• বুলবুলভাজা  কাব্য

  • দূরের জানালা দিয়ে যে মেয়েটিকে দেখা যায়, তার মন এবং

    মণিশংকর বিশ্বাস লেখকের গ্রাহক হোন
    কাব্য | ০৩ জানুয়ারি ২০২০ | ২২২ বার পঠিত | জমিয়ে রাখুন পুনঃসম্প্রচার
  • দূরের জানালা দিয়ে যে মেয়েটিকে দেখা যায়, তার মন


    যাইনি কখনো ও বাড়িতে
    চানঘরে দেখিনি কখনো জল পড়ে যায়—
    অথচ শরীর ভেজেনি একটুও
    শুনিনি রবি ঠাকুরের গান বসবার ঘরে বসে
    শুধু দেখেছি সিঁড়ি ঘরে আলো—
    সিঁড়ি চলে গেছে
    উড়ন্ত পর্দা সরিয়ে
    ঘরের ভিতর
    আমি
    আর হিমরাত শুধু
    অন্ধকারে চোরের মতো দাঁড়িয়ে থেকেছি
    তোমার সুগন্ধের পাশে।



    অপমান

    ঢোক গিলে ফেলি—
    তবু সহজ হয় না কিছু
    ঘরের ভিতর যে আলো জ্বলে
    তাকে আনন্দ বলা যায় না কিছুতেই
    বড়জোর অকরুণ বলা চলে—
    অথচ রাত্রি মানে তো এমন একটা দিন
    যার সূর্য চলে গেছে মাথা নিচু করে—
    হয়তো বোনের বিয়ে, টাকা যোগাড় হয়নি
    এসবের ভিতরই আমি প্রাণবৈচিত্র্যের মানচিত্রখানি খুলে দেখি—
    আমি ও বাগানের পেয়ারা গাছটি
    অবিকল একই জিন ব্যবহার করে
    ভেঙে ফেলছি
    সকল মৌলিক ও সরল শর্করাগুলি—
    তবু—তবু সহজ হচ্ছে না কিছুই...



    অতিকথন

    যতটুকু নষ্ট করেছি, তার সবটুকু ধ্বংস হয়নি এখনো। 

    বিগ্রহের মতো দেখি তোমাদের ভালো সময়—
    রমাদি’র বাচ্চা হল, রমণদা’র দোকান
    বিশ্বাসদের শরীকী ঝামেলা মিটে এখন আমে-দুধে
    অম্বরীশবাবুরা রাজারহাটে ফ্ল্যাট পেয়ে গেলেন—
    আর ভৌতধর্মে আমার শরীরে আরো মেদ জমে যায়।
    আমার অধঃপতন ছিল জলের মতন সহজ সরল—
    দেখেছি টাইমকলে মেয়েদের ভিড়—
    তাদের জল্পনা, পরিমিতি বোধ, কাণ্ডজ্ঞান।
    জানা গেলো বহু— প্রিয়া মেহতার (স্টার প্লাস)
    আগের পক্ষের স্বামী হসপিটালে, দাসবাবু ঘুসের টাকায়
    অল্টো কিনেছেন, হাবুর অবিবাহিত দিদি গর্ভবতী...
    আর হুঁশ থাকে না, বালতি বোতল ডিব্বা
    উপচে পড়তে থাকে জল
    মিশে যায় নোংরা জলে, তবু জল পড়তেই থাকে...

    ওই উপচে পড়া, ওই অব্যবহারটুকু আমি।

    হাবুর দিদির মতো কোনোদিন বোবা হয়ে যাব।



    ইউথ্যানেসিয়া

    ভেবেছিলাম হাঁটতে বেরিয়ে সকালে
    ভাঙ্গা দুর্গ হতে ফেরবার পথে, হারিয়ে ফেলব পথ
    তবে কেন আজ অন্যরকম পথ—
    গির্জার মিলনায়তনে মোমদানের মতো ভারি ও কালচে
    আতরদানের মতো সুরভিত, আমাকে ডাকে?
    যেন অদৃশ্য হবার আগে বুনো আদা ও বনতুলসীর ঝোপ হতে
    তক্ষক-লাঙ্গুল এক, গোশালার ছাদে, সংযুক্ত জামের ডালে
    চলে গিয়ে আমাকে জানালো
    আসা ও যাওয়ার পথ এক নয় গো
    কিছু জটিলতা, সামান্য আতান্তর আছে।

     আমি তাই অচেনাকে ডেকে বলি, ভাই, যত্ন নিও।
    এই দুরারোগ্য আত্মা তোমাকে দেবার আগে—
    শিরার ভিতর অর্ধদগ্ধ ডানা আর সুতীক্ষ্ণ নখর নিয়ে
    যে পাখিটি ক্লান্ত, তাকে এক ফুঁয়ে উড়িয়ে দেবার আগে—
    স্নায়ুগুলি যেন শিথিল ও শান্ত করে নিতে পারি— 

    সন্ধ্যাতারা, অনিবার ভিক্ষাপাত্র হাতে করে, শুধু এইটুকু প্রার্থনা করি।

  • বিভাগ : কাব্য | ০৩ জানুয়ারি ২০২০ | ২২২ বার পঠিত | | জমিয়ে রাখুন পুনঃসম্প্রচার
আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • Prativa Sarker | 124512.101.900900.172 (*) | ০৪ জানুয়ারি ২০২০ ০৭:১৩80082
  • আমি কেন মণিশংকরের কবিতার ফ্যান তা এই কবিতাগুলো পড়লে বোঝা যায়।
    প্রতিভা সরকার
  • সুকি | 236712.158.895612.176 (*) | ০৪ জানুয়ারি ২০২০ ০৭:২৪80083
  • প্রতিটি কবিতাই দারুণ লাগলো
  • গুরুচণ্ডা৯ | 162.158.166.254 | ২২ জানুয়ারি ২০২০ ০৭:৫৩90816
  • সুখবর। এবারের মেলায় মণিশংকর বিশ্বাসের বই প্রকাশিত হতে চলেছে, গুরুচণ্ডা৯ থেকে।
আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত