• চারটি কবিতা

    আর্যনীল মুখোপাধ্যায়
    কাব্য | ০১ মার্চ ২০০৬ | ২২ বার পঠিত | | জমিয়ে রাখুন পুনঃসম্প্রচার
  • স্ক্রোলচিত্র

    বাসাসারাইয়ের মানুষ বা পাখিরা
    পাহাড়ে মস্তিষ্কপ্রস্তর সাফ করার শব্দ উঠলো
    আসছে ঝর্ণা ক্রমশ কাছে আসছে, কান্না আসছে
    !;;;;;;!;;;;;;!;;;;;;!;;;;;;!;;;;;;!

    অপসরণশিল্প কাঁকড়ার কাছে শিখুন
    এই ভরা অনুভূতি তার Ýখালে, এই খরা
    অঘ্রাণের খামার কতটা Ýসানালি, বলবে খামারমুর্গির আনঝুটি
    #======#======#======#======#======#

    দীর্ঘ জীবনের ঋতু জীবনদীর্ঘ
    তার বাহু ভ'রে পীচ ঝুলছে
    মাটি নরম ইন্দ্রিয় প্রস্তুত
    বীজবপন আরো Ýভতরে হবে
    // // // // 0 // // // // 0 // // // // 0 // // // //

    এইরঙ এনে দিল বৃষ্টি নির্যাস মাটিবাদল আর
    পতঙ্গের অঙ্কনপ্রবৃত্তি
    নীলচারা Ýছঁচে Ýয বর্র্ণ এলো Ýসই রঙ
    কত Ýয Ýকাথায় Ýগল নীলচাষির ধারণাতেও Ýনই
    ¡ ¡ ¡ ¡ < < ¡ ¡ ¡ ¡ < < ¡ ¡ ¡ ¡ << ¡ ¡ ¡ ¡

    একÝজাড়া হাত মুসুর পুঁতে এলো
    আর এক Ýজাড়া Ýমদিনীমাখা আমাদের ডালের বাটির রচয়িতা
    ফড়িং আঁকছিলেন চীনেমাটির কাঁচায়
    রাত হল চল শুয়ে পড়বে
    চুল্লীর আনে সারারাত ছবিটা পাকছে
    @ ।।।।। @ ।।।।। @ ।।।।। @ ।।।।। @ ।।।।।


    সান্ধ্যভাষা

    সান্ধ্যভাষার প্রয়োজনে আবার আমার লিখতে মন হয়
    মনে হয় আবার লিখতে লিখতে সন্ধ্যা হোক
    আরো পুরাতন হয়ে যাক সারস্বত কবিতার ভাষা
    মূলদরজার সামনে বসে আছি যেখানে দুলছিল যে গাঁদার গাছ
    তার পায়ের কাছে ইলিয়ট বলেছিলেন -
    কবি এমন কিছু অনুরণন বোঝেন যা গড়পড়তার শরীর ছোঁয় না

    বৃষ্টি কি স্থির ও বদ্ধপরিকর তার ধারায় দেখো
    অথচ আজ নাটকের ক্লাস শুরু হবে আবার
    আবার আবার আজ তোমার হাত ধরার কথা
    হাত ধরলে সন্ধ্যা হবে
    আমাদের প্রজন্মে হাত ধরার কোন আলাদা তাৎপর্য ছিল না
    তবু স্পর্শের অনুভবে অর্থের অন্যতর আসে, অন্ধকার ছলে
    পীয়ার গাছে খয়েরী খরগোশরা মাচা বানিয়েছিল
    আজ নাটকের ক্লাস শুরু হবার কথা

    এমন সমস্ত সন্ধ্যায়, বিশ্বাস কর, গল্প করার মতও কেউ নেই
    অথচ কত বিকেল দেখি সান্ধ্যভাষা শিখে রাতের টেবিলের কিনারা পর্যন্ত
    গড়ানো কুঁজো থেকেই রমনীর গড়ন আসতো
    জলবায়ু আর আবহাওয়ার মধ্যে কতটা সময় ?
    আজকের চিঠিলো খামের পোশাক খুলে অসভ্য আমার মত একা একা।
    শূন্যতা সবসময় নন করে। আসছেনা, তবু আসবে আসবে বলে গানের ভেতর

    মনে হবে আমাদের রক্তের ফোঁটা ফোঁটা প'ড়ে ঐ কার্ডিনাল পাখিরা
    এত রক্তমস্তু, উহাদের অথচ গান নেই
    আমাদের জানলার কাঁচগুলি এমন
    আমি সারাদিন বাইরে যার ওড়াউড়ি দেখি, সে কি আমায় দেখতে পায় নিরু ?
    সে আমায় দেখতে নিরুপায়
    দেখে সন্ধ্যার পর, যখন কেবল সেই দ্যাখে
    আমি তাকে দেখতে পাই না।


    কলম করা পংক্তিগুলো

    Ýগালাপের Ýভতরে এই গহিন কমলা কালো সায়ান পুঁতিগুলো
    তুলতে Ýগলেই ছড়াবে
    মুঠো খুললেই গড়াবে
    Ýরখা খুলতে খুলতে আমার পায়ের কাছে ঝিনুক দিয়ে থামলো

    এতলো নির্জন বছর Ýপরিয়ে সাগরের ধারে এলো বাড়ীগুলো
    একার ছায়ায় সিগারেট খাচ্ছে দাঁড়িয়ে একা
    বালির ওপর বড্ড Ýবশী জমি ছিল
    Ýখালা জল গড়ানোর আয়োজন

    Ýদখবেন
    বাছাই অঢেল হলেই মনের মত লুকোচ্ছে
    অথচ Ýযই Ýজার করবেন
    গাঁদার টবে Ýপট্যুনিয়া মরে যাবে

    তবু আমাদের জানলায় কত ফাঁক ছিল বলুন
    আমাদের জানায় কত
    ওয়াইনকর্ক দিয়ে Ýয ভুল অঙ্কটা Ýমাছা যায়
    বা আমিনাকে Ýয অত সুন্দর Ýদখাবে
    Ýময়ে Ýদখার দিন
    বা আলুবখরার চাটনি Ýচখে
    Ýচাখে Ýচাখে বা:! বলে ওঠা কাঠবিড়ালিটা

    মনটা Ýয কি খারাপ নীল ক'Ýর আজ আছে ।
    (Ýদখুন রঙের Ýভতরেও কি সাংষ্কৃতিক ধাক্কা
    "একটার পর একটা পাখি ডাকÝছ, নীল' - বললে
    যিনি আনন্দে Ýহসে উঠলেন তার Ýদওর কাঁদছে)
    Ýকন Ýয বুÝড়া গীতিকার তার হুইলচেয়ার গড়িয়ে গঙ্গায় ঝাঁপাল
    আর হাত Ýথকে Ýফলে
    বিকেলের Ýশষ ডিমটা ঠিক তখনি তুই ফাটালি

    এইসব অনুতাপ Ýথকেই শুরু হয়েছিল আমার কলম করা পংক্তিগুলি ।।


    অর্থাৎ চিত্রনাট্য

    গানের Ýভতরে তাকেই খুঁজে Ýবড়াচ্ছি
    হারানো সুর।
    আর আমি একটা অন্যবাড়ীতে বসে রইলাম Ýতামার জন্য।

    Ýক আপনি ?
    প্রশ্নটা শক্ত হলে উত্তর Ýদওয়া যায়, অন্যায় হলে যায় না
    Ýস্টশনটা Ýকানদিকে ?

    মানুষের সংষ্কৃতি তার Ýচাখেমুখে Ýলখা থাকে।
    রঙটা Ýবশ। জায়গাটার নাম কি ? আজ কত তারিখ ?
    তুমি ভুলে একটা অন্যবাড়ীতে চলে Ýগলে ?

    এক্ষুনি যিনি ওপরে Ýগলেন
    Ýবড়াতে Ýবরিয়েছে হয়তো
    যদি তার স্মৃতিকে জাগাতে পারি !

    সবাই ঘুমিয়ে পড়েছে আমি ঘুমোতে পারিনা Ýকন ?
    আমাকে ভুলে Ýগছেন।
    অবস্থার চাপ কবে Ýশষ হবে ?

    আসলে আমার খানিকটা সময় হারিয়ে Ýগছে
    আবার নতুন করে বুনবো বলে
    Ýততাল্লিশ টাকা সাড়ে চার আনা।

    অলোকবাবু
    অলোকবাবু, কি ভাবছেন ?
    Ýপছনের কথা কিছু মনে পড়ছে ?
  • বিভাগ : কাব্য | ০১ মার্চ ২০০৬ | ২২ বার পঠিত | | জমিয়ে রাখুন পুনঃসম্প্রচার
আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত