এই সাইটটি বার পঠিত
ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • খেরোর খাতা

  • পাশা-বিক

    abhisek bose লেখকের গ্রাহক হোন
    ১২ জুন ২০২৪ | ৩৪৯ বার পঠিত | রেটিং ৫ (২ জন)
  • "শকুনির পাশাতে যে কূট কৌশল নিহিত আছে তা আমারই, আপনার পাশাতে যে কূটতর কৌশল আছে তাও আমার। ধর্মরাজ, এই তৃতীয়দ্যূতসভায় বস্তুত আমিই উভয় পক্ষ। আপনি আর শকুনি নিমিত্তমাত্র।"  (—তৃতীয় দ্যূতসভা, পরশুরাম) 
                                   _________

    আমাকে গানের ওপারে দাঁড় করিয়ে, মানে ঐ গান-পয়েন্টে রেখেও যদি জিজ্ঞেস করা হয় — 'এগারো জন সাম্প্রতিক ক্রিকেটারের নাম বল্ , আর বাড়ি ফিরে যা। তাহলে আমার আর্জি হবে —তিনটে বললে হবে না কাকু !? মানে গ্রুপে পাশ করে, যদি পায়ে গুলি করে ছেড়ে দেওয়া যায় !
                         
    অজয় জাদেজার ফ্যান ছিলাম আমি। উফফ্, কী দারুণ স্টাইলিশ প্লেয়ার ছিল! শুধু খেললেই হবে না, যার উপস্থিতিতে গোটা মাঠ চনমনে হয়ে উঠে, তার ব্যাপারটাই আলাদা। আমি ফুটবল খেলতাম আর অজয় জাডেজার জন্য ক্রিকেট দেখতাম। ৯৯ এর ম্যাচ ফিক্সিং আমার সবথেকে পছন্দের ক্রিকেটার আজীবন নির্বাসিত হয়ে গেল। আর কোনোদিন ক্রিকেট খেলাটাই দেখিনি।  
    'If it's scripted it's not sports' 

                             ___________________

    তৃষানজিৎ-এর সাথে বছর পনেরো পর আবার দেখা হয়েছিল হঠাৎ করে। বাগডোগরা এয়ারপোর্ট থেকে বেরিয়ে চোখে পড়েছিল, ব্যাটা ইউনিফর্মে ঘুরে বেড়াচ্ছে। আমার ছোট্ট বেলার স্কুলের বন্ধু। ইন্ডিয়ান এয়ারফোর্সে ছিল। মাঝে অনেক মনোমালিন্য পেরিয়ে গেছে। আধ ঘন্টা আড্ডা দিয়েছিলাম। তার মাঝেই শুনলাম — ও নাকি অনেক টাকার বেটিং করে। আমি কোনোদিনও জানতেই পারতাম না, যে ও অ্যাতো সুন্দর চিঠি লিখতে জানতো। সুইসাইড নোটটা পড়ে মনে হয়েছিল, যেন ক্লাবে আড্ডা দিতে দিতে ইয়ার্কি করছে। 

                            __________________

    আপনার পছন্দের নায়ক, নায়িকা, গায়ক, গায়িকা, স্পোর্টস্টারদের মধ্যে সবথেকে বড় মিল কোথায় জানেন? হাতে গোনা কয়েকজন বাদে এরা সবাই চায়, যে আপনি বড়লোক হয়ে যান। এক্ষুণি হয়ে যান। খেলতে খেলতে হয়ে যান। আর কীভাবে হবেন, সেটা দু'মিনিটে ম্যাগি সেদ্ধ হতে হতেই আপনাকে বুঝিয়ে দেওয়ার জন্য এরা নিজেদের সব কাজ, খেলাধূলা ছেড়ে প্রতি ঘন্টায়, প্রতি মূহুর্তে ইলেকট্রনিক মিডিয়াতে এসে জলের মতো সহজ করে আশীর্বাণী বিতরণ করেই চলেছে। পুরোটাই একটা সেবার মনোভাব নিয়ে। আপনার পছন্দের সেলিব্রিটির নাম ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি হোক অথবা বাইশ গজের ভগবান। মাথা ঠান্ডা হোক অথবা মাথা গরম। রাজ্যের আইকন হোক অথবা বাইকম। লড়াই করে উঠে আসা উত্তরপূর্ব ভারতের বক্সিং চ্যাম্পিয়ন হোক অথবা অভিজাত বাড়ির সন্তান কিম্বা অলিম্পিক পদক বিজেতা। যাকে আমরা দেশের গর্ব বলে মাথায় তুলে নেচেছি, সবাই এই মহান সেবামূলক কাজে নেমে গেছে (নেমে গেছে - তে একটু নোট নিবেন হুজুর)। 

    আপনি শুধু অল্প কিছু টাকা লাগবেন আর এগারোটা নাম বেছে নিবেন, ব্যস! বাকিটুকু ওরাই করে দিবে। আর তারপরেই হাতে হাতে টাকা। 
                            
    এর নাম ফ্যান্টাসি স্পোর্টস। এটা আপনার ঐ চোরাগলির আধা অন্ধকার ক্লাব ঘরের ইন্তি বিন্তি তাসের জুয়া নয়। টিফিন বক্সে করে গোপনে নিয়ে যাওয়া ক্রিকেট বেটিং নয়। এমনকি হালফিলের মোবাইলে বুকিদের সাথে কথা বলা কিম্বা জঙলি রাম্মি-র মতো জঙলিপনা নয়। এ হলো একদম স্বপ্নের মতো নরম তুলতুলে ফ্যান্টাসি স্পোর্টস। আপনি ঘরে বসে বসে টিম সাজাবেন আর কোটি কোটি টাকা পেয়ে যাবেন। এটা কিন্তু জুয়া নয়। কেননা আইন বলছে Game of luck হলো জুয়া । আর ফ্যান্টাসি স্পোর্টস হলো Game of Skill  । কে বলছে এই কথা ?
    আইন, আদালত, এমনকি আপনার পছন্দের স্পোর্টস্টার।
    এই খেলা খেলতে  আপনাকে পরিসংখ্যান জানতে হবে, প্লেয়ারদের ফিটনেস সম্বন্ধে জানতে হবে, বিস্তর মাথা খাটিয়ে টিম সাজাতে হবে, স্ট্র্যাটেজি বানাতে হবে । তারপর!? তারপর জিতে গেলেই নগদ পুরস্কার । 

    তাস খেলতেও বিস্তর বুদ্ধি লাগে, প্রচুর পরিসংখ্যান মাথায় রাখতে হয়। একই যুক্তিতে পয়সা দিয়ে তাসের খেলা হলে এই নিয়ম মানা হবে? নাহ্ । 

    আসলে সব খেলাতেই অল্প বিস্তর ভাগ্য থাকে। দাবাতে সাদা ঘুটি নিয়ে খেলা শুরু করা হোক অথবা ক্রিকেটের টস্। আবহাওয়া আর পিচ দেখে বোলিং না ব্যাটিং এগুলো নিশ্চয়ই স্কিল নয়। তাই ঠিক কতটা স্কিল আর কতটা ভাগ্যের অনুপাত ঠিকঠাক মিললে গেমিং (জুয়া ) বলা হবে কিম্বা স্পোর্টস বলা হবে, সেটা ঠিক হবে রাজস্ব আদায়ের উপর। বিনিয়োগের উপর। বাকিটুকু সাদা-কালোর মাঝখানের আবছায়া হয়ে থেকে যাবে। 

    নীতি আয়োগের হিসেব বলছে ফ্যান্টাসি স্পোর্টসে দশ হাজার কোটি টাকা foreign direct investment আর পনেরো হাজার কোটি টাকার tax revenue উপার্জনের সুযোগ রয়েছে (মানে কত টাকার খেলা হবে একটু হিসেব করে নিন) । অতএব পাতন প্রণালী দ্বারা সমস্ত সংশয়কে বাষ্পীভূত এবং পুনরায় ঘনীভূত করে প্রমাণিত হইল , ইহা একটি বিশুদ্ধ ক্রীড়া। 

    তবে বেশ কিছু রাজ্য অবশ্য নিজস্ব সিদ্ধান্তে এখনও ফ্যান্টাসি স্পোর্টসকে জুয়া বলে মনে করে। সেখানে ফ্যান্টাসি আর সমস্ত অনলাইন স্পোর্টস বেআইনি। বাকি রাজ্যগুলো উদাস নয়নে চিতল হরিণের মতো আকাশ পানে চেয়ে আছে । যেন আকাশ থেকে বৃষ্টি পড়লে আমরা কীই বা করতে পারি! সে'সব রাজ্যের লাখ লাখ ছেলেমেয়েরা আইপিএল শুরু হলে নিজেরাও মোবাইল হাতে অফিসের মাঝে, ব্যবসার জায়গায় কিম্বা বেকার বটতলার বাঁধানো বেদীতে বসে খেলতে নেমে যায়। স্বপ্নের টিম তৈরী করে, সত্যিকারের টাকা দিয়ে স্বপ্নের টাকার খোঁজ করে। তারপরে স্বপ্ন ভেঙে গেলে আবার নতুন করে স্বপ্নের টিম বানাতে শুরু করে। 

                                 __________

    দু' - পাঁচ হাজার হাতে চলে এলেও দিনের শেষে জুয়া খেলতে নেমে কেউ জেতে না। আর জুয়ার টেবল যে বসায়, সে কোনোদিনও হারে না। অনেক দশক আগেই একজন রসায়নবিদ সাহিত্যিক লিখে গিয়েছেন — "শকুনির পাশাতে যে কূট কৌশল নিহিত আছে তা আমারই, আপনার পাশাতে যে কূটতর কৌশল আছে তাও আমার। ধর্মরাজ, এই তৃতীয়দ্যূতসভায় বস্তুত আমিই উভয় পক্ষ। আপনি আর শকুনি নিমিত্তমাত্র।" 

    — অভিষেক
       ( মে ' ২০২৩ ফেসবুক পোস্ট পুনঃপোস্টিত) 
    পুনঃপ্রকাশ সম্পর্কিত নীতিঃ এই লেখাটি ছাপা, ডিজিটাল, দৃশ্য, শ্রাব্য, বা অন্য যেকোনো মাধ্যমে আংশিক বা সম্পূর্ণ ভাবে প্রতিলিপিকরণ বা অন্যত্র প্রকাশের জন্য গুরুচণ্ডা৯র অনুমতি বাধ্যতামূলক। লেখক চাইলে অন্যত্র প্রকাশ করতে পারেন, সেক্ষেত্রে গুরুচণ্ডা৯র উল্লেখ প্রত্যাশিত।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • kk | 172.58.242.148 | ১২ জুন ২০২৪ ২০:১০533073
  • ভালো লাগলো। আপনার লেখার স্টাইল আর বিষয় দুটোরই প্রশংসা করছি। বিশেষতঃ তৃষানজিতের গল্পের শেষ লাইনটা অসাধারণ লাগলো।
  • Naresh Jana | ১৪ জুন ২০২৪ ২০:৩২533167
  • একদমই। যখন আইপিএল শুরু হল তখন কী বলা হয়েছিল? গ্রাম গঞ্জ থেকে প্রতিভাবান ক্রিকেটার উঠে আসবে। নাদুস নুদুস ছেলেদের নিয়ে বাপ মা দৌড়ালো ক্রিকেট কোচিং। ঘরে ঘরে ধোনি! না, এখন ঘরে ঘরে জুয়া স্যরি বেটিং। না, আবারও ভুল হল ঘরে ঘরে ক্রিকেট!
  • অভিষেক বোস | ১৬ জুন ২০২৪ ০৯:২১533289
  • @ kk 
    আপ্লুত হলাম। তৃষাণজিৎ নামটুকু শুধু কল্পনা বাকিটুকু সত্যি। জুয়ার দুনিয়ায় জুড়ে গিয়ে, অসময়ে ওর মতো কত তরতাজা ছেলেরা চলে গেল... 
  • অভিষেক বোস | ১৬ জুন ২০২৪ ০৯:২৩533290
  • @ Naresh Jana 
    যেদিন থেকে খেলার মাঠে রঙীন আলো ঢুকেছে, খেলার মাঠ বিচিত্রানুষ্ঠানের স্টেজ হয়ে গেছে। 
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। মন শক্ত করে মতামত দিন