ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কল্লোল | 125.242.193.49 | ২৪ জুলাই ২০১৫ ১৩:৩৮683727
  • এখানে কিছু খবর আছে।
    http://www.smh.com.au/business/workplace-relations/goodbye-rankings-accenture-gives-annual-performance-reviews-the-flick-20150722-gihn7y.html
    বলছে এই অ্যাপ্রাইজাল সিস্টেমে প্রচুর ভুলভাল লোকে ভালো রেটিং পায়, কারন তারা ভুলভাল তথ্য দেয়। এটা আমি দেখেছি। বেশ কিছু কাজ, সময়ের আগে হয়ে গেছে বলে একজন ভালো রেটিং পেয়ে গেলো। তারপরে দেখা গেলো সেই কাজে প্রচুর গলতা আছে। সে সব ঠিক করতে করতে দ্বিগুন সময় গেলো। লোকটি খুব গাল খেলো তার ম্যান্জারের কাছে, কিন্তু তার মাইনে তো আর কমলো না!!!
    অ্যাপ্রাইজালের চলতি সিস্টেম তুলে দেবার তবে বড় কারন হলো, সময় ও টাকার অপচয়।
    অ্যাপ্রাইজাল থাকছে - অন্য মোড়কে।
  • Bratin | 122.79.35.43 | ২৪ জুলাই ২০১৫ ১৩:৪৭683734
  • ওখানে ৩৬০ ডিগ্রি অ্যাপ্রাইজাল আছে?
  • kabya | 59.249.82.129 | ২৪ জুলাই ২০১৫ ১৪:০৭683735
  • কল্লোল দা,
    তুমি যে সমস্যা টা বললে সেটা আসলে নেপোটিসম র সমস্যা। যদি এই অ্যাপরাইসাল টা না থাকে তবে আমার মনে হয় এই জিনিস টা আরো বাড়বে।
  • AD | 213.91.201.56 | ২৪ জুলাই ২০১৫ ১৪:২৮683736
  • কোন কোন কোম্পানী তে ৩৬০ ডীগ্রি Appraisal অাছে
  • Bratin | 122.79.35.43 | ২৪ জুলাই ২০১৫ ১৪:২৯683737
  • সব কোম্পানী তেই এই সমস্যা কমবেশী আছে। নিজের লোক কে টেনে খেলানো, অ্যাপ্রাইজালের সময়ে প্রজেক্ট থেকে বেরিয়ে গেলে যেমন কাজ করুক বাজে রেটিন দেওয়া ইত্যাদি।
  • Bratin | 122.79.35.43 | ২৪ জুলাই ২০১৫ ১৪:৩১683738
  • কগনিজেন্ট

    ।রিপোর্টি দের ফিডব্যাকের ওপর ম্যানেজার রেটিম নির্ভর করে।
  • AD | 213.91.201.56 | ২৪ জুলাই ২০১৫ ১৪:৩৩683739
  • এটা ভাল জিনিস
  • AD | 213.91.201.56 | ২৪ জুলাই ২০১৫ ১৪:৩৪683740
  • বেশির ভাগ জায়গায় এই জিনিস নেই
  • কল্লোল | 125.241.123.22 | ২৪ জুলাই ২০১৫ ১৭:১১683741
  • পৃথিবীতে নাই কোন বিশুদ্ধ চাকুরী। অতএব, অ্যাপ্রইজাল থাক বা না থাক, নেপোয় দই মারবেই।
    ৩৬০ডিগ্রিতে কি হয় জানা নাই। তবে, বেশীরভাগকে মোটামুটি কমবেশী দিয়ে দুএকজনের ওপপ খার মেটানো যায় ৩৬০ডিগ্রিতেও।
    আর আছে এক মোজার বেল কার্ভ।
  • কল্লোল | 125.241.123.22 | ২৪ জুলাই ২০১৫ ১৭:১২683728
  • *ওপর
  • mumu | 216.201.224.118 | ২৪ জুলাই ২০১৫ ২০:২২683729
  • এইটে ভালো হইসে,মার্চ -এপ্রিল নাগাদ লোকে দরকার পোড়লেও ছুটি নেইনা,অযথা দেরী অবদি অফিস এ বসে থাকে,বেশি বেশি কাজ দেখাই(করেনা কিন্তুক),বস ক তেল দেয়। অসহ্য!

    আর যাদের ঐ সময় রিলিজ থাকে বা ট্রান্সফার তারা সারা বছর যতই কাজাক সেই বাজে রেটিঙ্গ পাবে।
  • (on behalf of) আবনাদের জামাই | 113.16.69.11 | ২৫ জুলাই ২০১৫ ১৪:১৩683730
  • যে organization বিশ্বব্যাপী ৩৩০ হাজার মানুষ কে employ করে তারা যখন annual merit rating তুলে দেবার কথা ঘোষণা করে তখন তা একটি সামাজিক বিপ্লব থেকে কম নয়।

    অবশেষে মনুষ্যজাতি এই সুস্পষ্ট গোঁজামিল টাকে স্বীকার করেছে দেখে , এই সময়ের একজন সাধারণ পথিক হিসেবে একটা অসাধারণ অনুভূতি হচ্ছে।

    ডেমিং মহাশয় লিখেছেন annual merit rating নামক গালভরা নামটা যে উদ্দেশ্যে বানানো তার ঠিক উলটো কাজ করে।

    প্রথমতঃ leadershipর সমস্ত দিক গুলোর একত্রে পিন্ডি চটকে কেবল শেষে পরে থাকা কিছু সংখ্যা গোণে। এইজন্য গোণে না যে এতে কোনো লাভ হবে, গোণার কারণ হচ্ছে এই যে গোণা টা সোজা। অনেকটা সেই মাতাল এর মতো - যে অন্ধকার গলি তে তার সোনার আংটি হারিয়ে বড় রাস্তায় খুঁজছিল, কারণ সেখানে অনেক আলো।

    দ্বিতীয়ত, একটা সিস্টেম কতটা সফল, তাতে সিস্টেম এর design এর ভূমিকাটাই মূখ্য। এরজন্য মানুষ কে দোষ দিলে বা প্রশংসা করলে যাকে খারাপ আখ্যা দেওয়া হলো সে বুঝবে না যে তার সাথে ভালোর তফাৎ টা কোথায়। তখন সে এমন কিছু লোক দেখনো কথা নিয়ে বকবক করবে যেটা সে নিজে ও বোঝে না। পুরো একটা গুপি দেবার ছক। মাঝখান থেকে organization পটল তুলবে।
    এরকম আরো অনেক কারণ আছে , professional rivalry etc ।
    তবে সবথেকে বড় সমস্যা হল, মানুষ কে ভুল জায়গায় কড়কে দেওয়া।একটা মানুষ কে তার শিক্ষাগত যোগ্যতা ও অভিঞ্গতা( ঠিক হোলো না) র ভিত্তি তে কাজে বহাল করা হোলো। সে একবছর ধরে মনের খুশিতে খুব ভালো কাজ করল। organization তার leadership দ্বারা বেশ লাভবান ও হলো। বছরের সেশে বললো " এ আর এমন কি? তোমাকে তো এই জন্যই নেওয়া। অতএব খুব বেশী টাকা বাড়বে না। " কারণ খুব অল্প সংখ্যক লোকের ই খুব বেশী পরিমাণ টাকা বাড়বে - এটা ই নিয়ম। নিয়ম তো বুঝলাম। কিন্তু এই বাজে নাটক টার কি দরকার? যাকে দিয়ে কাজ হবে - তাকে বেশী টাকা না দিলে - বা এককথায় তার কাজ টাকে অস্বীকার করলে সুদুর ভবিষ্যতে organization এর সামগ্রিক কর্ম দক্ষতা ক্ষতিগ্রস্থ হবে। আর ভালো organization বানাতে হলে এই বাজারি কেনা বেচা র ব্যাপার টাই বদলাতে হবে। তখন মানুষ গুলো টাকার থেকে বেশী অন্য কিছু খুঁজবে তাদের জব থেকে। আসলে এই যুগ এ টাকা টা শুধুমাত্র প্রয়োজনীয়তা পূরণ এর সাধন নয় - এটা দিয়ে সামাজিক সম্মান ও কেনা বেচা হয়ে থাকে। এই গোঁজামিল জিনিস টা এতোদিন টিকে থাকার এটাই মূল কারণ। আশায় রইলাম - দেখা যাক ভবিষ্যত এ কি হয়।
  • shibir | 113.16.71.17 | ২৬ জুলাই ২০১৫ ০০:১১683731
  • সব তো বুঝলাম কিন্তু বছর বছর মাইনে বাড়বে কি করে ?
  • Arpan | 125.117.171.186 | ২৬ জুলাই ২০১৫ ০০:৩২683732
  • এত উদ্বেলিত হবার কিছু নেই। বাঁশের বদলে চাট্টি জলবিছুটি হাতে ধরিয়ে দিলেও একই রকম মোজা জ্বলে। কী আসছে আগে দেখা যাক, প্রফিট ম্যাক্ষিমাইজেশনের মোক্ষ থেকে তো আর কেউ সরে আসছে না।
  • Arpan | 125.117.171.186 | ২৬ জুলাই ২০১৫ ০০:৩৪683733
  • আমাদের জামাইয়ের কটিন প্রবন্ধ নামানোর হাত আছে। একটা চাল টিপেই বোঝা যাচ্ছে।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। ভেবেচিন্তে প্রতিক্রিয়া দিন