বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

এই সুতোর পাতাগুলি [1]     এই পাতায় আছে1--1


           বিষয় : আমার বিকেল
          বিভাগ : অন্যান্য
          শুরু করেছেন :মঞ্জিস রায়
          IP Address : 236712.158.8956.74 (*)          Date:07 Jul 2019 -- 04:38 PM




Name:  মঞ্জিস রায়           

IP Address : 236712.158.8956.74 (*)          Date:07 Jul 2019 -- 04:39 PM







আমার বিকেলবেলা

মঞ্জিস রায়



কাজের ভিড়ে আমার কখনও আড়ি করতে হয় বিকেলের সাথে l কিন্তু এই অনাবিল মায়াময় সময় আজও আমার বন্ধু l আমার বিকেলবেলা আমায় শুনিয়ে যায় কোনও দলছুট মেয়ের গল্প l হঠাৎ কোনও এক বিকেলে সে হারিয়ে গিয়েছিল, আর ফেরেনি l আজও তাকে খুঁজে ফেরে আমার বিকেল l

আমার বিকেল আজও ছেলেমানুষ l সে অভিমানী,সে ছটফটে, তার পায়ের তলায় সর্ষে l কখনও আবার তাকে মনে হয় একজন অসহায়, নিঃসঙ্গ বৃদ্ধের মত l

আমার বিকেল শুধুই নিঃসঙ্গ কিংবা দুঃখবিলাসী নয় l বাড়ির ছাদ, লোকাল ট্রেন, ঝিলপাড়ের রাস্তা, হাইওয়ে, মামাবাড়ির উঠোন, সাইকেলের চাকা, স্কুল ফেরত ছেলেমেয়েদের দল, হারমোনিয়াম- এসব আজও মিশে আছে আমার বিকেলের সাথে l

আমার বিকেলের একটা অংশ ঢেউ গোনে কোনও সমুদ্রের পারে, আরেকটা অংশ ঘুরে বেড়ায় সোনাঝুরির হাটে কিংবা কঙ্কালীতলায় l

আমার আলুথালু বিকেল দাগ কেটে যায় আমার জানলায়, প্রশ্রয় দেয় আমার কবিতা ভেবে লেখা হিজিবিজিকে l

এখন তো হাওয়ায় ভোটের কলরব l চারদিকের ধর্মান্ধতা, দুর্নীতি, অত্যাচার দেখে এবং কিছু নেতাদের অশ্রাব্য কথাবার্তা শুনে আরও হতাশ হয় আমার বিকেল l তখন সেই বিকেলে আমার ঘরে কেঁদে ওঠেন সংগীতের দেবতা বিসমিল্লাহ l গাছের শেষ পাখি যখন ঘরে ফিরে আসে, তখন দূরে কোথাও বিকেল শেষের জানান দেয় শাঁখ l ছটফটে ছেলেমেয়েরা ব্যাগ থেকে খাতাবই বের করে বিরসমুখে পড়তে বসে l আমি ফিরে যাই কিছু বছর আগে ফেলে আসা স্কুলবেলায় l

কোনও কোনও বিকেলে আমার কাছে বুবুন আসে l ওর বিকেল আরও উদাস, আরও দলছুট, কিন্তু আরও কাব্যময় l ওকে যখন ছোটবেলায় একজনও খেলতে নিত না, অন্যরকম ভাবত, তখন ওর খুব মনখারাপ হত l কিন্তু এই বেসুরো নিঃসঙ্গতা ওকে বুঝতে শিখিয়েছে নীরবতার ভাষা, হাসতে শিখিয়েছে বসন্তের সাথে, কাঁদতে শিখিয়েছে হেমন্তের সাথে l ওর বিকেলের ব্যর্থতার গল্প , জীবনের কাছে ঠকতে ঠকতে উঠে দাঁড়ানোর গল্প, সবকিছুই জানে আমার বিকেল l আসলে বুবুন খোপের মধ্যে আঁটত না l ওর চিন্তা ভাবনায় ম্যাচিওরিটি থাকলেও, কিছু কিছু ব্যবহারজনিত সমস্যা ওর জগৎটাকে ছোট করে দিত l


এক এক সময় চৌরাসিয়ার বাঁশি শুনে আমার আর বুবুনের বিকেল অঝোরে কাঁদে l বুবুনের উপস্থিতিতে আমার বিকেলগুলো কবিতা হয়ে যায় l ওর স্কুলজীবনে বিভিন্ন ভাবে সবাই ওকে নিরুৎসাহিত করত l বুবুনের বড় বড় চোখ জলে ভরে যেত l অনেক বয়জ্যেষ্ঠরা বুবুনকে বলত, ' তোর আর কি হবে?' হয়ত বুবুনের চোখ দুটো তখন আমাদের বাড়ির পেছনের বর্ষাকালের অশ্বত্থের জলটুপটুপ পাতার মত l
এই যে আজকের বিকেলে বুবুন আস্তে আস্তে উঠে দাঁড়াচ্ছে, এসব বললে বুবুন খানিক লজ্জাই পায় l বুবুনের বিকেল কখন যেন একাকার হয়ে যায় আমার বিকেলের সাথে l স্কুলের ছেলেদের অত্যাচার, বাইরের পৃথিবীর মুখ ঘুরিয়ে নেওয়া সব ক্ষমা করে দেয় বুবুনের পড়ন্ত বিকেল l তখন ও বেশ বড় হয়ে যায় আমার কাছে l

বুবুনের হাত ধরে আবার অন্য পরিসরে বিকেলযাপন করব l




এই সুতোর পাতাগুলি [1]     এই পাতায় আছে1--1