ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • টইপত্তর  অন্যান্য

  • বিনয় কোঙার ও সইফুদ্দিন আর নেই

    কল্লোল
    অন্যান্য | ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৪ | ১৭১২ বার পঠিত
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • নেতাই | 131.241.98.225 | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ০৯:৪৪648157
  • স্ট্যান্ডার্ড ডেভিয়েশানের ডাটা পাওয়া গেলেও তুলনা করার খুব সুবিধে হয়। নইলে উচ্চবিত্ত চাষীরা গড়কে কতটা প্রভাবিত করছে বোঝা যাবেনা।
  • :-X | 92.145.211.66 | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ০৯:৪৪648156
  • Hya, eta singur er backdrop e lekha. Keno singur e land acquisition er method e bhul chilo tar analysis. Sekhane operation barga niye kichu data ache.
  • b | 135.20.82.164 | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ০৯:৪৫648158
  • ঝিকি, ঐ লেখাটি বাঙলাদেশের সাথে পশ্চিমবঙ্গের তুলনা এটা ঠিক নয়। আমি বোধ হয় বুঝাতে পারি নি।

    আপনি তো ইঞ্জিনিয়ারিঙ পড়েছেন। জানেন তো, কোনো এক্সপেরিমেন্টে দুটি গ্রুপ লাগে, একটি কন্ট্রোল আর একটি ট্রীটমেন্ট। কন্ট্রোল গ্রুপ আর ট্রিটমেন্ট গ্রুপে অন্য কোনো ফারাক থাকে না, শুধু একটি আইসোলেটেড পলিসি ছাড়া।

    এখন পশ্চিমবঙ্গকে যদি ট্রীটমেন্ট গ্রুপ হিসেবে নেই, যেখানে পলিসি হল ভূমি সংস্কার, তাহলে কন্ট্রোল হিসেবে কি নেবেন? এমন একটি অঞ্চল, যেখানে জলবায়ু, শস্য উৎপাদনের ধাঁচ, পদ্ধতি ও প্রক্রিয়া তুল্যমুল্য ভাবে একরকম, কিন্তু ভূমি সংস্কার হয় নি। সেই সূত্রেই এখানে ওনারা বাঙলাদেশ-কে নিয়ে এসেছেন।

    যাই হোক, আপনি পি পি টি ফাইলটা দেখুন। আর একটা রেফারেন্স পাঠিয়ে দিচ্ছি, আমার ইকনমিস্ট বন্ধুর কাছ থেকে চেয়ে নিয়ে।
  • b | 135.20.82.164 | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ০৯:৫৯648159
  • http://books.google.co.in/books/about/Sonar_Bangla.html?id=5wntAAAAMAAJ&redir_esc=y

    এখানে অবশ্য বাঙলাদেশের কথাও আছে। তবে বন্ধু বললেন পশ্চিমবঙ্গ স্পেসিফিক আলোচনাও আছে।

    প্রব্লেম ইত্যাদিও পাবেন।
  • sm | 233.223.155.177 | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ১২:০৫648160
  • "সরকার উপযুক্ত কমপেনসেশন দিয়ে ভাগ চাষের সত্ব বিলোতে পারত। জোর করে সত্ব দেওয়া টা জুলুমবাজি।"
    যে জমি জোর করে দখল নিয়ে সংখ্যালঘিষ্ঠরা ভোগ করেছে তাদেরকে কম্পেন্সেশন দেওয়া হবে কেন? এই ব্যাপারটা বুঝতে গেলে দাস কাপিটাল পড়ার দরকার নেই। "শুধু বিঘে দুই/ছিল মোর ভুঁই....." আরেকবার পড়ে নিলেই তো খানিক আন্দাজ পাওয়া যায়।
    ------
    পি টি, কোনো একটা জায়গায় ভুল বোঝাবুঝি হচ্ছে। ছোটো বেলায় পড়েছি দু ধরনের জমিদার ছিল, একদল লাঠিআল পুষতো , গা জওয়ারী করত আর এক দল প্রজাদের কল্যাণ মূলক কাজ যেমন স্কুল প্রতিষ্ঠা, পুকুর কাটা ইত্যাদি জনহিতকর কাজ করত। খুজলে আপনি,আমি এদের পূর্বপুরুষের কিছু ভালো মন্দ কাজের হিস্ট্রি পাবেন।
    কথা হলো কোনো এক ব্যক্তি জমির মালিক,; আপনি তাকে তার পূবপুরুষ কি জুলুমবাজি করেছিল, তার শাস্তি দিচ্ছেন কেন?
    নিশ্চয় সরকার সেই ব্যক্তির বা তার পূর্বপুরুষের, অন্যায় কাজের লিস্টি বানিয়ে রাখে নি। এটা একেবারে ফালতু কথা।
    সরকার যেটা করেছে সেটা আইনি জুলুমবাজি।
    কলকাতা শহরে কারো তিন তলা বাড়ি বা একধিক বাড়ি থাকলেই সরকার সেটা ফুটপাথ বাসী কে বিলিয়ে দেবে নাকি?
    আগেই বলেছিলাম বর্তমান টাটা, বিরলা , রিলায়েন্স সব বড় শিল্পপতি ই কোনো না কোনো ঘটালায় যুক্ত । তো সরকার তাদের সম্পত্তি কেড়ে নিয়ে বিলিয়ে দেবে নাকি?
    তর্কের খাতিরে যদি ধরেই নেই, ৩০- ৪০ বিঘে জমির মালিক জোতদার গণ খুব প্রজা শোষণ বা অন্যায় করেছে; পরবর্তী কালে বর্গাদার ও রাজনৈতিক নেতারা তার চেয়েও বেশি লাভের গুড় মিলে মিশে ভাগ করে খেয়েছে।
    পরিশেষে, আপনার পোস্ট পড়লে মনে হয় আপনি হয়ত এটাও ভাবেন , যেহেতু পব সমস্ত ব্যবসা সংখ্যা লঘিষ্ঠ শ্রেণী ভোগ করছে , তাই তাদের কাছ থেকে কেড়ে সাধারণ মানুষ কে বিলিয়ে দেওয়া উচিত।
  • PT | 213.110.246.25 | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ১৩:০০648161
  • "ছোটো বেলায় পড়েছি দু ধরনের জমিদার ছিল"
    খানিকটা এগোনো গেল তাহলে।

    "সরকার যেটা করেছে সেটা আইনি জুলুমবাজি"
    জমিদারী প্রথা বিলোপ আইন অবশ্যই একধরণের সরকারি "জুলুমবাজী"। কিন্তু এই ভাবেই তো সামাজিক অন্যায়ের course correction হয় অনেক সময়ে।

    "সব বড় শিল্পপতি ই কোনো না কোনো ঘটালায় যুক্ত। তো সরকার তাদের সম্পত্তি কেড়ে নিয়ে বিলিয়ে দেবে নাকি?"
    সারদা তদ্ন্তে চোখ রাখুন। বিভিন্ন জায়গা থেকে সারদার সম্পত্তি সরকার "কেড়ে" নিচ্ছে।

    "পরবর্তী কালে বর্গাদার ও রাজনৈতিক নেতারা তার চেয়েও বেশি লাভের গুড় মিলে মিশে ভাগ করে খেয়েছে।"
    এটা যে হয়নি তা বুকে হাত দিয়ে বলতে পারব না। তবে শতাব্দীর গুড় আর দশকের গুড়ের পরিমাণে অবশ্যই ফারাক আছে।

    "যেহেতু পব সমস্ত ব্যবসা সংখ্যা লঘিষ্ঠ শ্রেণী ভোগ করছে , তাই তাদের কাছ থেকে কেড়ে সাধারণ মানুষ কে বিলিয়ে দেওয়া উচিত।"
    অতটা না হলেও, একটা egalitarian সমাজের স্বপ্ন দেখি বৈকি। নাহলে আর এত তক্ক করি কেন?
  • sm | 233.223.155.177 | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ১৩:২৪648162
  • কিছু সমস্যা আছে, বুঝতে সেটা উপলব্ধি করা যাছে। জমিদারী প্রথা বিলোপ বা জমির সিলিং আইন নিয়ে কুনো আপত্তি নাই। আপত্তি হলো কমপেনসেশন না দিয়ে জোর করে কেড়ে নেওয়া।
    আপনি এগালিতারিয়ান সমাজের স্বপ্ন দেখেন, কিন্তু টাটা বিরলার কলে, জ্যোতিবাবু দোলে, এর কি জবাব দেবেন?
    আপনার পার্টি শিল্পপতি দের বা ধনী লোকদের টাকা কড়ি কেড়ে নিয়ে সাধারণ লোকেদের মধ্যে বিলি বন্টনের কি ব্যবস্থা করেছিল, জানালে বাধিত হব।
    সারদা বা সাহারা চুরি করেছিল,কোর্টের নির্দেশে তার সম্পত্তি সিজ করা হচ্ছে বা ক্ষতিপূরণ আদায় হচ্ছে। এটার সঙ্গে আইন করে ধনী ব্যক্তি মাত্রেই তার টাকা কড়ি কেড়ে নেয়ার কি সাযুজ্য আছে? কারুর ব্ল্যাক মানি থাকলে সরকার কেড়ে নিতে পারে।
  • de | 69.185.236.53 | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ১৩:৩৮648163
  • এসেম - ভূমিসংস্কার পূর্ববর্তী আমলে ক্ষেতমজুর বা ভাগচাষীদের দূর্বিসহ পরিস্থিতি সম্বন্ধে একটু ইচ্ছে করলেই তো জানা যায় বইপত্রে। যে বিপুল পরিমাণ জমি অন্যায় ভাবে জমিদারদের হাতে ছিলো তা কেড়ে নিয়ে বিলিয়ে দেওয়াই তো সবচেয়ে ভালো সলিউশন। অন্যায় ভাবে সংগ্রহিত আনলিমিটেড সম্পত্তির জন্য সরকার কেনো পয়সা দেবে?

    তাত্ত্বিক বইপত্র পড়তে হবে না। খোয়াবনামা বা রহু চন্ডালের হাড় পড়েছেন? তেভাগা পূর্ববর্তী ভাগচাষীদের এবং অন্যন্য নিম্নবর্গীয়দের অবস্থার কিছুটা হলেও আন্দাজ পাওয়া যায় এগুলোতে!
  • PT | 213.110.246.25 | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ১৩:৫১648164
  • "আপনি এগালিতারিয়ান সমাজের স্বপ্ন দেখেন, কিন্তু টাটা বিরলার কলে, জ্যোতিবাবু দোলে, এর কি জবাব দেবেন?
    আপনার পার্টি শিল্পপতি দের বা ধনী লোকদের টাকা কড়ি কেড়ে নিয়ে সাধারণ লোকেদের মধ্যে বিলি বন্টনের কি ব্যবস্থা করেছিল, জানালে বাধিত হব।"

    এতো চায়ের দোকানের তক্ক। এর কি জবাব দেবো? আর কোনটা আমার পার্টি?
  • sm | 233.223.159.253 | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ১৪:০৯648166
  • @de ,আপনি বলছেন "অন্যায় ভাবে সংগ্রহিত আনলিমিটেড সম্পত্তির জন্য সরকার কেনো পয়সা দেবে?"
    আপনি জোতদার (৩০-৪০ বিঘা জমির মালিক ) এর জায়গায় এক বিলিয়ন ডলার খরচা করে বাড়ির মালিক আম্বানি কে বসিয়ে নিন।
    দেখুন কার ধন সম্পত্তি আগে কেড়ে নেওয়া উচিত। যদি মনে হয় ব্যবসায়ী ধনী ব্যক্তি বিশেষের, তাহলে আলুচনা এগিয়ে নিয়ে যাওয়া যেতে পারে।
    এক্ষেত্রে কি ধরনের তেভাগা বা দুর্ভাগা আন্দোলন হয়েছিল বা হতে চলেছে?

    @পিটি, আপনি কোনো পার্টির সমর্থক নন জানি। সেটা আপনার অতীতে হাজার হাজার পোস্টেই স্পষ্ট। যেহেতু আপনি বামফ্রন্টের কৃষক আন্দোলনের সমর্থনে ব্যক্তব্য রাখছিলেন, তাই এই অনিচ্ছাকৃত ভুল।ক্ষমা প্রার্থী।
    কিন্তু আপনার পোস্ট থেকে সরা সরি কোনো উত্তর পেলুম না কেন? আপনি একটি স্বপ্ন ও আদর্শে বিশ্বাস করে এসেছেন এযাবত, বাম পার্টির লোকেরা এই ধনী, শিল্পপতি দের বিরুদ্ধে অনুরূপ কি ধরনের আন্দোলন করেছে, সেই প্রশ্ন মনে জাগে না?
  • PT | 213.110.246.25 | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ১৪:২০648167
  • আন্দোলন অনেকই হয়েছে।
    বামেদের আন্দোলনের জন্যেই নাকি শিল্পপতিরা বাংলা ছেড়েছে এই নিয়ে তো প্রচুর লেখা হয়েছে-সেগুলো চোখে পড়েনি?
  • sm | 233.223.159.253 | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ১৪:২৫648168
  • শিল্পপতি রা বাংলা ছেড়েছে, এতো নির্জলা সত্যি! তবে কিনা টাকা কড়ি পোটলা পুটলি গুটিয়ে নিয়ে গেছে।
    এতে করে তো আর, ধন সম্পত্তি বিলিয়ে দেওয়া যায় নি।
  • . | 24.99.204.49 | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ১৪:৩৭648169
  • sm এই ভাবেই আইন করে, গায়ের জোরেই ইন্দিরা গান্ধী ব্যাংক আর কয়লাখনি রাষ্ট্রীয়্করণ করেছিলেন যার ফল ভালই হয়েছে দেশের পক্ষে।
  • Ekak | 24.99.201.186 | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ১৪:৫২648170
  • ইগালিতেরিয়ানিস্ম জুলুমবাজি ছাড়া হয় নাকি ? ইগালিতেরিয়ানিস্ম মানেই ইতিহাসের জুলুমবাজি কে বর্তমানের জুলুমবাজি দিয়ে লেভেল করার চেষ্টা ।
  • de | 69.185.236.51 | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ১৬:০৯648171
  • আমি তো টাটা বাদ্দিয়ে আর কোন বিজনেস হাউসগুলোকে ফিলানথ্রপিক পারপাসে কিছু খচ্চা করতেই দেখি না - বাকিদের থেকে জুলুম্বাজি করে কেড়ে নেওয়াই উচিত। একজনের অজস্র আর বাকিদের কিছুই নাই - এটাই বা কি ধরণের সভ্যতা?

    তেভাগাকে দুর্ভাগা বলার মধ্যেই এসেমের দৃষ্টিভঙ্গী ধরা পড়ছে!
  • . | 192.66.11.199 | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ১৬:৩৩648172
  • এঁকে মনে হয় যেভাবেই হোক প্রমাণ করতেই হবে যে প্রি-দিদি সবকিছুই খারাপ ছিলো। এই ধরণের দাবী করার মত লোকজন এক একটা ফেজ এ খুব দেখা যায়।
  • quark | 24.139.199.12 | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ১৬:৫৭648173
  • আর এক দল প্রজাদের কল্যাণ মূলক কাজ যেমন স্কুল প্রতিষ্ঠা, পুকুর কাটা ইত্যাদি জনহিতকর কাজ করত।

    -----------------------------------

    জমি-জিরেত কেড়ে নিয়ে লেখাপড়া করতে পাঠানোর বন্দোবস্ত। বুদ্ধি আছে বলতে হবে। এই জন্যেই বলে কারো ভালো করতে নেই।

    সে যাই হোক এই ব্যবস্থাটা অনেকটা ""বৃটিশ আমলে রেল চালু হয়েছে" কিম্বা "ইউরোপীয়রা না এলে তো সভ্যতাই আসত না" - এইরকম স্কুল।
  • sm | 233.223.159.253 | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ১৮:০২648174
  • আমি তো টাটা বাদ্দিয়ে আর কোন বিজনেস হাউসগুলোকে ফিলানথ্রপিক পারপাসে কিছু খচ্চা করতেই দেখি না - বাকিদের থেকে জুলুম্বাজি করে কেড়ে নেওয়াই উচিত। একজনের অজস্র আর বাকিদের কিছুই নাই - এটাই বা কি ধরণের সভ্যতা?
    ----
    @de , কড়া সাচ বলেছেন। ধন্যবাদ। কোনো দল কেই ডান- বাম নির্বিশেষে এই রকম কথা বার্তা বলতে শুনিনি। বা আন্দোলন করতে দেখিনি।

    গায়ের জোরেই ইন্দিরা গান্ধী ব্যাংক আর কয়লাখনি রাষ্ট্রীয়্করণ করেছিলেন যার ফল ভালই হয়েছে দেশের পক্ষে।
    ----
    @ফুটকি ,আম্মো তো এই নীতির সমর্থন করি। তবে অধিকাংশ ব্যক্তি মালিকানাধীন ব্যান্ক তখন গ্রাহকের টাকা চুরি করত আর কয়লা খনি লাভদায়ক ছিল না। যদি জোর করে লাভদায়ক সংস্থা গুলি কে ইন্দিরা গান্ধী, কোনরকম ক্ষতিপূরণ না দিয়ে অধিকার করে থাকেন, তাহলে ঘোরতর অন্যায় করেছেন।

    জমি-জিরেত কেড়ে নিয়ে লেখাপড়া করতে পাঠানোর বন্দোবস্ত। বুদ্ধি আছে বলতে হবে। এই জন্যেই বলে কারো ভালো করতে নেই।

    সে যাই হোক এই ব্যবস্থাটা অনেকটা ""বৃটিশ আমলে রেল চালু হয়েছে" কিম্বা "ইউরোপীয়রা না এলে তো সভ্যতাই আসত না" - এইরকম স্কুল।
    -----

    quark আমি কোনো রকম প্রি ফিক্সড আইডিয়া নিয়ে আলোচনা করছি না। আমারমনে হয় এখানে অনেকের মনে জমির মালিক মানে সমাজের শত্রু, জমিদার মানেই খারাপ, ব্রিটিশরা না এলে জাপানিরা রেল নিয়ে আস্ত; এই সব ধারণা গজাল মেরে ঢুকিয়ে দেওয়া হয়েছে।
  • Ekak | 24.99.201.186 | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ১৮:২৭648175
  • গজাল তো বটেই । প্ল্যানার মানেই সবাইকে একসঙ্গে ধরে গজাল মেরে দেওয়া ।
  • sm | 233.223.157.152 | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ১৮:৩৩648177
  • ইগালিতেরিয়ানিস্ম জুলুমবাজি ছাড়া হয় নাকি ? ইগালিতেরিয়ানিস্ম মানেই ইতিহাসের জুলুমবাজি কে বর্তমানের জুলুমবাজি দিয়ে লেভেল করার চেষ্টা ।
    ---
    একক কে "ক"।
  • cm | 127.247.113.187 | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ১৯:৩২648178
  • তো ইতিহাসের জুলুমবাজিকে ছেড়ে দেওয়া হবে নাকি? শাহবাগ থেকে এই শিখলেন! ঢিলটি মারলে পাটকেল খেতেই হবে আজ নয় কাল।
  • sm | 233.223.159.253 | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ১৯:৫৫648179
  • জোতদারের জায়গায় ক্ষীর খেয়েছে বা খাচ্ছে বর্গাদার আর কিছু রাজনৈতিক নেতা। তাহলে তাদের ঢিল মারুন, পাটকেল ছোড়েন; এই অনন্ত লুপ চলতে থাকুক ।
  • ranjan roy | 24.97.185.119 | ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ২৩:৩৪648180
  • sm,
    অনন্ত লুপ তো চলবেই। মানুষ একধরণের শোষণ বন্ধ করবে, আর এক ধরণের শোষণ শুরু হবে। তার জন্যে যারা ভুক্তভোগী তারা তো লড়বে।
    (cm বোধহয় আগের পোস্টে এইরকমই কিছু বলতে চেয়েছেন।)
    একটু অন্যভাবে বলি। আমি Disaster Management নিয়ে ঘটনাচক্রে সামান্য পড়া করতে গিয়ে দেখলাম যে রাঢ়বাংলা থেকে হাতির পাল ঝারখন্ড হয়ে ছত্তিশগড়ের সরগুজায় যখন ঢুকছে ( এটা ওদের অনেক পুরনো করিডোর) তখন লোকালয়ে গ্রামে গঞ্জে ঢুকে ক্ষেতখামার/ঘরবাড়ি/ পশু/মানুষ সব নষ্ট করে দিচ্ছে। এটা কয়েক বছর ধরে বেশি হচ্ছে। আগে হত না। কেন?
    ইদানীং মানুষ বন কেটে বসত করতে গিয়ে ব্যাপক হারে হাতিদের বাসস্থান সাফ করে ওদের উদ্বাস্তু করেছে। ফলে হাতিরা এখন গাইছে--" কারা মোর ঘর ভেঙেছে স্মরণ আছে"। স্বাভাবিক।
    দেখুন, শিল্প/ব্যাংক ও কৃষিতে সামান্য তফাত আছে।
    শুধু বঙ্গে নয়, গোটা পৃথিবীতে।
    কিছু লোক , পরিশ্রমে নয়, বাপ-পিতেমোর থেকে বেশ কিছু কৃষিজমির মালিক হল; জন্মসূত্রে। এত জমিন যে আবাদ না করে পতিত করে ফেলে রাখে। শুধু খাজনা খেয়ে গড়িমসি করে জীবন কাটায়। সমাজ বা উত্পাদন ব্যবস্থা গতিহীন। সেখানে বাড়তি জমি ভূমিহীনদের বিলিয়েদিলে তারা স্বাভাবিক ভাবেই উৎপাদনের জন্যে অনুপ্রাণিত হবে।
    নীট লাভ= গোটা সমাজের খাদ্য সুরক্ষা বৃদ্ধি + বেশ কিছু নিরন্ন লোকের সম্মানের সঙ্গে দুবেলা ভাতের সংস্থান= সামাজিক প্রগতি।
    এর জন্যে মার্ক্সের দরকার নেই। রবীন্দ্রনাথের বাংলার কৃষি ও কৃষক নিয়ে লেখাগুলো যথেষ্ট।
    আর আলফ্রেড মার্শাল নিজে রেন্টিয়ার ইনকামের ক্ষতিকর দিক নিয়ে কড়া সমালোচনা করে গেছেন।
    সামন্তবাদের ধর্ম=উপভোগ+ জড়তা।
    পুঁজিবাদের ধর্ম= মুনাফা+ পুঁজি সঞ্চয় ও বৃদ্ধি= সামাজিক জড়তা কাটিয়ে গতিবৃদ্ধি এবং বিজ্ঞান ও টেকনোলজি।

    তাহলে জমিদারের বাড়তি জমি আইন করে জব্দ করা কেন ভুল?
  • sm | 233.223.155.71 | ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ২৩:৫৯648181
  • রঞ্জন বাবু; সব কিছু ক্লিয়ার হলো না। আপনি ও পূর্বে পিটি বাবু রবীন্দ্রনাথের উদাহরণ দিলেন। আপনি বললেন তার কৃষি ও কৃষক নিয়ে লেখা গুলো পড়তে আর পিটি স্যার দুই বিঘা জমি। কিন্তু বাস্তব কথা হলো রবি বাবু নিজে এক জন জমিদার। উনি কি প্রজবত্সল ছিলেন না লাঠিআল পাঠিয়্র জমি দখল করতেন?
    সম্ভবত প্রজাবত্সল ছিলেন ধরে নেওয়া যায়। তাহলে জমিদার মাত্রেই লুঠেরা এই ধারণা তা গজাল মেরে ঢোকানো হলো কেন?
    প্রসঙ্গত আমি আগেই বলেছি জমিদারী প্রথা বিলোপ ও জমির সিলিং এ আমার কোনো আপত্তি নেই।
    আমার আপত্তির বিষয় হলো আইন করে জোর করে কিছু কেড়ে নিয়ে বিলিয়ে দেওয়া। কারণ জমির মালিক ছিল কোনো ব্যক্তি। সরকারের বাপের জমি ছিল না। সরকার কোনো ক্ষতিপূরণ দেবার প্রয়োজন বোধ করেনি কেন?
    আবার বলি প্রচুর জিনিস আছে যা করলে ভালো হত। যেমন কালো টাকা উদ্ধার, ধনী (যাদের বাড়ির দাম বিলিয়ন ডলার) ব্যক্তির ধন কেড়ে গরীব মানুষ কে দিয়ে দেওয়া, পাঁচ তারা হোটেলে বস্তিবাসী দের রাত্রি যাপন করতে দেওয়া, ইত্যাদি ।
    বাস্তবে এগুলো হয়েছে কি?
    গ্রাম বাংলায় যে সুখভোগ করত জমিদার জোতদারেরা, পরবর্তী কালে সেই টাকা পয়সা নিয়ে সুখভোগ করেছে বর্গাদার ও রাজনৈতিক নেতারা।
    এতেই ক্ষান্ত হয়নি, ফসলের ভাগ দেয় নি, দরকার পড়লে অন্যের জমির ধান নষ্ট করেছে, পুকুরে ফলিডল মিশিয়ে দিয়েছে, এই সব।
    মোট কথা মাত্স্যন্যায় আরো জাঁকিয়ে বসেছে প ব তে।
  • ranjan roy | 24.97.185.119 | ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ০১:০১648182
  • SM,
    সেটাই তো কথা। রবীন্দ্রনাথ নিজে জমিদার হয়েও সেই সিস্টেমের বিরুদ্ধে ছিলেন। শুধু "দুই বিঘা জমি" কবিতাই নয়, কৃষি ও ভূমি ব্যবস্থা নিয়ে ওঁর প্রবন্ধগুলো পড়তে অনুরোধ করছি। আর ওনার বন্ধু প্রমথ চৌধুরীর "রায়তের কথা"।

    আপনি আমার বক্তব্যের মূল সুরটি ধরতে পারেন নি। প্রশ্নটা কোনো জমিদার চাষীদের ঠ্যাঙাচ্ছেন কি না, আদৌ তা নয়। সে তো ব্যক্তি জমিদারের ভালো বা মন্দ হওয়ার প্রশ্ন।
    আসল হল সিস্টেম হিসেবে সামন্ততন্ত্রের বা জমিদারীর যৌক্তিকতা বা সমাজের লাভপ্রদতা ইত্যাদির।; ব্যক্তি জমিদারের নয়।
    আচ্ছা, যদি জমির মালিক রাষ্ট্র না হয়ে ব্যক্তিমাত্র হয়, তাহলে জমির মালিক রাষ্ট্রকে খাজনা দেয় কেন? খাজনা তো ভোগদখলের সত্ত্বে ভোগকারী আসল মালিককেই দেবে, তাই তো?
    প্লীজ, আমার কথাটা অন্যভাবে নেবেন না। আমি আসলে আপনার সঙ্গে আলোচনা/তর্ক/বিমর্শ করে নিজের লালিত ধারণাগুলোকে একটু ঝালিয়ে নিচ্ছি মাত্র। আমি খুব জানি, এমন ভাবি না।
    আপনি ক্লান্তিকর সিপুএম-তিনো লুপের বাইরে থেকে শুধু কনসেপ্ট নিয়ে কথা বলছেন, তাই ভালো লাগছে।
  • sm | 233.223.159.253 | ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ১২:০৭648183
  • RR , রবীন্দ্রনাথের কথা নিয়ে বেশি কচ কচি করতে চাই না। তিনি জমিদারী শোষনের বিরুদ্ধে লিখেছেন কিন্তু নিজে জমিদারী ছাড়েন নি।
    আপনার মতে সিস্টেম চায়, জমিদারী প্রথার বিলোপ;আম্মো তাই চেয়েছি।
    আর জমির মালিক কে, এটা অতি কূট প্রশ্ন।
    সরকার কে যেমন খাজনা দিতে হয়, তেমনি কারো জমি তে তেল বা খনিজ পাওয়া গেলে, সরকার কে বোধ হয় রয়ালটি দিতে হয়।
    আপনার জমি তে সরকারী অফিস হলে, সরকার কে ভাড়া দিতে হবে। এটা একটা আইনি সহাবস্থান।
    গ্রাম বাংলায় বর্গাদারী ব্যবস্থা চালু করার পর শোষণ চিত্র টির ব্যাপক পরিবর্তন হয় নি।
  • ranjan roy | 131.245.147.252 | ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ১৫:০২648184
  • sm,
    কিছু মনে করবেন না।
    আপনার "আর জমির মালিক কে, এটা অতি কূট প্রশ্ন।" বক্তব্যটি একেবারেই ঠিক নয়।
    ল্যান্ড রেভিনিউ অ্যাক্টে এগুলি স্পষ্টঃ সমস্ত জমির আসল মালিক রাষ্ট্র। তাই চাষের জমিই হোক, কি শহুরে বাসভূমি-- সর্বত্র সরকারকে জমির অবস্থান, গুণাগুণ হিসেবে সরকার দ্বারা নির্ধারিত ট্যাক্স দিতে হয়। একতরফা।
    আমরা বিভিন্ন জমির মালিকরা আসলে বিভিন্ন সত্ত্বাধিকারী। কৃষি সত্ত্ব, জোতদারি সত্ত্ব, জমিদারী সত্ত্ব ইত্যাদি।
    তাই রাষ্ট্রের স্বার্থে , ধরুন জমির নীচে কয়লা, পুরাতাত্ত্বিক অবশেষ, রাস্তা, রেললাইন, নগরনির্মান আদি কারণে সরকার কিছু ক্ষতিপুরণ দিয়ে জমি নেয়।
    আর আমার জমিতে বাড়িটা যদি সরকার অফিসের জন্যে ভাড়া নেয় তবে তারা বাড়ির জন্যে ভাড়া দেয়, স্কোয়ার ফুট মেপে। আদৌ জমির জন্যে নয়। তাই সেই সরকারি অফিসের জন্যে যেমন ভাড়া পাবো, তেমনিই যে জমিটার ওপর বাড়ি দাঁড়িয়ে তার জন্যে সরকারকে খাজনা দেবো।

    বর্গাদারী ব্যব্স্থায় অবশ্যই অন্ততঃ এক দশকের জন্যে শোষণের প্রক্রিয়া এবং অনুপাত বদলেছে। ফলে কৃষি উৎপাদন বেড়েছে।
  • sm | 233.223.159.253 | ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ১৭:১৩648185
  • RR , ব্যাপার টা সোজা নয়। আমি অতি বিলক্ষণ জানি, আপনার জমির নিচে খনিজ পাওয়া গেলে সরকার জমি অধিগ্রহণ করতে পারে।কোনো কারখানা করতে গেলেও (যেমন সিঙ্গুর) জমি কেড়ে নিতে পারে।
    আমার ব্যক্তব্য ছিল এটি আইনি সহাবস্থান। কারণ আমি পয়সা দিয়ে সরকারের কাছ থেকেই জমি কিনেছি।সরকার ই আমাকে মালিকানা বা সত্বাধিকার দিয়েছে।
    আবার সরকার চাইলেই কেড়ে নিতে পারে না । যেমন এখন টাটা দের কাছ থেকে পারছে না।
    অর্থাত যে জমি সরকার কেড়ে নিয়েছিল; সে জমি ই এখন কেড়ে নিতে পারছে না। অত এব এটি কূট প্রশ্ন।
    আমার ইন্টারেস্ট কিন্তু জমির মালিকানা নিয়ে নয় বা জমি সরকার কতৃক কেড়ে নেওয়া তেও নয়।
    উপযুক্ত কমপেনসেশন দেওয়া হচ্ছে কিনা সে নিয়ে।
    তা জমি জোতদারের ই হোক, রাজার হাটের কৃষকেরই হোক বা শিল্পপতিরই হোক।
  • ঢপেশ্বর ঢোল | 192.66.14.5 | ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ২২:২৩648186
  • sm কেসটা ভালো করে লড়ুনতো। এরা দেখছি জমিদারির কোন স্কোপই রাখবেনা।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। ঠিক অথবা ভুল মতামত দিন