার মাস থেকে এই নাম কিনা ভাষাতাত্ত্বিকরা বলতে পারবেন হয়ত), সিমপ্লি লিপ মান্থ আসলে। কখন হয়? যখন একটা গোটা চান্দ্র মাস পুরোটা একটা সৌর মাসের মধ্যেই শুরু ও শেষ হয়। তাই কোন একটা বার পাঁচটা আছে কিনা বিবেচ্য নয় ( যদিও থাকে, কিন্তু রবিবারই হতে হবে এমন না), বিবেচ্য হচ্ছে দুটো পূর্ণিমা বা দুটো অমাবস্যা একটাই সৌরমাসে আছে কিনা। থাকলে সেই মাসটা গোনা হয়না, নইলে গরমিলটা প্রতি বছর জমা হতে হতে একসময় পৌষমাসে ৪০ডিগ্রি গরম পেতাম আর ইংরেজি মে মাস চলত।

    তাতেও ভুল থেকে গেছে, সেইটা যৎসামান্য হলেও সেইটা জমা হতে হতে এতগুলো শতাব্দীতে অনেকটাই হয়ে দাঁড়িয়েছে। তাই বাংলা ক্যালেন্ডার বা পাঁজি যবে সংক্রান্তি বলে, আকাশে সত্যি সত্যি সূর্যের সেই বছরের সেই সংক্রমণটা আসলে ২১ দিন মত আগে হয়ে গেছে। এক্স্যাক্ট ভুলের পরিমাণদুটো বার করলে এই পাঁজির ব্যবস্থাটা কতদিন সংস্কার হয়নিটাও বার করা যায়।

  • ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ | ১৪১ বার পঠিত
  • ৪/৫ (১ জন)
আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • Swarnendu Sil | ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১৬:৩৩97482
  • ধন্যবাদ অতনুবাবু। আপনার মহানগরে লেখাটা পড়লাম। বেশ ভাল হয়েছে। প্রসঙ্গত আমারও লেখার মূল তথ্যসূত্র পলাশ বরণ পালের লেখালিখিই। 

  • Guruchandali | 136.228.209.53 | ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ ২০:২৬97505
  • যাঁরা খেরোর খাতায় নতুন লেখালিখি করছেন, গুরুচণ্ডা৯-র টেকনিকাল ফীচারগুলো তাঁদের কাছে ব্যাখ্যা করার জন্য আগামী শনিবার ভারতীয় সময় রাত ৮-১০টা আমরা একটা ওয়েবিনার করছি গুগল মীট-এ। ইচ্ছে আছে আগামী কয়েক সপ্তাহ জুড়ে প্রতি শনিবার ঐ নির্দিষ্ট সময়ে ওয়েবিনার করার। আপনাদের কী কী অসুবিধে হচ্ছে লিখতে বা একটা সামাজিক মাধ্যম হিসেবে গুরুচণ্ডালির পূর্ণ স্দ্ব্যবহার করতে, সেটাও আমরা নোট করব, যাতে এটাকে আরও উন্নত করা যায়, প্রযুক্তিগতভাবে। সম্ভব হলে থাকবেন। শনিবার রাত আটটায় নিচের লিংকে ক্লিক করেই মীটিং এ জয়েন করা যাবে। 

     https://meet.google.com/ydz-ekww-see

আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। খারাপ-ভাল মতামত দিন