ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • টইপত্তর  আলোচনা   স্বাস্থ্য

  • রণসজ্জা 

    JAYASHREE KONAR লেখকের গ্রাহক হোন
    আলোচনা | স্বাস্থ্য | ০৯ ডিসেম্বর ২০২১ | ৩১৫ বার পঠিত | রেটিং ৫ (১ জন)
  • "হ্যাজমাট স্যুট" হলো একধরনের  পোশাক যা সামগ্রিক ভাবে রাসায়নিক, জৈবিক বা তেজস্ক্রিয়  সহ বিবিধ বিপজ্জনক  পদার্থ সমূহ থেকে  মানবদেহকে  রক্ষা করার জন্য পরিধান করা হয়। "হ্যাজারডাস  মেটেরিয়াল" বা ক্ষতিকর বস্তুসমগ্র  থেকে শব্দবন্ধটি আহৃত ।এটি আসলে আপাদমস্তক আচ্ছাদন । এটি প্রায়শই অগ্নিনির্বাপণ , সংক্রামক  চিকিৎসা,  গবেষণা  এবং তেজস্ক্রিয় অথবা   বিষাক্ত পরিবেশে কাজ করার সময় ব্যবহার করা হয় ৷ সাধারণত, হ্যাজমাট স্যুটগুলি পলিভিনাইল ক্লোরাইড, রাবার, টেফলন বা টাইভেক জাতীয়  উপাদান থেকে তৈরি করা হয়।অনুরূপ আরেকটি পোশাক হলো  এনবিসি (পারমাণবিক, জৈবিক, রাসায়নিক) স্যুট, যাকে কেমস্যুট বা রাসায়নিক স্যুটও বলা হয়  । কোভিড  বাতাবহে এই "হ্যাজমাট স্যুট" শব্দবন্ধটি আরো বেশি মাত্রায়  প্রাসঙ্গিকতা পেয়েছে । "পার্সোনাল প্রোটেক্টিভ ইকুইপমেন্ট" আসলে  "হ্যাজমাট স্যুট" এর  রকমফের। এগুলো  সবই এক এক  ধরনের সামরিক ব্যক্তিগত সুরক্ষামূলক সরঞ্জাম। "পার্সোনাল প্রোটেক্টিভ ইকুইপমেন্ট" এ  নিমোক্ত বিষয়গুলিতে খেয়াল রাখা হয় : 
    চোখ এবং মুখ সুরক্ষা, হাত সুরক্ষা, শরীরের সুরক্ষা, শ্বাসযন্ত্রের সুরক্ষা এবং শ্রবণ সুরক্ষা। প্রতিটি বিভাগের জন্য  সংশ্লিষ্ট নিরাপত্তা সরঞ্জাম অন্তর্ভুক্ত রয়েছে । ১৮৭০ সালে রাশিয়ান বিজ্ঞানীরা  ভোল্গায় প্লেগের প্রাদুর্ভাব মোকাবিলা করার জন্য একধরণের  হ্যাজমাট স্যুট ডিজাইন করেছিলেন। এ প্রসঙ্গে লিন্টেরিস বলেছেন, "স্যুটগুলি কাল্পনিক গ্যাসগুলিকে আমাদের নাসারন্ধ্রে পৌঁছাতে বাধা দেওয়ার জন্য ডিজাইন করা হয়েছিল। " মহামারিকালে ঘন্টার পর ঘন্টা ধরে এই পোশাক পরে স্বাস্থ্যকর্মীরা লড়াই  করেছেন ভাইরাস এর বিরুদ্ধে । ক্লান্ত, গলদঘর্ম দেহগুলি রোগীমৃত্যুকে পরাজিত করতে চেয়েছে প্রাণপণে ।  জয় সম্ভবতঃ   আসন্ন ; আর কিছুদিনের সাবধানতা আর সংযম । সামাজিক দূরত্ববিধি, মুখোশের ব্যবহার , পরিচ্ছন্নতা আর প্রতিষেধক - এই চারটি অস্ত্রে ঘায়েল হবে ভাইরাস । তখন আবার হয়তো তুলে রাখা যাবে এই সমরসাসজ্জা । ততদিন পর্যন্ত  ঝাপসা দৃষ্টি, প্রায় বন্ধ হয়ে আসা শ্বাস - "পার্সোনাল প্রোটেক্টিভ ইকুইপমেন্ট" এর এসব অসুবিধা  উপেক্ষা করেই চলবে  বিশ্বব্যাপী যুদ্ধ ।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। চটপট মতামত দিন