• টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। যে কোনো নতুন আলোচনা শুরু করার আগে পুরোনো লিস্টি ধরে একবার একই বিষয়ে আলোচনা শুরু হয়ে গেছে কিনা দেখে নিলে ভালো হয়। পড়ুন, আর নতুন আলোচনা শুরু করার জন্য "নতুন আলোচনা" বোতামে ক্লিক করুন। দেখবেন বাংলা লেখার মতো নিজের মতামতকে জগৎসভায় ছড়িয়ে দেওয়াও জলের মতো সোজা।
  • বিড়াল

    Rabaahuta
    বিভাগ : গান | ২৬ জুলাই ২০১৭ | ৫৫ বার পঠিত
আরও পড়ুন
মাচার গান - Rana
  • আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা ভাইরাস

  • পাতা : 1
  • T | 131.6.68.127 | ২৬ জুলাই ২০১৭ ১৯:২৫368439
  • বেশ আমিই প্রথম ভিডিও পোস্টাই এইখানে। কোল এবং মার্মালেড। অতিপ্রিয় দুইজন। এই রইল ইউটিউব চ্যানেল লিঙ্ক।
    https://www.youtube.com/user/chrispoole20
  • Rabaahuta | 37.59.84.207 | ২৬ জুলাই ২০১৭ ১৯:২৯368450
  • আরে, কোল এবং মার্মালেডকে আমিও চিনি!
  • T | 131.6.68.127 | ২৬ জুলাই ২০১৭ ১৯:৩৫368467
  • থাম্বস আপ হুতোদা। জাস্ট দিতে যাচ্ছিলুম। আমি বইও কিনেছি। পাতায় পাতায় দারুণ ছবি। এইটা,

    https://www.amazon.com/Simons-Cat-World-Simon-Tofield/dp/161775188X
  • ফরিদা | 132.176.159.234 | ২৬ জুলাই ২০১৭ ২০:১৭368468
  • বিড়াল
    শক্তি চট্টোপাধ্যায়

    সুখের অত্যন্ত কাছে বসে আছে অসুস্থ বিড়াল
    পশমের অন্তর্গত হয়ে বসে আছে অসুস্থ বিড়াল
    খুব কাছে বসে আছে হিতব্রতী অসুস্থ বিড়াল
    কাছে বসে আছে কিছু পাবে বলে, অমরতা পাবে।
    কাছে পেয়ে রাখা শক্ত, ঢাকা শক্ত চাদরে কাঁথায়
    ঢাকা শক্ত ঘরে বাইরে, ঢাকা শক্ত অসুখে-সম্মোহে
    সুখের অত্যন্ত কাছে বসে আছে অসুখী বিড়াল।।
  • Rabaahuta | 37.59.84.207 | ২৬ জুলাই ২০১৭ ২২:২৯368469
  • বিড়াল

    সারাদিন একটা বিড়ালের সঙ্গে ঘুরে-ফিরে কেবলই আমার দেখা হয়
    গাছের ছায়ায়, রোদের ভিতরে, বাদামী পাতার ভিড়ে;
    কোথাও কয়েক টুকরো মাছের কাঁটার সফলতার পর
    তারপর শাদা মাটির কঙ্কালের ভিতর
    নিজের হৃদয়কে নিয়ে মৌমাছির মতে নিমগ্ন হ’য়ে আছে দেখি;
    কিন্তু তবুও তারপর কৃষ্ণচূড়ার গায়ে নখ আঁচড়াচ্ছে,
    সারাদিন সূর্যের পিছনে-পিছনে চলছে সে।
    একবার তাকে দেখা যায়,
    একবার হারিয়ে যায় কোথায়।

    হেমন্তের সন্ধ্যায় জাফরান-রং-এর সূর্যের নরম শরীরে
    শাদা থাবা বুলিয়ে-বুলিয়ে খেলা করতে দেখলাম তাকে;
    তারপর অন্ধকারকে ছোটো-ছোটো বলের মতে থাবা দিয়ে লুফে আনলো সে,
    সমস্ত পৃথিবীর ভিতর ছড়িয়ে দিলো।
  • Rabaahuta | 37.59.84.207 | ২৬ জুলাই ২০১৭ ২২:২৯368470
  • জীবনানন্দ দাশ
  • dd | 59.207.62.98 | ২৬ জুলাই ২০১৭ ২২:৫৪368471
  • দেখুন, কিছু কিছু ব্যাক্তি, আমি যাদের নাম করতে চাই না, তবে ধরুন এই সিংগুল ডি'এর মতন ঘোর ব্যারাল বিদ্বেষী , আমি ত্যামন নই। ব্যারাল কিছু আর্শুলো নয় যে দেখলেই রেগে কাঁই হতে হবে।

    সে তো আমি ঝিঙেও পছন্দ করি না। কিন্তু আমার অনেকানেক বন্ধুই ঐ অখাদ্য খেতে ভালোবাসে। কই, আমাকে কখনো ঝিঙে চাষীকে খুন করার মতলব সাঁটতে শুনেছেন ? বা বন্ধুদের ?

    এটা আগেই বলেছি। কিন্তু তখন এটা পড়েন নি, বা পড়লেও ভুলে গেছেন।

    কী হয়েছে কি, (বা কি হয়েছে কী, হোয়াটেভার), সেই ৮০'র দশকে আমি রান্না করতে শিখছি। তখন একদিন মাছ রাঁদলেম। যাস্ট দু পিস। ক্ষী বিকট হল ভাবা যায় না। ভালো করে ভাজাই হয় নি, তায় হলুদ বেশী, নুন কম, জিরের বদলে যোয়ানের ফোড়োন - এইসবে মুখে দেওয়া যাচ্ছিলো না। পাড়ার ব্যারালটাকে অগত্যা ঐ মাছ দিলে সে ব্যাটা এক কামড় দিয়েই আমার দিকে এক দৃষ্টিতে তাকিয়ে থেকে বড়ো বড়ো নখ বার করলো। আমি ঠক করে জালনা বন্ধ করে দিলাম।

    আপিশ থেকে ফেরার পথে দেখতাম রোজ কার্ণিশে বসে থাকতো আর এমন ক্রুঢ় চোখে তাকাতো যে আমার হাড় হিম হয়ে যেতো। হপ্তা দুয়েক লেগেছিলো ওর মেজাজ ঠিক হতে।

    ব্যারালেরা এরকমই।
  • Rabaahuta | 37.59.84.207 | ২৬ জুলাই ২০১৭ ২৩:০১368472
  • আরো তিনটে ক্রুদ্ধ বিড়াল ছিলো তো।
  • dd | 59.207.62.98 | ২৬ জুলাই ২০১৭ ২৩:০৬368440
  • আচার্য্য T বলেন ফিজিক্সে ভালো মার্ক্সবাদী হতে হলে ব্যারাল পুষতে হয়। কিন্তু ফিজিক্সে আমি অ্যাতোই ইসে ছিলেম যে সেটাকে একটু জাস্ট ভদ্র গোছের করতে হলেও অন্ততঃ গোটা তিরিশেক ব্যারাল পুষতে হতো। সেটা সম্ভব হয় নি।

    এদানী পাশের বাড়ীর ছাতে তিনটে ব্যারাল এসে জুটেছে। একটা মেনি আর দুটো তার ছানাপোনা। খুব হুটোপুটি করে কিন্তু আমাকে বারান্দায় দেখলেই একেবারে স্ট্যাচু হয়ে যায়। হতভম্ব ভাবে অপলক চেয়ে থাকে। একটা কথাও বলে না। কিন্তু চোখও সরায় না। উঃ, এরা অ্যাতো জাজমেন্টাল হয় ক্যানো?
  • pi | 57.29.222.158 | ২৬ জুলাই ২০১৭ ২৩:১৪368441
  • ঝিঙ্গে পছন্দ না করেন না বলে।
  • dd | 59.207.62.98 | ২৬ জুলাই ২০১৭ ২৩:১৫368442
  • না না ব্যারাল নয়। সেগুলো ছিলো ডিম। বদমেজাজী ডিম। খুব রাগী।

    বেশ গভীর রাতে, আমি ঈষৎ টলমল অবস্থায় ফিরিজের দরজায় টান দিতেই গোটা চারেক ক্ষ্যাপাটে ডিম আমার উপর একেবারে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলো। আমি শেষ মুহুর্ত্তে ঝট করে সড়ে যাওয়ায় আহত হই নি ঠিকই, কিন্তু ডিমেরা মেঝের উপরে দুম ফটাশ হয়ে পড়ে একাক্কার। রান্নাঘর ডিমাক্কার।

    আমার কোনো দোষ ছিলো না।অথচ পরের দিন সকালে এই নিয়ে আমায় বিস্তর অপমান ও মিথ্যা অপবাদ করা হয়েছিলো। হুতো বাবু বোধহয় ডিম আর ব্যারালে গুলিয়েছেন। ।
  • rabaahuta | 37.59.84.207 | ২৬ জুলাই ২০১৭ ২৩:৩৫368444
  • name: সিংগল k mail: country:

    IP Address : 212.142.118.183 (*) Date:07 Jul 2017 -- 06:44 PM

    মুনিয়াদি যে থিওরিটিক্যাল ফিজিসিস্ট হবেন মনস্থ করেচেন সেটা আমার কাছে একটা বিরাট খুশীর খবর। কদ্দিন সেরকম ভাল বলিয়ে কইয়ে বাঙ্গালী থিওরিটিক্যাল ফিজিসিস্ট পাই না। ব্রায়ান গ্রীন, নীল ডি গ্রাস, মিশিও কাকু, সিলভেস্টার গেটস কিম্বা লিসা রান্ডালের মত বলিয়ে কইয়ে একজন বাঙ্গালী ফিজিসিস্ট এর খুব দরকার। এঁদের দেখে দেখে- শুনে শুনে- পড়ে পড়ে অরুচি ধরে গেছে। মুনিয়াদি এ লাইনে এলে একটু স্বাদ বদল হয়।

    আমাদের পাড়ার, থুড়ি পাশের পাড়ার ফিজিসিস্ট ছিলেন সত্যেনবাবু। মানে সত্যেন বোস, যাঁর নামে বোসন কনা। হেদোর কাছে গোয়াবাগানে থাকতেন। উনি যখন মারা যান আমি তখন কঠিন কঠিন অঙ্ক কষার পক্ষে একটু ছোট, তাই আমার সৌভাগ্য হয় নি ওনার কাছে অঙ্ক নিয়ে যাওয়ার কিন্তু আমার বাড়ির নিচে প্র্যাকটিস করেন ড. দত্ত, উনি আমার চে কয়েক বছরের বড়। উনি হেয়ারে পড়তেন আর গ্রে স্ট্রীটে থাকতেন। (এখনও থাকেন) উনি ওনার এক বন্ধুর সঙ্গে একটা ইকুয়েশন নিয়ে সত্যেনবাবুর বাড়িতে একদিন সন্ধ্যের ঝোঁকে গিয়ে হাজির। ডাক্তারবাবুর সেই ক্লাসফ্রেন্ড সত্যেনবাবুর কেমন যেন দূর সম্পর্কের একটা আত্মীয় হতেন।
    ব্যাপারটা হয়েছে কি! একদিন হেয়ার স্কুলের অঙ্কস্যার, (নামটি ভুলে গিচি) ক্লাসে একটা ইকুয়েশন দিয়েছেন হোমটাস্ক। সে ভীষন কঠিন, কিছুতে মেলে না। সতের আঠেরো লাইনের মাথায় একটা উত্তর বেরোয় বটে কিন্তু সেটা ঠিক না ভুল বোঝা উত্তরমালা না দেখে বলা একেবারেই সম্ভব না। এদিকে কোনো চলতি বইয়ে ইক্যুয়েশনটা নেই। স্যার কোন রাশিয়ান বই থেকে দেখে টুকে দিয়েছেন নিশ্চয়ই। সন্ধেবেলা অঙ্ক না মেলায় ডাক্তারবাবু তাঁর বন্ধুর বাড়ি গিয়ে বন্ধুকে রাজী করালেন সত্যেনবাবুর কাছে হাজির হয়ে সমস্যাটা মেটাতে।
    সত্যেনবাবু দরজা খুলে দুই খুদেকে দেখে আর তাদের প্রবলেম শুনে বেজায় খুশী। ওদের খাতির করে বসিয়ে পোষা বেড়ালের গায়ে হাত বুলুতে বুলুতে বললেন - কই তোমাদের সেই ভয়ঙ্কর শক্ত ইকুয়েশন দেখাও দেখি..। একঝলক দেখেই আমোদে চোখ মুদে হেসে বললেন - আরে এইটার দুপাশে হাফ কমন নিয়ে নাও। ব্যাস্ - ইকুয়েশন স্রেফ তিন লাইনে নেবে গেল।
    পরেরদিন দুজনের খাতা দেখে অঙ্কস্যার তো অগ্নিশর্মা, ডাক্তারবাবুর বন্ধুর কান পাকড়ে জিজ্ঞাসা করলেন -হতভাগা, কাকে দিয়ে হোমটাস্ক কষিয়েছিস বল!! তুই কক্ষনো এটা নিজে করিস নি। আমি নিজে বই থেকে যে সলিউশনটা জানি সেটাও এগারো লাইনের কম নয়। আর তোরা দুজনে কিনা তিন লাইনে অঙ্ক ঠিকঠাক মিলিয়ে দিয়েছিস!! এ আমাকে বিশ্বাস করতে হবে??
    ডাক্তারবাবুরা কাকে দিয়ে হোমটাস্ক কষিয়েছিল জানার পর স্যার ওদের দুজনকে আবার সত্যেনবাবুর বাড়ি পাঠিয়েছিলেন, ওনার হয়ে প্রণাম জানানোর জন্য।

    মোদ্দা কথা হল একটা হোঁত্কা গোছের কাব্লী বেড়াল পোষা খুবই দরকার, ঠিকঠাক থিওরিটিক্যাল ফিজিসিস্ট হতে গেলে বেড়াল মাস্ট। প্রফেসর শঙ্কুর ছিল, শ্রোডিংগার সায়েবের ছিল, সত্যেনবাবুর তো এক গুষ্টি ছিল, সারা পাড়া ম্যাও ম্যাও করে ঘুরত। .. জানি পুনে খুব বেড়াল-ফ্রেন্ডলি জায়গা নয়, দমদি স্বয়ং পুনেতে থাকেন। কিন্তু তবুও একটা চেষ্টা করে দেখা যেতেই পারে।
    -------------------------------------------------------------
    name: dd mail: country:

    IP Address : 59.207.56.164 (*) Date:07 Jul 2017 -- 10:46 PM

    লুরুতে আমাদের পাড়ায় আগে ছিলো না, বা থাকলেও দেখা যেতো না। ঐ ফিজিসিস্টদের কথা কইছি। এদানী বোধয় আসতে শুরু করেছে।

    কেনো না ইতিউতি ব্যারালও দেখছি। আগে ছিলো না তো একটাও। এখন সকাল বেলাতেই দেখি , তিন তিনটে ব্যারাল পাশের বাড়ীর ছাদ থেকে নিষ্পলকে আমার দিকে তাকিয়ে থাকে। কিছু করে না, বলেও না কিন্তু খুব ঠান্ডা চোখে দেখতে থাকে। ওরা কি সত্যি আমার ইষ্কুলের ফিজিক্সের রেজাল্টের কথা জেনে ফেলেছে?

    নিউটনের ব্যারাল ছিলো, তার নাম ছিলো ডায়ামন্ড। কিন্তু সে ঘৌ ঘৌ করতো আর ন্যাজ নাড়তো বলে লোকে ওকে কুকুর ভাবতো। আর্যভটের ব্যারালের নাম কোথাও দেখি নি। ষষ্ঠী ঠাকরুণের ফিজিক্সের কথাও ব্যাদে লেখা নেই।

    সিংগুল কে, কি একটা সত্যনিষ্ঠ থিউরী দিলো না নিছক এয়ার্কি মাল্লো, বুঝলাম না তো।
    -------------------------------------------------------------
    name: T mail: country:

    IP Address : 229.75.11.86 (*) Date:08 Jul 2017 -- 09:39 AM

    সিংগল k র পোস্টে মহাখুসি হলুম। বেড়ালরা অত্যন্ত উঁচুমাত্রার ইন্টেলেকচুয়াল। হোঁৎকা হুলোরা তো যাকে বলে পোমো। যারা ভিনিগার ইত্যাদি দিয়ে এই অপরিসীম দার্ঢ্যের বিরুদ্ধে চক্রান্ত করার চেষ্টা করছে ইনকা যেন তাদের দেখে নেন।

    এবাদে, বেড়াল সবসময় উঁচু জায়গায় রাখবেন। অল্টিট্যুড বৃদ্ধির সঙ্গে ওঁদের দর্শন, চিন্তাভাবনা, গানের গলা ইত্যাদি আরো বেশী খোলতাই হয়। তো ডিডিদা, তিনতলার ব্যাপার স্যাপার হাল্কা ভাবে নেবেন না।

    আমার বেড়ালটিকে কো গাইডের কাছে রেখে এসিচি। খবর পাই যে সে অফিসের চেয়ারটিকে দখল করেছে, প্রফেসর সোফায় বসে কাজকর্ম চালান।
  • Rabaahuta | 37.59.59.136 | ২৭ জুলাই ২০১৭ ১২:০৬368446
  • হ্যাঁ , বৈড়াল; ছোটাইদিকে থ্যাঙ্কিউ।

    বিড়ালেরা দেখছি পৃথিবীর ৩৩ রকমের পাখি খেয়ে সাবাড় করে দিয়েছে; বলছে তাদের বিলুপ্তির জন্যে ভাদাইম্যা বিড়ালেরা দায়ী।
    তা কি আর করা যাবে, পোলট্রি ফার্ম না হলে এতদিনে মুরগীও বিলুপ্ত হয়ে যেত নিশ্চই। বিড়ালের ওপর বিশ্বাস আমি হারাবো না।
  • Rabaahuta | 37.59.59.136 | ২৭ জুলাই ২০১৭ ১২:৫৫368447
  • http://m.somewhereinblog.net/mobile/blog/saimumblog/29240476 এখানে বলছে "'বিড়্' ধাতু থেকে বিড়াল শব্দটির উৎপত্তি দেখানো হলেও অধিকাংশ ভাষাবিদ বিড়াল শব্দটিকে অর্বাচীন সংস্কৃত বলেছেন। বিড় মানে আক্রোশ, বিষ্ঠা ও আঁচড়। অর্থ যাই হোক না কেন, হিন্দু দেবী ষষ্ঠীর বাহন হিসেবে পরিচিত বেড়াল মনে আক্রোশের কারণে মাটি আঁচড়ায়। আবার বিষ্ঠা ত্যাগ করে মাটি আঁচড়িয়ে তা ঢেকে দেয়। "।
    কি কান্ড।

    অবশ্য তারপর এইকথাও বলা আছেঃ
    "সংস্কৃতে বেড়ালের জনপ্রিয় প্রতিশব্দ হচ্ছে 'মার্জার'। 'মৃজ' ধাতু থেকে শব্দটি তৈরি। মৃজ মানে পরিষ্কার বা শোধন করা। আর বিড়াল পরিষ্কার থাকতে পছন্দ করে।"।
    তা ভালো।
    তারপর যেমন এই কবিতাটা যেমন ভাল্লাগলোঃ https://saifali1590.me/2016/03/22/ভেজা-বেড়াল-সাইফ-আলি/।

    খিল্খিল্লীর মুল্লুকের বিড়ালের আখ্যান একটু করুন, শুধু লেজের ডগা থেকে আস্ত বেড়াল শ্রেয়। আবার কাল থেকে পড়ে থাকা আধখানা মালপোয়ার বেদনাও এক্কেবারে মর্মে গিয়ে লাগে।

    তারপর ধরুন খবরের কাগজ নাড়াচাড়া করতে গিয়ে দেখলাম মোদীর ঝুলি থেকে বেরিয়ে পড়েছে বেড়াল। তা ভালো, বেড়ালদের খোলামেলা জায়গা দরকার, তারা বাক্সে থাকতে পছন্দ করলেও ঝুলি বা বস্তার রহস্যে খুব বিব্রত হয়, এ আমি জানি। আবর আরেক জায়গায় লিখেছে, মুখ্যমন্ত্রীকে সরাসরি বেড়াল বলে কটাক্ষ করলেন দিলীপ ঘোষ।
    যেন ঘুরিয়ে কটাক্ষ করলে একটু ভালো হতো। আর, বলিহারি যাই, বেড়াল একটা কটাক্ষমূলক বিষয় হলো?

    রুমাল আর বিড়ালের অস্তিত্বের সন্কট অথবা চেশায়ার বিড়ালের হাসি মনে পড়ে দুঃখ হয়, আমার তোয়াজ করা বিড়ালগুলি খালি অলীক কুনাট্য রঙ্গে মজে না থাকলে একটু অন্ক সাহিত্য শিল্প শিখতে পারতাম। কিন্তু এ সময় আত্মকেন্দ্রিকতার নয়, বিড়ালের।
  • S | 57.15.9.175 | ২৯ জুলাই ২০১৭ ০০:০১368449
  • টেনিদাকে কে যেন একবার ব্যাড়াল ছুঁড়ে মেরেছিলো।
  • R. Boyal | 233.186.105.58 | ০১ আগস্ট ২০১৭ ১৭:০৮368451
  • কার্ডবোর্ডের ছায়া খুঁজে বসে আছে শিকারী বিড়াল
    উলের নিরীহ গোলা কাগজের কুচি কুচি কলের ইঁদুর
    মশারির সাদা দড়ি বাতাসের এলোমেলো চাল
    দর্মা বেড়ার ফাঁকে রোদের সওয়ারী ধুলো
    পোষা মানুষের শাড়ী খসখসে আওয়াজের তাড়াহুড়া
    কার্ডবোর্ডের ঝোপে খাপ পেতে বসে দেখে শিকারী বিড়াল।

    টাইমের জলকল দুর্দান্ত রিকশা দানব গর্জন করে যায়
    অপরিচয়ের লোক ভয়ের আকর
    দুর্দান্ত পৃথিবী থেকে নিরিবিলি বাক্সের ওঁৎ
    থেকে শিকারী বিড়াল দেখে যত্নে বাঁচিয়ে রাখা
    মাছের কানকো আর দুধের ছটাক
    নাইলন ব্যাগে রোজ কৃচ্ছসাধন তার ছাপোষা মানুষ
    রোদের সওয়ারি ধুলো, শাড়ির কুঁচিতে, ফোড়নের ঘ্রাণে
    কার্ডবোর্ডের ফাঁকে সাদাসিধে নিরীহ বেড়াল।
  • kumu | 132.162.255.172 | ০২ আগস্ট ২০১৭ ১১:৪০368452
  • কুমুদি দেখলাম একবার লিখেছিলেন কোন্নগরে শুনেছেন বেড়ালের মাংস তেতো হয়-কোথায় লিখেছেন?ভুল কথা,ব্যারাল যেমন দুশ্চরিত্র প্রাণী,ওদের মাংস চরম শক্ত ও বিষবৎ হবে,মানে হওয়া উচিত।
  • খাতাঞ্চী | 160.129.65.99 | ০২ নভেম্বর ২০১৭ ২০:৫৬368453
  • ভাদু'র জন্য কয়েক লাইন
    --------------------------
    অসীম দত্ত রায়
    ---------------

    দিনের মধ্য কতবার তোকে দূরছাই করেছি
    কাছেও ডেকেছি
    বলেছি এত খেয়েও পেট ভরে না!
    পেটে কি হাঁসের জ্বালা নাকি তোর?
    শেষে কিনা আসন্ন মৃত্যুর থাবার নীচে
    তুইও ভরা দুধের বাটি থেকে মুখ ফিরিয়ে নিলি?

    কোন পাপে?
    শাস্ত্র বা সংস্কৃতে বেড়ালের কোন অধিকার নেই
    বেড়ালের কোন সঞ্চয় নেই পাপে
    নইলে জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে বলা যেত
    বাসাংসি জীর্ণানি যথা বিহায়।

    তাই এক মেঘাচ্ছন্ন বিকেলে
    পাহাড়ের ঢালে নিবিড় গাছের ছায়ায়
    যখন তোকে পরিত্যাগ করে এলাম নিরাশ্রয়
    তখন মৃত্যুর হিমে ভেজা
    তোর আর্ত সবুজ চোখের ভাষা
    আমি বুঝতে পারিনি।

    ধর্ম কি আমাকে পরিত্যাগ করেছিল

    ------------------------------------
  • T | 165.69.191.249 | ১৭ নভেম্বর ২০১৭ ১৫:১১368454
  • হুঁ হুঁ...আলবাত দেখতে পায়।
  • aranya | 172.118.16.5 | ১৭ নভেম্বর ২০১৭ ২৩:৫৯368455
  • দারুণ, দারুণ @টি

    ভুত থাকার একটা হাই চান্স আছে, এ আমি বরাবরই ভাবি
  • বিপ্লব রহমান | 340112.231.126712.74 | ২৮ জুন ২০১৮ ০৭:২৬368457
  • এডগার এলেন পো'র কালো বেড়ালের নাম-- প্লুটো।
  • রুকু | 12.187.015623.24 | ২৮ জুন ২০১৮ ০৮:৩৩368458
  • টেনিদাকে ওই সংকীর্তনের গল্পে তিনতলা থেকে বিড়াল ছুড়ে মেরেছিল। বিড়াল হারমোনিয়ামের ওপর পড়ে খ্যাঁচম্যাচ করে দৌড় দেয়। তা বাদে আমার বিড়াল ভালই লাগে, একটা গা শিরশিরানি ব্যাপার আছে। তার সাথে একটু মিশরীয় মিশরীয় ঠাঁট। ভুত মানেই যে কালো বিড়াল সে তো ইটিভিতে যখন অলৌকিক হত তারও আগে থেকে জানি। চিত করে পেটে সুড়সুড়ি দিলে মাল থুড়ি বিড়ালগুলো বেশ গরর গরর করে আওয়াজ করে। কোলে কাঁখে তুলে আদর করলেও করে। সেটা নাকি হার্টের জন্য ভাল। আমার বাবা বাগানে একটা বিড়াল পুষত, নাম ছিল রমেন। সে টিকটিকি থেকে বিস্কুট সব খেত। পলতা পাতার বড়াও আধখানা চেখে দেখেছিল। তারপরেই অকালে... যাকগে সেসব দুঃখ ভরি দাস্তাঁ!
  • বিপ্লব রহমান | 340112.231.126712.74 | ২৮ জুন ২০১৮ ০৯:৫১368459
  • প্রফেসর শংকুর বেড়ালের নাম ছিল --- নিউটন।
  • বিপ্লব রহমান | 340112.231.126712.74 | ২৮ জুন ২০১৮ ১০:০০368460
  • মাস দুয়েক আগে ছোট বোন তৃণার হুলো বেড়াল "ফড়িং" মারা গেল।

    সেরাম মোটাতাজা সাদাকালো ছোপ ছোপ ফড়িং খাবার দাবার ছেড়ে দিয়েছিল। ডাক্তার বললেন, হজমের গোলমাল। অপারেশন করেছিলেন, কিন্তু শেষ পর্যন্ত বাঁচানো যায়নি।

    হাতির ঝিলপাড়ে ফড়িং কে মাটি চাপা দিয়ে এসে তৃণা খুব কেঁদেছিল। সেই ছোট্ট একরত্তি তুলতুলে ছানা থেকে তৃণাই ওকে বড় করেছিল।

    জানি তো, যে যায়, সে একেবারে যায়!
  • বিপ্লব রহমান | 340112.231.126712.74 | ২৮ জুন ২০১৮ ১০:৪১368462
  • ম্যাও ম্যাও হুলোদাদা, তোমার যে দেখা নাই?
    "গেছিলাম রাজপুরী রানীমার সাথে ভাই!"
    "তাই নাকি? বেশ বেশ, কি দেখেছ সেখানে?"
    "দেখেছি ইঁদুর এক রানীমার উঠানে।।"

    *

    খিল্‌‌খিল্লির মুল্লুকেতে থাকত নাকি দুই বেড়াল,
    একটা শুধায় আরেকটাকে, "তুই বেড়াল না মুই বেড়াল?"
    তাই থেকে হয় তর্ক শুরু, চীৎ‌কারে তার ভূত পালায়,
    আঁচড় কামড় চর্কিবাজী ধাঁই চটাপট চড় চালায় ।
    খাম্‌‌চা খাবল ডাইনে বাঁয়ে হুড়মুড়িয়ে হুলোর মতো,
    উড়ল রোঁয়া চারদিকেতে রাম্-ধুনুরীর তুলোর মতো ।
    তর্ক যখন শন্ত হল, ক্ষান্ত হল আঁচড় দাগা,
    থাকত দুটো আস্ত বেড়াল, র‌‌ইল দুটো ল্যাজের ডগা ।

    *

    নাচ্ছি মোরা মনের সাধে গাচ্ছি তেড়ে গান
    হুলো মেনি যে যার গলায় কালোয়াতীর তান।
    নাচ্ছি দেখে চাঁদা মামা হাসছে ভরে গাল
    চোখটি ঠেরে ঠাট্টা করে, দেখনা বুড়ার চাল

    -- সুকুমার রায়ের "খুচরো ছড়া" থেকে--
  • ekhaane thaak :) | 785612.119.560112.107 | ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ২১:৩৭368463
  • ঝড়খালির লক্ষণবাবুর হোটেলে দুটি বেড়াল আছে, এমনিতে গম্ভীর ভাবে টেবিলের নীচে বসে থাকে, খাওয়া শুরু হলেই প্রবল ডাকাডাকি শুরু করে, যদিও মালিকপক্ষ তাদের ভালৈ যত্ন`আত্তি তোয়াজ করে। এবং ডাকাডাকি করতে করতে একসম বেঞ্চির ওপর এসে বসে ও থালা থেকে মাছ তুলে নিতে চায়।

    https://s33.postimg.cc/yws0pk59r/80_FCEDD0-_A837-4_F76-9669-6_D6621_CC
    A817.jpg

    এই আমার বেড়ানোর ছবি।
  • uff | 785612.119.560112.107 | ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ২১:৩৮368464
  • | 2345.106.670123.25 | ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ২২:১০368465
  • name: Du mail: country:

    IP Address : 237812.58.890112.101 (*) Date:10 Sep 2018 -- 08:40 PM

    সাহেবরা বেড়ালদের ছোটবেলায় টেবল এ উঠতে গেলে কনসিস্টেন্টলি স্প্রেয়ার দিয়ে জল ছেটায় মুখে। বেড়ালগুলো ভারি ভদ্র হয়ে যায় এই করে বিশ্বাস করো। কোন খাবারে মুখই দেয় না নিজেরটা ছাড়া।
  • r2h | 785612.35.2389.70 | ২৮ ডিসেম্বর ২০১৮ ০০:০৩368466
  • কবিতা যেন এক বিড়াল
    ~~~~~~~~~~~~~~~
    -কেতকী কুশারী ডাইসন
    ~~~~~~~~~~~~~~~

    কবিতা যেন এক বিড়াল -
    টেলিভিশনে বললেন সেদিন
    রুশ কবি ইরিনা রাতুশিনস্কায়া-
    যখন খুশি আসে,
    নরম ব্যবহার পেলে থাকে,
    রুক্ষ ব্যবহার পেলেই চ'লে যায়।

    জানি আমি, জানি তার বিড়ালত্ব,
    লঘু পায়ে অকস্মাৎ এসে পড়া,
    অকারণে চোখে চোখ রেখে
    অপলক জ্বলজ্বলে চোখে চেয়ে থাকা-

    যেমন শীতের দেশে অতর্কিতে এসে পড়ে বসন্ত :
    হঠাৎ দোরের সামনে ফরসাইদিয়ার উলঙ্গ আগুন,
    লাইলাকে গাঁটে গাঁটে প্রসবের বেগনী আভা,
    ঘাসটা আরেক পোঁচ সবুজ।

    কিন্তু সেই রুশ কবি, ইরিনা রাতুনস্কায়া,
    যিনি জেল খেটেছিলেন কবিতা লেখার অপরাধে,
    বললেন তিনি তাঁর শ্রেষ্ঠ কবিতাগুলি লিখবেন
    স্বর্গের সভায় গিয়ে, ঈশ্বরের সম্মুখে দাঁড়িয়ে,
    যদি সে - আহ্বান পান।

    ঈশ্বর - পুংশ্চিহ্নিত,
    পিতা পিতৃব্য, প্রভু, পৃষ্ঠপোষক।

    আমার সে দাক আসবে তেমন ভরসা নেই কোন।
    দরবারের কানুনও জানি না।

    গেঁয়ো কৌতুহল আছে : অলিন্দ আছে কি তাঁর কোনো?
    সেখানে কি বুগেনভিলিয়া?
    পৃথিবীর পরার্ধ ভাষায়
    কাব্যকলা সত্যি তিনি বুঝবেন?
    পেন্নাম হই, ঠাকুর, বঁ জুর! বুয়েনোস দিয়াস!

    কাচা কাপড় মেলে দিয়ে ব`সে আছি মর্ত্য ভবনেই।
    স্বর্গে কি আহূত শুধু কবিরাই, ধোপানীরা নয়?

    সেখানেও লাগে না কি কাচাকাচি, বস্ত্র থেকে তোলা
    ঘাম-রক্তের দাগ, পার্টির সুরাচিহ্ন? লাগে
    রজকিনী হৃদয়ের ভালোবাসা?

    ঠান্ডা চা। আগাছাদের আক্রমণে
    উঠানের টালিগুলি ঢিলে হয়, নড়বড় করে।
    পরগাছা আইভি
    শোষে সহিষ্ণু হথর্নের রক্ত।

    আয়, বনবিড়াল, ধরা দে,
    দুধ খা আমার ফাটা রেকাবী থেকে।
    গোঁফ চাট, হাই তোল, রোদে শুয়ে নিদ যা।
    না-হয় তোর কাছ থেকেই পেলাম
    এমন কয়েকটা কবিতা
    যাদের মধ্যে আছে ঘাস, মাটি
    আর টক পাতার স্বাদ।

    ~~~~~~


    ছবি - সুশোভন অধিকারী
  • করোনা ভাইরাস

  • পাতা : 1
  • গুরুর মোবাইল অ্যাপ চান? খুব সহজ, অ্যাপ ডাউনলোড/ইনস্টল কিস্যু করার দরকার নেই । ফোনের ব্রাউজারে সাইট খুলুন, Add to Home Screen করুন, ইন্সট্রাকশন ফলো করুন, অ্যাপ-এর আইকন তৈরী হবে । খেয়াল রাখবেন, গুরুর মোবাইল অ্যাপ ব্যবহার করতে হলে গুরুতে লগইন করা বাঞ্ছনীয়।
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত