ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • খেরোর খাতা

  • "অওকাত নেই"

    Rajat Das লেখকের গ্রাহক হোন
    ০২ জানুয়ারি ২০২১ | ৩৫৬ বার পঠিত
  • "বৈধ টিকিট কেটে ট্রেনে চড়তেও অওকাত লাগে মশাই..."


    হ্যাঁ, ঠিকই শুনেছেন। 'অওকাত' অর্থাৎ ক্ষমতা লাগে। যদি কেউ কষ্ট করে হলেও রাজধানী ট্রেনের টিকিট কেটে ফেলে। তাহলেও চড়তে পারবে কিনা, এটায় এখন বিস্তর সন্দেহ। কারণ পোশাকই আপনার পরিচয় বহন করবে। সেই পোশাক যদি অমলিন হয়, তাহলে বৈধ টিকিট সত্ত্বেও আপনি ঘাড় ধাক্কা খাবেন ট্রেনের দরজায়। উঠতে দেওয়া হবে না। রাজধানী জাতীয় কুলীন ট্রেনে চড়তে গেলে আপনাকে শুধুমাত্র টিকিট কাটলেই হবে না। কৌলিন্য বজায় রাখতেই হবে। ধোপদুরস্ত জামাকাপড় পরে আসতে হবে। শরীর থেকে ছড়িয়ে পড়তে হবে দামী পারফিউমের সুবাস। আমাদের বাতানুকুল ঐশ্বর্যের প্রতীকী গাড়িতে যে কেউ উঠে পড়বে ? এটা একেবারেই মানা যায় না। 


    বুধবার ৩০শে ডিসেম্বর, হাড় হিম করা ঠান্ডায় ভোর সাড়ে পাঁচটায় দিল্লি - ভুবনেশ্বর রাজধানী ট্রেনের চেকার, জনৈক রামচন্দ্র ও অজয় যাদবকে এমনটাই করেছেন। তাঁদের মূল দোষ হল পরনে অমলিন পোশাক। চেকার ভদ্রলোকটির বুকের পাটা আছে, বলতে হবে। বেশ করেছে। এলি তেলি গুড়জাওয়ালি যে কেউ নোংরা জামাকাপড় পরে যেখানে সেখানে চড়ে বসবে, এটা মানা যায় ? নাইট ক্লাবে ঢুকতে গেলে বৈভব ঐশ্বর্য এসব লাগে। এখন থেকে দামী ট্রেনে চড়তে গেলেও ওইরকমই হতে হবে। 


    ১২৭ বছর আগে ১৮৯৩ সালের ৭ই জুনে একই ঘটনা ঘটে ছিল। স্থান কাল আর পাত্রটি শুধু ভিন্ন। সেটি দক্ষিণ আফ্রিকার পিটারমারিটজবার্গ স্টেশন ছিল। আর এটি স্বাধীন ভারতের ঝাড়খণ্ডের কোডার্মা স্টেশন, ২০২০ সাল। তখন ছিল বৃটিশ শাসন। আর এখন স্বদেশী শাসন। একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি দেখে ভীষণ আনন্দ হচ্ছে। যাক আমরা আবার পিছন দিকে হাঁটতে শুরু করেছি। সামনে এগোতে সব্বাই পারে। আট মাসের শিশুও হামাগুড়ি দিয়ে সামনে এগোয়। পিছাতে গেলে অন্যরকম এলেম লাগে। সেটা আমাদের পর্যাপ্ত আছে। সেটা ভেবেই দারুণ ভাল লাগছে। ইতিহাসেই পড়েছিলাম, বৃটিশ আমলের বৈষম্য, নির্দ্দিষ্ট কিছু মানুষের প্রতি ঘৃণা ইত্যাদি। সেই ইতিহাস যখন ফিরে আসছে, তাহলে একটু অপেক্ষা করলে প্রস্তর যুগও হয়ত দেখতে পাব। বন্য মানুষের বাকল পরে গোল হয়ে বসে আগুন জ্বালিয়ে শিকার করা কাঁচা মাংস পুড়িয়ে খাওয়াও হয়ত ফিরে আসতে চলেছে। কিংবা আরো একটু পিছিয়ে গেলে যদি ডাইনোসরদের দেখতে পাই ! ব্যাপারটা কি খুব মন্দ হবে ?

  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। আদরবাসামূলক প্রতিক্রিয়া দিন