• টইপত্তর  নাটক

  • এনকাউন্টার ও অন্যান্য গল্পগুলি

    কল্লোল
    নাটক | ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯ | ১৩০ বার পঠিত | জমিয়ে রাখুন
আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কল্লোল | 236712.158.676712.142 | ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯ ২১:৩৬729158
  • তেলেঙ্গানার ধর্ষণকারীদের এনকাউণ্টারের নামে খুন করা হলো। ভুয়ো সংঘর্ষের নামে খুন পুলিশ প্রথমবার করছে না। বহুবার প্রমাণিতও হয়েছে।
    এই ক্ষেত্রে -
    ১) পুলিশের দাবী অনু্যায়ী চার অভিযুক্তকে নিয়ে ঘটনার পুণর্নিমান করছিলো তারা। তখন অভিযুক্তেরা পুলিশের থেকে অস্ত্র ছিনিয়ে পালাবার চেষ্টা করে। গুলি চালায়, পাথর ছোঁড়ে। পুলিশ তাদের আত্মসমর্পন করতে বলে। তারা না শোনায় - এনকাউন্টার।
    (ক) ঘটনার পুণর্নিমান করা তদন্তের কার্যপ্রণালীর একটি। এই কার্জপ্রণালীটিতে পুরো পুণর্নিমান প্রক্রিয়াটি ভিডিয়ো করা বাধ্যতামূলক। সেই ভিডিয়োতে অস্ত্র ছিনতাই অন্ততঃ ধরা পড়বে। (খ) সেটা হয়ে থাকলে এতক্ষন সেই ভিডিয়ো পুলিশ প্রকাশ করতো।

    ২) টেলিভিশনে ছবিতে দেখানো হচ্ছে মৃতদেহগুলি ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ে আছে। তাদের ঘিরে মানুষের ভিড়, যারা এলাকার সাধারণ মানুষ বলেই মনে হচ্ছে।
    (ক) এদের যখন গুলি করা হলো তখন ঘটনাস্থলে পুলিশ ছিলো। তাহলে তারা দেহগুলো ঐভাবে ফেলে না রেখে হাসপাতালে নিয়ে গেলো না কেন?
    (খ) ধরে নিলাম পুলিশ ভেবে নিয়েছে - এরা এক্কেবারে মরেই গ্যাছে। তাই তদন্তের স্বার্থে দেহ যেখানে যেমন ছিলো তেমন রেখে দিয়েছে। সেক্ষেত্রে জায়গাটা পুলিশ ঘিরে রাখে। কোন মানুষকে দেহগুলোর ধারে কাছে আসতে দেয় না, যাতে প্রমাণ নষ্ট না হয়ে যায়। টেলিভিশনের ছবি নিশ্চই ঘটনার অন্ততঃ তিন চার ঘন্টা পরে তোলা। মিডিয়া খবর পাবে, তারপর তো যাবে। যায়গাটি ঘিরে রাখা বা মানুষকে ঘটনাস্থলে আসতে না দেওয়ার কোন প্রমাণ টেলিভিশনের ছবিতে নেই। তবে কি - প্রমাণ লোপাটই পুলিশের উদ্দেশ্য??

    ৩) অস্ত্র ছিনিয়ে নেওয়ার গল্প পুলিশ সব এনকাউন্টারেই দিয়ে থাকে। (ক)এরা তো প্রশিক্ষাণপ্রাপ্ত "সন্ত্রাসবাদী" নয়। এরা রাইফেল থেকে গুলি চালালো কিভাবে? আগ্নেয়াস্ত্র সাধারণভাবে 'লক' থাকার কথা। লক খুলতে না জানলে গুলি চালানো যায় না। প্রশিক্ষণ ছাড়া কেউ লক খুলতে পারে না।
    (খ) চারজন অভিযুক্তের জন্য অন্ততঃ আটজন পুলিশকর্মী থাকার কথা। তার মধ্যে অস্ত্র ছিনতাই হলো কি করে? হয়ে থাকলে নিরাপত্তার গাফিলতি। অভিযুক্তদের চেহারা (যা ছবিতে দেখেছি) খুব একটা বলশালী নয়।

    এরপরে এনকাউন্টারের গল্প বেশ কাঁচা লাগছে।

    এতে কয়েকটি উদ্দেশ্য সাধিত - ১) মানুষের ক্ষোভকে প্রশমিত করা। ২) পুলিশের ভাবমূর্তিতে পালিশ লাগানো ৩) বিনাবিচারে শাস্তিকে মানুষের মনে মান্যতা দেওয়া - যাতে ভবিষ্যতে রাজনৈতিক বিরোধীদেরও (পড়ুন দলিত, মুসলমান, অনুপ্রবেশকারী ইত্যাদি) একই কায়দায় 'ভ্যানিস' করে দেওয়া যায় - প্রতিবাদহীনভাবে। ৪) বিচারবিভাগকে খাটো করে দেওয়া। ৫) প্রশাসনই বিচারের ভার তুলে নেবে - এটাকে মান্যতা দেওয়া।

    যারা ভাবছেন - কাল থেকে ধর্ষণ বন্ধ। তাদের জন্য একরাশ করুণা রইলো।
  • | 236712.158.455612.60 | ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯ ০৭:৫৯729159
  • আমাদের দেশ রক্তপিপাসু হয়ে গেছে কল্লোল দা, দেশ নিয়ে স্বপ্ন দেখা এবার ফাইনালি বন্ধ করে দিতে হবে।
  • aranya | 236712.158.2367.4 | ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯ ০৯:৩৮729160
  • কল্লোল-দা গুছিয়ে লিখেছেন, সবই ঠিক্ঠাক পয়েন্ট। রেপ কালচার আর ফলস এনকাউন্টার কালচার - দুইই চলছে, চলবে
  • aranya | 236712.158.2367.4 | ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯ ০৯:৪৮729161
  • ২০১২-য় বিজাপুরে পুলিশ ১৭ জন দুর্ধর্ষ মাওবাদী-কে মেরেছিল। কদিন আগে কাগজে দেখলাম তদন্তে প্রমাণিত হয়েছে মৃত ব্যক্তিরা কেউই মাওবাদী ছিল না, সাধারণ গ্রামবাসী।
    ফলস এনকাউন্টার
  • রঞ্জন | 124512.101.900900.172 | ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯ ০১:২১729162
  • ঞ্ছত্তিশগড়ের বস্তার এলাকা্র বিজাপুর জেলায় সরকেগুড়া গ্রামে জুন, ২০১২ সালে পুলিশের এনকাউন্টারে ১৭ জন আদিবাসী মারা যায় , ১০ জন আহত হয়। পুলিশ বলে যে মাওবাদীদের মিটিংয়ের আগাম খবর পেয়ে পুলিশ রেইড করলে ওরা আক্রমণ করে এবং আত্মরক্ষার জন্যে পুলিশ পালটা গুলি চালালে লোক মারা যায় ।
    গ্রামবাসীরা বলে সব বাজে কথা । কোন মাওবাদী-টাদি নয় , সামনের আদিবাসী পরব 'বীজ পান্ডুম' এর প্রস্তুতি নিয়ে ওরা আলোচনা করছিল। পুলিশ আচমকা গুলি চালায়।
    চাপে পড়ে তৎকআলীন্‌, বিজেপি সরকার জাস্টিস আগরওয়াল জুডিশিয়াল কমিশন বসায়। কমিশনের রায় গতমাসে জমা হয়েছে।
    রায় অনুযায়ীঃ
    ১ মাওবাদীদের উপস্থিতির কোন সাক্ষ্য নেই ।
    ২ গ্রামবাসীদের বৈঠক থেকে কোন গুলি চলেনি।
    ৩ পুলিশ সম্ভবতঃ নার্ভাস হয়ে গুলি চালায়।
    ৪ গ্রামবাসীদের পেটানও হয় , গুলিও করা হয় ।
    ৫ একজনকে তো পরের দিন সকালে মেরে ফেলা হয় , সোকল্ড এনকাউন্টারের বেশ কিছু ঘন্টা পরে ।
    আন্দোলন হচ্ছে যে এবার সেই সময়ের মুখ্যমন্ত্রী (পুলিশ মন্ত্রীও বটেন), মুখ্য সচিব, ডিজিপি আইজি সবার নামে এফ আই অ্যার হোক।
    সরকার আইনবিভাগে মতামত চেয়ে রিপোর্টটি পাঠিয়েছে।
  • S | 236712.158.670112.89 | ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯ ০৩:১১729163
  • ওয়েলকাম টু ব্যানানা রিপাবলিক। আই হোপ উই হ্যাভ আ ভায়োলেন্ট অ্যান্ড ডিজাস্টারাস স্টে।
আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত