এই সাইটটি বার পঠিত
ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • পাতা :
  • Blank | 24.96.36.110 (*) | ২৯ মার্চ ২০১৫ ০৬:০৩87000
  • গোপাল পাল কে একখানি ক এবং খান কয়েক লাইক দিলাম।
  • d | 144.159.168.72 (*) | ৩০ মার্চ ২০১৫ ১০:১৯87001
  • হুঁ গোপাল পালের বক্তব্য খুবই ভাল লাগল।
  • সোমনাথ | 125.118.159.214 (*) | ০৫ এপ্রিল ২০১৫ ১০:২০87002
  • সবাইকে মতামতের জন্য ধন্যবাদ। আসলে আমার আগেই হয়ত এখানে লেখা উচিৎ ছিল। যাই হোক, এই লেখাটা ২০১১-র শুরুর দিকের। চারবছর আগেকার এবং এর অনেক জিনিসের সঙ্গে আমি এখনও সহমত নই, তাও লেখাটা তোলার সিদ্ধান্তে আপত্তি জানাই নি কারণ ইন্দো-পাক, ইন্দো-বাংলা, ইন্দো-অস্ট্রেলিয়া প্রভৃতি বিশ্বকাপ উত্তেজনার মুখে 'দেশ' নিয়ে কিছু আলোচনা হোক চাইছিলাম।

    আমার কয়েকটা ভিন্নমতের জায়গা বলে যাই এখানে, সেগুলোও বিতর্কিত নয় এরকম না। তবে লেখার সময় সেগুলো জানা ছিল না।

    ১) অহিংসার ঐতিহাসিক ভিত্তি কখনওই ব্রাহ্মণ্য ধর্ম নয়, বরং জৈনধর্ম। এবং নিজেদের বিশ্বাসের জায়গায় মাটি কামড়ে থেকে জৈনরা ব্রাহ্মণ ও বৌদ্ধদের হাতে প্রচুর অত্যাচারিত হয়েছেন
    ২) শূদ্রভারত বলতে যা বুঝছি, তার একটা বড় অংশই মারখাওয়া জৈন ও বৌদ্ধদের বংশধর। লেখাটা যখন লিখি তখনও কুমারিল, মিহিরিকুল ইত্যাদির কীর্তি সম্বন্ধে সম্যক জ্ঞাত ছিলাম না। তবে ভারতের ইতিহাস গণহত্যার ইতিহাস নয় ভাবলে ভুল ভাবব বলে এখন মনে হয়।
    ৩) ব্রাহ্মণ্যধর্মের আগ্রাসনের জলজ্যান্ত উদাহরণ বাংলা। সেন রাজাদের আমলে রাজনৈতিক-সাংস্কৃতিক আগ্রাসনে পুরো বাংলার ভাষা-সংস্কৃতি-ধর্ম-সমাজব্যবস্থা সবই পালটে ফেলা হয়।

    কিন্তু তা স্বত্ত্বেও, নিবৃত্তি ও নির্বাণের মধ্য দিয়ে কমোডিটি ফেটিশের অর্থনীতির একটা বিকল্প তৈরি হয়েছিল এদেশের ইতিহাসে, এরকমটা মনে করি।
  • তাপস | 126.202.216.85 (*) | ০৬ এপ্রিল ২০১৫ ০৭:০৪87003
  • মূল লেখাতে সোমনাথ লিখছে, "অথচ এক আছে কারণ কোনও এক অন্তর্নিহিত ঐতিহ্য তাকে 'কী করিতে হইবে' বলে দিচ্ছে- বংশ পরম্পরায় শূদ্র বিন্দুমাত্র রক্তপাত না ঘটিয়ে সেবা করে যাচ্ছে তিন উচ্চবর্ণের।"

    এই লেখার উত্তর প্রতিক্রিয়ায় সোমনাথ লিখছে, "নিবৃত্তি ও নির্বাণের মধ্য দিয়ে কমোডিটি ফেটিশের অর্থনীতির একটা বিকল্প তৈরি হয়েছিল এদেশের ইতিহাসে---", লিখছে, "নিজের যাবতীয় দুঃখ কষ্ট স্বত্ত্বেও দলিত পারেনা ব্রাহ্মণের বিরুদ্ধে অস্ত্র ধরতে। কারণ, এর সবগুলোতে নিজেকে বড়ো বেশি পাত্তা দেওয়া হয়ে যায়।"

    পড়ে মনে হচ্ছে যেন এ এক কাঙ্খিত পথ, আরাধ্য রাস্তা বুঝি বা!

    কিন্ত অন্যত্রে, সোমনাথ লিখছে, "ইসলামিক শক্তি ছাড়া ধনতন্ত্রকে প্রতিরোধ দিতে পেরেছে এরকম কিছু আমি অন্ততঃ গত দশ বছরে দেখি নাই।" - লিখনকাল, ৯ অকটোবর, ২০১৪ l
    প্রসঙ্গপ্রেক্ষিত, খাগরাগড় ল
    সেখানেই লেখা হচ্ছে, "তবু রাজিয়া আর আমিনা আমাকে কোথাও আশা জাগান, ওই স্পিরিটটা দেখে মনে হয় পৃথিবী একমাত্রিক হয়ে যাওয়ার আগে ঢের ভুগবে ও ভোগাবে। "

    কোন পথ কমরেড? আজ কোনদিক সাথী কোনদিক বল, কোনদিক বেছে নিবি তুই?

    নাকি এ দুই, একে অপরের পরিপূরক?
  • সোমনাথ | 127.194.193.33 (*) | ০৬ এপ্রিল ২০১৫ ০৭:০৮87004
  • দুটোই-
    যে যেখানে লড়ে যায় আমাদেরই লড়া। এরকম।
  • pi | 24.139.221.129 (*) | ০৬ এপ্রিল ২০১৫ ০৭:০৯87005
  • এই প্রশ্নটার জন্য অপেক্ষা করছিলাম। ঃ) দেখি, সোমনাথ কী উত্তর দ্যায় ঃ)
    একাধারে আর এস এস ও জামাতপন্থী বলে অভিহিত হতে খুব কম জনকেই দেখেছি ঃ)
  • Atoz | 161.141.84.175 (*) | ০৬ এপ্রিল ২০১৫ ০৭:১৭87006
  • কেন, সুবিধাপন্থী!!!!
    যখন যেমন তখন তেমন। ঃ-)
  • সোমনাথ | 127.194.193.33 (*) | ০৬ এপ্রিল ২০১৫ ০৭:১৯87007
  • ওই মহাবীরের হাতিটা- কেউ শুঁড় দেখছে, কেউ পা, কেউ দাঁত। কিন্তু সবাইই তো হাতিটাকে দেখছে। ফলে যতক্ষণ জিনিসটা লোভ ও ভোগের অর্থনীতির বিরোধিতা, সেটা যেভাবেই হোক আমি তার পক্ষে।
  • তাপস | 126.202.216.85 (*) | ০৬ এপ্রিল ২০১৫ ০৭:২২87008
  • যেeভাবেই হোক, মানে, পথের কোনো দাম থাকছে না?
  • কল্লোল | 125.242.167.160 (*) | ০৭ এপ্রিল ২০১৫ ০২:৫৯87009
  • এই জায়গাটা বুঝলাম না। "শূদ্রভারত বলতে যা বুঝছি, তার একটা বড় অংশই মারখাওয়া জৈন ও বৌদ্ধদের বংশধর।" জৈন বা বৌদ্ধ তো অনেক পরেকার বিষয়। প্রাগার্য ভারত তো একদিকে হরপ্পা-লোথাল, অন্য দিকে দ্রাবিড় ও নানান আদিবাসীসমূহের ভারত। এরাই কেউ কেউ আর্য পরবর্তী ভারতে আর্যদের সাথে মিলে মিশে গেছেন আর যারা বাইরে থেকেছেন তারাই শূদ্র নামে অভিহিত হয়েছেন। এই নিম্নবর্গ তাদের বাঁচার তাগিদে বৌদ্ধ-জৈন ও পরে মুসলমান হয়েছেন।

    সাম্রাজ্যবাদের বিরোধীতা ইসলাম কোনভাবেই করে না। হ্যাঁ, আমেরিকার বা পশ্চিমের বিরোধীতা করে। ইসলাম নিজেই সাম্রাজ্য বানাতে চায়। অটোমান সাম্রাজ্য নিয়ে ইসলামপন্থীদের আহা উহু বেশ প্রকট। অটোমান সাম্রাজ্যে অমুসলিমদের অবস্থা মোটেও ভালো ছিলো না।
    ইসলামের পশ্চিমী সাম্রাজ্যবাদ বিরোধীতা আদতে, একটা চালু সাম্রাজ্যবাদকে একটা হবু সাম্রাজ্যবাদের বিরোধীতা মাত্র।

    নানান জায়গায় বিশেষ করে ভারতে ঔপনিবেশিক শাসনের বিরুদ্ধে বিদ্রোহে ধর্ম খুব বড়ো ভূমিকা নিয়েছে। সাঁওতাল বিদ্রোহ, সিপাহী বিদ্রোহ, তিতুমীরের প্রতিরোধ, সিলেটের ও নানান জায়গার কৃষক বিদ্রোহতে ধর্মের ভূমিকা বিরাট। গৌতম ভদ্রের কাজ ইমান ও নিশান দ্রষ্টব্য। শহিদ আমিনের গান্ধী নিয়ে নানান কাজে ধর্ম ও তার সাথে জড়িত অতিকথার ভূমিকা দ্রষ্টব্য। কিন্তু সেগুলো একটা নির্দিষ্ট সময়ে ধর্মের নির্দিষ্ট ভূমিকা। আজ আর ধর্মের ভূমিকা ততো সদর্থক নেই।
  • ranjan roy | 24.99.15.122 (*) | ০৭ এপ্রিল ২০১৫ ১১:০৭87010
  • "ইসলামের পশ্চিমী সাম্রাজ্যবাদ বিরোধীতা আদতে, একটা চালু সাম্রাজ্যবাদকে একটা হবু সাম্রাজ্যবাদের বিরোধীতা মাত্র।"
    --- কল্লোলের এই বক্তব্যকে ক দিলাম।
    মুজতবা আলীও একই ভুল করেছিলেন। পরাধীন ভারতে থেকে বৃটিশ বিরোধী হওয়ায় আফগানিস্তানের মোল্লাদের মধ্যে সাম্রাজ্যবাদবিরোধিতা দেখেছিলেন।
    তাই "দেশে বিদেশে" তে বলেছিলেন যে মোল্লাদের যত দোষই থাক ওরা যে বৃটিশের বিরুদ্ধে সোচ্চার এটার তারিফ করতেই হবে (গোছের)।
    ওগুলো খোমেইনির মার্কিন বিরোধিতার সমতূল্য।
  • ranjan roy | 24.99.15.122 (*) | ০৭ এপ্রিল ২০১৫ ১১:০৮87011
  • কিন্তু এই বিতর্কের ঝোঁকে ভারতের বহুমাত্রিক খোঁজের চেষ্টা যেন হারিয়ে না যায়!
  • dc | 132.164.31.20 (*) | ০৮ এপ্রিল ২০১৫ ০৩:৩৫87018
  • একটা প্রশ্ন মনে এলো। আইসিস, আল শাবাব, এরা ধনতন্ত্রের বিরোধিতা করছে, কেনিয়ার স্কুল টুলে ধনতান্ত্রিকদের মেরে কচুকাটা করে দিচ্ছে আর সাম্রাজ্যবাদীরা ভয়ে হিহি করে কাঁপছে, এটা নাহয় বুঝলাম।

    কিন্তু আইসিস বা জামাত যে মেয়েদের গবাদি পশুর চেয়ে একটু নীচু চোখে দেখে এটাও কি এই লড়াইয়েরই অংশ? নাকি মেয়েদের ব্যাপারটা এমনিতেও ম্যাটার করে না, ওদের যে যেভাবেই ব্যবহার করুক না কেন ধনতন্ত্রের বিরুদ্ধে লড়াই যখন করছে তখন আর কোন চিন্তা নেই? এই ব্যাপারে সোমনাথবাবু বা শাক্যজিত বাবুর ভয়েস পেলে একটু বুঝতে সুবিধে হয়।
  • সোমনাথ | 24.139.194.12 (*) | ০৮ এপ্রিল ২০১৫ ০৬:৩৯87012
  • কল্লোলদা,
    চাতুর্বর্ণ বৌদ্ধযুগের আগে না পরে সে নিয়ে আমার ব্যক্তিগত সন্দেহ আছে। মানে, এই বর্ণাশ্রম ও ব্রাহ্মণ্যধর্মের আওতায় ব্যাপক নিচুতলার মানুষকে এনে ফেলা, সেটা কি মৌর্যযুগের আগেই হয়ে গেছিল? নাকি বৌদ্ধধর্মের মাধ্যমে হয়েছে?
    বাঙ্গার ইতিহাস দেখলে দেখি, সাধারণ মানুষের কাছে বৌদ্ধধর্ম অনেক আগে এসেছিল। ব্রাহ্মণরা প্রায় কালকা যোগী। এবং বাঙালির জাতিভেদ হয়েছে সেনযুগ থেকে, পোস্ট বৌদ্ধ এরায়।
    অবশ্য ইতিহাস সবজায়গায় একরকম, এরকম কখনোই নয়। কিন্তু আমার মনে হয় খুব লিমিটেড অঞ্চল বাদ দিয়ে ব্রাহ্মণ্য ধর্মের পেনিট্রেশন ছিল না, কিন্তু বৌদ্ধধর্ম ঢুকে গেছিল।
    সেই জন্যে বললাম, বৌদ্ধ থেকে যাঁরা হিন্দু ধর্মে এলেন, তাঁদের বেশির ভাগই শূদ্র হয়ে গেলেন।
  • সোমনাথ | 24.139.194.12 (*) | ০৮ এপ্রিল ২০১৫ ০৬:৪০87013
  • ইসলাম ধনতন্ত্রের বিরোধিতা করে বলেই আমার মনে হয়। এককের সঙ্গে কয়েকদিন আগে কথা হচ্ছিল, আইসিস যে অর্থনীতির মডেল আনছে তা ফিঊডাল। ইসলামের মধ্যে ধনতন্ত্রের থেকে ফিঊডালিজমে ঝোঁক বেশি নয় কি?
  • dc | 132.164.92.44 (*) | ০৮ এপ্রিল ২০১৫ ০৬:৫২87014
  • আইসিস, বোকা হারামি, জামাত এসবদের নিয়ে ধনতন্ত্র আর সাম্রাজ্যবাদের বিরোধিতা, লোভ আর ভোগের অর্থনীতির বিরোধিতা, স্টেট লেজিটিমাইজেশন, সাম্যবাদ - এ যেন খিচুড়ির সাথে আলুভাজা, পটোলভাজা, মাছভাজা আর যা মনে আসে ভেজেভুজে খিচুড়ির পাতে পরিবেশন করলেই হলো।
  • সোমনাথ | 24.139.194.12 (*) | ০৮ এপ্রিল ২০১৫ ০৭:০২87015
  • হ্যাঁ, যার যেটা রুচি সেরকম খাবে, সব ভাজাই টেবিলে রাখা থাকল।
  • dc | 132.164.92.44 (*) | ০৮ এপ্রিল ২০১৫ ০৭:০৬87016
  • হুঁ সব ভাজার ভয়েস থাকা চাই।
  • কল্লোল | 125.242.187.247 (*) | ০৮ এপ্রিল ২০১৫ ০৭:২১87017
  • ইসলাম ধণতন্ত্রের বিরোধীতা করছে সামন্ততান্ত্রিক চিন্তার জায়গা থেকে, এই নিয়ে কোন বিরোধীতা নাই।
    কিন্তু বললেই হবে না, করে দেখাতে হবে। ইসলামিক ব্যাঙ্কিং বলে একটা বস্তু চলে। আমি অনেকের কাছে জানতে চেয়েছি, কেউ ঠিকঠাক বলতে পারে নি। সুদ দেবে না, কিন্তু মুনাফার ভাগ দেবে। তাতে কি তফাৎ হচ্ছে গ্রাহকের কাছে। সে কি লগ্নীর বিষয়ে কোন মতামত জানাতে পারে?
    কি ভাবে বাজার ও পূঁজির বিকল্প তৈরী হচ্ছে। আন্তর্জাতিক ব্যবসার ক্ষেত্রে তাদের ভূমিকা কি? এগুলো পরিষ্কার নয়।
    শেষ বিচারে এরা আবার একটা সাম্রাজ্য গড়ে তোলার দিকে যাচ্ছে। যেটা আরেক ধরনের (পুরোনো ধরনের) শোষনের উপর দাঁড়াবে। তাহলে আর এই বিরোধীতায় কার কি লাভ!

    যতদূর মনে পড়ছে ধম্মপদে (বুদ্ধের উপদেশ) বুদ্ধ বলছেন জন্ম দিয়ে ব্রাহ্মণ বা শূদ্র হয় না, কর্ম দিয়ে হয়।
  • b | 135.20.82.164 (*) | ০৯ এপ্রিল ২০১৫ ০৫:১৭87019
  • ইসলামে সুদ নেওয়া বারণ। পাকিস্তানের কিছু স্টাডিতে আছে, সে জন্যে গ্রামের মহাজনরা খাতকদের কাছ থেকে শস্তায় ফসল কিনে নেন, তাদের দিয়ে বিনা মাইনের মজুরীগিরি করান ইত্যাদি।
  • lcm | 118.91.116.131 (*) | ০৯ এপ্রিল ২০১৫ ০৫:২২87020
  • শুনেছি শেয়ার মার্কেটে ট্রেডিং, স্টক কেনা-বেচাও বারণ।
  • d | 144.159.168.72 (*) | ০৯ এপ্রিল ২০১৫ ০৫:৩৬87021
  • কিন্তু ইহুদী নাসারাদের তৈরী ইন্টারনেট ব্যবহার করা বারণ নয়।

    ডিসি, যেখানে অজস্র বাচ্চাকে মেরে ফেলাটা সাম্মাজ্জোবাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধু সেখানে মেয়েদের কথা তুলছেন আপুনি? সনাতন বৈদিক ভারতে যা চমৎকার অবস্থা ছিল সেইরকম কিসু হবে আর কি।

    তবে আপনার প্রশ্নের আদৌ কুনো উত্তর আসে কিনা দেখি।
  • dc | 116.213.198.112 (*) | ০৯ এপ্রিল ২০১৫ ০৬:২৩87022
  • ওরা তো ধনতান্ত্রিক বাচ্চা। ওদের মারলে কিছু না।
  • dc | 132.164.211.66 (*) | ১৪ এপ্রিল ২০১৫ ০৬:২১87023
  • আইসিস এর আরো কিছু ভয়েস পাওয়া গেলঃ

    http://edition.cnn.com/2015/04/14/middleeast/yazidi-sex-slaves-isis-damon/index.html

    কিন্তু এই টইতে আর ভয়েস পাওয়া যাচ্ছে না। সেক্স স্লেভারিও কি ধনতন্ত্রের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের অংশ?
  • Jay | 212.44.241.87 (*) | ২৫ এপ্রিল ২০১৫ ০৭:৪১87024
  • কলনিয়ালিসম এর নানা মাত্রা আছে। এই যে থাইল্যান্ড এ চিয়াং মাই, যা প্রাচীন কালে লানা রাজ্যের রাজধানী ছিল। এখানে বুদ্ধ মন্দির গুলোতে অশোক স্তম্ভ দেখে একটু অবাক হয়েছিলাম।শুধু সিংহল-ই নয়, এই দৌত্য, শিলালিপি, স্তম্ভ এসবের মাধ্যমে তিনি প্রাচীন ভারত কে বিস্তার করেছিলেন সুদুর ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, হয়ে জাপান পর্যন্ত।
  • পাতা :
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। লড়াকু প্রতিক্রিয়া দিন