এই সাইটটি বার পঠিত
ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • খেরোর খাতা

  • কাল রাতে পড়া বই - 'ছয়ে রিপু'

    দীপাঞ্জন মুখোপাধ্যায় লেখকের গ্রাহক হোন
    ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ | ৫৬৯ বার পঠিত | রেটিং ৪ (১ জন)
  • সংগীতের জগতে 'কন্সেপ্ট অ্যালবাম' বলে একটা জিনিস হয়। সাধারণত গানের অ্যালবামের একটা গান অন্য গানের থেকে কথায় এবং বিষয়ে আলাদা হয়ে থাকে , কিন্তু কন্সেপ্ট অ্যালবামের গানগুলো কোথাও একটা অদৃশ্য সুতোয় বাঁধা থাকে , তাদের কথা এবং বিষয় একই ধাঁচের হয়। শেষ পর্যন্ত গানগুলো মিশে গিয়ে যেন একটা নির্দিষ্ট থিমের দিকেই নির্দেশ করে। এরকম অ্যালবামের প্রকৃষ্ট উদাহরণ পিন্ক ফ্লয়েডের 'এনিম্যালস' বা 'দ্য ওয়াল' অ্যালবামগুলো। 

    'ছয়ে রিপু' বইটাও বাংলা ভাষায় সেরকম একটা 'কন্সেপ্ট গল্পের বই' বা এন্থোলজি বলা যেতে পারে। গল্পগুলো একে অপরের থেকে আলাদা কিন্তু কোথাও গিয়ে সমষ্টিতে এক সম্পূৰ্ণ নতুন আখ্যানের জন্ম দেয়। লেখক এই বইতে বাংলা ভাষায় বর্তমানে অধিকতর লেখালেখি হচ্ছে সেরকম ছটা ঘরানা[ঋতু]র সঙ্গে ছটা রিপু পাশাপাশি রেখে ছটা গল্প বলেছেন , সমীকরণের সাহায্যে বোঝাতে গেলে ব্যাপারটা এরকম -

    (ঋতু) + (রিপু)  = (গল্প) 
    [১] সমাজসচেতন + লোভ = সুনাগরিক রঞ্জন দত্তের মৃত্যুর দিন 
    [২] ঐতিহাসিক + ক্রোধ = উনিশে এপ্রিল 
    [৩] রহস্যরোমাঞ্চ(থ্রিলার) + কাম = শীতবন্দরে 
    [৪]  ভীতিপ্রদ(হরর) + মদ = পাইথনের গপ্পো 
    [৫] অলৌকিক + মোহ = বড়দিন 
    [৬] স্মৃতিমেদুর + মাৎসর্য্য = ক্যাম্পফায়ার, আমাদের রাতের উৎসব 

    প্রথম গল্পে নতুন মেডিক্যাল রিপ্রেজেনটেটিভ রঞ্জন দত্তের সামনে চ্যালেঞ্জ , পুলিশকে 'কাগজ দেখিয়ে' প্রমাণ করা সেই আসল রঞ্জন দত্ত। দ্বিতীয় গল্প সিরাজদৌল্লার ওপর। তৃতীয় গল্পে আমরা দেখতে পাই এক ডিস্টোপিয়ান বন্দর শহরকে , যেখানে ধূমপান আইনি কিন্তু বিবাহপূর্বক সহবাস রাষ্ট্রদ্রোহের সমান। চতুর্থ গল্পে একটা পরীক্ষাগারে আমরা দেখতে পাই একটা পাইথনকে সাদা ইঁদুর খাওয়ানোর প্রচেষ্টা চলছে , যেখানে -'পৃথিবীতে মানুষ দু রকম হয়। ডাক্তার হল চিন্তাবিদ। আর নেপালি ছেলেটা ক্যাডার।' পঞ্চম গল্পে ভিখারীবেশী দেবদূত ব্রীজ ধরে দৌড়াতে দৌড়াতে উড়োজাহাজের মত সাঁ করে টেকঅফ করে। ষষ্ঠ গল্পে হোস্টেলের একদল ছেলে এবং হোস্টেলের সুপার এক যজ্ঞে সেমেস্টারের পাঠ্যবই আহুতি দেয়। 

    ওপরের পরিচ্ছেদ থেকে ঋতুগুলো মোটামুটি বোঝা গেলেও রিপুগুলো কিভাবে গল্পে ব্যবহার হচ্ছে , সেটা বোঝার জন্য গল্পগুলো পড়তে হবে ।  
     
    পাঠক হিসেবে দুকথা -
    বইয়ের ব্লার্বে লেখা আছে ​​​​​​​-'পড়ে ​​​​​​​শ্বাসরুদ্ধ হয়ে কেউ যদি মধ্যরাতে দুঃস্বপ্নে জেগে ওঠেন , তবেই এদের নির্মাণ সার্থক'। বইটা বেরোনোর আগে বিজ্ঞাপনেও এরকমই লেখা হয়েছিল , কিন্ত এত দুঃস্বপ্ন সবাই কোথা থেকে পাচ্ছেন জানি না। প্রথম এবং তৃতীয় গল্পের মধ্যে সমকালীন ভারতের সিএএ , এনআরসি , এন্টি রোমিও স্কোয়াডের ছায়া আছে। বাকি গল্পগুলোর মধ্যে অন্ধকার কিছু নেই। পাঠক হিসেবে আমার শেষ দুটো গল্প খুবই ভালো লেগেছে , বিশেষত পঞ্চম গল্পটা লেখকের আগের একটা গল্প [সম্ভবত এখনো পর্যন্ত অগ্রন্থিত] 'মানডে ব্লুজ' এবং ষষ্ঠ গল্পটা 'দিনগুলি রাতগুলি' বইয়ের এক্সটেনশন বলা যায়। কাজেই মধ্যরাতে দুঃস্বপ্নে জেগে না উঠলেও এদের নির্মাণ সম্পূর্ণ সার্থক। 
     
    শেষ দুটো গল্পে একটা মেয়ের চরিত্রের নাম স্বাতী , যতদূর মনে হচ্ছে 'খেরোবাসনা'রও একটা চরিত্রের নাম স্বাতী ছিল। এক নাম বারবার ব্যবহার করার পিছনে বিশেষ কোনও অভিসন্ধি আছে কিনা [উদয়ন ঘোষের শান্তনুর মত] , সেবিষয়ে পাঠক হিসেবে লেখক সৈকত বন্দোপাধ্যায়ের কাছে আমার প্রশ্ন থাকল। 
     
    পুনঃপ্রকাশ সম্পর্কিত নীতিঃ এই লেখাটি ছাপা, ডিজিটাল, দৃশ্য, শ্রাব্য, বা অন্য যেকোনো মাধ্যমে আংশিক বা সম্পূর্ণ ভাবে প্রতিলিপিকরণ বা অন্যত্র প্রকাশের জন্য গুরুচণ্ডা৯র অনুমতি বাধ্যতামূলক। লেখক চাইলে অন্যত্র প্রকাশ করতে পারেন, সেক্ষেত্রে গুরুচণ্ডা৯র উল্লেখ প্রত্যাশিত।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • ? | 223.29.193.62 | ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ১৭:২২516198
  • উদয়ন ঘোষের অভিসন্ধিটা ঠিক  কী ছিল? 
  • দীপাঞ্জন মুখোপাধ্যায় | ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ২৩:১১516204
  • ওটা এমনিই একটা উদাহরণ মনে এল, উদয়ন ঘোষের সত্যিকারের অভিসন্ধি[যদি আদৌ কিছু থেকে থাকে] আমি জানি না। 
     
    কেউ হয়ত গল্পে ওই নামের চরিত্র আরেকবার দেখে ভাববে -"আবার এই চরিত্র?" , কেউ নতুন গল্প পড়ার আগেই ভাববে এই গল্পেও ওই নামের কোনো চরিত্র থাকবে কি ? এরকম কত সম্ভাবনাই তো হতে পারে। 
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। ভেবেচিন্তে প্রতিক্রিয়া দিন