বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

এই সুতোর পাতাগুলি [1] [2] [3] [4] [5] [6] [7] [8] [9] [10] [11] [12] [13] [14] [15] [16] [17] [18] [19] [20] [21] [22] [23] [24] [25] [26] [27] [28] [29] [30] [31] [32] [33] [34] [35] [36] [37] [38] [39] [40] [41] [42] [43] [44] [45] [46] [47] [48] [49] [50] [51] [52] [53] [54] [55] [56]     এই পাতায় আছে1411--1440


           বিষয় : পর্বে পর্বে কবিতা - তৃতীয় পর্ব
          বিভাগ : অন্যান্য
          বিষয়টি শুরু করেছেন : pi
          IP Address : 128.231.22.133          Date:17 Dec 2011 -- 07:10 AM




Name:  sosen          

IP Address : 177.96.35.127 (*)          Date:03 Jun 2016 -- 11:56 PM

কেন লিখতেই হবে? তার চেয়ে এই ঝুল বারান্দায়
বসে বসে দেখা যাক একাত্তর ছুটে যাচ্ছে করুণাময়ীর দিকে
সল্টলেকের গায়ে হলুদ আলো পড়েছে
মেঘ ছিঁড়ে, আর হস্টেলের কুকুরটা কোত্থেকে একটা
এঁটো পাতা টেনে এনেছে
খোলা দরজার ফাঁক দিয়ে দেখা যাচ্ছে
রোগা পিঠটা ঘুমুচ্ছে আর একটা ওঠানামা মাথার কাছে বসে আছে
ওসব লেখা যায় না
যেমন লেখা যায় না মগ্নতা, কিন্তু কেউ কেউ লেখে অবশ্যই
ঝাঁপ দিয়েও উঠে আসে পরান্বয়ী নাচের কুশলতায়
আর আমার অভিমান হয়
পাতার উপর স্তব্ধ পা ফেলে আমি হেঁটে যাই
দূরে, উত্তরের দিকে, কুয়াশায় যেখানে
চিত্রাঙ্গদা বদলে যায়। এই তো সেদিন, বেশিদিন লিখিনি তো তোকে।


Name:  zuzu          

IP Address : 118.247.127.47 (*)          Date:04 Jun 2016 -- 05:29 AM

নীরবতা

ছিঁড়ে ফেলো সব চিঠি
মুছে ফেলো আঁকিবুকি রেখা
ঝরনায় ভেসে যাক
বলা ও না বলা সব কথা।

হাওয়ায় কফির গন্ধ
জলছায়া নির্জন লেকে
একান্ত অতীত শুধু
কে তার খবর ধুর রাখে।

হাপুস বৃষ্টি ভেজা
আছে দিন, শেষহীন রাত
তোমার তুমুল সুখে ,
নীরবতা, ফোনের ওপাড়।



Name:  শ্ব          

IP Address : 53.224.129.45 (*)          Date:10 Jun 2016 -- 07:20 AM



যখ
~~

গোটা পাঁচেক দেয়াল , গোটা তিনেক ছাদ ,
ভেঙ্গে পড়ছেনা বলে নাম বাড়ি । সামনে আগাছার ঝোপ যাকে তুমি
বাগান বলে চালাচ্ছো । দুটো নুলো খরগোশ একটা কানা বেজি , আমাদের
দারোয়ানটার বউ বলে যাকে চেনো ও বাজারের মেয়েমানুষ , দেশে রেখে এসে বলবে মরে গ্যাছে ।

তিনটে বাদামী কুবো , মাংস বেশিনা , ঢিল ছুঁড়লে সরে যায় ,কালো
হয়ে আসে বাতাস । ভাবো সন্ধ্যে হলো । কালছে হাওয়া ওড়ে এলোমেলো
আর গরুর গু মুতের গন্ধ ভেসে আসে রাস্তা থেকে । খেঁকুরে তুলসীগাছে কাটা তেলের
কুপি আর তার ধোয়া আর তার ধোয়া আর তার ধোয়া , তবু যদি দেখা যেত , যায়না ।

রাস্তা পেরোলে জল , জলের নীচে পাঁক , মাথা
গুঁজে থাকা গবেট মাগুর , ঝিন্ঝিট শিঙ্গি , ধুঁধুল শোল । একদিন
আমাদের বুবুটা মাছ ধরতে গেলো বর্শি ফর্শী নিয়ে সে কত গল্প কত তরিবত ,আর
কত অন্ধকার পাঁক ,কাদা , জল , জলে ডুবে থাকা খালুশ ,পচা শালুকের নাল , বুবুর ফোলা পেট ।

আকাশভরা মাটি , এঁটেল চটচটে মেঘ , বিলাইয়ের
বিষ্ঠার মত সবজে বাতাস ,আমি শ্বাস নেওয়া বন্ধ করেছি বহুদিন । উঠোন বললে সাদা ,
আর চাদর বললে তোমার মাথা অবধি ঢাকা, চোখে পড়ে।আর মাটির থেকে উঠে আসছে জল
ঘামে ভিজছে আল্পনার উঠোন , ইঁদুরে খাওয়া শ্রী , শব ডুবে যাচ্ছে সব , তবে খুব ধীরে ধীরে ধীরে ।।


Name:  nabagata          

IP Address : 24.139.222.66 (*)          Date:10 Jun 2016 -- 06:01 PM

অগুন্তি রিক্ত দিন ঝরাপাতা অন্ধগলি বেয়ে
গাছে বউল এলো, মিহিন আদর-মাখা পালক ছেয়ে
আছে গাঢ় সবুজের পাশে, বিকেলের ক্লান্ত রাজপথ
ছাদের সারির ফাঁকে এক চিলতে আকাশের দিকে চেয়ে
খাদের কিনারে হেলা সূর্যের দধীচি-ইচ্ছের আঁচ পেয়ে
ত্বরিত সম্বিতে ফেরে, ছুটে যায় হাতে হাতে জড়িয়ে শপথ
হরিত বিদ্যুত জ্বলে, সাহস ছড়ায় অলিগলি, সন্ধানী
আলো খোঁজে মুখ: উমর, কান্হাই নাকি এস আর গিলানি
ভালো বেসে এই মাটি, রুখেছে দুর্জয় যারা দানবের রথ
নিয়ন-বাতিতে জ্বলে মেকি দেশপ্রেম, রাষ্ট্রীয় পাহারা
জিয়ন-কাঠির, দ্রোহজ কুসুমের খোঁজে ঘোরে দিশাহারা
বহু ঊর্ধে, পাতার গহনে, বেপরোয়া লড়াকু হিম্মত
লোহুতে তোলে ঢেউ, চেতনায় লেখে আজাদীর স্বপ্নিল
ভাষা, মুক্তমনা বহুস্বরে গড়ে ব্যারিকেড, শকুনি-কুটিল
পাশা উল্টে দিয়ে, পায়ে পায়ে ঝঞ্ঝা তোলে, এগোয় মিছিল..


Name:  nabagata          

IP Address : 24.139.222.66 (*)          Date:10 Jun 2016 -- 06:02 PM

তরল জলরঙে বসন্ত কি আসে?
ছায়ার উপত্যকা রোদের ক্যানভাসে
জমাট ঘনশ্যাম অন্ধকার
অন্ধকার কুঁদে ধারালো সবুজ পাতা
নাড়ি ছেঁড়া মুকুলের তামাটে রক্তাভা
চাপ চাপ গাঢ় কৃষ্ণচূড়া
এসব ই দীর্ঘ আঁচড়ে আঁচড়ে
শপথের মত সাহসী ড্রাই ব্রাশে
উজ্জ্বল আকাশে আঁকে
রোহিত ভেমুলার মুখ
দ্রোহজ শম্বুক-হাওয়ায় ঘূর্নিঝড়
পোকা-কাটা মানচিত্র কুটিকুটি করে
উড়িয়ে দেয় শুখা ফাগুয়া বাতাসে
অদৃশ্য চরণ এঁকে পোড়া ঘাসে ঘাসে
এ দেশে বসন্ত আসে


Name:  nabagata          

IP Address : 24.139.222.66 (*)          Date:10 Jun 2016 -- 06:04 PM

আজ ওর লগ্ন এল 
অনন্তের মুখোমুখি নির্জন দাঁড়াবার 
আলোর দিগন্তে যে কৃষ্ণ পারাবার 
শব্দের ওপারে যে মৌন অতল 
স্মৃতির ভূখন্ড ঘিরে বিস্মৃতির জল 
ওকে আজ কাছে পেল 
বালিতে ঠিকরে ওঠা ফেনিল বিস্ময় 
ভেজা হাতে ছুঁয়ে দিল শিশুর হৃদয় 
পেছনে আমরা বসে, এই প্রত্যয়ে 
বাড়ালো দুহাত, যেন ঢেউয়ে ঢেউয়ে বয়ে 
অনায়াসে পাড়ি দেবে সময়-উজানে 
অজানা আঁধার ঠেলে, জীবনের মানে 
জেনে নিতে নিতে একা; তবে দেরী আছে 
বালি সরে যাওয়া দেখে আমাদের কাছে 
এখনো আশ্রয় খোঁজে 
অচেনার শিহরণে বুকে মুখ গোঁজে 
ঘরে ফিরে যেতে চায়, তবে আজ ও যে 
পেয়েছে অসীমকে, অগাধ সঞ্চয় 
নিয়েছে বুক ভরে, আসবে সময় 
যাবে ওই পথ ধরে ভিজে বালুময় 
ঢেকে যাবে পদচিহ্ন, যেরকম হয় 
সময়-সৈকতে, নিশ্চিন্তির বালিঘর 
ধুয়ে যাবে  জলে, ঝাউয়ের মর্মর 
এনে দেবে কানে চেনা তরঙ্গের স্বর 
যাকে ও জেনেছে আজ বুকের ভেতর 







Name:  sosen          

IP Address : 50.128.208.34 (*)          Date:10 Jun 2016 -- 06:59 PM

নবাগতর লেখা ভালো লাগল।


Name:  Tim          

IP Address : 108.228.61.183 (*)          Date:10 Jun 2016 -- 07:40 PM

একক ফ্যান্টাস্টিক।

নবাগতর ২ আর ৩ নম্বর কবিতা ভালো লাগলো।


Name:  sosen          

IP Address : 184.64.4.97 (*)          Date:11 Jun 2016 -- 07:10 AM

সন্ধের পর টুকরোটাকরা লাইন কুড়িয়ে
জড়ো করে
উনুনের ধারে বসি।
ডিমের ঝোল, আধখানা ডিমের কুসুম ভেজে শক্ত করে দিলে
মহাভোজ উপচে পড়ে হ্যারিকেনের পাশে।
গরম একহাতা বসন্তের মতো
লুয়ের পরে চোখজ্বালার মতো বিস্মরণ
হঠাৎ ফিরে আসবে
জানলার ওপাশ থেকে চুল টেনে দিলে
শিউরে উঠবো আবার
আর বুঝতে পারবো ভাঙছে মাটি।


কিন্তু আমি হাঁটুর মধ্যে মুখ গুঁজে বসে থাকবো
তুই কোলের মধ্যে মুখ ডুবিয়ে রাখলেও
আমার খিদে পায়
সবুজ শ্যাওলার মধ্যে নাড়িভুঁড়ি জড়িয়ে যাওয়া খিদে।
বেআক্কেলে মরণের মতো, পুকুরঘাটের মতো
খিদে আমায় ডাকে, শরীরের ফুটোফাটায় কান পাতলে
হা হা করে ডাক শুনি
আগুন দিয়ে, পেঁয়াজ রসুনের গন্ধ দিয়ে, রবার দিয়ে
ঢেকে রাখতে হয়
উদ্যত কালো কোটরের খিদে। মা বলে দিয়েছিল
কারো বাড়ি গেলে খিদের কথা বলতে নেই

কিন্তু এটা তো আমার বাড়ি, আমার গা, আমার বুক, পেট, ঠোঁট
এই সবটা জুড়ে খিদে পেলে
এখন তুমি মুখে নুন দিয়ে
আমার চিৎকার থামিয়ে দিও না, মা
এই ফ্যানের হাঁড়িতে ভাগযোগ নেই।




Name:  শ্ব          

IP Address : 53.224.129.53 (*)          Date:11 Jun 2016 -- 07:47 AM


প্রান্তর
------

ভোর হলো ,
নিঃশব্দ ঢাকীর আওয়াজ,
প্রতিটি দরজা খুলে, দেখছো এগিয়ে
আসা সাদা হাত শিশুমুখ মণিদেশে দৃঢ় অন্ধকার

ওরা সারারাত হেঁটেছে ,

সারারাত যজ্ঞের ছাই ,সারারাত ব্রাহ্মন ভোজন
পূর্ণ থেকে পূর্ণ ঢেলে মিলে যাওয়া চান্দ্রেয়ী হিসেব

জনকাদি সিদ্ধ তবু পূর্বনির্দিষ্ট
তাই , দরজা তো খুলতেই হয় ,ওরাও
অনেক , তার ওপর সারারাত হেঁটে হেঁটে আসা ।।


Name:  sosen          

IP Address : 184.64.4.97 (*)          Date:11 Jun 2016 -- 10:56 AM

ইচ্ছে রটায় চতুর্দিকে, ইচ্ছে তুমি সরিয়ে রাখো
দূর নদীতে। এখন
আট প্রহরের ধাঁধা লাগায় চোখে
রুপোলি মাছ, নাকে নথের সবুজ
পেটির কাছে ছোট্ট জরুল
জন্মদাগে অরণ্যানী। এখন তোমার ঠোঁটের মাঝে
বিষ জমেছে, নেশার মহুল
কাঁটায় রাধা বিঁধে আছে।
আটপ্রহরের শেষে
আকাশে মার্চ গড়িয়ে এলো, মাঝের বেলায়
মেল ও চিঠি, শনিবারের বারবেলাতে
অতুলপ্রসাদ
এদেশ ওদেশ, মাঝখানেতে সমুদ্রজল।
ধুলোমাখা কম্পিউটার, লম্বা চুলে টানবিনুনি,
ভাগ্য হাসে দ্বিপ্রহরের কালবেলাতে
যজ্ঞে কখন লাগলো ধুনি।




Name:  Nabagata          

IP Address : 11.39.39.242 (*)          Date:11 Jun 2016 -- 11:42 AM

Amar kobita pore jnara motamot diyechen tnader anek dhannyabad . E patay eto asadharon sob kobita , sosen, shaw, farida aro aneker je alada kore mughdhota janano jai na...ender pashe nijer kobita tulte sottyi besh sonkoch hoy...




Name:  শ্ব          

IP Address : 53.224.129.54 (*)          Date:27 Jun 2016 -- 12:21 PM


ইমারতি বাজারের বাড়ি
~~~~~~~~~~~~~~~~

জল খেতে উঠে সোফায় ঘুমিয়ে
ওকে স্বপ্ন দেখলুম ,ওদের ইমারতি বাজারের বাড়ি
বড় ছাদ আর অন্ধকার সিঁড়ি পিছলে নেবে আসা আলো
সবই দেখা হলো , বই রেখেছে যেন
মুড়ির টিন , বইটা ফেরত দিতেই যাওয়া

যেটা আবার আমি গেলবার বাড়ি
বদলের সময় অযুত কার্টনের মাঝে হারিয়ে ফেলি , আর
রোজই ভাবি খুঁজি দেখবো আর মনে পরে
সেবার এতো তাড়াহুড়ো করে গেলুম এলুম
যে দেখা করা- বই নেওয়া - কত গল্প , কথা ছিল - কিছুই হলোনা

এইসব ভাবছিলুম বারান্দায় দাঁড়িয়ে
ওদের ইমারতি বাজারের বাড়ি , কার্নিশের
ধার ধরে গালচে মস আর সেইযে কে এসে : একটু দাঁড়ান ,
বলে চলে গ্যালো , আমি অবশ্য মুড়ির টিন গোছানোয়
মন দিয়েছি , বইটা জায়গামতো রেখে দি , নেবার কালে হাত থেকে

নিয়েছিলুম কি ? মনে পড়েনা , ও ক্রমশ ঘর থেকে এসে
আলোয় দাঁড়ায় আর বলে : যাক তাহলে ফেরত
দিতে এসে দেখা হলো, বল ? কত বছরের প্ল্যানিং ! আমরা
হেসে ফেলি , ওর মুখটি ভারী উজ্জ্বল , চিবুকের তলায়
ভাঁজ , আমি মনে করিয়ে দিতে যাই যে এটা স্বপ্ন, বইটা

সেবার নেওয়াই হয়নি , ও দেখি সব জানে , টেনে ছাদে
নিয়ে যায় , আমরা মসের গালচে পেতে বসি আর
ইমারতি বাজারের কাকেরা ডায়মন্ড শেপে চক্কর দিতে থাকে
মাথার ওপর , কথা তো ইমেলেই হয় কত বছর , বরং
একটু বসে থাকি আয় , ও বলে , কখনো ছবি দেখাস নি ক্যানো ? আমি বলি

তাহলে তো দেখাই হতোনা , তাই না ? কথা যা কিছু
বাদ রাখিনি তো কখনো , আর কলকাতায় ইমারতি বাজার
ম্যাপ খুঁজে এলে কোথায় পেতিস ? তা অবশ্য ঠিক , আমরা
বাতাসে হেলিয়ে বসি মসের গালচেতে ; কিছুক্ষণ বাদেই আমার
এলার্ম বাজবে সকালে ওঠার , ওকেও জেগে উঠতে হবে সমুদ্রের ওপারে , ব্যাকইয়ার্ডে

পার্টি , মেয়ের সুইট সিক্সটিন , মানুষের শব্দের রিয়ালিটির ভীড়ে
আবার কবে ঘুমের মধ্যে জেগে উঠবে টানেল , জানা নেই , বই ফেরতের
অছিলাও তো রইলো না আর , বসে থাকি চুপচাপ ; এই যে গন্ধটা পাচ্ছি
এটা কোলন নয় ওর ঘামের গন্ধ , এই আকাশটা ইমারতি বাজারের , এই নিভন্ত
সূর্য আর মাথার ওপর স্লো মোশনে নির্বাক শত শত কাক , সাড়ে এগারো মিনিট বাকী এলার্ম বাজতে ।।


Name:  sinfaut          

IP Address : 11.39.98.209 (*)          Date:28 Jun 2016 -- 01:39 PM

ছবি হয়েছে ছবি। শুধু ঐ " মানুষের শব্দের রিয়ালিটির ভীড়ে" আর " স্লো মোশনে নির্বাক শত শত কাক " শ্ব মাপ অনুযায়ী আধিক্য বোধ হলো।


Name:  sinfaut          

IP Address : 11.39.98.209 (*)          Date:28 Jun 2016 -- 01:40 PM

* শ্ব এর মাপ


Name:  dd          

IP Address : 116.51.225.209 (*)          Date:01 Jul 2016 -- 11:14 PM

কোথাও কোনো আওয়াজ নেই। পুরোপুরি নিঃশব্দ। স্তব্ধতা।
কোন একটা কল থেকে চুপচাপ - ড্রিপ। ড্রিপ। ড্রিপ।
সেও বহুক্ষণ পরে পরে। আর সুদূর থেকে কোনো স্বপ্নের কুকুর
ক্ষীণ ঘেউ ঘেউ করে ওঠে। কখনো সখনো।

ব্যাস।

আর থাকে সন্ত্রাসের শব্দ। নাড়ি ভুঁড়ি ছেদ করে হি হি করে ওঠে ভয়।

এই নিয়েই রয়েছি কালিদা।




Name:  শ্ব          

IP Address : 53.224.129.48 (*)          Date:08 Jul 2016 -- 07:47 AM

রন্ধনপ্রণালী # ৯
~~~~~~~~~~~

কব্জি থেকে হাত কেটে নেওয়ার স্বপ্ন আমি দেখেছি
বহুবার মাংস কাটার কালে জ্বালা , তন্তু যন্ত্রনা ও হাড়ের উপর
ঠুকে ঠুকে চপার চালাবার সময় পিঠের মাঝখানে গিয়ে ধাক্কা লাগে
তবু আমার হাত কখনো মুঠি হয়না রোগা সরু আঙ্গুল আর লম্বা নখ
দেখে ঘুমন্ত অবস্থায় যে নেল পালিশ পরিয়ে দিতো তাকেও একদা অপটিক্যালের
তার কেটে ছেড়ে দি শূন্যে আর অনন্ত পানার ধারে ঘুরে ঘুরে কাক কাক কালো পাখি
বায়সের দল কোনো কৌলিন্য বিহীন তবু তাকে কাছে ডেকে দধিকর্মা দিতে হয়
এইরূপ নির্দেশ থাকে পৌরোহিত্যে যদিও প্রাচীন তবু কাকু বলে ডাকার
সুবাদে ওনার ছবিল মেয়ে নাক দিয়ে পোঁটা পোছে রুমালের আমাকে
দেখেই যদিও মালসা গন্ধে পাক হয় সুগন্ধী আতপ আর তার
থেকে নবজাতকের দেহ ধেয়ে আসে ঘাম নাকি উগলানো
দই তাকেও ভস্মে দিই ডুমো ডুমো কারী কাট করে


Name:  শ্ব          

IP Address : 53.224.129.48 (*)          Date:08 Jul 2016 -- 08:00 AM



একটা বিশাল বড় একরিয়ামের দিকে তাকিয়ে আমার দিন কাটে
আমার ঘরের চেও বড়
আমার ছাদের চেও উঁচু
আর এই মুহুর্তে ফিল্টারের পেছনে
দাঁত কিটকিট করছে যে হাঙ্গর ওকে তিনদিন হলো খেতে দিইনি ।

পাতলা কাঁচ সীমিত জল মাপা ঢেউ আর শিলান্যাস করা দুটো
অবুঝ লাইটহাউস
একটা অন্ধ ভিখিরি
আর তার এক দল ডুবন্ত ভক্ত
আমাকে করুণার কথা বলে যদিও আমি হাঙ্গরের পেট থেকে এযাত্রায়

বেরুবোনা আর -

খিদে পায় থেকে থেকে খিদে ।।


Name:  শ্ব          

IP Address : 53.224.129.48 (*)          Date:08 Jul 2016 -- 08:32 AM


।।


প্রাচীন লিপিতে কোনো যতিচিহ্ন ছিল না যেমন পড়ত লোকে
পড়তো তেমনই কিন্তু কী হয় পড়তে পড়তে কারো গরু ডাকে
ঘোড়া থামে ঘাস খেতে মানুষ মুখিয়ে দেখে বেড়ার ওপারে মুখ
ফিরে এসে ভুলে যায় শুরু শেষ তাই দাঁড়ি এলো যদিও কারোর
ঘোড়া জিন দেওয়া কারো গরু সন্ধে হলো পাটে কারো বেড়া
টপকিয়ে পরস্ব ছাগল মুড়িয়ে খেয়েছে কোনো সদ্যের কুঁড়ি আর
যতির ভিন্নতা বিনা সরাইখানার কোনো যাথার্থ্য থাকেনা প্রবল
ব্যসনে তাই কমা ড্যাশ কোলনের বিবিধ মিটার মেনে এযাবত
সভ্যতা শ্রোতার সমস্ত পথ আলো দিয়ে বেড়া দিয়ে বাঁধিয়ে দিয়েছে
সময় পুলিশ আর কোত্থাও কোনখানে এতটুকু নেই বোঝা নেই
এহেন খন্ডহরে আমি আর কতটুকু পারি নেহাতই হিংসার বশে
আবোদা পূর্ণের দাগ ঘষে তুলে খান দুই পাইপিং গেঁথে দেওয়া ছাড়া




Name:  kumu          

IP Address : 132.161.190.195 (*)          Date:13 Jul 2016 -- 11:05 AM



অন্যতর বৃত্তে যাব তবে?
দেওয়াল ও পর্দাঘেরা কৃষ্ণঘর ছেড়ে ওড়া?ঠিক?

প্রথম দিগন্তছোঁয়া বিহান, শেফালীগন্ধ
জ্বরতপ্ত চুলে দেবে বিলিবিলি কেটে?

কাঁসার পায়েসবাটি,মুঠোতে রঙ্গনফুল,ঘুলঘুলি খড়কুটো
দেবে নিরুচ্চারে আশ্বাস?

আলোকিত চরাচরে পূর্বমেঘনগরীতে
ক্ষোভক্লান্তি ধুয়ে যাবে? তাই?

যাত্রা করা যাক তবে,
চলো।


Name:  dd          

IP Address : 116.51.28.126 (*)          Date:13 Jul 2016 -- 11:33 AM

খনি ! খনি !


Name:  ranjan roy          

IP Address : 132.162.112.91 (*)          Date:13 Jul 2016 -- 06:41 PM


গল্প বলার গল্প
-----------------
একটা গল্প বলতে গিয়ে আমি
সোজা উল্টো ঘর বুনে ফেলি,
একটা গল্প বলতে বলতে শেষে
সোজা- কাঁটা উল্টো-কাঁটা খেলি।
এসে পড়ে গল্পের বেড়াল,
থাবা মারে উলের গোলায়।
গোলাটি গড়িয়ে যায় দূর
আমার তখন কান্না পায়।

গল্পের কাঠামো গেল ভেঙে,
পড়ে গেছে বেশ ক'টি ঘর।
মুচড়ে ধরি তার শীর্ণ গলা,
আমি আজ একান্ত বর্বর।

তবুও গড়িয়ে চলে গোলা
যেন এক ইচ্ছেমতী নদী,
পার হব? কোন দুঃসাহসে?
নদীকে বাঁধতে পারি যদি!

সে নদীর পাড়ে আছে বুঝি
এক ভীষ্ম পিতামহ গাছ।
কোটরে বেঁধেছে পাখি বাসা
মাছরাঙা তুলে নিল মাছ।

'তুলে নিল"? শব্দটি ভাবায়,
কে কাকে তুলেছে কোন কালে?
তোমাকে দিয়েছি যেই ফুল,
আমিই পড়েছি বাঁধা জালে।
এই বলে ব্যঙ্গমা বুড়োটা
হাই তোলে বুজে ফেলে চোখ,
ঘুম নেই ব্যঙ্গমীর চোখে
--- ও যে চেনে সবার নির্মোক।

কিন্তু যারা আসে মাঝরাতে,
লাথিয়ে দরজা ভেঙে ঢোকে,
তারা নাকি তুলে নিয়ে যায়?
--মুখ বন্ধ সঙীনে বন্দুকে।
========


Name:  kumu          

IP Address : 132.161.235.204 (*)          Date:18 Jul 2016 -- 06:37 AM

তুলে দিই।লিখুন ।


Name:  Atoz          

IP Address : 161.141.85.8 (*)          Date:19 Jul 2016 -- 02:10 AM

কই, কুমুদি? লিখবে না?


Name:  nabagata          

IP Address : 69.97.159.94 (*)          Date:17 Sep 2016 -- 11:50 AM


শাল দ্য গ্যল ২০১৫
এখানে কি আজো ঝরা ফুল?
সীতার গহনার মতো ইতস্তত আহত
অভিমান পথ জুড়ে, অশ্রুর মুক্তোদানা ?
অথচ, সেদিন তো জানত না
নীড়ের ঠিকানা ডানার তলায় গুঁজে
দিয়েছিলো যে উড়াল আকাশে অজানা
ঈশান কোণে অশনির আভাস খুঁজে
না পেলেও তো ভেঙেছে খড়কুটো-বাসা
নিমেষে কালিক মাত্রায় উষ্ণগহ্বরে
তলিয়ে যাওয়া, ভেসে ওঠা জন্মান্তরে;
. .......
মনে হয়, এতো অবহেলা ছিল জমে ?
পাথরে পাথরে ঘষা খেয়ে যদি জ্বলতো
আগুন, চেরা-জিভ অন্ধকার মাটি ফুঁড়ে
উঠতো বাসুকির মতো দুলিয়ে মেদিনী
তবু মনে হোত, সার্থকতা ছিল কিছু
স্বল্পায়ু স্বপ্ন-যাপনে, এতো অনায়াসে
নিবিড় বলয় ছিঁড়ে, বধির আকাশে ?
অন্য কক্ষপথে, অনিকেত পরাবৃত্তে?
.... .......
যুগান্ত পেরিয়ে স্মৃতির জানলা জুড়ে
তবুও মায়াবী রোদ, বেদনার পলিতে
অশ্রুর শিশির-স্নেহে ফুটেছে ঘাসফুল
অলৌকিক বৃষ্টি এসে মাটির বলিরেখা
মুছে দিচ্ছে, যাবতীয় ফাটল ভরে উঠেছে
বিন্দু বিন্দু অমৃতরসে, অপসারী পথেরা
অসীম স্পর্শকতলে বক্রতা বদলে
ছুঁয়ে যাচ্ছে পরস্পরকে; সময়ও পিছু ফেরে
অদৃশ্য চরণরেখা ধরে কুড়িয়ে নেয়
পুঁতির মতো যাপিত মুহূর্ত, মেঘের
স্তব্ধতা ভেঙে সুর জাগে মন্ত্রের স্বরে :

আজন্ম-লালিত সাধ ধরণীর প্রাণে
সোঁদা মাটি ঘাস থেকে উঠে আসা ঘ্রাণে
গোধূলি-আকাশ জুড়ে নীড়গামী গানে
সব, সব ভালোবাসা যেটুকু যেখানে
কুঁড়ি হয়ে জেগেছিলো, কিংবা পূর্ণদল
স্থিরচিত্রে ধরা থাক সেই মধুপল
পিছুটান নয়, শুধু হাতে হাত ধরে
জ্যোtস্না-সুখের রাতে, বিষাদ প্রহরে
মাঝে মাঝে দু একটি স্মরণীয় ক্ষণে
এসেছিলো আলো, তাকে বিচ্ছেদে বিজনে
হারাতে দিও না, রেখো বাহিরে অন্তরে
নিকটে ও দূরে, প্রেম জাগুক শিয়রে।



Name:  nabagata          

IP Address : 69.97.159.94 (*)          Date:17 Sep 2016 -- 11:51 AM

স্বেচ্ছা নির্বাসন পর্দা ছিঁড়ে, কতকাল পরে
চোখ তুলে তাকালাম তোমার দিকে, অমনি
যেন তীব্র ঈর্ষায় পাতাল ফুঁড়ে শতশির
দানবের হাঁ মুখ নীল আগুন ছিটিয়ে
গিলতে এলো তোমায়, অসহায় দর্শকের
মতো দেখছি পেরিয়ে যাচ্ছ একেকটা সেতু
আর তারা সশব্দে ভেঙে পড়ছে , অট্টহাসি
তুমুল তান্ডবে ঝাঁকাচ্ছে মাটি, জিভের আগুনে
চেটে নিচ্ছে তোমার টাটকা পায়ের দাগ.


শুধু ভালোবাসা দিয়ে যদি খোলা যেত
দেশকাল ফুঁড়ে যাওয়া অলৌকিক পথ
অভেদ্য কবচ হয়ে ঘিরতে পারতাম
দুরূহ দুর্যোগে বাতি হয়ে....কতদিন
দেখহ নেই, কথা নেই, একসাথে চলা
সেই কবে থেমে গেছে, মায়াবী তরঙ্গে
বিনিময় শুধু, সম্বোধন-হীন, তবু
দুটি প্রাণ কোনো এক দিন সর্ব অঙ্গে
মিলেছিল, একসুরে বেজেছিল বলে,
ওপারে কাঁপলে মাটি নিহিত মৃদঙ্গে
ঘা পড়ে এপারেও, অন্তর্জাল পাতায়
অলীক অক্ষর যেন শরীরী সত্ত্বায়
জেগে ওঠে ঘনঘোর দুর্যোগের রাতে
শিয়রে আসন পাতে, হাত রাখে হাতে।



Name:  nabagata          

IP Address : 69.97.159.94 (*)          Date:17 Sep 2016 -- 11:52 AM


Sob khobor bhalo to ? Helping hand ki desh theke firechhen ? Bhutu ar tomar sordid kashi asha kori ektu komechhe. Eid e tomader bodhhoy koyek din chhuti thake, hoyto rajshahi giyechhile....bhutur school ki eki thakle na change korle shesh porjonto janio.

Amader khobor emnite bhalo. Gopa ekhono ektu weak jodio college o onnyannyo sobi korchhe.

hothat ekta jaygay buddhadeb basu r bikhhoto kobita potrikar smpurno songrohe pelam, link ta niche. ..




http://crossasia-repository.ub.uni-heidelberg.de/view/schriftenreihen/
sr-248.html




E chhara amar goto ek der mase lekhha tinte notun kobita pathachi. ar songe pdf attachment e aro koyekta kobita, jegulo r ekta hoyto age pathiyechilam sobgulo noy. Ei attached kobita gulo bibhinno somoye gopa
r uddeshe lekha, or jonmodin chhilo to koyek din age, card e ei guys
O collage kore oke dilam . ...

bhalobasa nio. Bhutuke ador.

kobita 1





শাল দ্য গ্যল ২০১৫
এখানে কি আজো ঝরা ফুল?
সীতার গহনার মতো ইতস্তত আহত
অভিমান পথ জুড়ে, অশ্রুর মুক্তোদানা ?
অথচ, সেদিন তো জানত না
নীড়ের ঠিকানা ডানার তলায় গুঁজে
দিয়েছিলো যে উড়াল আকাশে অজানা
ঈশান কোণে অশনির আভাস খুঁজে
না পেলেও তো ভেঙেছে খড়কুটো-বাসা
নিমেষে কালিক মাত্রায় উষ্ণগহ্বরে
তলিয়ে যাওয়া, ভেসে ওঠা জন্মান্তরে;


. .......


মনে হয়, এতো অবহেলা ছিল জমে ?
পাথরে পাথরে ঘষা খেয়ে যদি জ্বলতো
আগুন, চেরা-জিভ অন্ধকার মাটি ফুঁড়ে
উঠতো বাসুকির মতো দুলিয়ে মেদিনী
তবু মনে হোত, সার্থকতা ছিল কিছু
স্বল্পায়ু স্বপ্ন-যাপনে, এতো অনায়াসে
নিবিড় বলয় ছিঁড়ে, বধির আকাশে ?
অন্য কক্ষপথে, অনিকেত পরাবৃত্তে?


..... .......


যুগান্ত পেরিয়ে স্মৃতির জানলা জুড়ে
তবুও মায়াবী রোদ, বেদনার পলিতে
অশ্রুর শিশির-স্নেহে ফুটেছে ঘাসফুল
অলৌকিক বৃষ্টি এসে মাটির বলিরেখা
মুছে দিচ্ছে, যাবতীয় ফাটল ভোরে উঠেছে
বিন্দু বিন্দু অমৃতরসে, অপসারী পথেরা
অসীম স্পর্শকতলে বক্রতা বদলে
ছুঁয়ে যাচ্ছে পরস্পরকে; সময়ও পিছু ফেরে
অদৃশ্য চরণরেখা ধরে কুড়িয়ে নেয়
পুঁতির মতো যাপিত মুহূর্ত, মেঘের
স্তব্ধতা ভেঙে সুর জাগে মন্ত্রের স্বরে :


আজন্ম-লালিত সাধ ধরণীর প্রাণে
সোঁদা মাটি ঘাস থেকে উঠে আসা ঘ্রাণে
গোধূলি-আকাশ জুড়ে নীড়গামী গানে
সব, সব ভালোবাসা যেটুকু যেখানে
কুঁড়ি হয়ে জেগেছিলো, কিংবা পূর্ণদল
স্থিরচিত্রে ধরা থাক সেই মধুপল
পিছুটান নয়, শুধু হাতে হাত ধরে
জ্যোৎস্না-সুখের রাতে, বিষাদ প্রহরে
মাঝে মাঝে দু একটি স্মরণীয় ক্ষণে
এসেছিলো এল, তাকে বিচ্ছেদে বিজনে
হারাতে দিও না, রেখো বাহিরে অন্তরে
নিকটে ও দূরে, প্রেম জাগুক শিয়রে।


kobita 2

স্বেচ্ছা নির্বাসন পর্দা ছিঁড়ে, কতকাল পরে
চোখ তুলে তাকালাম তোমার দিকে, অমনি
যেন তীব্র ঈর্ষায় পাতাল ফুঁড়ে শতশির
দানবের হাঁ মুখ নীল আগুন ছিটিয়ে
গিলতে এলো তোমায়, অসহায় দর্শকের
মতো দেখছি পেরিয়ে যাচ্ছ একেকটা সেতু
আর তারা সশব্দে ভেঙে পড়ছে , অট্টহাসি
তুমুল তান্ডবে ঝাঁকাচ্ছে মাটি, জিভের আগুনে
চেটে নিচ্ছে তোমার টাটকা পায়ের দাগ.


শুধু ভালোবাসা দিয়ে যদি খোলা যেত
দেশকাল ফুঁড়ে যাওয়া অলৌকিক পথ
অভেদ্য কবচ হয়ে ঘিরতে পারতাম
দুরূহ দুর্যোগে বাতি হয়ে....কতদিন
দেখহ নেই, কথা নেই, একসাথে চলা
সেই কবে থেমে গেছে, মায়াবী তরঙ্গে
বিনিময় শুধু, সম্বোধন-হীন, তবু
দুটি প্রাণ কোনো এক দিন সর্ব অঙ্গে
মিলেছিল, একসুরে বেজেছিল বলে,
ওপারে কাঁপলে মাটি নিহিত মৃদঙ্গে
ঘা পড়ে এপারেও, অন্তর্জাল পাতায়
অলীক অক্ষর যেন শরীরী সত্ত্বায়
জেগে ওঠে ঘনঘোর দুর্যোগের রাতে
শিয়রে আসন পাতে, হাত রাখে হাতে।




কোয়ান্টাম এনট্যাঙ্গলমেন্ট


ওপারে কাঁপলেই এধারেও দোলে মাটি, আজো.

বহুদিন আগে তারা ভিন্ন কক্ষে ছিটকে পড়েছিল
হৃদয়ের সূক্ষ্ম সংবেদী কণার জগt চাক্ষুষ বাস্তব
থেকে তো আলাদা, তাই নিগূঢ় কোয়ান্টাম নিয়মে
একবার ছুঁলে বাঁধা পড়ে যায় চির অমোঘ বন্ধনে
একই কম্পাঙ্কে জাগে অনুনাদ, নিবিড় স্বননে
এ পারে মাটি দুলে উঠলেই নিমেষে ওপারে
বার্তা বয়ে যায়, আলোক-দ্রুতিতে দূর-সঞ্চরণে।


Name:  nabagata          

IP Address : 69.97.159.94 (*)          Date:17 Sep 2016 -- 11:57 AM

ভুল করে কবিতা পেস্ট করতে গিয়ে ব্যক্তিগত ইমেইল এর কিছু অংশ পস্টেড হয়ে গেলো, ইগনোর করবেন প্লিজ। যদি পোস্ট আছে দেয়ার কোনো উপায় থাকে জানাবেন বা করে দিতে paren


Name:  nabagata          

IP Address : 69.97.159.94 (*)          Date:17 Sep 2016 -- 12:01 PM

পোস্ট মুছে দেয়ার মিন করেছি


Name:  dd          

IP Address : 59.207.58.33 (*)          Date:24 Sep 2016 -- 11:40 PM

একটু খানি ছিরিক আলো,আর সবই তো কালো
এরই মধ্যে কোন সুজনে হাত খানি বাড়ালে
কেউ দাঁড়ালো পুকুর পাড়ে, সেই যেখানে পাঁচিল
তার ঘষটানো ইঁট, নষ্ট লেখা, শ্যাওলা ভেজা পাথর
বড্ডো গুমোট,হাঁপ ধরে যায়,ভ্যাপসা একটা ব্যাথা
দেওয়াল জুড়ে দেওয়াল আর সামনে শুধু আড়াল
কেউ তো তবু পিদিম ধরে, একটু ছিড়িক আলো




এই সুতোর পাতাগুলি [1] [2] [3] [4] [5] [6] [7] [8] [9] [10] [11] [12] [13] [14] [15] [16] [17] [18] [19] [20] [21] [22] [23] [24] [25] [26] [27] [28] [29] [30] [31] [32] [33] [34] [35] [36] [37] [38] [39] [40] [41] [42] [43] [44] [45] [46] [47] [48] [49] [50] [51] [52] [53] [54] [55] [56]     এই পাতায় আছে1411--1440