• টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। যে কোনো নতুন আলোচনা শুরু করার আগে পুরোনো লিস্টি ধরে একবার একই বিষয়ে আলোচনা শুরু হয়ে গেছে কিনা দেখে নিলে ভালো হয়। পড়ুন, আর নতুন আলোচনা শুরু করার জন্য "নতুন আলোচনা" বোতামে ক্লিক করুন। দেখবেন বাংলা লেখার মতো নিজের মতামতকে জগৎসভায় ছড়িয়ে দেওয়াও জলের মতো সোজা।
  • কলেজ এবং তার স্টুডেন্ট ইউনিয়ন - বোগাস জিনিস

    Blank
    বিভাগ : অন্যান্য | ১১ এপ্রিল ২০০৯ | ৬৪ বার পঠিত
আরও পড়ুন
এ¾ট্রী - Blank
  • আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা ভাইরাস

  • পাতা : 1
  • Blank | 59.93.206.97 | ১১ এপ্রিল ২০০৯ ২২:২৫413030
  • কলেজে স্টুডেন্ট ইউনিয়ন। সত্যি কতটা দরকারি? আদৌ কিস্যু কাজ করে কি এগুলো, বছরের শেষে ফেস্ট অর্গানাইজ করা ছারা? ছাত্র দের কতটা কাজে আসে ইউনিয়ন?
    সবার আগে নিজের ছাত্র জীবনে ইউনিয়ন দ্বারা কোনো কোন মহান কাজ হতে দেখেছেন তার একটা লিস্ট ও বানিয়ে দিন এখানে।
  • Blank | 59.93.206.97 | ১১ এপ্রিল ২০০৯ ২২:২৫413041
  • আমার লিস্টি,

    ১) ৫০০ টাকা কমেছিল পরীক্ষার ফি।
  • Ishan | 12.217.30.133 | ১১ এপ্রিল ২০০৯ ২২:২৯413052
  • ট্রেড ইউনিয়ন। আদৌ কি কিছু কাজ করে? বছরের শেষে একটা করে বন্‌ধ করা ছাড়া?

    সংসদ। আদৌ কি কিছু হয় সেখানে? বছরে তিন-চার বার জুতো ছোঁড়াছুঁড়ি ছাড়া? বাজেট-ফাজেট পাস হয় অবশ্য, সে তো অন্য ভাবেও করা যায়।

    এগুলোকে রাখার কি কোনো দরকার আছে? আসুন জনমত গড়ি। এগুলো তুলে দিই।
  • arjo | 66.56.63.166 | ১১ এপ্রিল ২০০৯ ২২:৪৪413055
  • ইউনিয়ন ছাত্রদের একটা এমপাওয়ার্মেন্ট। এমনিতেই আমাদের দেশে ছাত্রদের কথা খুব একটা কেউ ভাবে না। ইউনিয়ন না থাকলে ছাত্রদের ভয়েস একেবারেই চলে যাবে। ব্ল্যাংকিবাবু একেবারে অ আ ক খ থেকে শুরু করেছে। এখান থেকে র‌্যাগিং অবধি যেতে তো গোটা ১৩ বছর লেগে যাবে। :))
  • Blank | 59.93.206.97 | ১১ এপ্রিল ২০০৯ ২২:৪৫413056
  • আগে কোন কোন ভয়েস আছে সেটা একটু জানি :)
  • dipu | 121.243.161.234 | ১১ এপ্রিল ২০০৯ ২২:৫০413057
  • আমাগো যদুপুরে অনেক ভাল কাজ হয়েছিল। লিস্টি রোকেয়া দেবে। আমার সব মনে নেই।
  • ranjan roy | 122.168.8.30 | ১২ এপ্রিল ২০০৯ ০০:৩৩413058
  • ""একি কথা শুনি আজ মন্থরার মুখে?''
  • Bratin | 117.194.96.197 | ১২ এপ্রিল ২০০৯ ০৭:১৮413059
  • আমি তখন আশুতোষ কলেজে first year এ পড়ি। (৯১)। ছাত্র ইউনিয়নের নির্বাচনের দিন আমাদের বলা হল "তোরা আসবি কি আসবি না সেটা important নয়। তোদের vote টা SFI পাবে"।আমি কোন বিশেষ রাজনৈতিক রং এ বিশ্বাসী নয়।কিন্তু ব্যক্তি স্বাধীনতায় বিশ্বাসী। তাই সে দিন আর চাপ নিয়ে বেলুড় থেকে হাজরা যাই নি। :-)))
  • pinaki | 131.151.102.250 | ১২ এপ্রিল ২০০৯ ০৭:৩৬413060
  • যাদবপুরে এই যে এখনও মাসে দুশো টাকা দিয়ে পড়া যাচ্ছে, সেটা ইউনিয়নের জন্যে। এক্সাম সিস্টেমের পরিবর্তন হয়েছে ইউনিয়নের জন্যে। তবে ইউনিয়নকে দলীয় অফিস বানিয়ে ফেল্লে মুশকিল আছে। ইউনিয়নকে যাতে সবাই নিজের বলে ভাবে - সেটা এনসিওর করাটা খুব জরুরী। ফেটসুর অনেক লিমিটেশন আছে, কিন্তু এই ব্যাপারে আমি বলব বিশাল সাকসেস।
  • Ishan | 12.217.30.133 | ১২ এপ্রিল ২০০৯ ০৮:৪৮413031
  • দাঁড়ান দাঁড়ান। ইউনিয়নগুলো কি করবে বলে এক্সপেক্ট করা হচ্ছে সেটা আগে বুঝে নিই। এরা কি সমাজ বদলাবে? নাকি অ্যাডমিনিস্ট্রেট করবে? নাকি ক্যাম্পাস ঝেঁটিয়ে পরিষ্কার করবে?

    ইউনিয়নগুলোর হাতে "বদলে দেবার' ক্ষমতা প্রায় কিছুই থাকেনা। এদের বিভিন্ন ফোরামে ছাত্রদের ভয়েসকে রিপ্রেসেন্ট করার কথা। সেটা দিব্বি করে। আর কি করবে?
  • Bratin | 117.194.96.184 | ১২ এপ্রিল ২০০৯ ০৯:০৮413032
  • আমি আশুতোষ কলেজে SFI দের বিরোধী দলের ছেলে /মেয়ে দের নিয়মিত ব্যবধানে পেটানো ছাড়া "আর কোন" গঠনমূলক কাজ করতে দেখি নি।
  • a | 122.163.112.172 | ১২ এপ্রিল ২০০৯ ০৯:২০413033
  • ১) সত্যি কি মাসে ২০০ টাকা দিয়ে যাদবপুরে পড়তে পারা উচিত? সকলের?

    ২) ছাত্র ইউনিয়নের প্রধাণ কাজ ছাত্র স্বার্থ protect করা। তো তার গাইডলাইন কি? এই যে ফেটসু র‌্যাগিং এ অভিযুক্ত ছাত্রকে সমর্থন করছে, এটা কি সমর্থনযোগ্য? বা, আমি নিজে কলেজে থাকাকালীন পার্সেন্টেজ না থাকা ছাত্রদের সপক্ষে যে আন্দোলন হতে দেখেছি সেটা সমর্থনযোগ্য? আমার মতে এইগুলো ইউনিয়নের purview এর বাইরেই থাকা উচিত

    ৩) ফেটসু সফল মেনে নিলেও, সেটা exception হিসাবেই থাকে কারণ আমি অন্তত: কোন কলেজে ইউনিয়নকে কাজ করতে দেখিনি।
  • bb | 117.195.176.80 | ১২ এপ্রিল ২০০৯ ১১:৪৭413034
  • a কে সমর্থন।
    ১) যখন প্রতিটি repeat, Underline ছাত্র ছাত্রী মোবাইলের পিছনে এত টাকা খরচা করতে পারে তখন বিশেষ অর্থনৈতিক কারণ ছাড়া অত কম মাইনে হবার কোন কারনই নেই।
    ২) আমাদের দেশে ইউনিয়ন শুধু পাইয়ে দেওয়ার আখড়া হয়ে গেছে।
    ৩) পশ্চিমবঙ্গে ছাত্র ইউনিয়ন ভীষণ দল কেন্দ্রিক আর ছাত্রদের স্বার্থ দেখার নামে অনৈতিকদাবিও করে অধিকাংশ ছাত্র ছাত্রীকে রাজনীতি বিমুখ করে তুলেছে,
  • pinaki | 131.151.102.250 | ১২ এপ্রিল ২০০৯ ১৫:৫৫413035
  • ১) শিক্ষা পণ্য নয়। তাই বাজারের নিয়ম অর্থাৎ যার বেশী টাকা আছে সে বেশী ভালো শিক্ষা পাবে - এই যুক্তি এখানে চলে না। একই কথা খাটে স্বাস্থ্যের ক্ষেত্রে বা এই ধরণের পরিষেবার ক্ষেত্রে। কাজেই মোবাইল থাকুক আর না থাকুক, গাড়ী চড়ে পড়তে আসুক আর পায়ে হেঁটে আসুক - তার সাথে শিক্ষার "দাম"-এর কোনো সম্পর্ক নেই। থাকা উচিৎ নয়। সরকারকে বুঝতে হবে সে কিভাবে শিক্ষার জন্য প্রয়োজনীয় টাকা জোগাড় করবে। দরকারে প্রতিরক্ষা খাতে ব্যয় কমাবে, কালো টাকা উদ্ধার করবে, ব্যাবসায়ীদের কোটি কোটি টাকা অনাদায়ী ট্যাক্স আদায় করবে, সাধারণ ট্যাক্স থেকে না কুলালে শিক্ষা সেস বসাবে, ইত্যাদি। কিন্তু ঐ ফেলো কড়ি মাখো তেল- এর যুক্তি শিক্ষার ক্ষেত্রে প্রয়োগ করলে চলবে না।

    ২) সব জায়গায় ইউনিয়ন পাইয়ে দেওয়ার আখড়া নয়। আর যেখানে যেখানে পাইয়ে দেয়ও, সেখানেও ছাত্ররাই তো সেগুলো পায় (হতে পারে দলের অনুগতরা, তবু তারা ছাত্রই, বাইরের কেউ নয়)। ইউনিয়ন কোনো বিপ্লবী কনসেপ্ট ইত্যাদি নয়। অনেক জায়গায় ম্যানেজমেন্টই ইউনিয়ন চায়। কারণ ইউনিয়ন হোলো একধরণের সেফটি ভালভ। ছাত্রদের বা শ্রমিকদের ক্ষোভ বিস্ফোরিত হয়ে বিশৃংখলা না যাতে না পাকায়, যাতে তা সংগঠিত ভাবে ম্যানেজমেন্ট বা অথরিটির বেঁধে দেওয়া গন্ডির মধ্যে চ্যনেলাইজড হতে পারে - সেই জন্যেই ইউনিয়ন।

    ৩) অনৈতিক দাবীর কারণে ইউনিয়নগুলো জনবিচ্ছিন্ন হয়েছে - এটা মানতে পারলাম না। বরং অধিকাংশ ক্ষেত্রেই ইউনিয়ন গুলো তাদের ঘোষিত ইডিওলজির বাইরে বেরিয়ে পপুলিস্ট দাবী করে থাকে। কেন? ছাত্রদের প্রেসারে। তাদের থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়ার ভয়ে। এই যে যাদবপুরের ফেটসু র‌্যাগিং এর শাস্তির বিপক্ষে লড়ছে - খোঁজ নিয়ে দেখুন, না করলে ছাত্ররা কেলিয়ে ভূত ভাগিয়ে দেবে। সিম্পল লজিক। তোদের ভোট দিলাম আর এখন আমাদের বাঁশ দিচ্ছিস? কাজেই অধিকাংশ ক্ষেত্রেই অনৈতিক দাবী যখন ওঠে মেইনলি সাধারণ ছাত্রদের একটা বিপুল চাপ থেকে ওঠে। ইউনিয়ন কার্যত: সেই চাপের কাছে মাথা নোয়ায়।

    তবে দলীয় রাজনীতির বাড়তি অনুপ্রবেশ কিছুটা ছাত্রদের বিচ্ছিন্ন করে। সেটা SFI এর ইউনিয়নরুম লোকাল সিপিএমের পার্টি অফিস হয়ে যাওয়া থেকে যাদবপুরের ইউনিয়নরুমে কেন্দ্রীয় ছাত্রসংগঠনগুলির অ্যাসার্টিভ উপস্থিতি - সব ক্ষেত্রেই এটা দেখা গ্যাছে।
  • bb | 117.195.163.78 | ১৩ এপ্রিল ২০০৯ ২২:০৮413036
  • ১) Pinaki জয়েন্ট তো আর টাকার মানে হচ্ছে না, তাই আপনার প্রথম যুক্তিটা ঠিক নয়। আমার মত ছিল জয়েন্ট পাওয়া ছেলেদের মধ্যে যারা অর্থনৈতিক ভাবে দূর্বল তারাই কম পয়সা দিক, বাকিরা বাজারের মতই পয়সা দিক। সরকারি ভর্তুকিতে পড়াশুনা করে বিদেশে শ্রমদান করাটা নিশ্চয় লস।

    ২)ইউনিয়ন যে বেশিরভাগ জায়গায় পথভ্রস্ট তা ছাত্রদের কম অংশগ্রহন থেকেই বোঝা যায়। এর জন্য আমাদের সমস্ত দলই দায়ী।

    ৩)ইউনিয়ন শুধু ছাত্রদের চাপে অনৈতিক দাবিকে সমর্থন করে এটা সবসময় বিশ্বাসযোগ্য নয়।

  • rokeyaa | 203.110.243.21 | ১৩ এপ্রিল ২০০৯ ২৩:৪৫413037
  • সরকার তো সেই "অর্থনৈতিকভাবে সবল'দের কাছ থেকে টাকাটা তুলে নিতেই পারে, আইপড-৩জি ফোন এইসবের ওপর ট্যাক্ষ বসিয়ে? তাহলে তো আর ঐ ভর্তুকির গল্পটা থাকে না।
  • rokeyaa | 203.110.243.21 | ১৩ এপ্রিল ২০০৯ ২৩:৪৯413038
  • ইউনিয়ন যে "বেশীরভাগ' ক্ষেত্রেই পথভ্রষ্ট, এবং সেই জন্য যে "আপনাদের' সব দলই দায়ী, সেটা ঠিকই, ইউনিয়ন ছাত্রদের চাপেই অনৈতিক দাবিকে সমর্থন করে, এটাও "সবসময়' ঠিক না।
  • pinaki | 131.151.102.250 | ১৩ এপ্রিল ২০০৯ ২৩:৫২413039
  • জয়েন্ট তো অবশ্যই টাকার মানে হচ্ছে। জয়েন্টে পেতে গেলে যে পরিমানে প্রাইভেট টিউশন ইত্যাদি স্পেশাল খরচাসাপেক্ষ ট্রেনিং লাগে তাতে গরীবদের একটা বড় অংশ এমনিই বাদ হয়ে যায়। মেধার জাজমেন্টটা সেই আর্থিক মাপকাঠিটা যারা ডিঙোতে পারে তাদের মধ্যে হয়ে থাকে।
  • Bratin | 117.194.96.252 | ১৩ এপ্রিল ২০০৯ ২৩:৫৭413040
  • a,bb কে সমর্থন জানাই। আমি নিজে engg পড়ি নি কিন্তু বন্ধু দের কাছে শুনেছি অনেক সময় lab এ নতুন মডেলের যন্ত্রপাতি থাকে না,যেগুলো আছে সেগুলো "মান্ধাতা" যখন হাফ প্যান্ট পড়তো সেই সময়ের। সেই যন্ত্রপাতি তে কাজ শিখে কি s/w ছাড়া কেউ যদি hard core industry তে আসে সেখানে কল্কে পাবে? অন্য দিকে এত কম fee নিয়ে শুধু ভর্তুকি দিয়ে ও কি একদম নতুন যন্ত্রপাতি আনা সম্ভব??
  • Blank | 59.93.198.168 | ১৪ এপ্রিল ২০০৯ ০০:১৩413042
  • তাহলে যদুপুরে কিছু কিছু সাবজেক্ট পড়তে এতো বেশী লাগে কেনো (আই টি)?
  • rimi | 168.26.215.135 | ১৪ এপ্রিল ২০০৯ ০০:৪২413043
  • প্রেসিতে ইউনিয়নের দান - গেটের দুপাশে দুইখানি পে ফোন, তুচ্ছতম কারণে অজস্র ক্লাস বয়কট ও তার ফলে প্রেম করার প্রচুর অবকাশ।

    ইউনিয়ন ছাত্রদের ভয়েস?? শুনলে হাঁড়িচাচাতেও হেসে কুটিপাটি হবে। অন্য জায়গার কথা জানি না, আমার কলেজে ইউনিয়নের সাধারণ ছাত্রদের অসুবিধা বা প্রয়োজন সম্পর্কে ধারণাই ছিলো না, ধারণা করার ইচ্ছেটাও দেখি নি কোনোদিন। বরং দেখেছি নিজেদের ভয়েস অন্যদের উপরে চাপানোর নিরন্তর চেষ্টা।
  • arjo | 24.42.203.194 | ১৪ এপ্রিল ২০০৯ ০৮:৪০413044
  • কত লোকের যে বর্ণপরিচয় হয় নি! ইউনিয়ন হল দাঁতের মতন, থাকতে মর্যাদা বোঝা যায় না, গেলে ভারতের মতন দেশে যেখানে ছাত্রদের কোনোই ভয়েসই নেই সেখানে অথরিটি সর্বেসর্বা হয়ে উঠবে, তখন বুঝবে। হোক না নন অ্যাকটিং, তাও আছে বলেই কত ঝড় আসে না সেটা না গেলে বোঝা যাবে না।
  • sibu | 71.106.244.161 | ১৪ এপ্রিল ২০০৯ ০৮:৪৯413045
  • সিপিএমও এই রকমই বলে, আসুক না দিদি, ঠ্যালা বুঝবে বাছাধনেরা :)।
  • arjo | 24.42.203.194 | ১৪ এপ্রিল ২০০৯ ০৯:০৯413046
  • মমতার সাথে সিপিএমের তুলনা করলে হ্যান্ডস ডাউন সিপিএম যেকোনো দিন ভালো।
  • sibu | 71.106.244.161 | ১৪ এপ্রিল ২০০৯ ১০:১৮413047
  • আর মমতার সাঙ্গোপাঙ্গোদের তুলনায়?
  • arjo | 24.42.203.194 | ১৪ এপ্রিল ২০০৯ ১০:২১413048
  • ডেটা নেই। একটা সার্ভে করে দেখলে হয়। কিন্তু এন্থু নেই।
  • sibu | 71.106.244.161 | ১৪ এপ্রিল ২০০৯ ১০:২৩413049
  • :))
  • Blank | 170.153.65.23 | ১৪ এপ্রিল ২০০৯ ১১:২৭413050
  • মামু : ইউনিয়ন বিভিন্ন ফোরামে ছাত্রদের ভয়েস রিপ্রেসেন্ট করে ...

    আর্য দা: ভারতে মতন দেশে ছাত্রদের ভয়েসই নেই ...

    আমি: :-\
  • bb | 125.16.17.152 | ১৪ এপ্রিল ২০০৯ ১৭:১৬413051
  • rokeya প্রতি টাকায় এখন ৩৩ পয়সা ট্যাক্স দিয়ে থাকি। আরো কেন দেব? আমার পয়সায় বড়লোকের ছেলে ভর্তুকি দিয়ে পড়ে বিদেশ যাবে বলে?
    আমি ভুলভাল ভর্তুকির পক্ষে নই, যেমন রান্নার গ্যাস। আমাদের অনেকের দেবার ক্ষমতা থাকলেও সরকার প্রতিটি সিলিন্ডারে আমাকে প্রায় ৩০০ টাকা ভর্তুকি দেন। এর ফলে আমরা আরো বেশি consume করি, সরকার আরও ভর্তুকি দেন, দেওয়া নেওয়ার এই খেলা চলতে থাকে। অথচ প্রকৃত গরীব এই ভর্তূকির সুযোগ পায় না।
    ইউনিয়নের প্রোয়োজনীয়তা নিয়ে দ্বিমত নেই, কিন্তু তার প্রয়োগটা দলমত নির্বিশেষে ভুল করছে সেটাই বলা হচ্ছে।

  • Samik | 122.160.41.29 | ১৪ এপ্রিল ২০০৯ ১৭:২৯413053
  • আমাদের কলেজে ইউনিয়নই ছিল না। আশির দশকের কোনও এক সালে এক রক্তক্ষয়ী ক্যালাকেলির পরে কলেজে ইউনিয়ন ব্যান্‌ড হয়ে যায়, আমরা নিরানব্বই সালে কলেজ ছেড়ে আসার পরেও অনেকদিন পর্যন্ত সেখানে ইউনিয়ন ব্যান্‌ড ছিল। এখন ইউনিয়ন আছে কিনা, জানি না।

    তো, তোফা ছিলাম। কোনও পবলেম হয় নি। আমি নিজেকে সৌভাগ্যবান মনে করি যে, আমাকে পুরো ছাত্রজীবনে কোনওদিন কোনও ইউনিয়নের খাতায় নাম লেখাতে হয় নি, কোনও ইউনিয়ন ফান্ডে চাঁদা দিতে হয় নি। কলেজে ছাত্রদেরও ভয়েস ছিল, ছাত্ররা অন্যায় করলে প্রফেসরদেরও ভয়েস ছিল। সব মিলিয়েই দিব্যি কেটে গেছিল বছর চার।
  • ranjan roy | 122.168.230.27 | ১৪ এপ্রিল ২০০৯ ১৭:৩৩413054
  • ব্ল্যাংকি,
    উপবেশন কর। মামু ও আর্য্য'র বক্তব্যে বিরোধাভাস দেখিয়াছ?
    সরলমতি বালক, দ্বন্দ্বতঙ্কেÄর পাঠ পূর্ণ হয়নাই।
    ঋষি মার্কসের ধর্ম সম্বন্ধিত সূত্র স্মরণ কর।
    --ধর্ম আত্মাহীন হীন বিশ্বে অন্তরাত্মার আর্তনাদ। ন্যায়হীন বিশ্বে ন্যায় পাইবার আকাঙ্ক্ষা--- ইত্যাদি, ইত্যাদি। ---- অন্তিম বিচারে ধর্ম জনগণের আফিম।
    এবংপ্রকারে, ইউনিয়ন ভয়েসহীন ভারতে ছাত্রদের ভয়েস। ক্ষমতাহীন ছাত্রসমাজের ক্ষমতার আকাঙ্ক্ষা।
    অন্তিম বিচারে ইউনিয়ন ছাত্রজনতার আফিম।
    আসলে আর্য্য ও মামু ভয়েস শব্দটি দু'রকম অর্থে বা ব্যঞ্জনায় ব্যবহার করেছে বলে আমার মনে হয়েছে।
    প্রথমজনের মতে ভারতে ছাত্রদের রিয়েলি কোন ভয়েস নেই। মানে তাদের কথা সিরিয়াসলি শোনা হয় না।
    মামু সেইটা মেনে নিয়েই বলছে -- এই নেইয়ের মধ্যেও এটাই সেই প্ল্যাটফর্ম যেখান থেকে ছাত্রদের আওয়াজ শোনা যায়। এর বেশি কিছু আশা করাই অন্যায়। একটা করে লাইন না তুলে মামুর পুরো প্যারাটা ধরলে বক্তব্য স্পষ্ট।
  • করোনা ভাইরাস

  • পাতা : 1
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত