ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • খেরোর খাতা

  • ষাঁড়

    Swati Chakraborty লেখকের গ্রাহক হোন
    ১১ ডিসেম্বর ২০২১ | ৩২৫ বার পঠিত
  • রিক্ত হতে হতে যখন মমি সিনেমায় মমির দেহ থেকে সবকিছু খসে পড়ার মত, নিজেকে রক্ষা করার মত সবকিছু প্রতিযোগিতায় হেরে যায়, যখন চারপাশের মধ্যে নিজেকে শক্ত ভাবে বসানোর জন্য সব খুঁটি লড়বড়ে হয়ে যায় তখন শেষ রক্ষায় অবতীর্ণ হয় জেদ। গোঁয়াড়তুমি। মানুষ যখন মান সম্মান, অধিকার, পাওনা, ন্যায় সবকিছু থেকে বঞ্চিত হতে থাকে তখন হয়ে যায় রাস্তা জুড়ে দাঁড়িয়ে থাকা ষাঁড়। কাছে গেলে গুঁতোবে নয়তো নড়বে না। এরকম বহু উদাহরণ আছে চারপাশে কিন্তু একটা ছোট্ট ঘটনা এই আপ্তবাক্যটি আমার চোখের সামনে সত্যি করে তুলেছিল।
     
    আমাদের পাড়ায় আমাদের সকলের থেকে কিছুটা পৃথক একটি পরিবার ছিল। অবশ্য তাদের পৃথক হবার কারণও ছিল। কারণ সেই বাড়ির কর্তা ছিলেন একজন উচ্চপদস্থ আমলা। তাদের আসা যাওয়া, এটিকেট সরকারি রথের আনাগোনা সব‌ই আমরা হাঁ করে দেখতাম। আর ভাবতাম ওদের বেডরুমের বাইরেও বুঝি পিওন থাকে। এমনকি বাড়ির ছেলেমেয়েদের এঁদের উদাহরণ দেখিয়ে পড়াশোনায় উৎসাহও দিতাম। তা এহেন ভিআইপি বাড়িতে একটি ছেলে কাজ করত চব্বিশ ঘন্টা। ঘটনার মোড় কোনদিকে এগোচ্ছে নিশ্চয়ই বোঝা যাচ্ছে। কিন্তু আজ আমি সেই অন্যায়র কথা বলব না। বলব ছেলেটির অভিনব প্রতিবাদের কথা। আমলা প্রায় বাড়িই থাকতেন না। আমলানিই স্বাভাবিকভাবেই ছিলেন সর্বময় কত্রী। আমলানি তাঁর সমস্ত অমলত্ব প্রয়োগ করে ছেলেটির থেকে কাজ আদায় করত। আমরা টুকটাক কানাঘুষো শুনতাম। কারন পাড়ার মুদি, ধোপা এরা হল লোকাল বিবিসি। আমি তখন নাইন-টাইন হব। তা হঠাৎ একদিন ছেলেটাকে দেখলাম বাড়ির বাইরে সিঁড়িতে বসে। আমলার কর্মচারী বলে কথা। আ্যসিডের ফেনা গলা অবধি উঠে এলেও সাহস করে কেউ কিছু জিজ্ঞেস করছে না। মাঝে মাঝে বিদ্যুৎ ঝলকের মত ভেসে আসছে আমলানির গলা। পাড়ার অন্যান্য কাজের ব‌‌উরা ধারেকাছে ঘেঁষছে না। বিপদের গন্ধ পেয়ে। ছেলেটি ঠায় বসে। কোনো কথা নেই। স্ট্রাইক। এদিকে শুধু অর্ডার দেওয়া মালকিন তো ল্যাজে গোবরে। আমরা নাটক দেখছি। আর ছেলেটি অবাধ্য ষাঁড়ের মত শুধু সিঁড়িতে চুপ করে বসে। তার প্রভু কতবড় ক্ষমতাধর তা কি সে ভুলে গেছে? নাকি তার ভয় কর্পূর এর মত উবে গেছে। কখন এভাবে ভয় কর্পূর হয়ে যায়? কখন হয় এমন যখন ভয় আর গ্ৰাস করতে পারে না? ছেলেটিকে দেখে আমি ভয় পেয়েছিলাম নিঃসন্দেহে। ওর মালিকও ভয় পেয়েছিল। ক্ষমতাধর হলেও বুঝেছিল ভাইরাস চোখে দেখা যায় না। অথচ অর্ধেক মেডিসিন ইন্ডাস্ট্রি দাঁড়িয়ে ভাইরাস কব্জা করতে। সেদিনের সেই ছোট্ট ঘটনা আমার মনে খুব দাগ কেটেছিল। আমার মোটা মাথা আমলার থেকেও বেশী সম্ভ্রম করত ওই ছেলেটিকে। আহা এমন ভয়কে জয় করার মত একটা সবল হৃদয় যদি ভগবান দিতেন। ছেলেটি সেদিন নিজের গুরুত্বটা বুঝিয়েছিল খুব শান্ত ভাবে। সে তার কর্মের হীনতায় ডুবে থাকে নি। সে মানুষ হিসেবে নিজের উত্তরণ করেছিল। এমন কতকিছুই না ঘটে চারপাশে, কিন্তু দূর্বল মন শুধু তাই নিয়ে লিখতেই পারে।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। খেলতে খেলতে প্রতিক্রিয়া দিন