• বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়।
    বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে।
  • সময় অসময়ের কবিতা

    চৈতালী চট্টোপাধ্যায়
    বিভাগ : মোচ্ছব | ০৪ জানুয়ারি ২০২০ | ১২৬ বার পঠিত

  • শিল্পীঃ চন্দনা হোড়

    সতীন


    পদ্মপাতায় জল -
    জল, তুমি কার?ওর না আমার?
    কলহে ব্যাপৃত হয়ে পড়ি।
    কাঁচা ইলিশের ঝোল পুড়ে যায়।
    চোখের নাগাল ছুঁয়ে নীলকন্ঠপাখি ঘুরে যায়।
    ফুলের আঘ্রাণ উড়ে যায়।
    কালো চাদরের মধ্যে ঢুকে যাচ্ছে জগৎসংসার।
    অজ্ঞান। দেখতে পাই না।আর,
    সেই অবসরে
    পদ্মপাতার থেকে জল খসে পড়ে


    শিল্পীঃ চন্দনা হোড়

    উইমেন্স লিব্

    মাঝরাতে আলো জ্বেলে রাখতে ভালোই লাগে।
    আলমারি খুলি।
    কাপড়ের ভাঁজ ভেঙে ডানাদুটো বের করে এনে
    মেঝেয় বিছোই।
    মোমের পালিশ ঘষি।
    ফের তুলে রাখি।

    একদিন উড়ে যাব বলে


    শিল্পীঃ এডভার্ড মাংক

    আফটার ইমেজ

    ফাঁকা-ফাঁকা ঘর। কাঁপা-কাঁপা ছবি।
    ধোঁয়া -ধোঁয়া স্বর।
    আমার জীবন ছিল না এমন!
    লোকালয়ে, গায়ে শরতশেষের হালকা চাদর জড়িয়ে নিতাম।
    চুল থেকে নখ, মানুষের মতো গন্ধ উঠত।
    সব ছিল। শুধু শূন্যতা এসে সবই খেয়ে নিল।
    জঙ্গল ভেঙে কারা যে জাগল। মিথ্যে বলি না,
    অন্যরকম স্বপ্ন দেখাল।
    তারপর,ঘোর। বোমা, বন্দুক...আর মনে নেই!
    এই তো এখানে,
    চাপ-চাপ লাল, পোড়া-পোড়া গাছ,
    প্রেতের গল্প।
    প্রশাসন, বল আমি কী করব


    শিল্পীঃ গগনেন্দ্রনাথ ঠাকুর

    হেমন্তের কবিতা

    মনখারাপের পাড়া থেকে,
    বিকেল কমিয়ে রেখে-রেখে
    কারা তারা জ্বালে একে-একে ,
    মেয়েপাচারের দেশ থেকে!

    নদীতে কাঠাম ভেসে যায়,
    আকাশ হেমন্ত ছড়ায়,
    ছাতিম ফুটিয়ে সন্ধ্যায় !
    ফুর্তি ,সে -সব চেপে রাখে!

    রেখেঢেকে কী পেয়েছ তুমি?
    মাল্টিপ্লেক্স ,স্বভূমি-
    শুধু বেচে ,শুধু কেনে কেউ,
    মাংস ও মাংসের ঢেউ!

    তবে যে মায়ের ব্রতকথা ,
    নুনহীন প্রসাদের পাতা,
    'আরেকটু রাবড়ি দেবে, মা?'
    স্বপ্ন! স্বপ্ন -ই হবে বা!

    কেননা 'নাইন ইলেভেন' ,
    এখন পর্দা ফাটাবেন!
    কান্না ও শবসহকারে
    কমিটি জলখাবার সারে,
    মানুষ না ভূত, ওই ওরা?
    মরামাস! মৃত্যুর গোড়া!

    চিলছাদে উঠেছি যখন,
    শীত- শীত লেগেছে তখন,
    লাঠির ডগায় আলো গেঁথে
    স্মৃতি নেমে আসে দলবেঁধে !

    চুপ! ওটা আকাশপ্রদীপ
    ইংলিশমিডিয়াম জিভ
    বল ,হৈমন্তিক, হিম...

    প্লিজ, বল অগ্রহায়ণ ,
    ধান্যে ভরুক শিল্পায়ন


    শিল্পীঃ ফ্রিডা কাহলো

    ৪৯৮এ ধারার অপপ্রয়োগ প্রসঙ্গ উঠল যখন

    চোখেমুখে রক্ত উঠে-আসা নিয়ে, আগুন প্রত্যক্ষ করলাম কই!
    হাতও পোড়ালাম না!
    সময় যথেষ্ট নান্দনিক,
    বুকের তলায় আশাপূর্ণা দেবী নিয়ে ঘুমিয়ে পড়েছে,
    অপমানগুলো ঘষা খেয়ে খেয়ে ধার কমে গেছে,
    সোনা অঙ্গে শোনার শিকল!
    আমি প্রাতঃভ্রমণ বাদ রেখে মেয়েদের লেখাপত্র পড়ি।
    সারাদিন শুয়েবসে,চা ও কফি শুঁকে দেখি
    বারুদের গন্ধ পাই কি!
    ছাড়া কাপড়ের ভাঁজে,ভাবি, অসুখবিসুখ কিছু লুকিয়ে রাখলে বেশ হয়!
    তাই খুব সহজেই মুক্তির কথা লিখতে পারি।
    বিপ্লবও লিখি।
    প্রকৃত বিপন্ন কিনা না জেনেই, মেয়েটিকে মহিলা কমিশনের পাকা সড়ক দেখাই,
    নিজে, সঙ্গে যাই না।

    শরীরে ও মনে এত বছরের এত বদজল
    নিতে নিতে
    এইটুকু প্রমাদ হবে না?


    শিল্পীঃ অমৃতা শের-গিল

    অতি ব্যক্তিগত

    আর সে মেয়েটিও ভিড়ের চেয়ে ভিড়ে একলা জেগেছিল দেড়বছর
    ফরসা রোগামুখ ছেলেটি তাকে খুব কুয়াশা দিয়েছিল দেয়নি ঘর
    কী হল তারপর? মেয়েটি ধীরে ধীরে শামুক হয়ে গেল, ভিজে মাটির
    গন্ধে স্মৃতি পেত মাটিতে মুখ রেখে বৃষ্টি খুঁটে খেত অতঃপর
    এবার সীমারেখা তোমরা টেনে দাও তোমরা সাজো তবে সমালোচক
    বলো এ-লেখা নয় আর্থসামাজিক,রাজনীতিরও নয় পরিপূরক
    খুব কি ব্যবধান পার্টিজান আর জন্ম-ভূতে-পাওয়া মানুষটির
    সঙঘ গড়ে ওঠে রক্তপাত শেষে বিজলি জ্বলে ওঠা ঘরগুলির?
    এবং সারারাত বৃষ্টিপতনের ধ্বনিতে মুছে গেলে অপরিচয়
    যে একা জল ছোঁয় আর যে আলো দেয় অন্ধ প্রাণে,
    তারা বন্ধু হয়


    শিল্পীঃ চন্দনা হোড়

    আকাশচারিণী

    আশশেওড়ার গাছে যে-মহিলা উঠে যাচ্ছেন,
    শরীর নেই তাঁর, আমার পিতামহী ছিলেন।
    খালবিল ছেড়ে, আমরা তো কবেই লেক-ভিউ
    ফ্ল্যাটে উঠে এসেছি।
    উনি রয়ে গেলেন, গ্রামেই।
    পদ্মকাটা দুধের বাটি। বিপ্লবীদের আনাগোনা।
    পিসির উন্মাদনা।শোনা হয়ে গেলে,
    আমি জানতে চাইতাম, চণ্ডীপাঠের মুখে
    কীভাবে চাঁদমালা দুলে ওঠে! সেই গল্পকথা।
    দেড়শো বছরেও মাটি একই আছে।
    আজ শুধু কেঁপে-কেঁপে ধরিয়ে দিচ্ছে ভয়,
    ভুলিয়ে দিচ্ছে সব আত্মীয়স্বজন, লৌকিকতা...
    #
    ওরা প্রমাণ চাইল যখন -
    কার্তিক মাস। আকাশ প্রদীপ জ্বলছে।
    হালকা, শীত-বসা গলায়,ভাবি,
    গ্রাম থেকে তুলে-আনা শেকড়বাকড়,
    ওই আলোটার নীচে রেখে যেতে বলব,
    তোমাকে, মাম্মাম




    বছর শুরুর গুরুচন্ডা৯ - সূচিপত্র »
  • বিভাগ : মোচ্ছব | ০৪ জানুয়ারি ২০২০ | ১২৬ বার পঠিত
  • আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা ভাইরাস

  • পাতা : 1
  • বিপ্লব রহমান | 237812.69.453412.236 (*) | ০৫ জানুয়ারি ২০২০ ০১:৫৩79944
  • অসম্ভব শক্তিশালী লেখনী। ছবিগুলো বাহুল্য।

    উড়ুক!
  • করোনা ভাইরাস

  • পাতা : 1
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত