এই সাইটটি বার পঠিত
ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • খেরোর খাতা

  • অমৃত্যুর গল্প

    ইন্দ্রাণী লেখকের গ্রাহক হোন
    ০৯ এপ্রিল ২০২৩ | ৭৬৫ বার পঠিত | রেটিং ৫ (২ জন)
  • যে সুচিত্রা সেন কিডন্যাপ হয়েছিলেন
    কুলদা রায়
    গুরুচণ্ডা৯ প্রকাশন
    দাম ১২০ টাকা

    ইদানিং বই নিয়ে হয়তো একটু বেশিই লিখছি। অন্তর্মুখী স্বভাব  এবং আরো নানাবিধ হিজিবিজি কারণে অনেকদিন বই নিয়ে সেভাবে লিখি নি। একই সঙ্গে, গত কয়েক  বছর ব্যক্তিগতভাবে নিজের লেখা, 'লেখক' পরিচিতি নিয়ে অযাচিত সম্মান, প্রশংসা যেমন পেয়েছি, তেমনি বেদনা, কখনও অপমানও। এসবই খুব স্বাভাবিক। একজন স্বল্পপঠিত- র প্রাপ্যই হয়তো । এভাবেই ব্যালান্স বজায় থাকে। মাটির ওপর ভেসে বেড়াতে পারি না, পাতাল প্রবেশও ঘটে না। 
    অতীতে কিছু লেখার সমালোচনা বা  কাটা ছেঁড়া করে লিখতে গিয়ে দেখেছি, সেখানে 'লেখক' আমির ছায়া পড়ে- এইটা হলে ভালো হত, তীক্ষ্ণ হত এইসব ভেবেছি, লিখেওছি। অনেকেই পছন্দ করেন নি। পরে আমারও খারাপ লেগেছে। সে চেষ্টা আর করি না। আসলে,লেখা ভালো কী মন্দ সে বিচার  তো আপেক্ষিক। লেখা কালোত্তীর্ণ হবে কী হবে  না সে বিচারও করেন স্বয়ং মহাকাল।  আপাতত, একান্ত কিছু বেদনাবোধ থেকেই খেরোর খাতায় কয়েকটি বইয়ের নাম  টুকে রাখা, পাঠককে জানিয়ে রাখা লেখকের নাম ,যাঁদের লেখা আমার বিচারে অন্যরকম, উল্লেখযোগ্য, অথচ স্বল্পপঠিত।

    কুলদা রায়কে সেই বিচারে স্বল্পপঠিত বলা চলে না। খুব অল্প সময়ে কুলদা অনন্য একটি স্থান করে নিয়েছেন আজকের বাংলা লেখাজোকায়। কুলদাবাবুর লেখার মূল  সুরটি এই বইতে, গল্প শুরুর আগেই উৎকীর্ণ- "The struggle of man against power is the struggle of memory against forgetting"- মিলান কুন্দেরার The book of laughter and forgetting থেকে একটি উদ্ধৃতি। কুলদাবাবুর লেখা নিয়ে এই সব কথা ফিরে ফিরে এসেছে লেখকের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে, কুলদাবাবুর লেখা বিষয়ক  প্রবন্ধে।  খেরোর খাতার আজকের এন্ট্রিতে সে সবের পুনরাবৃত্তি অবান্তর। তদুপরি, ইতিহাস, স্মৃতি-বিস্মৃতি, গণস্মৃতি এবং সর্বোপরি প্রাচীন ইতিহাসের ভারি, স্থবির প্রেক্ষাপটের সামনে একক প্রস্ফুটিত জীবন আর বর্তমানের ক্রমাগত প্রেক্ষাপট বদলে যাওয়ার সামনে আমাদের তুচ্ছ, গতানুগতিক জীবনের বৈপরীত্য খেরোর খাতায় আঁটে না। 
    আমার আজকের আঁকিবুকি তবে কেন?

    গুরুচণ্ডা৯ প্রকাশনের এই সংকলনটির কিছু বৈশিষ্ট্যের কথা লিখে রাখা দরকার মনে হল।
    বস্তুত, খেরোর খাতার একটি এন্ট্রিতে রমাপদ চৌধুরীকে উদ্ধৃত করেছিলাম ছোটো গল্প আর উপন্যাসের ভিন্ন ভাব, ভিন্ন আঙ্গিক প্রসঙ্গে। এটি একটি দৃষ্টিকোণ মাত্র- এই সব নয়। কুলদাবাবুর বহু লেখাই একই সঙ্গে উপন্যাস ও ছোটোগল্পের ভাব বহন করেছে। গল্পের চরিত্রগুলির বহুস্তরীয় উদ্বর্তন, গল্পের কেন্দ্রে বা পরিধিতে থাকা বিবিধ জনশ্রুতি, মিথ  এবং লেখায় কথকতার আঙ্গিক যেভাবে কুলদাবাবুর লেখায় এসেছে, তাকে "ছোট প্রাণ, ছোট ব্যথা ছোট ছোট দুঃখকথা- নিতান্তই সহজ সরল, সহস্র বিস্মৃতিরাশি প্রত্যহ যেতেছে ভাসি; তারি দু'চারিটি অশ্রুজল"- এর সংজ্ঞায় আঁটানো যায় না। অধিক পরিসর প্রয়োজন হয়ে পড়ে।
    গুরুচণ্ডা৯র এই সংকলনে গল্পের চয়ন, ক্রম ও আয়তন কুলদাবাবুর লেখাকে  পাঠকের কাছে তার সমস্ত বৈশিষ্ট্য নিয়ে  পৌঁছে যাওয়ার পরিসর দিয়েছে।

    কুলদাবাবু বলেন- একটি গল্পে গল্পই থাকে-জীবনের গল্প, মৃত্যুর গল্প, অমৃত্যুর গল্প। এই অমৃত্যু থাকে বলেই মানুষ গল্পটি নিজের করে নেয়। ভুলতে পারে না।

    আলোচিত  সংকলন জুড়ে অমৃত্যুকেই প্রত্যক্ষ করেছি। আশা রাখি, পাঠকও করবেন।

     
    পুনঃপ্রকাশ সম্পর্কিত নীতিঃ এই লেখাটি ছাপা, ডিজিটাল, দৃশ্য, শ্রাব্য, বা অন্য যেকোনো মাধ্যমে আংশিক বা সম্পূর্ণ ভাবে প্রতিলিপিকরণ বা অন্যত্র প্রকাশের জন্য গুরুচণ্ডা৯র অনুমতি বাধ্যতামূলক। লেখক চাইলে অন্যত্র প্রকাশ করতে পারেন, সেক্ষেত্রে গুরুচণ্ডা৯র উল্লেখ প্রত্যাশিত।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • | ০৯ এপ্রিল ২০২৩ ১৪:৩৮518485
  • আমার মাঝে কিছুদিন কুলদা রায়ের লেখা  একটু রিপিটেশান মনে হচ্ছিল। বৃষ্টি চিহ্নিত জল আর মার্কেজের পুতুল পরপর পড়ার ফল হয়্ত। তারপরে বেশ কিছুদিন পরে আবার এই সংকলন অনেকটা ভাল লেগেছে।  
  • ইন্দ্রাণী | ০৯ এপ্রিল ২০২৩ ১৬:৩৪518490
  • প্রিয় দ,
    ঐ বই দু খানা আমার নেই। তবে সম্ভবত সংকলনদুটির অনেক গল্পই পড়েছি। কাঁধের ঝোলার ভার অবহ হয়ে যাচ্ছিল বলে বৃষ্টি চিহ্নিত জল নিতে নিতেও কেনা হয় নি। পরদিন সোপানে ফিরে যাওয়াও হয় নি। আনিয়ে নেব।
    গুরুচণ্ডা৯র এই সংকলনটি ভালো হয়েছে-যেমন লিখলাম।
  • | ০৯ এপ্রিল ২০২৩ ১৭:৪৭518491
  • আমি তো ছোটগল্পের বই খুব একটা কিনি না, গল্প পড়ি তবে আমার প্রথম পছন্দ উপন্যাস আর তারপরেই প্রবপ্নধ। তো কুলদা রায়ের গল্পগুলো ঠিক ছোটগল্প নয় একটাও। তুই যেমন লিখেছিস  প্রত্যেকটাই যেন খানিকটা করে উপন্যাসও। অনেককটা পড়েই মনে হয় আহা এটা যদি আরেকটু হাত পা ছড়াত। সেইজন্যই ওঁর বইগুলো পটাপট কিনে ফেলি। তো পরপর দুটো একটানা পড়ে ফেলে একটু হাঁপিয়ে গেসলাম আর কি। 
    হ্যাঁ এই বইটা ভাল। 
  • | ০৯ এপ্রিল ২০২৩ ১৭:৪৭518492
  • *প্রবন্ধ
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। পড়তে পড়তে প্রতিক্রিয়া দিন