এই সাইটটি বার পঠিত
ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • হরিদাস পাল  ব্লগ

  • গুরুচন্ডা৯ -- কিছু কথা, কিছু আলোচনা

    ঈশান লেখকের গ্রাহক হোন
    ব্লগ | ১৬ মে ২০১৬ | ১০০৫৪ বার পঠিত
  • গুরু, শুরুর দিন থেকে ধরলে বছর বারো বছর মত হল। অনেক রাস্তা টাস্তা হাঁটা হয়েছে, আমরা একই সঙ্গে নেটে এবং প্রকাশনা জগতে পা ফেলেছি। এখন আর শুরুর দিকের টলমল নেই, নেট এবং প্রকাশনায় গুরুর মোটামুটি একটা ব্র‌্যান্ড ভ্যালু হয়েছে। খুব বড়ো কিছু না, আবার খুব ছোটোও কিছু না। গুরুর পক্ষ থেকে ভবিষ্যতের কিছু পরিকল্পনা আছে, সেটা জানানোর, এবং আলোচনায় ফেলার জন্যই এই পোস্ট। অনেক গুলো কথা একসঙ্গে বলা হয়েছে, একটু ধৈর্য্য ধরে জনতা যদি পড়েন তো বাধিত হব। এছাড়াও খুব তাড়াতাড়ি করে লিখছি, কিছু ভুলভ্রান্তি অনবধানে হয়ে যেতে পারে, সে জন্য আগাম মার্জনা।
    প্রথমে গুরু কিভাবে বই ছাপে, এবং কেন ছাপে, সে নিয়ে দুই লাইন। প্রথম থেকেই আমাদের বই করার উদ্দেশ্যটা ছিল, সস্তা এবং পুষ্টিকর, যে কারণে চটি বই নামক ধারণাটির জন্ম। চটি নামটা একদম ইচ্ছাকৃতভাবেই দেওয়া হয়েছিল। চটি মানে স্রেফ সরু না, ‘চটি’ বলতেই বাঙালির অবচেতনে একটা বটতলার অনুষঙ্গ চলে আসে। ছাপা ও বাঁধাই সহ সেই অনুষঙ্গটা খুঁচিয়ে তোলার জন্যই বইয়ের নাম চটি। সচেতনভাবেই। বস্তুত মলয় রায়চৌধুরির একটা বইয়ের ভূমিকায় এরকম লেখাও হয়েছিল, ‘লেখক চেয়েছিলেন একটি বটতলার বই, আমরা ছেপেছি চটি’। বলাবাহুল্য উদ্ধৃতিটা হুবহু না, এখন আর খুঁজে বার করে দেখতে ইচ্ছে করছেনা, কিন্তু বিষয়টা এটাই। পুষ্টিকর জিনিস ছাপব, পাঠক লুফে নেবে, কিন্তু দামেও বেশি হবেনা, এই ছিল লক্ষ্য। লক্ষ্যটা এক অর্থে খানিকটা রাজনৈতিকও। একদিকে বাংলা ভাষার কোনো পাঠক নেই, কেউ পড়েনা, এই অভিযোগ দীর্ঘদিন ধরে আমরা শুনে আসছি। অন্যদিকে বইয়ের দাম অসম্ভব রকম বেড়ে চলেছে। দুটো একসঙ্গে হওয়া মুশকিল। বই লোকে না পড়লে বেশি দামী বই আরোই পড়বেনা। কিন্তু আশ্চর্যজনকভাবে এটা ঘটে চলেছে। কারণ, প্রকাশকের দিকের লক্ষ্যটা থাকছে, যেহেতু পাঠকসংখ্যা কম, তাই কোনোক্রমে তিরিশ (বা চল্লিশ বা একশ)টা বই বেচেই যেন প্রফিট করে নেওয়া যায়। অতএব দাম হু হু বাড়ছে। এবং বালবাহুল্য পাঠক সংখ্যাও কমে আসছে। বলাবাহুল্য এটা একটা স্বল্পমেয়াদি লাভের আত্মঘাতী ধারণা। শর্টকাটের ধারণা। সেটার বিশদে পরে আসছি। কিন্তু এই জায়গা থেকে আমাদের একটা স্টেটমেন্ট দেবার ছিল। যার মূল পয়েন্ট দুটোঃ ১)বইয়ের পাঠক এখনও আছে। ২)কম দামে বই করা যায়। লোকে কেনে। পাঠক সংখ্যা তাতে কমে না, বাড়ে। কারণ লোকে কাগজের কোয়ালিটি পড়েনা, বই পড়ে। বাঁধাই ধুয়ে জল খায়না, ছাপা অক্ষর পড়ে।
    তা, এই স্টেটমেন্টটা আমরা রেখেছি। তাতে নানারকম সমস্যা হয়েছে। অন্তত একটি বড়ো পুস্তক চেন, আমদের বই রাখেননি। কারণ, একটা বইয়ের দাম যদি মিনিমাম তিনশো (বা চারশো ব পাঁচশো) টাকা না হয়, তাহলে তাঁদের প্রফিট মার্জিন বিশেষ থাকেনা। লার্জ স্কেলে অল্প প্রফিটে জিনিসপত্র বেচলে কেন শেষপর্যন্ত বেশি প্রফিট হবেনা, এই যুক্তিজাল তাঁদের মাথায় নেই। তো, এটা জেনেই খেলতে নামা হয়েছিল। কিছু বিকল্প আউটলেট ভাবা হয়েছে এবং হচ্ছে। তার মধ্যে বইমেলাটা সবাই জানেন, কিন্তু আরও বেশ কিছু আউটলেট, তালিকায় জমা হচ্ছে। সেসব যথাসময়ে ও স্থানে প্রকাশ্য।
    তা, এই সমস্যাটা আমাদের জানা ছিল। কিন্তু খুব সাম্প্রতিককালে আরও কিছু সমস্যা দেখা গেল, যেগুলো আগে থেকে ভাবা যায়নি। সমস্যাটার ফোকাল পয়েন্ট একটাই। যে, গুরুর জনপ্রিয়তাকে অনেকেই তাঁদের নিজেদের মার্কেটিং প্লাটফর্ম হিসেবে ব্যবহার করতে চাইছেন। এর গোটা দুই তিন উদাহরণ আছে। শেষ থেকে শুরু করা যাক। আমাদের বইপত্রের জনপ্রিয়তা, যেকোনো কারণেই হোক, ভালো। কারণ বলতে লেখক আছেন, লেখার মান আছে, আমাদের প্রচার আছে, এবং অবশ্যই পাঠকের বিশ্বাস আছে, যে আমরা যা করি বেছেই করি। বই গছিয়ে দেবার জন্য করিনা। ফলে অনেকেই এসে বাঞ্চে বই নিয়ে যান। এবং বইপত্র শেষ হয়ে যায়, পাবলিসিটিও হয়। তা, সাম্প্রতিককালে দেখা গেল, এক লেখকের এরকম কিছু বই আমাদের বিপণনে জনপ্রিয় হবার পর, একটি তুলনামূলক ভাবে বৃহৎ প্রতিষ্ঠান, তাঁর সঙ্গে চুক্তি করে ফেলল, যে, তারা তাঁর রচনাবলী ছাপবে। সে খুবই আনন্দের কথা। কিন্তু সঙ্গে সাবক্লজ এই, যে, তাঁর আর কোনো লেখা, এমনকি যেগুলো আমরা ইতিমধ্যেই প্রকাশ করে ফেলেছি, সেগুলোও আমরা আর ছাপতে পারবনা। ফলে, বস্তুত জিনিসটা দাঁড়াবে এই, যে, বিপণনটি আমরা করলাম, কিন্তু এরপরে আগ্রহী পাঠককে পাঁচগুণ দাম দিয়ে সেই বই কিনতে হবে অন্য প্রকাশনা থেকে। পাঠকসংখ্যা নিশ্চয়ই বিপণনের কারণে কিছু বাড়বে। কিন্তু আমরা যে উদ্দেশ্যে বইটি ছাপছিলাম, উদ্দেশ্যটাই ব্যাহত হবে। এটা আমরা আটকাতে পারিনি, কারণ আমরা কোনো লেখকের কোনোরকম স্বাধীনতা ক্ষুণ্ণ হোক, এই চুক্তি করিনা। কিন্তু বই প্রিন্টের ক্ষেত্রে এবার থেকে ন্যূনতম শর্তাবলী আরোপ করার কথাই ভাবা হচ্ছে।
    দ্বিতীয় ঘটনাটি (কালানুক্রমিকভাবে সেটা অবশ্য আরও আগে ঘটেছে) আরও বিস্ময়কর। আমাদের কাছে একটি পত্রিকা ‘অন্য যৌনতা’র একটি লেখা ছাপবে বলে অনুমতি চেয়েছিল, আমরা বলেছিলাম কৃতজ্ঞতা স্বীকার করলে ছাপতে পারেন। কার্যত দেখা গেল এক গাদা লেখা ছেপে বসে আছেন, এবং কোনো কৃতজ্ঞতা স্বীকার নেই। এটা ছিল একটা পত্রিকা, এবং তারপর, আরও বিস্ময়কর, যে, একজন নামী প্রকাশক, সেটাকে বই বানিয়ে ফেলার উদ্যোগ নিলেন। তাঁরা অনুমতি চাননি, আমাদের জানানও নি। হয়তো ইনফর্মেশন ছিলনা, তাও হতে পারে, জানা নেই। তা, আমরা জানার পর আপত্তি জানিয়ে এসেছি। বইটা ছাপা হয়েছে বলেও শুনিনি। হয়তো অসদুদ্যেশ্য কিছু ছিলনা, শুধুই যোগাযোগের অভাব ছিল। সেটা আমাদের জানা নেই। কিন্তু আমাদের দিক থেকে ঘটনাটা হল, যে, আমরা একটি উদ্যোগ নেব, দীর্ঘদিন পরিশ্রম করব, কম দামে পাঠকের হাতে তুলে দেব, আর সেটাকে বিনা আয়াসে মলাটে বেঁধে কেউ তিনগুণ দামে বিক্রি করার উদ্যোগ নিচ্ছেন, বিন্দুমাত্র স্বীকৃতি ছাড়া, এতে করে ‘সস্তায় চটি বই’ কনসেপ্টটি চূড়ান্ত ভাবে ব্যাহত হচ্ছে। এবং ক্ষতিগ্রস্ত আমরা হচ্ছি।
    এইগুলো আমার দিক থেকে মনে হছে, অন্য কিছু না, শর্টকাটের প্রসেস। ‘বইয়ের বিক্রি হয়না’, অভিযোগটা যে জায়গা থেকে আসে। বইয়ের দাম প্রচুর বাড়িয়ে চট করে লাভ করে নেবার ধারণাটা যে জায়গা থেকে আসে। এবং অন্য উদ্যোগের ফল থেকে ঝট করে লাভ করে নেবার ইচ্ছেটা(কখনও অনৈতিকভাবেই) যেখান থেকে আসে। প্রচুর পাবলিকেশন হলে সমস্যা নেই। যত বই ছাপা হয়, তত ভালো। কিন্তু ছাপার এবং স্বল্পমেয়াদি লাভ করার বাসনায় পাঠকসংখ্যা কমিয়ে বাংলা বইয়ের অন্তর্জলী যাত্রার ব্যবস্থা সম্পন্ন করা হচ্ছে। কেউ বৃহত্তর পাঠকের কাছে পৌঁছনোর কষ্টসাধ্য কাজটা করছেননা। গুরু এত বছর ধরে যে নেট ওয়ার্কটার পিছনে সময় দিয়ে যাচ্ছে। উল্টোদিকে তৈরি নেটওয়ার্কটা ব্যবহার করে পুশ সেল টেল করে ঝটিতি কর্ম সমাধা করছেন। যেটুকু পাঠকবেস তৈরি হয়েছে, সেটা নিয়ে, অত্ঃপর কামড়াকামড়ি হবে। এর বাইরে যে বিরাট আন এক্সপ্লোরড এলাকা পড়ে আছে, সেদিকে কোনো নজরই নেই কারো।
    আমরা এই শর্টকাটের পদ্ধতিটা কখনও নিইনি। এই বারো বছর ধরে আমরা লড়ে গেছি। শূন্য থেকে শুরু করে। আজ পর্যন্ত অন্য জায়গা থেকে যেকটি লেখা আমরা নিয়েছি, প্রতিটি, অনুমতিসাপেক্ষে। এবং কৃতজ্ঞতা স্বীকার সমেত। একটিও ব্যতিক্রম নেই। জয়া মিত্রের একটি অনুবাদ লেখা আমরা প্রকাশ করেছিলাম। আমেরিকান প্রকাশকের কাছ থেকে অনুমতি নিতে (আসলে ডলারে কিনতে হয়েছিল), দেরি হওয়ায় জয়াদিকে দুঃখ দিয়ে আমরা বই প্রকাশ গোটা একবছর পিছিয়ে দিই। ফলে আমাদের দিক থেকে এই শর্টকাটটা একেবারেই গ্রহণযোগ্য না। লেখার অনুমতি নেওয়া, সৌজন্য স্বীকার, নেটে হোক বা বইয়ে, আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। যেদুটো উদাহরণ দিলাম, তার বাইরেও কিছু কিছু ক্ষেত্রে এসব ঘটেছে। সেটা কাম্য না। আমরা নিজেরা এগুলো মেনে চলি, অন্যরাও মেনে চলবেন, প্রত্যাশা করি। যেকোনো জায়গায়, এর অন্যথা হলে, আমরা যথাসাধ্য ব্যবস্থা নেব।
    তো, এইগুলো হল বাহ্যিক সমস্যা। আভ্যন্তরীন কিছু গপ্পোও আছে। কিছু সমস্যা, কিন্তু পরিকল্পনা। মূলত যেগুলোর জন্য এই লম্বা এবং বোরিং লেখার অবতারণা। প্রথমে সমস্যাটা বলি। সেটা গুরুর মডেল সংক্রান্ত। মডেল বলতে চটি বই, ইত্যাদি, যেটা আগেই ব্যাখ্যা করলাম। আমরা বইয়ের দাম কম, খুবই কম রাখি। নীতিগতভাবেই। ফলে বইয়ের বিক্রি খুবই ভালো হলেও, আমাদের মেরেকেটে টাকাটা উঠে আসে। কখনও সামান্য কিছু লসও হয়, কিন্তু সেটা অ্যাবসর্ব করে নেওয়া যায়। এগুলোর কোনোটাই কোনো সমস্যা না, কারণ আমরা প্রফিটের জন্য এই খেলায় নামিনি। সমস্যা এই, যে, এইভাবে চললে আমাদের টাইটেলের সংখ্যা প্রত্যাশিতভাবে বাড়ছেনা। প্রাথমিক বিনিয়োগ কম থাকায়, যেটুকু রোল করছে, সেটা থেকেই পরের বই ছাপতে হচ্ছে, এবং আমরা বছরে চার-পাঁচ-ছয় এর বেশি বই ছেপে উঠতে পারছিনা। শুরুর দিকে, এটা কোনো সমস্যা ছিলনা। ছাপার জন্য অত বই ছিলনা। কিন্তু এখন তো ঠিক শুরুর ফেজ না। প্রকাশযোগ্য বইয়ের সংখ্যা দেখি ভালই। কিন্তু অত বই ছেপে উঠতে পারিনা। ফলে ক্ষতিটা পাঠকেরই হয়। এই হচ্ছে সমস্যা।
    সমস্যা সমাধানের একটা উপায় হতে পারে, ঝট করে বইয়ের দাম বাড়ানো। সেটা করতে চাইনা একেবারেই। নীতিগতভাবে চটি বই শুরু করার লক্ষ্য একটাই ছিল, কম দামে সস্তা বই পাঠকের কাছে পৌঁছনো। সেটা থেকে সরে ‘দামী’ প্রকাশক হবার কোনো মানে নেই। সেটা ভাবাও হচ্ছেনা। পরিবর্তে আরেকটা উপায় ভাবা হচ্ছে। যদি বইয়ের স্পনসরশিপ নেওয়া যায়। ব্যক্তি করুন বা প্রতিষ্ঠান( যদিও কেন কোনো প্রতিষ্ঠান এটা করবেন, জানা নেই, কিন্তু তবুও, বলা তো যায়না)। অফিশিয়ালি সেটার নাম দেওয়া যায় "বই দত্তক নেওয়া"। মডেলটা এরকমঃ যাঁরা প্রোজেক্টটায় আগ্রহী, হাত তুললেন। আমরা সম্ভাব্য বইয়ের নাম বা তালিকা তাঁদের কাছে উপস্থিত করলাম। এবার সেখান থেকে বেছে নিয়ে (যদি পছন্দ হয়)একটি বইয়ের আংশিক বা সম্পূর্ণ খরচ আগ্রহীদের মধ্যে থেকে কেউ বা কোনো প্রতিষ্ঠান বহন করলেন। বইতে তাঁদের নাম দেওয়া হল। লেখকও কিছু টাকা পেলেন, বইয়ের দামও সস্তা রাখা হল। বলাবাহুল্য টাকাটা দত্তকদাতা ফেরত পাবেননা। ওটা বইয়ের পরবর্তী সংস্করণে রোল করবে। এক্সক্লুসিভলি।
    দ্বিতীয় আরেকটি ব্যাপারেও সাহায্য চাইব। সেটি আর্থিক নয়। একটা গুরুচন্ডালি লেখক-পাঠক সমবায় তৈরির কথা ভাবা হচ্ছে। তেমন কিছু না, একটি মেলিং লিস্ট। সেখানে যাঁরা আগ্রহী, তাঁরা বইগুলি নিয়ে নানা প্রোমোশানে একটু সাহায্য করবেন। টুকটাক আর কি। এটাও বেশ জরুরি কাজ, কিন্তু খুব বেশি পরিশ্রম নেই। কেউ আগ্রহী থাকলে জানাবেন।
    আমার/আমাদের দিক থেকে মডেল এটাই। চটি পাঠকের কাছে পৌঁছনোর একটা পন্থা। পাঠকসংখ্যা বাড়ানো, পাঠকের কাছে বই নিয়ে যাওয়া, এই আমাদের ঘোষিত অবস্থান। চটি একটা উপায়। চটি ছাপব, দরকার হলে অন্য পন্থাও নেব। কিন্তু পাঠকের বেস বাড়ানোর অবস্থান থেকে এই মুহূর্তে সরছিনা। বিষয়টায় আগ্রহী হলে জানান। অন্য কোনো মতামত থাকলেও অবশ্যই জানান। সেই জন্যই এই লেখা জনারণ্যে প্রকাশ করা। কীভাবে কী করা হয়, ভাবা হয়, ভাবা হচ্ছে, এই নিয়ে নানা স্পেকুলেশন, প্রচার, অপপ্রচার নানাদিকে হচ্ছে। আমাদের দিক থেকে পরিষ্কার ভাবে জানানো হল। কোনো প্রশ্ন করার থাকলে এখানেই করে ফেলুন। অন্য কোনো স্পেকুলেশনে কান দেবেননা। নানা জায়গায় নানা কথাবার্তা হয়, সেসব আমাদের কানেও আসে। কিন্তু ওতে গুরুত্ব দেবেননা। আমরাও দিইনা। যাকে বলে ইঞ্চিতে ইঞ্চিতে মাপ করে দিই। :-)

    পুঃ যাঁরা যোগাযোগ করতে আগ্রহী, [email protected] এ একটা মেইল ঠুকে রাখতে পারেন। এখানে জানালে বা মেসেজ করলেও হবে।

    পুঃ পুঃ ভবিষ্যতে গুরুর একটি নোটিসবোর্ড ব্লগ হবে। এখনও নেই, লেখাটাতেও প্রচুর 'আমি', আমি ' আছে, ঠিক নৈর্ব্যক্তিক নোটিস না। তাই ব্যক্তিগত ব্লগেই থাক। কিন্তু আহ্বানটা গুরুর দিক থেকেই।
  • ব্লগ | ১৬ মে ২০১৬ | ১০০৫৪ বার পঠিত
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • ছোটোলোক | 198.155.168.109 (*) | ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৮:৩৯53487
  • কীরকম আইন জানতে চাচ্ছি। কোম্পানি খুলবার আইনগুলো পষ্ট করে বলা হোক। সঙ্গে আসুক ভারতীয় আয়করের নিয়মবিধি। ওয়ান বাই ওয়ান সমস্ত ক্লিয়ার হোক।
  • pinaki | 90.254.154.105 (*) | ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৮:৩৯53488
  • যাকগে, এই আলোচনা আমার মনে হয় আর না বাড়ানোই ভালো। টুক৯বাবুরা জমিয়ে টুক৯ করুন। তাঁদের শুভেচ্ছা। :-)
  • Rit | 213.110.242.20 (*) | ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৮:৪০53489
  • কনফ্লিক্ট অফ ইন্টারেষ্ট নিয়ে জানতে খুব আগ্রহী।
  • ট্যারান টুলা | 131.241.218.132 (*) | ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৮:৪৭53490
  • ল্যাদোশদা ২ঃ০৭ - মোর লাইক ব্র্যান্ড থেফ্‌ট।
  • lcm | 83.162.22.190 (*) | ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৮:৫০53491
  • ইয়েস, এগ্জ্যাক্টলি - ব্র্যান্ড থেফ্‌ট্‌।

    এখন সবরকম চেষ্টা বলতে, পিনাকি যেরকম বলল - ডেকে বলো - যে ভাই, ঠিক আছে, আলাদা প্রকাশনা তৈরি করবে করো, কিন্তু আমাদের লি-কার ইউজ কোরো না, আর, ইন্ডিপেন্ডেন্টলি অপারেট করো, আমাদের নাম / "ব্র্যান্ড" ইউজ কোরো না । কাবলিদার ঠিকানা উনি যাকে খুশি ইউজ করতে দিতে পারেন। সুতরাং, ঠিকানা নিয়ে কিছু বলতে গেলে কাবলিদাকে বলতে হবে।
    আর কল্লোল-দা যেমন বললেন, লিখে দাও যে তোমরা গুরুচন্ডালি নও। এদিকে তোমরাও ঝুলিয়ে দাও যে তোমরা লিরিকাল নও।

    এই তো, সহজ ব্যাপার - সিম্প্‌ল্‌ ।

    আর যদি এসব কথা নাও শুনে থাকে, তাতেই বা কি।

    গুরু যেমন চলছে চলবে।
  • Rit | 213.110.242.20 (*) | ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৮:৫৩53492
  • ব্যস্ত মনে হচ্ছে। যাই হোক। কমেন্ট টা একটু লুজ ছিল। কনফ্লিক্ট অফ ইন্টারেস্ট তখনি আসে যখন আমি কোনও দুটো কনফ্লিক্টিং অরগানইজেশনের সাথে যুক্ত। আর যুক্ত মানে বাউন্ড বাই সাম টার্মস, ফাইনান্সিয়াল অর আদারওয়াইজ। আমি টোটাল আউট্সাইডার। গুরুর এই টইতে কমেন্ট ব্যাতিরেকে কারোর সাথে কোনওভাবেই যুক্ত নই। হাঁ এটা ঠিক গুরুর বই আমার বাড়িতে প্রচুর আছে। আর গুরুর অনেকে ফেসবুক ফ্রেন্ডলিস্টে ছিল। কিন্তু লাস্ট এক ঘন্টায় কিছু বন্ধু সংখ্যা কমলো মনে হল। যাই হোক তাতে অসুবিধে নেই। নো হার্ড ফিলিং।
  • ছোটোলোক | 198.155.168.109 (*) | ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৮:৫৫53493
  • ভারতীয় আয়কর নিগমের কিছু নিয়মকানুন আছে। আয়কর দেওয়া এবং আয়কর রিটার্ণ জমা করা প্রত্যেক বছর। সেসব নথি আছে তো?
    অনাবাসীদের নামে ভারতে কোম্পানী খুলবার আইনটাও ঝালিয়ে নিতে হবে। তথ্য গোপন করে করলে তার কী কী বিধিনিষেধ সমস্তই এবার জেনে নেওয়া যেতে পারে। দশটা বছর ধরে যখন এত ভাল বইপত্র বিক্রি হচ্ছে।
  • pi | 74.134.66.54 (*) | ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৮:৫৭53494
  • তাহলে খোলাখুলিই বলি। বলতে চাইনি, তাও বললি বলেই বলছি। তোর স্ত্রী ওদের হয়ে সমস্ত কাজ করেছে, একদম গোড়া থেকে।হয়য় প্রফেশনালি টাকার বিনিময়ে বা তা ছাড়া। অফিশিয়ালি , ঘোষিতভাবে। একদম গোড়া থেকে তুই এই উদ্যোগের সাথে আছিস বলে জানি। এই লি ৯ , ঠিকানা, সবই তোর প্রথম থেকে জানা। আমাদের দিক থেকে কী বক্তব্য, তা তুই কোনদিন শুনতেও চাসনি। আর তুইও ওদের হয়ে কাজ করেছিস। সে তুই করতেই পারিস। কিন্তু তোর কথা শুধু একজন পাঠক হিসেবে একেবারেই নয়। এটা গুলিয়ে দেবার তো মানে নেই !
    আর এগুলো যেহেতু প্রথম থেকে তোর জানা, হয়তো এটাও জানা ছিল, গুরুকে বিন্দুমাত্র কিছু না জানিয়ে গুরুর সাথেই কাজ করা কিছু লোকজন এই কাজ করে গেছেন। কল্লোলদাকে গুরুরই ভাটে গুরুর বই আনতে যাবার সময় কারাগারের দ্বিতীয় খ্ণ্ড ঐ প্রকাশনা থেকে করতে বলা হয়েছে। গুরুর সাথে যুক্ত বহু বহু লেখকের কাছে জানানো হয়েছে, শুধু সৈকতদা

    সিকি, তোমার কিছু তথ্যে ভুল আছে। গিল্ডে কেন এসেছেন বলেনি। আমরা শুনেছিলাম, সিস্টার কনসার্নের কথা, সেটা গিল্ডকে বলাতে তারাই বলে ঠিক শুনেছেন, এই নিয়ে চিঠি দিন।
    কোন প্রকাশিত বই না থাকলে বইমেলার স্টলের জন্য আবেদনই করা যায়না। এটা স্টলের জন্য দেওয়া বিজ্ঞপ্তিতে বলা থাকে। গিল্ডে গিয়েও দেখেছি, কেউ প্রকাশিত ক্যাটালগ না আনলেও ( থাকা সত্ত্বেও) , তাকে ফেরত পাঠানো হয়। যেহেতু ওদের এই বইমেলার আগে কোন প্রকাশিত বইই ছিলনা, নানা লোকজন এই নিয়ে প্রশ্ন তোলে এবং আমাদের বলা হয়, ওরা নিজেদের প্রকাশিত বই আছে বলে জানিয়ে আবেদন করেছে, এবং গুরুর বই সেক্ষেত্রে কোনভাবে ব্যবহৃত হয়ে থাকতে পারে, শোনা গেছে। আমাদের গিল্ড থেকে স্পষ্ট করে জানাতে বলা হয়েচিল, আমাদের কোন সিস্টার কনসার্ন নেই ( তার সাক্ষীও আছে), সেটুকুই জানানো হয়েছে।

    আর হ্যাঁ, আমাদের ব্যাংক আকাউণ্টে এখনো তাদের লোকজনের নাম। আমাদের সমস্ত কাগজও বহুদিন তাদের কাছে ছিল। এই সমস্ত ঘটনায়, এমনকি আমাদের যে ঠিকানায় সব কিছু আসে থাকে, সেই ঠিকনাতেও আমদের কিছু না জানিয়ে কাজ শুরু হওয়ায়, আমাদের ভাটে আসা লোকজন, আমাদের কাজ্কর্ম করা লোকজনকেও আমাদের না জানিয়ে ওরা আপ্রোচ করতে থাকায়, আমরা অবশ্যই আশঙ্কিত।
    শুধু তাই নয়, সেইসব লোকজনের নাম করে আবার মিথ্যা বলা হয়েছে, যে তাঁরা নাকি ওদের আপ্রোচ করেছেন।

    আমাদের সাথে পুরো কাজ করা অবস্থায়, আমাদের সাথে কাজ করা লোকজনকে ডেকে ডেকে বলা হয়েছে, গুরুর সাথে কেন থাকে, থেকে কী লাভ ইঃ।

    আর ব্যক্তিগত লেভেলে কী নোংরা স্ল্যাণ্ডারিং করিয়েচে বা তার রসদ জুগিয়েছে ( এমনকি একবার তার জন্য ক্ষমাও েয়েছে, যদিও পরে আঅবারো তাই করেছে), তার নমুনা এখানে কেউ কেউ জানেন।
  • robu | 213.132.214.83 (*) | ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৯:০০53496
  • একদম স্পষ্ট করে দেওয়া ভালো, গুরুর প্রতি সিম্প্যাথাইজ করছি, এক্ষেত্রে।
    গুরু এবং বর্তমানে লিরিক্যালের অনেকেই বন্ধু আছেন, থাকবেন, তাদের পোস্টে কমেন্ট, লাইক করবো, তাদের সাথে ছবিও তুলবো, এবং অন্যপক্ষ না চাইলে ব্যক্তিগত সম্পর্ক কোনো মোটেই ক্ষুণ্ণ হবে না।
    কিন্তু একই সাথে দ্ব্যর্থহীন ভাষায় এও বলে রাখা ভালো লিরিক্যালের অনেককটা জিনিস ভালো চোখে দেখলাম না।
    তার মানে এই নয় অবশ্যই যে ভবিষ্যতে লিরিক্যালের কোনো বই পছন্দ হলেও কিনবো না।
  • Rit | 213.110.242.20 (*) | ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৯:০০53495
  • ধন্যবাদ আবার।

    আমার স্ত্রী, যিনি কখনও গুরু তে এক লাইনও লেখেন নি বা পোস্ট করেন নি তিনি কি করছেন বা করছেন না তার দায় আমাকে নিতে হবে এটা আর যাই হোক গুরু থেকে এক্সপেক্ট করিনি। ঃ)

    কিসব নারীমুক্তি না কিসব কথা আছে শুনেছিলাম কোথায় যেন!!
  • ছোটোলোক | 198.155.168.109 (*) | ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৯:০২53499
  • অনাবাসীর নামে কোম্পানী হলে সেই ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ও কোন ধরণের সেটা জানা দরকার। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে জীবিকা বা উপার্জন করে সেই তথ্য গোপন রেখে টানা দশ বছর ভারতে এরকম কোম্পানী খুলে রাখা যায় কি? মার্কিন সরকার এব্যাপারে অবহিত? ভারত সরকার অবহিত?
  • pinaki | 90.254.154.105 (*) | ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৯:০২53498
  • এই রোবু যেটা বলল - সেইটাই এক্সপেক্টেড অবস্থান হওয়া উচিৎ ছিল অনেকেরই। হলে হয়তো এই সমস্যাটা এতটা ডালপালা মেলতো না।
  • Rit | 213.110.242.20 (*) | ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৯:০২53497
  • পেট্রিয়ার্কি বাবা। মগজের গোড়ায় ঢুকে আছে। একটা মেয়ের নিজের অস্তিত্ব নেই। তার কাজের দায় তার স্বামীর। তিনি যদি প্রফেশনালি অর আদারওয়াইজ কোথাও যুক্ত থাকেন সেটা তিনি তাঁর স্বামীকে জানাবেন এটা ধরে নেওয়াও সেই পেট্রিয়ার্কিই।
    যাই হোক। মজা পেলাম বেশ। ঃ)
  • Rit | 213.110.242.20 (*) | ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৯:০৪53500
  • রোবু দা,
    ঠিক।
  • pi | 74.134.66.54 (*) | ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৯:০৫53501
  • ঋত, কোন প্যাট্রিয়ার্কি নয়। তুই এই প্রকাশনার মেইলএ একদাম গোড়া থেকেই ছিলি বলে আমাদের জানানো হয়েছে। আর তুই তো ওখানে স্টলে বসেছিস, স্টল সাজিয়েছিস, বই বিক্রি করেছিস। এগুলো দেখা।
  • সিকি | 57.30.11.156 (*) | ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৯:০৬53503
  • আচ্ছা, যেটুকু ভুল বলেছি, সেটুকু কথা ফিরিয়ে নিলাম। ক্ল্যারিফাই করার জন্য ধন্যবাদ পাইকে।

    অন্যদিকে, ভারতীয় আয়কর ও অনাবাসী ভারতীয় পড়ে এমন হাসি পেল, ও নিয়ে কিছু না বলাই ভালো। :)
  • Rit | 213.110.242.20 (*) | ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৯:০৬53502
  • গুরুর স্টলে যারা থাকে তাদের তুমি এমপ্লয়ী ভাবো নাকি?
    বেশ বেশ।
  • lcm | 83.162.22.190 (*) | ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৯:০৮53504
  • এবার ক্লিয়ার হল আর একটু।

    বইমেলাতে স্টল রেজিস্টার করবার প্রসেস নিয়ে একবার দেখেছিলাম, ২০০৩-২০০৪ সাল নাগাদ, একটি পোর্টাল ওয়েবসাইটের জন্য। তখন বলেছিল, নিজেদের পাবলিকেশনের কিছু স্যাম্প্‌ল বই আবেদনপত্রের সঙ্গে জমা দিতে, বা সিমিলার কিছু। আর, যখন বললাম আমাদের বই টই কিছু নাই, শুধু ওয়েব সাইট আছে - তো তেমন স্টলের আবেদনের সেরকম কোনো ক্যাটাগরি ছিল না।

    সেই নিয়মে, তাহলে স্টল রেজিস্ট্রেশনের সময় চাইবে বই-এর স্যাম্প্‌ল। তখন, ঐ তো আমরা গুরুচন্ডালির লোক - এই যে সব আমাদের বই - এই বলে রেজিস্ট্রেশন হয়েছে।

    গুরুর ব্র্যান্ড/নাম কোথায় ব্যবহার হয়েছে এবার পরিষ্কার বোঝা গেল।
  • Rit | 213.110.242.20 (*) | ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৯:০৯53507
  • তাও কনফ্লিক্ট অফ ইন্টারেস্ট পরিষ্কার হল না। মানে যদি ধরেও নি আমি ৯ঋকালের লোক। তারপর?
    গুরুর কোন মিটিং এ আমি ছিলাম? বা আমি গুরুর কোন পেচেকে আছি সেটাও ক্লিয়ার হোক। বরং উল্টোটা হয়েছে।
  • pinaki | 90.254.154.105 (*) | ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৯:০৯53506
  • যাঁরা চোরেদের স্টল সাজাবেন, খুব স্বাভাবিকভাবেই তাঁদের গৃহস্থের স্টল সাজানোর বরাত দেওয়া হবে না। :-) এ নিয়ে কনফিউশন না রাখাই ভালো নয় কি?
  • ট্যারান টুলা | 37.63.186.219 (*) | ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৯:০৯53505
  • রোবুকে ক। যদিও সেভাবে আমার সাথে বিশেষ কারোরই যোগাযোগ নেই, অল্প কয়েকজন ব্যতিক্রম ছাড়া। কাজেই ঐ লাইক/ছবি ইত্যাদি ইরেলিভ্যান্ট। বই কেনা বা না কেনা মর্জি।

    তবে লোগো/ট্রেডমার্ক/ব্র্যান্ড/ট্যাগলাইন সংক্রান্ত এথিক্স না মানতে পারলে খুব বড় মুখ করে বলতে আসার কিছু নেই।
  • ছোটোলোক | 198.155.168.109 (*) | ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৯:১১53508
  • কিছু বলা তো যাবে না। কারণ অ্যামেরিকায় চাকরি করে ভারতে এরকম কোম্পানী খোলা যায় না। দশ বছরের ইনকামট্যাক্স রিটার্ণ নেই কোন। মালিক এনারাই এদিকে সে সব গোপন করে ভারতে বসবাসকারী দেখিয়ে কোম্পানী চলছে দশ বছর। কোনো ইনকাম ট্যাক্স দেওয়া হয় নি। ট্যাক্স রিটার্ণ জমা হয় নি। হাসি তো পাবেই যখন ইনকাম ট্যাক্স এসে কথা বলবে।
  • ছোটোলোক | 198.155.168.109 (*) | ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৯:১৩53509
  • কারোকে চোর বলবার আগে জেনে নিন, কী বলছেন। বেআইনিভাবে যারা ব্যবসা করে তাদের মুখে এটা মানায় না।
  • pinaki | 90.254.154.105 (*) | ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৯:১৩53511
  • বোঝা গেল, গুরুকে আইনের পথে নিয়ে আসার চেষ্টা করে ব্যার্থ হয়ে এই টুক৯বাজির উদ্যোগ। ;-)
  • pi | 74.134.66.54 (*) | ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৯:১৩53510
  • কিছু লোকজন আমাদের জানিয়েছেন, তাঁরা বলেছিলেন, একসাথে কাজ করার কথা। তখন এরকম উত্তর পেয়েছেন।
    কারুর কাছে শুনেছি, ওরা বলেছে আমাদের নাকি এই প্রকাশনা নিয়ে বলা হয়েছে, আমরা ইন্টারেস্ট দেখাইনি, করবনা বলে ওরা আলাদা করছে। যেটা মিথ্যে।
    কোথাও লোকজন্কে বলেছে, ওরা তো গুরুরি লোক। এখনো। গুরুর সাথে কোনরকম কনফ্লিক্ট কিচ্ছু নেই। তাই গুরুর বন্ধু বা গুরুর কাজ করা লোক হিসেবে তারা যেন ওদের সাথে কাজ করতে কোনোঅরকম দ্বিধা না করে। শুধু আমাদের সাথে এনিয়ে যে কোন কথাই বলেনি, সেটুকু জানায়নি।
    আরো কত কথা শুনলাম। লোকজন এসে এসে বলে গেছে। অন্য কোন সার্কলে অনেকদিন ধরেই আমাদের চটি বই নিয়ে, চটির কনসেপ্ট নিয়ে,নানা কিছু নিয়ে স্ল্যাণ্দারিং চালিয়ে গেছে। সোশ্যাল মিডিয়ারটা তো নিজেদের চোখেই দেখা। মানে যেখানে যেটা খাবে, সেটা বলা।

    আমাদের সাথে তো সুমেরুদা পুরো দস্তুর কাজ করছিল। সেখানে ভিতরে ভিতরে এই কাজ করা, এতদিন ধরে কাজ করার মধ্যেই লোকজনকে অন্য প্রকাশনা নিয়ে আপ্রোচ করে যাওয়া, সেই ২০০৯ থেকে নাকি পরিকল্পনা ছিল, তার বিন্দুমাত্র কিছু আমাদের না জানিয়ে আমাদের সাথে কাজ করা, রঞ্জনদার মাধ্যমে সেই কবে কথা বলতে চাওয়ার পরেও কথা না বলা, আর তারপর এই ৯ দিয়ে নাম দেওয়া, একই ঠিকানা না জানিয়ে ব্যবহার করা , আমরা কেন লি কে ৯ দিয়ে লিখি, তাই নিয়ে সইকতদা লেখার পরে নিজেদের সমস্ত লি কে ৯ দিয়ে রিপ্লেস করে দেওয়া, এগুলো অনেকে জানতেন না। তাঁদের কিছু বলার নেই। যাঁরা জেনেবুঝেও এগুলোতে কোন সমস্যা দেখতে পাননা, তাঁদেরও কিছু বলার নেই।
  • lcm | 83.162.22.190 (*) | ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৯:১৪53512
  • কিন্তু, এ ব্যাপারটায় এবার ইতি দাও। এখন মনে হয় না এ নিয়ে আর অলোচনা করে কোনো লাভ আছে।

    যা বোঝা গেল, পরের বইমেলায় আর কোনো ঝামেলার চান্স নেই। হোপফুলি।
  • Rit | 213.110.242.20 (*) | ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৯:১৫53513
  • আমি কবে গুরুর ইনসাইডার ছিলাম? আমাকে কনফ্লিক্ট অব ইন্টারেস্ট বললে তো, তাই বলছি।

    অন্য লোক কে কি করলো না করল তাতে আমার কোনও ইন্টারেস্ট নেই।

    কথা হল, ঝোপে ঝোপে বাঘ দেখো না। তাতে লাভ হয় না।
  • de | 24.139.119.174 (*) | ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৯:১৬53514
  • লিরিক্যালের কাজটা খুবই আনএথিক্যাল হয়েছে - এ বিষয়ে কোন সন্দেহ নেই। এত ঘনিষ্ট সম্পর্কে এমন হওয়া উচিত ছিলো না। পাই না ঈশানের খারাপ লাগাটা খুবই স্বাভাবিক। আমি গত প্রায় একবছরে ফেবুতে ঢুকিনি, তাই কিছুই জানতাম না!
  • সিকি | 57.30.11.156 (*) | ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৯:১৭53515
  • আরিশ্শালা! দশ বছর? এনারাই? হ্যাহ্যাহ্যাহ্যাহ্যাহ্যা :)
  • pinaki | 90.254.154.105 (*) | ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ ০৯:১৮53516
  • ভাই ঋত, কনফ্লিক্ট এই অর্থেই যে এখানে তোমার একটা পক্ষ অলরেডি আছে। তুমি নিজেকে নিরপেক্ষ বলে দেখানোর যে চেষ্টা শুরুতে করছিলে, এবং জর্জ বুশ টুশ বলে একটা মরাল হাইগ্রাউন্ড নেওয়ার চেষ্টা করছিলে, সেটার ভান্ডা ফোঁড় হয়েছে। সেটুকু স্বীকার করে নিলেই চলবে।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। চটপট মতামত দিন