এই সাইটটি বার পঠিত
ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • বুলবুলভাজা  আলোচনা  বিবিধ

  • যাদবপুর - আন্দোলনকারীদের পক্ষ থেকে একটি বিবৃতি

    অভিষেক তুঙ্গা লেখকের গ্রাহক হোন
    আলোচনা | বিবিধ | ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৩ | ১৩৫১০ বার পঠিত
  • যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে সাম্প্রতিক কিছু ঘটনাবলীর পরিপ্রেক্ষিতে সংশ্লিষ্ট ছাত্র সংসদের থেকে আমরা একটি চিঠি পাই। সেটি খোলা চিঠি হিসেবে প্রকাশ করা হল। বলা বাহুল্য, লেখার বক্তব্য ও দৃষ্টিভঙ্গি লেখকের নিজস্ব।


    ----------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------


    ঠিক কী ঘটেছিল ?


      ঘটনার সূত্রপাত চতুর্থ বর্ষের ছাত্র PRINTING DEPT. এর মানিক হালদার এবং CONSTRUCTION DEPT. এর অনুপম ঘোষ ও IT DEPT. এর দ্বিতীয় বর্ষের একটি ছাত্রকে দিয়ে। সকলেই থাকত JADAVPUR UNIVERSITY-এর SALTLAKE CAMPUS-এর হস্টেলে। দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রটি এসেছিল দার্জিলিং থেকে, স্বাভাবিকভাবেই রয়ে গিয়েছিল ভাষা ও সংস্কৃতিগত ভিন্নতা। যদিও দার্জিলিং থেকে আসা বহু ছাত্র-ছাত্রীই ক্রমশ মিশে যায় যাদবপুরের সংস্কৃতির সাথে, এক্ষেত্রে তা হয়নি। প্রথম বর্ষেই যে কারণে ছাত্রটি কথা কাটাকাটির মধ্যে চতুর্থ বর্ষের এক ছাত্রের নাকে ঘুষি চালায়। তবে তখনকার মতো ঝামেলাটি নিজেদের মধ্যে মিটিয়ে নেওয়া হয়। ঘটনাপ্রবাহে ছাত্রটি নিজেকে আরও গুটিয়ে নিতে থাকে।


                         দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রটি অবৈধভাবে হস্টেলে নিজের রুমে দুজন প্রথম বর্ষের ছাত্রকে রাখতে শুরু করে। গত ২২এ অগাস্ট চতুর্থ বর্ষের প্রিন্টিং টেকনোলজির ছাত্র তথা হস্টেলের anti-ragging squad এর প্রাক্তন সদস্য মানিক হালদার তা হস্টেল সুপারের নজরে আনে, এতে দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রটি প্রচণ্ড ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে। এরই মধ্যে কেউ বা কারা দ্বিতীয় বর্ষের ছেলেটির ঘরের কাঁচ ভেঙ্গে দিয়ে যায়। কে বা কারা ঘটনাটি কেন ঘটাল নাকি ঘটনাটি নিছকই দুর্ঘটনা, তা এখনও স্পষ্ট নয়। ২৩শে অগাস্ট ঘটনাটি নিজেদের মধ্যেই মিটিয়ে নিতে হস্টেলে একটি মিটিং বসে যেখানে মানিক, অনুপম ও অন্যান্য ছাত্ররাও উপস্থিত ছিল। মিটিং-এ দু-তরফেই উত্তপ্ত কথা কাটাকাটি চলে, ২য় বর্ষের ছাত্রটি সাহস থাকলে one to one লড়াই-এর চ্যালেঞ্জ জানাতে থাকে। এরই মধ্যে অনুপম মেজাজ হারিয়ে ২য় বর্ষের ছাত্রটিকে চড় মেরে বসে। যদিও মিটিংটি শেষ হয় সবাই-সবাই কে ক্ষমা চেয়ে নিয়ে। এমনকি অনুপম ও সেই ছাত্রটি পরস্পরকে কোলাকুলিও করে।


                        পরের দিন কেউ ২য় বর্ষের ছাত্রটির দরজার বাইরে মলত্যাগ করে যায়। এরকম পশুচিত কাজ কোন জানোয়ার করে গেল কে জানে, কিন্তু ২য় বর্ষের ছাত্রটি UGC –এর ওয়েবসাইটে অভিযোগ দায়ের করে। (অভিযোগটি র‍্যাগিং এর অভিযোগ হিসেবে দায়ের করেনি)



    এর পরের ঘটনাপ্রবাহঃ


    ১) VC ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তিন সদস্যের একটি FACT FINDING COMMITTEE তৈরি করে। যদিও কোন ছাত্র কোনোভাবেই এই তদন্ত কমিটির বিন্দুমাত্র অস্তিত্ব টের পায়নি।


    ২)এই কমিটি অনুপম ও মানিককে ডেকে পাঠায় ও সেদিনের চড় মারার ঘটনার স্বীকারোক্তি নানা ছলা-কৌশলে লিখিয়ে নেয়। যদিও এরা জানতই না এই কমিটি আসলে তথাকথিত র্যামগিং-এর তদন্ত কমিটি। এমনকি এই কমিটি ঘটনাস্থলে উপস্থিত সবাইকে জেরা করেনি।


    ৩) গত ১০ই  সেপ্টেম্বর anti-ragging committee-এর মিটিং ডাকা হয়, কোন agenda ছাড়াই। যেখানে on table agenda –য় এই প্রসঙ্গটির উত্থাপন করা হয়। যেহেতু প্রায় সব ছাত্রছাত্রীরাই র‍্যাগিং–এর বিরোধী, তাই ছাত্র-সদস্যরা ঘটনাটি র‍্যাগিং ধরে নিয়ে শাস্তির পক্ষে সম্মতি দিয়ে আসে, একমাত্র সল্টলেক ক্যাম্পাসের সদস্য মিঠুন ও সাধারণ সম্পাদক সৌভিক ছাড়া। এরা অল্পবিস্তর ঘটনাটি সম্পর্কে ওয়াকিবহল ছিল। শাস্তির পূর্বে নিয়ম অনুযায়ী অনুপম ও মানিককে শোকজ করা হয়।


    ৪) show-cause –এর জবাব পাওয়ার আগেই registrar মিডিয়াতে শাস্তির ঘোষণা করে দেয়।



    আমাদের বক্তব্য কী?


    ১) যে কেউ অভিযোগ করতেই পারে তাকে র‍্যাগিং করা হয়েছে,কিন্তু প্রকৃতই র‍্যাগিং হয়েছে কিনা,তার সঠিক অনুসন্ধান হওয়া উচিত।


    ২) গোটা ঘটনায় মানিক এর দোষ অবৈধভাবে রুম-এ ছাত্র রাখার ঘটনা সুপার-এর নজরে আনা! অনুপমের দোষ উত্যক্ত কথাকাটাকাটি মধ্যে চড় মেরে বসা,যেটা আবার নিজে মিটিয়েও ফেলে। বাকি ঘটনাগুলো কারা করেছে প্রমাণিত নয়, তাহলে কি করে এই দুজনকে র‍্যাগিং এর শাস্তি দেওয়া হচ্ছে?


    ৩) Fact Finding Committee এভাবে লুকিয়ে অনুসন্ধান চালানো কেন? এমনকি Anti Ragging Committee-এর মেম্বারও জানতে পারলো না!


    ৪) Anti Ragging Committee Meeting-এর আগেও agenda তে কেন সদস্যদের Ragging-এর অভিযোগ বা মিটিং এর বিষয়ে কিছু জানাল হল না?


    ৫) একটি বচসার ভিত্তিতে যদি Ragging-এর শাস্তি দেওয়া হয়, তাহলে কাল football মাঠে offside নিয়ে বচসা বা প্রেম নিয়ে senior-junior-এর মধ্যে গণ্ডগোলকেও Ragging বলে চালানো হবে।


    ৬) তবে চড় মারার ঘটনা অবশ্যই অনভিপ্রেত ও অপ্রীতিকর,তাই Hostel-এর Code of Conduct-এর নিয়ম অনুযায়ী অভিযুক্তের শাস্তি পাওয়া উচিত।


    ৭) কাচ ভাঙ্গা ও মলত্যাগ এর ঘটনা কঠোরভাবে নিন্দনীয়,অভিযুক্তদের অবিলম্বে খুঁজে বের করে উপযুক্ত শাস্তি দেওয়া উচিত।



    আমাদের দাবী কী?


    ১) এত অবিচার ও অস্বছত্তার জন্য  Anti Ragging Committee Meeting পুনরায় ডেকে পুরো ঘটনাটির পুনরালোচনা করা হোক।


    ২) যতক্ষণ না পুরো ঘটনাটির পুনারালোচনা করা হচ্ছে, ততক্ষণ শাস্তি লাগু করা যাবে না।



    আরো কিছু প্রশ্ন ও তার উত্তরঃ


    ১) ভিসি (উপাচার্য) কি আইনবিরোধী কিছু করেছেন?


    - র‍্যাগিং-এর শাস্তির আইন তো রয়েছেই, কিন্তু কর্তৃপক্ষ মিথ্যে অভিযোগে ব্যবস্থা নেবেন এরকম কোনও আইন নিশ্চয়ই নেই। কিন্তু এক্ষেত্রে সেটাই তো হয়েছে।


    ২) আমরা কেন আচার্য (রাজ্যপাল)-এর কাছে যাচ্ছি না?


    - ভিসি নিজে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তনী। তিনি যদি এখানকার ছাত্রদের রুচি এবং মূল্যবোধ গুলিকে মাথায় না রেখে শুধুমাত্র মিথ্যে অভিযোগের ভিত্তিতে ব্যবস্থা নিতে চান, তাহলে আমরা বাইরের কাউকে কীভাবে ভরসা করবো? আর, আচার্যের কাছে যাওয়া মানে তো পক্ষান্তরে মেনেই নেওয়া যে ভিসির ক্ষমতার আওতায় বিষয়টা মেটানো যাচ্ছে না।


    ৩) কর্তৃপক্ষ কি র‍্যাগিং-এর অভিযোগকে পুনর্মূল্যায়ণ করতে পারেন?


    - পারেন না এরকম কোনও আইন কিন্তু নেই। তার মানে নতুন করে তদন্ত ও বিচার করাই যায়।


    ৪) আমরা কেন আলোচনার বদলে আন্দোলনের (শান্তিপূর্ণ হলেও) রাস্তা বেছে নিলাম?


    -আমরা ভিসির সঙ্গে দেখা করেছিলাম, তিনি বললেন যে ইউজিসিকে রিপোর্ট পাঠানো হয়ে গেছে, ফলে সিদ্ধান্তগুলো আর পুনর্বিবেচনা করা যাবে না। সেক্ষেত্রে আলোচনার কোনও রাসতা তিনি খুলে রাখতে দিলেন না। ফলে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু করতে হল।


    ৫) আমাদের আন্দোলনে কেন ভিসি, প্রোভিসি ও রেজিস্ট্রারকে অমানবিক ভাবে ঘেরাও করে রাখা হয়েছিল?


    - আমরা কাউকেই ঘেরাও করিনি। তাঁরা চাইলেই বেরিয়ে যেতে পারতেন। কিন্তু তাঁরা নিজেরাই থেকে গেছিলেন। তাঁদের কাছে খাবার জল বা ওষুধ ও পৌঁছোচ্ছিল। কিন্তু বাইরে বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থা মোটেও স্বাভাবিক ছিল না। স্বাভাবিক পড়াশোনার পরিবেশ বেশ কিছুদিন ধরেই ব্যাহত হচ্ছিল। সে নিয়ে তাঁদের খুব হেলদোল দেখা যায় নি।


    ৬) প্রো ভিসি অসুস্থ জানা স্বত্ত্বেও তাঁকে কেন আটকে রাখা হল?


    - আগেই বলা হল কাউকে আটকে রাখা হয় নি। মিডিয়ায় প্রো ভিসি-র অসুস্থতার খবর পাওয়ার সঙ্গেসঙ্গে তাঁর সঙ্গে আমরা দেখা করি। তিনি জানান যে ঠিক আছেন, কিন্তু আমরা তাঁকে আবারও বলি তিনি চাইলেই চলে যেতে পারেন। পুরো কথোপকথনটাই ভিডিও রেকর্ড করা আছে। মিডিয়া অন্যভাবে প্রচার করছে, কিন্তু মিডিয়া যেটা দেখাচ্ছে না যে তিনজন ছাত্র গুরুতর ভাবে অসুস্থ, তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।


    ৭) ফেটসুর জিএস অ্যান্টি র‍্যাগিং কমিটির মিটিং-এ গিয়ে কেন ছাত্রদের শাস্তির পক্ষে মত দিয়েছিল?


    - ভুল তথ্য। অ্যান্টির‍্যাগিং কমিটির মিটিং-এর মিনিট দেখলেই সেটা পরিস্কার হয়ে যাবে। রেজিস্ট্রার নিজেও তা স্বীকার করেছেন?


    ৮) আমাদের আন্দোলনের কী কোনও রাজনৈতিক রং আছে?


    আমাদের আন্দোলনের গতিপ্রকৃতি ও পদক্ষেপগুলি জেনারেল বডির মিটিং-এ ঠিক করা হয়। এর মধ্যে কোনও রাজনৈতিক ব্যানারের পার্টি যুক্ত নেই।


     ৯) আমরা কি র‍্যাগিং এর সমর্থক?


    - কখনোই না। আমরা মনে করি র‍্যাগিং একটি সামাজিক ব্যাধি। আর সিনিয়র জুনিয়র হিসেবের বাইরেও সমাজের সর্বত্র র‍্যাগিং হয়ে আসে। কোথাও অফিসার অধস্তন কর্মচারীকে র‍্যাগিং করে, কোথাও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের অথরিটি ছাত্রদের র‍্যাগ করে। তাই র‍্যাগিং-এর বিরুদ্ধে সর্বস্তরের সচেতনতা এবং র‍্যাগিং করবো না এই আত্মসচেতনতাও দরকার। শুধুমাত্র শাস্তি দিয়ে র‍্যাগিং নির্মূল করা যাবেনা।



    ছাত্রছাত্রী ও বৃহত্তর সমাজের কাছে আমাদের আবেদন-


    টানা ৫২ ঘণ্টা অবস্থান বিক্ষোভের পর আমাদের রিলে অনশন প্রায় ৯০ ঘণ্টা অতিক্রম হতে চলল। এখন অব্দি পিতৃসম কর্তৃপক্ষ একবার জানারও প্রয়োজন মনে করল না, ছাত্রছাত্রীরা কেমন আছে! এর মধেই আমরা পাচ্ছি বিশাল সমর্থন- দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্ররা তাদের fest- U-Turn স্থগিত রেখেছে, Electronics-এর দুই ছাত্র VC-র হাত থেকে switzerland-এর একটি নামী scholarship নিতে অস্বীকার কারেছে, Production ও Computer Science-এর বিভিন্ন বর্ষের ছাত্রছাত্রীরা অনির্দিষ্ট কালের জন্য নিজেদের ক্লাস বয়কট এর সিদ্ধান্ত নিয়েছে, এছাড়াও চলছে বিক্ষিপ্ত ক্লাস বয়কট। রয়েছে প্রাক্তন ছাত্রছাত্রীদেরও বিশাল সমর্থন- Virginia Tech থেকে Sector-V, IIT থেকে IIM চিঠি পাঠাচ্ছেন তারাও। JNU থেকে Presidency, আমরা পাচ্ছি বিভিন্ন কলেজের সমর্থন। আসলে সমর্থন ছাড়া আমাদের এই আন্দোলন কখনই টেনে নিয়ে যাওয়া সম্ভব ছিল না। এই আন্দোলন আর শুধু ইঞ্জিনিয়ারীং ছাত্রছাত্রীদের আন্দোলনে আটকে নেই, Arts থেকে Science, সমস্ত Faculty-র ছাত্রছাত্রীরা এতে যোগদান করেছে। আগামী বুধবার বিকেল ৩টায় (সময় পরিবর্তিত হতে পারে) Union Room-এর সামনে থেকে একটি মিছিলের ডাক দেওয়া হচ্ছে- যেকোনো কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় নির্বিশেষে ,যেকোনো বয়স ও পেশার মানুষ এতে যোগদান করতে পারেন, অবশ্যই কোনোরকম রাজনৈতিক ব্যানার ছাড়া। উন্নততর ক্যাম্পাস গড়ে তুলতে পাশে চাই সবাইকে।


    পুনঃপ্রকাশ সম্পর্কিত নীতিঃ এই লেখাটি ছাপা, ডিজিটাল, দৃশ্য, শ্রাব্য, বা অন্য যেকোনো মাধ্যমে আংশিক বা সম্পূর্ণ ভাবে প্রতিলিপিকরণ বা অন্যত্র প্রকাশের জন্য গুরুচণ্ডা৯র অনুমতি বাধ্যতামূলক।
  • আলোচনা | ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৩ | ১৩৫১০ বার পঠিত
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • r | 127.194.38.239 (*) | ০২ অক্টোবর ২০১৩ ০৮:১৩75764
  • fact finding cmmittee r report ke frame of reference dhore sottota jachai korte gele bhul korben !!! prothomoto ete 'accused' der je written ba verbal statements tar konotar i ullekh nei..
    dwitiyoto ei fact finding cmmittee r sodosyo rai chup chilen..jkhn ager bochor 4 th yr er ek cheler nak fatiye dewa hy ghushi mere. (jonoiko 1st yr sei karjokolap ti korechilo)
    tachara.. proshongoto ullekkho - 'dress code' er bepar ta hoth kore 2nd yr e uthe ekjn ullekh krlo.. othocho 1st yr e thaka kalin ba dirgho kal dhre follow kore asa ei pattern e keu obhijog kreni ba kore thakelo kono rokom reaction mechanism toiri hyni.. ei smbndhe dean of students(fact finding cmmitter member) onek age thekei oakibohal chilen .. hostel superintendent o (jini abr fact finding cmmitteer r ek sodosyo)..
    hotath kore janlar kach bhangar ghotona e dress code er ullekh ki proman kore ???
  • r | 127.194.38.239 (*) | ০২ অক্টোবর ২০১৩ ০৮:১৫75765
  • fact finding cmmittee r report kintu purotai 'victim' er reportng er opor base kora.. Hostelite der sathe ktha blle bdhye better insight pete paren.. about 'dress code'
  • riddhi | 146.165.223.197 (*) | ০২ অক্টোবর ২০১৩ ১০:১৭75766
  • ranjanda eita bhabun, ei victim er boyaner bhittite(mane worst possible case) report ta ei!! eta fact finding report!!! egulo to amra jani. ami bhablam todonto kore knach hagu ba anya kichhute anupamer kono gopon haat khuje peyechhe. tahole ki dnaralo, anupamer case-e?? tincharte ghotona(dolbol niye roome asa, meeting, knach aar hagu) jar modhye anekjan jorito.. er modhye matro ekta jaiga, sekhaneo aneke mile bawal dichhe, o uposthit thake ar chor mare. haate sudhu ei information achhe, byas. er bhittite ei one-year suspension thik kon angle theke fair? apni hole diten? anya option thakleo? puro report tat 'anupam' shobdota cntrl f diye sudhu ekbar paben. mane oi "might have" gulo o or jonyo likhte para jai ni.
  • riddhi | 146.165.223.195 (*) | ০২ অক্টোবর ২০১৩ ১০:২৭75767
  • aar esob je proshno aschhe, ei victim er behavior keno dekha hochhe--albat dekha uchit. eta victim kharap lok proman korar jonyo naa, borong ei bawale je hierarchy ba hegemony r kono angle thakte pare, sei point take refute kora. ja dominant ekta loker respect e bawal , ta ekta submissive er pokkhe ragging. ei nuances gulo dekha hobe na??

    fact finding, ebong somosto report- e beriyechhe chheleta khisti kore one to one er dak dei. eta ki ekta suppressed bhoy khawa junior er attitude?
    (aar bakider in advance, please bokar moto bhabben na etodwara aami juniorder bhoy khawake support korlam, point ta bujhun)
    aar dress code niye ranjandar sathe sohomot. kintu otao to ager bochhor, jekhane "seniors" as a goshthi involved. anupam kothay aschhe ekhane?
  • riddhi | 146.165.223.198 (*) | ০২ অক্টোবর ২০১৩ ১০:৪০75768
  • হ্যাঁ, সেই চড়ের পর মিটমাট হয়ে যায়, এই ইনফোটাও আছে। এই তথ্য কে কম্প্লিট ধরে নিলে, এইটা অসম্ভব রিডিকুলাস ডিসিশন।
  • riddhi | 117.217.133.184 (*) | ০২ অক্টোবর ২০১৩ ১২:৪৮75748
  • মেজরিটির জোরে হচ্ছে কি হচ্ছে না, বোঝা খুব শক্ত। সেদিন্কার ভাটে সিকির আর ঈশানের দেয়া প্রচুর উদাহরন আছে। এগুলোর সাথে সতীদাহ জুড়ে তুড়ে লাভ নেই। টিসিং বা প্র্যান্কের বিরুদ্ধে যে রুল শাস্তির কথা বলে, সে রুল বাল। আমার র‌্যাগিং নিয়ে কোন ইলুশান নেই। আগে সাপোর্ট করতাম এখন করি না। কিন্তু র‌্যাগিং প্রপারলি ডিফাইন করে রুল করা হোক। না তো আমাদেরি অনেক চেনাশোনা পাবলিক, (ভাই, ছেলে, শালা) বাজে ফাঁসবে। কলেজ লেভেল যে কোন খুচরো বাওয়ালে আইন ঢোকানো বিপজ্জনক। আর এই একাডেমিয়া থেকে আসা অথোরিটি ফিগারগুলো সোস্যাল ইস্যুতে মারাত্মক গাম্বাট টাইপের হয়, সেটাও সমস্যা বাড়ায়।
  • a | 132.164.105.98 (*) | ০৩ অক্টোবর ২০১৩ ০৪:৩৮75769
  • একটা পরিষ্কার র‌্যাগিং কেস থেকে নজর ঘোরানোর জন্য কতরকম কসরতই না করতে হচ্ছে!
  • Jabberwocky | 131.241.218.132 (*) | ০৩ অক্টোবর ২০১৩ ০৪:৫৫75770
  • অ্যাই মেরেচে, এদ্দিন ছিলো যে ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং কমিটির রিপোর্ট নিয়ে কেন কথা হবে না। এইবার সেই রিপোর্টের ভিত্তিতে জাজ করা ভুল হবে। ওহ্‌ কত কীই যে দেখবো...
  • ranjan roy | 24.99.137.244 (*) | ০৩ অক্টোবর ২০১৩ ০৫:১৫75772
  • না, আদৌ ওই রিপোর্টে কে ফ্রেম অফ রেফারেন্স ধরে কথা হচ্ছে না।
    কথা শুরুই হয়েছে গুরুর পাতায় আন্দোলনরত ছাত্রদের লিফলেট প্রকাশিত হওয়ার পর, তার আগে কেউ কিছু মন্তব্য করেনি।
    যাঁরা লিফলেট পাঠিয়েছেন তাঁদের উদ্দেশ্য অবশ্যই সমর্থন প্রাপ্ত করা।
    কিন্তু সেই লিফলেট থেকে যা উঠে এল তা এই পাতায় আমার মত অধিকাংশ চন্ডালদের হজম হয় নি।
    তারপর এক্জন শাস্তিপ্রাপ্ত ছাত্রের অ্যাপীলের প্রতিলিপি।
    সবশেষে এল কথিত রিপোর্ট। এই রিপোর্টের কথা আপনারাই বলেছেন, আমরা তো জানতামই না।
    এখন বলছেন ড্রেসকোড নিয়ে বেটার ইনসাইট পেতে হলে হোস্টেলারদের সঙ্গে কথা বলতে হবে! কেন?
    আপনারা যা বলেছেন তার চেয়ে বেশি কী ভ্যালু অ্যাড হবে?
    যদি নতুন কোন তথ্য থাকে তো এই পাতায়ই দিন না!
    এটা নির্বিবাদ কি না যে ডাইনিং হলের ড্রেসকোড ( শুধু পূজোর ছুটি অব্দি!) হোস্টেলাররা জুনিয়রদের জন্যে চালু করেছেন, সিনিয়রদের জন্যে নয়?
    এই অধিকার তাঁদের কে দিয়েছে? ডীন অফ স্টুডেন্ট্স স্পষ্ট জানিয়েছেন যে এমনি কোন ড্রেস কোড নেই।
    এটা কি নির্বিবাদ তথ্য নয় যে কাঁচ ভাঙা হয়েছে ও দরজায় নোংরা লেপে দেওয়া হয়েছে প্রীতমের ঘরের অন্য কোন সিনিয়রদের ঘরে নয়?
    সিনিয়রদের ঘরে ডেকে নিয়ে আলোচনার সময় প্রীতমকেই চড় মারা হয়েছে, অন্য কাউকে নয়?
    কমিটির রিপোর্টে মানিকবাবুর বক্তব্য অর্থাৎ বিনা প্রমান প্রীতম ওঁকে কেন কাঁচ ভাঙার জন্যে চার্জ করছে-ইত্যাদির উল্লেখ এবং মাপ চাইতে বলা ও পরে মিটমাট করা সবই তো আছে।
    দয়া করে বলুন, ছাত্রদের পক্ষের কোন তথ্যটি রিপোর্টে নেই?
    তবে কোয়ান্টাম অফ পানিশমেন্ট নিয়ে সব সময় রিভিউ হওয়া উচিত, অ্যাপীলের ব্যব্স্থা থাকা উচিত।

    আর গত বছর যখন প্রীতম সিনিয়রদের মেরেছিল তখন ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং কমিটি কি করছিল? কেন চুপ করেছিল?
    -- ঘটনাটা বিশদে বলুন না!
    যেমন, কেন প্রীতম হাত চালাল?
    -- কেন সিনিয়ররা ওকে ঠেঙিয়ে পাট করে না দিয়ে শুধু মার খেল?
    -- কমপ্লেন হয়েছিল কি না?
    --- হলে কর্তৃপক্ষ কমিটি বসিয়েছিলেন কি না?
    --- কমিটি কী করল?
    --- তখন আন্দোলন হয় নি?
  • debu | 82.130.151.116 (*) | ০৩ অক্টোবর ২০১৩ ০৫:১৭75771
  • এটা কি গোর্খা অন্দোলোন না র‌্যগিং এর আন্দোলোন?
  • ranjan roy | 24.99.137.244 (*) | ০৩ অক্টোবর ২০১৩ ০৫:২০75773
  • রিদ্ধি,
    আপনার পয়েন্টটা ঠিক বুঝেছি---- ভয় খাওয়া সাবমিসিভ জুনিয়র হলে র‌্যাগিং , কিন্তু রুখে দাঁড়ানো- ড্রেস কোড না মানা- ওয়ান টু ওয়ান খিস্তি করে চ্যালেঞ্জ করা-- কমপ্লেন করা জুনিয়র হলে বাওয়াল, র‌্যাগিং নয়; এই তো?
    ভুল বুঝলে ধরিয়ে দেবেন।
  • a | 132.179.37.38 (*) | ০৩ অক্টোবর ২০১৩ ১০:২৯75774
  • রিদ্ধি, না আপনাকে মেল করতে হবেনা। আপনি শুধু এখানে পোস্ট করুন আপনার মতে কি কি ragging আর কেন, আর তার ভিত্তিতে, শুধু গুরুতেই, একটা মতৈক্য তৈরী করুন। জাস্ট ragging এর ডেফিনিশন, আর কিছু না। তারপর বাকি আলোচনা।
    ও, আরেকটা কথা...যদি রাজি থাকেন, তাহলে আজ বাড়ি ফেরার পথে ওয়ালমার্ট থেকে দু তিনটে হলুদ প্যান্ট কিনে নিয়ে যাবেন। লাগবে।

    জানাবেন কি মনে হয়।
  • SD | 24.99.137.88 (*) | ০৪ অক্টোবর ২০১৩ ০১:১৮75786
  • O Debuda....Apni 90 Electrical Mane, Amitava Gupta mane Nata AG r Batchmate toh ! Chap neben nah....Kichu serious kelane apna k khisti korche....Ragging ota hoyni...serokm vabe kichui....Khoj niye dekechi....Asole duto Goar vs Goar r jhamela...r osob aktu adhtu houa valo....R Moral Police kothata baler....Darkar er somy e Ei senior rai dekbe.

    Chap nio nah, debuda....JU borabor i kichu Jhat o tairi kore. Sei gulo k niey problem.Amader Batch eo ache.
  • debu | 82.130.151.116 (*) | ০৪ অক্টোবর ২০১৩ ০১:২১75775
  • এতো দেখছি হাগু কেস
    আমদের সময় ragging ছিলো মোর ফান
    physical torture আমরা কখোনো করিনি , টুম্পা দের মানুষ করে দিতাম,
    আমি ৯০ এর Elect
  • শঙ্খ | 118.35.9.186 (*) | ০৪ অক্টোবর ২০১৩ ০৩:২৭75776
  • 'টুম্পা দের মানুষ করে দিতাম' কমেন্টটা অত্যন্ত কুৎসিত লাগল। নিজে ঠিক কোন ধরণের মানুষ হলে এই রকম অ্যাটিটিউড আসে?
  • π | 118.12.173.94 (*) | ০৪ অক্টোবর ২০১৩ ০৪:০৩75777
  • এই মন্তব্যটা আমারো খুব আপত্তিকর লাগলো। যদিও কলেজে আশেপাশে এরকম ভালোই শুনেছি।
  • a | 132.172.177.186 (*) | ০৪ অক্টোবর ২০১৩ ০৪:৪১75778
  • যাদের কাছে র‌্যাগিং মানে মোর ফান, তাদের কাছে আর কি আশা করেন? এই রিদ্ধি, দেবু...এইসব পাব্লিকের জন্যেই আজও র‌্যাগিং টিকে আছে। জঘন্য।
  • a | 132.172.177.186 (*) | ০৪ অক্টোবর ২০১৩ ০৪:৪৯75787
  • জেইউতে না পড়তে পারার জন্যে আজ বড্ড গর্বিত লাগছে। তবে মজা লাগছে এইটা দেখে জে সত্যি এসব আলবাল পাব্লিক আজও আমাদের মধ্যে রয়েছে।
    মাইরি এদের যদি কলেজবেলায় আমার সিনিয়র হিসাবে পেতাম তো দেখিয়ে দিতাম হাউ মেনি ধানে হো মেনি রাইস।
  • khilli | 131.241.218.132 (*) | ০৪ অক্টোবর ২০১৩ ০৪:৫৭75779
  • এই "টুম্পাদের মানুষ করতে চাওয়া" জনতার আস্কারা তে আজ মানিক অনুপম দের এই পরিনতি ।এই মেন্টালিটি বদলানোর জন্যেই মানিক অনুপম দের শাস্তি দরকার -যাতে পরে লোকে এরকম করতে ভয় পায় । সিনিয়র দের গার্জেন , মরাল পুলিশ হবার অধিকার কেউ দেয় নি ।
  • Jabberwocky | 131.241.218.132 (*) | ০৪ অক্টোবর ২০১৩ ০৪:৫৭75780
  • এইভাবেই র‌্যাগিং হয়ে চলেছে এখনো। আমি তো এইটা বুঝিনা - কাউকে স্মার্ট করার গুরুদায়িত্ব অন্যদের ঘাড়ে কে চাপালো? এই ছেলেমেয়েগুলো তো চাপায়নি নিশ্চয়।
  • ন্যাড়া | 76.228.162.32 (*) | ০৪ অক্টোবর ২০১৩ ০৫:১৭75788
  • টুম্পা আগে শুনিনি। যদ্দিন বাঁচি, তদ্দিন শিখি।

    এই লেখার চাপান-উতোর পড়ে শঙ্খ ঘোষ মনে পড়ে - 'কইলকাত্তায় গিয়া দেখি সক্কলেই সব জানে / শুধু আমি কিছুই জানিনা"।
  • ranjan roy | 24.99.42.182 (*) | ০৪ অক্টোবর ২০১৩ ০৫:২২75789
  • অয়ন,
    স্বঘোষিত কয়েক্জন হামবড়াদের নিয়ে যদুপুরের বিচার করবে কেন? এরা এখনো বড় হয় নি। বিরুদ্ধমতকে সহ্য করার মত ধৈর্য্য নেই।
    আর লাস্ট লাইনটা দেখ--" দরকারের সময় এই সিনিয়ররাই দেখবে।"
    এই সুভাষিতাবলীই টিপিক্যালি র‌্যাগিং কালচারের ফিলজফি। বয়ং রক্ষাম। কাজেই সিনিয়রের ক্ষমতার/ মর্জির কাছে সারেন্ডার কর। সেই বাঁচাবে।
    পাড়ার মাফিয়া বা ডন কর্লিওনি গরীবের বিয়ে দেয়, রোজগারের রাস্তা বাতলিয়ে দেয়।
    কাজেই কোন জুনিয়রের স্বতন্ত্র বুদ্ধি-বিবেক আত্মমর্যাদা থাকতে নেই।
    যা চলে এসেছে চলতে দাও, প্রশ্ন কর না। প্রশ্নই অসুখ। বর্তমান সমাজেও তাই চলছে।
    --কিছুই হয় নি, মাস্টারমশাই আপনি কিছুই দেখেন নি।
    -এমনটা হয়েছে বলে তো শুনি নি।
    -কেউ কোন অভিযোগ করেনি।

    ভাল কথা, আজকের কাগজে সল্ট লেকের আরেকটি প্রফেশনাল ইন্স্টিটুটে র‌্যাগিং এর কম্প্লেন , সেই সিনিয়রদের চাপানো ড্রেসকোড জুনিয়র ছাত্রের না মানতে চাওয়া।
  • কল্লোল | 116.76.235.79 (*) | ০৪ অক্টোবর ২০১৩ ০৬:১৪75781
  • দেবুকে।
    কে ভাই আপনারা টুম্পাদের মানুষ করার? র‍্যাগিং মানে মানুষ করা? এসব বস্তাপচা ভাবনা চিন্তা নিয়ে থাকা পাব্লিকেই র‍্যাগিঙ্গের জড়।
  • ন্যাড়া | 172.233.205.42 (*) | ০৪ অক্টোবর ২০১৩ ০৬:২০75782
  • টুম্পা কাদের বলে?
  • নেতাই | 131.241.98.225 (*) | ০৪ অক্টোবর ২০১৩ ০৬:২৪75783
  • মেদিনীপুরের পাবলিকদের (যেমন আমি ঃ)))
  • পুরাতন | 138.211.249.43 (*) | ০৪ অক্টোবর ২০১৩ ০৭:২২75790
  • ন্যাকাচণ্ডী! কে হেগেছে, জানে না! সব কটার লাইফ বরবাদ করে দাও। একজন চড় মেরে বসে, আর একজন ঘুষি চালায়! এটা নাকি নিরপেক্ষ লেখা! প্রীতমের জন্য শুভেচ্ছা রইল। -যাদবপুরের প্রাক্তনী (ইঞ্জিয়ারিং)
  • a | 209.16.140.28 (*) | ০৪ অক্টোবর ২০১৩ ০৭:৫০75784
  • Typically Uncultured Midnapore Public Association, শর্টে টুম্পা।
  • kc | 188.61.96.29 (*) | ০৪ অক্টোবর ২০১৩ ০৮:০৩75785
  • Typically Ultramodern Midnapore Public Association, শর্টে টুম্পা। ঃ-))
  • debu | 180.213.132.253 (*) | ০৪ অক্টোবর ২০১৩ ০৮:১৯75791
  • don't take it personally যেটা মনে আসলো লিখ্লাম , কোনো টুম্পার গয়ে হাত তুলিনি, বিড়ি,গাজাঁ,রাম খাওয়া শিখিয়ে ছিলাম ,
    ভালো বাংলা লিখতে পারিনি তোদের মতো।।।মাপ্ফ কোরে দিস
  • ঈশান | 202.43.65.245 (*) | ০৪ অক্টোবর ২০১৩ ০৮:২১75792
  • দয়া করে এবার ব্যাপারটাকে খিস্তিখাস্তার পর্যায়ে নিয়ে যাবেন না।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। সুচিন্তিত মতামত দিন