• হরিদাস পাল : I -র পাতা

  • I -র সর্বশেষ লেখাগুলি
  • ভুখা বাংলা ঃ ' ৪৩-এর মন্বন্তর (পর্ব ৬) - I
    বিভাগ: হরিদাস পালেরা | লিখেছেন : I | ০২ জুন ২০১৯ | মোট মন্তব্য : ৬ | শেষ মন্তব্য : ০৩ জুন ২০১৯ | শেষ মন্তব্য করেছেন : Amit , lcm, রঞ্জন ...



    একজন মানুষ বাংলার দুর্ভিক্ষে অত্যন্ত বিচলিত হয়ে পড়েছিলেন, যাঁর বিচলিত হওয়ার বিশেষ কোনো কারণ ছিল না। কিম্বা এভাবেও বলা যেতে পারে, বিচলিত না হয়েও তিনি দিব্যি জীবন কাটিয়ে দিতে পারতেন। ইনি স্টেটসম্যান পত্রিকার তৎকালীন মুখ্য সম্পাদক ইয়ান স্টিফেন্স। আপাদমস্তক রক্ষণশীল ইংরেজ এই মানুষটি ভারতের স্বদেশী আন্দোলনের প্রতি আদৌ সহানুভূতিশীল ছিলেন না। গান্ধীর তিন সপ্তাহব্যাপী অনশনকে তিনি কড়া ভাষায় সমালোচনা করেছিলেন; বলেছিলেন-প্রচারের আলোয় আসার উদ্দেশ্যে একজন রাজনীতিবিদের হীন প্রয়াস।

    এহেন স্ট

    ( ..... আরও পড়ুন )

  • ভুখা বাংলাঃ '৪৩-এর মন্বন্তর (পর্ব ৫) - I
    বিভাগ: হরিদাস পালেরা | লিখেছেন : I | ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮ | মোট মন্তব্য : ৩৮ | শেষ মন্তব্য : ২৯ মার্চ ২০১৯ | শেষ মন্তব্য করেছেন : খ, pi, lcm ...

    (সতর্কীকরণঃ এই পর্বে দুর্ভিক্ষের বীভৎসতার গ্রাফিক বিবরণ রয়েছে।)
    ----------

    ১৯৪৩-এর মে মাস নাগাদ রংপুর, ময়মনসিংহ, বাখরগঞ্জ, চিটাগং, নোয়াখালি থেকে অনাহারে মৃত্যুর খবর আসতে থাকল। 'বিপ্লবী' পত্রিকার ২৩ শে মে সংখ্যায় মেদিনীপুরে ৫টি অনাহারে মৃত্যু আর ৮টি ধান লুঠের খবর বের হল।জানানো হল-প্রতিদিন ছ' থেকে সাতশো মানুষ তমলুক থেকে রেলে চাপছে ওড়িশায় গিয়ে সস্তায় চাল কিনবে বলে। বহু মানুষ তাদের ঘটিবাটি বেচে দিয়ে কলকাতার দিকে রওনা হয়ে যাচ্ছে-স্রেফ দুমুঠো খেতে পাবে এই আশায়। পাবনা থেকে খবর এল জে

    ( ..... আরও পড়ুন )

  • ভুখা বাংলাঃ '৪৩-এর মন্বন্তর (পর্ব ৪) - I
    বিভাগ: হরিদাস পালেরা | লিখেছেন : I | ০৬ ডিসেম্বর ২০১৮ | মোট মন্তব্য : ১১ | শেষ মন্তব্য : ০৯ ডিসেম্বর ২০১৮ | শেষ মন্তব্য করেছেন : dd, Tim, I ...

    'একটা কোনো দেশকে ছাড় দিলেই হয়ে গেল- আর দেখতে হবে না; সবাই মিলে একেবারে 'দাও' দাও' বলে চীৎকার জুড়ে দেবে'- ৪৩'এর ১০ই মার্চ ওয়ার ক্যাবিনেটের এক মেমোতে মন্তব্য করবেন চার্চিল, কলোনিগুলিতে যুদ্ধকালীন খাদ্যসরবরাহ নিয়ে কথা বলছিলেন তখন তিনি-'আমাদের ('ব্রিটেন'-মন্তব্য আমার) দেখে শিখুক সবাই; নিজেদের বন্দোবস্ত নিজেরাই করে নিক গে!' (1)

    মাস তিনেক ধরেই লিনলিথগো ভারতের খাদ্য-সংকটের কথা বলে আসছিলেন। ভারতকে খাওয়ানোর মত খাদ্যশস্য যে নেই তা নয়,অস্ট্রেলিয়াতেই যথেষ্ট গম মজুদ আছে। কিন্তু সেখান থেকে ভার

    ( ..... আরও পড়ুন )

  • ভুখা বাংলাঃ '৪৩-এর মন্বন্তর (পর্ব ৩) - I
    বিভাগ: হরিদাস পালেরা | লিখেছেন : I | ২৯ নভেম্বর ২০১৮ | মোট মন্তব্য : ৬ | শেষ মন্তব্য : ০২ ডিসেম্বর ২০১৮ | শেষ মন্তব্য করেছেন : Du, I, বিপ্লব রহমান ...

    পর্ব ৩
    ------
    '৪২ -এর ৮ই অগাস্ট এ আই সি সি-র অধিবেশনে 'ভারত ছাড়ো' আন্দোলনের প্রস্তাব পাশ হল। পরদিন ভোরবেলাতেই ব্যাপক ধরপাকড় চালিয়ে পুলিশ কংগ্রেসের অধিকাংশ প্রথম সারির নেতা ও কর্মীকে গ্রেপ্তার করে ফেলল। এতে দমে যাওয়া তো দূরের কথা, উল্টে ব্যাপক স্বতঃস্ফূর্ত আন্দোলন ছড়িয়ে গেল উপমহাদেশের বিস্তীর্ণ অঞ্চলের তৃণমূল স্তরের মানুষের মধ্যে।এই বিপুল আন্দোলন (যাকে লিনলিথগো ১৮৫৭-র পরে সবচেয়ে ব্যাপক আন্দোলন বলে বর্ণনা করেছেন) দমনে ব্রিটিশ পুলিশ-প্রশাসন-সেনাবাহিনী সেসময় যে বর্বরতা দেখিয়েছিল, তা স

    ( ..... আরও পড়ুন )

  • ভুখা বাংলাঃ '৪৩-এর মন্বন্তর (পর্ব ২) - I
    বিভাগ: হরিদাস পালেরা | লিখেছেন : I | ২৪ নভেম্বর ২০১৮ | মোট মন্তব্য : ১৪ | শেষ মন্তব্য : ৩০ নভেম্বর ২০১৮ | শেষ মন্তব্য করেছেন : কুশান, কুশান, রুখসানা কাজল ...

    আসন্ন জাপানী আক্রমণের হাত থেকে ভারতকে বাঁচাবার কোনো বন্দোবস্ত ব্রিটিশ সরকার অন্ততঃ ১৯৪১এর শেষদিক অবধি করে উঠতে পারে নি। ভারতীয় সেনাবাহিনীতে তখন ১০ লাখ সৈন্য, কিন্তু অধিকাংশই আনপড়; অস্ত্রশস্ত্রের অবস্থাও তথৈবচ। সেরা সাতটি ভারতীয় ডিভিশন তখন ভূমধ্যসাগরের উপকূলে অক্ষশক্তির সঙ্গে প্রাণপণ লড়াইয়ে ব্যস্ত। এদিকে ব্রিটিশ সাম্রাজ্যের "দ্বিতীয়" শহর কলকাতা প্রায় অরক্ষিত। কোনো অ্যান্টি-এয়ারক্রাফট গান, এয়ার রেইড ফ্লাড লাইট বা রাডার সেট নেই; নেই কোনো আধুনিক ট্যাঙ্ক বা ফাইটার প্লেন। জেনারেল অকিনলেক ওয়ার ক্যাবি

    ( ..... আরও পড়ুন )

  • ভুখা বাংলাঃ '৪৩-এর মন্বন্তর - I
    বিভাগ: হরিদাস পালেরা | লিখেছেন : I | ১৮ নভেম্বর ২০১৮ | মোট মন্তব্য : ১৮ | শেষ মন্তব্য : ৩০ নভেম্বর ২০১৮ | শেষ মন্তব্য করেছেন : dd, I, সিকি ...

    পর্ব ১
    -------
    ( লালগড় সম্প্রতি ফের খবরের শিরোনামে। শবর সম্প্রদায়ের সাতজন মানুষ সেখানে মারা গেছেন। মৃত্যু অনাহারে না রোগে, অপুষ্টিতে না মদের নেশায়, সেসব নিয়ে চাপান-উতোর অব্যাহত। কিন্তু একটি বিষয় নিয়ে বোধ হয় বিতর্কের অবকাশ নেই, প্রান্তিকেরও প্রান্তিক এইসব মানুষজনের বেঁচে-থাকার কিস্যা, খেতে পাওয়া- না পাওয়া, রোগ হওয়া-না হওয়া, রোগ হলে ওষুধ পাওয়া-না পাওয়া,নেশা করা-না করার কাহিনীতে আমাদের, মূলস্রোতের নগরবাসীদের তেমন কিছু এসে যায় না ; আমরা, নাগরিকেরা, প্রান্তের প্রতি,লালগড়-আমলাশোলের প্রতি ঠিক

    ( ..... আরও পড়ুন )

  • শেষ ঘোড়্সওয়ার - I
    বিভাগ: হরিদাস পালেরা | লিখেছেন : I | ১৫ জুলাই ২০১৮ | মোট মন্তব্য : ১৬ | শেষ মন্তব্য : ২৪ জুলাই ২০১৮ | শেষ মন্তব্য করেছেন : avi, বিপ্লব রহমান , বিপ্লব রহমান ...

    সঙ্গীতা বেশ টুকটাক, ছোটখাটো বেড়াতে যেতে ভালোবাসে। এই কলকাতার মধ্যেই এক-আধবেলার বেড়ানো। আমার আবার এদিকে এইরকমের বেড়ানোয় প্রচণ্ড অনীহা; আধখানাই তো ছুটির বিকেল--আলসেমো না করে,না ঘুমিয়ে, বেড়িয়ে নষ্ট করতে ইচ্ছে করে না। তো প্রায়ই এই টাগ অফ ওয়ারে আমি জিতে যাই, কিম্বা সঙ্গীতা আমাকে জিতিয়ে দেয়।
    কখনো কখনো ওরও অবশ্য জিততে ইচ্ছে করে। সেইরকম এক রোববার সন্ধ্যায় আমাদের ইকো পার্ক যেতে হল। ইকো পার্ক বাড়ি থেকে তেমন বেশি দূর না, কিন্তু যাতায়াত একটু ঝঞ্ঝাটে।তেঘরিয়া মোড় পৌঁছে সেখান থেকে অটো করে হলদিরাম, সেখান

    ( ..... আরও পড়ুন )

  • মানসভ্রমণঃ ঘরে বসে করলেই ভালো, নইলে বড় হ্যাপা - I
    বিভাগ: হরিদাস পালেরা | লিখেছেন : I | ২৮ নভেম্বর ২০১৫ | মোট মন্তব্য : ১৫৮ | শেষ মন্তব্য : ০২ ডিসেম্বর ২০১৮ | শেষ মন্তব্য করেছেন : Tim, I, aranya ...

    স্ট্র্যান্ড রোডে স্ট্র্যান্ডেড
    ---------------------------

    কথা ছিল বড় ঘড়ির নিচে তিনটেয়। কেননা গাড়ি তিনটে চল্লিশে। বাপিকে জিগ্গেস করলাম-বাপি, ক'টায় বেরোনো যায়? বাপি মাছি তাড়ানোর মত করে বলল-কেন, দুটোর সময় বেরোবেন ! তেঘরিয়া থেকে হাওড়া স্টেশন যেতে আর কত সময় লাগবে ?
    যেন, এটা কোনো প্রশ্নই নয়।
    আমরা কিন্তু তাও সাড়ে বারোটা। বিশেষ করে রাত্রি। সাড়ে বারোটার কথা আমার মাথাতেই এসেছিল, পরে রাত্রি তাতে স্টিক করে যায়। আমি এদিকে যেমন ফলোয়ার চিরকালের, জবরদস্ত কথা শুনলেই মজে যাই, বাপিতে প্রভাব

    ( ..... আরও পড়ুন )

  • I - I
    বিভাগ: হরিদাস পালেরা | লিখেছেন : I | ১১ জানুয়ারি ২০১৫ | মোট মন্তব্য : ২ | শেষ মন্তব্য : ১৩ জানুয়ারি ২০১৫ | শেষ মন্তব্য করেছেন : cm, ranjan roy ...

    বিশ্বখ্যাত নাট্যমনীষী, স্তালিনবাদবিরোধী নিরলস সংগ্রামে সমর্পিতপ্রাণ শ্রীমতী সমর্পিতা বোসের সাম্প্রতিকতম পালা "নাট্যখামার" দেখতে বঙ্গের সকল নাট্যানুরাগী মা ও মানুষকে(মাটির মানুষ, বলাই বাহুল্য-বেঁড়েপাকা হলে চলবে না) আহ্বান জানানো হচ্ছে। নাটকের মূল চরিত্র তুষারকণা-র চরিত্রে সমর্পিতা স্বয়ং এবং ন্যাপলা-র চরিত্রে বিশ্রুত নাট্যব্যক্তিত্ব শিক্ষাগুরু অমাত্য বসু অভিনয় করছেন। অন্যান্য চরিত্রে রয়েছেন খ্যাতনামা নট ক্ষৌণীশ পাত্র ও মানবেশ বন্দ্যোপাধ্যায় প্রমুখ। শতাব্দীর সেরা চমক হিসাবে নাটকের শুরুতেই অতিথি

    ( ..... আরও পড়ুন )

  • কী দেখতে যাও দিল্লি-লাহোর... - I
    বিভাগ: হরিদাস পালেরা | লিখেছেন : I | ০৯ নভেম্বর ২০১৪ | মোট মন্তব্য : ৬ | শেষ মন্তব্য : ০৪ ডিসেম্বর ২০১৪ | শেষ মন্তব্য করেছেন : Biplob Rahman, de, sumeru ...

    NH 31 C থেকে রাস্তাটা ডানদিকে বেঁকে যায়। সরু, ছোট্ট রাস্তা। ধুলো-ওড়ানো । শুকনো হলং নদীর ওপরে একটা কাঠের ব্রীজ আছে। সেই ব্রীজ পেরিয়ে মাদারিহাট ট্যুরিস্ট বাংলো। কাঠের ব্রীজ চোখে এলেই-আর ঐ লাল-নীল পতাকাগুলো,- ঘরে ফেরার শান্তি হয়। অথচ এর আগে একবারই তো এসেছি। মাত্রই একবার। আসলে জঙ্গল। ডুয়ার্স। তবে বাংলোটাকেও বড় ভালো লেগে গেছিল।
    এবার এসেছি কড়া দুপুরের মধ্যে। প্রথমবার, মনে পড়ে, সকাল তখনও নরম ছিল। এবার পাহাড় থেকে নেমে আসা। কোলাখাম থেকে লাভা এসে একপ্রস্থ দাঁড়িয়ে থাকা। পাহাড়ী ড্রাইভাররা কেউই সমতলে

    ( ..... আরও পড়ুন )

  • দেশভাগঃ ফিরে দেখা - Indranil Ghosh Dastidar
    বিভাগ: হরিদাস পালেরা | লিখেছেন : Indranil Ghosh Dastidar | ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৭ | মোট মন্তব্য : ১৮ | শেষ মন্তব্য : ২৮ এপ্রিল ২০১৯ | শেষ মন্তব্য করেছেন : গবু, ♾, I ...

    রাত বারোটা পেরিয়ে যাওয়ার পর সোনালী পিং করল। "আধুনিক ভারতবর্ষের কোন পাঁচটা ঘটনা তোর ওপর সবচেয়ে বেশী ইমপ্যাক্ট ফেলেছে? "
    সোনালী কি সাংবাদিকতা ধরল? আমার ওপর সাক্ষাৎকার মক্সো করে হাত পাকাচ্ছে?
    আমি তানানা করি। এড়িয়ে যেতে চাই। তারপর মনে হয়, এটা একটা ছোট্ট খেলা। নিরাপদ। এর মধ্যে কোনো বিস্ফোরক নেই। নীল তিমি নেই। গৌরী লঙ্কেশ নেই ( না, গৌরী লঙ্কেশ তখন ভাবিনি, গৌরী লঙ্কেশ তো তার পরে ঘটল)।আমার নিমসুখী মধ্যবিত্ত জীবনে এমন ছোটখাটো খেলা সস্তা ও পুষ্টিকর। বিপর্যয়হীন। যে বিপর্যয় মানুষকে, লক্ষ লক্ষ মানুষক

    ( ..... আরও পড়ুন )

  • I-র সর্বশেষ লেখাগুলি পাতা : 2 | 1
  • হরিদাসের বুলবুলভাজা : সর্বশেষ লেখাগুলি
  • মিষ্টিমহলের আনাচেকানাচে
    (লিখছেন... dipak das, দীপক, tester)
    যাত্রাপথের আনন্দগান
    (লিখছেন... শক্তি , গ, Shibanshu De)
    চন্দ্রশেখর আজাদ
    (লিখছেন... Shibanshu De, বিপ্লব ব্যানার্জী, দ)
    আমরা দেখে নেবোই : রোহিত ও নাজীবের জন্য
    (লিখছেন... quark, লোহিয়া থেকে)
    মরফিন
    (লিখছেন... দ, সুকি, স্বাতী রায়)
  • টইপত্তর : সর্বশেষ লেখাগুলি
  • কাগজ আমরা লুকাবো না
    (লিখছেন... র২হ, FB, রঞ্জন)
    গুরুর নতুন লেআউট
    (লিখছেন... lcm, পিনাকী, বিপ্লব রহমান )
    বই মেলা এসে গেল, লিস্টি টি করা যাক...
    (লিখছেন... pi, :-I, দ)
    গুরুচণ্ডা৯র প্রকাশিতব্য বইএর জন্য দত্তকের আহ্বান
    (লিখছেন... গুরুচণ্ডা৯, গুরুচণ্ডা৯)
    হুতোর কাজ
    (লিখছেন... rabaahuta, ম, )
  • হরিদাস পালেরা : যাঁরা সম্প্রতি লিখেছেন
  • দক্ষিণের কড়চা
    (লিখছেন... $#, Parthasarathi Giri, গুরুচণ্ডা৯)
    প্লাবন
    (লিখছেন... Loton)
    মাই নেম ইজ অ্যান্থনি গঞ্জালভেজ
    (লিখছেন... b, :-(?), ন্যাড়া)
    মস্তি সেন্টার
    (লিখছেন... দ)
    এট্টু সাইড করে দাঁড়ান
    (লিখছেন... test, palaash, বিপ্লব রহমান )
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তত্ক্ষণাত্ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ যে কেউ যেকোনো বিষয়ে লিখতে পারেন, মতামত দিতে পারেন৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...

  • যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
    মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত