• টইপত্তর  অন্যান্য

  • সর্ষেবাটা মোচাকাটা চিতলের মুইঠ্যা ইত্যাদি ইত্যাদি (২)

    Ishan
    অন্যান্য | ০৬ নভেম্বর ২০০৬ | ১১২৯১ বার পঠিত
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • samran | 59.93.211.16 | ১৩ ডিসেম্বর ২০০৬ ১৪:১১695273
  • য,
    বুরহানির কথা বলেছিলি অনেকদিন হয়ে গেল, আজ লিখে দিলাম।

    দু গ্লাস বুরহানির জন্যে দই লাগবে এক গ্লাস। তাতে আরেক গ্লাস জল দিয়ে খুব ভাল করে ফেটে নিতে হবে। অতখানি ফেটতে হবে যতখানি ফেটলে দই থেকে মাখন বেরিয়ে আসে।
    একটা কাঁচা লংকা, কয়েকটা পুদিনা পাতা আর দু কোয়া রশুন ( পুদিনা অপছন্দ হলে ধনে পাতা ) মিক্সিতে বেটে নিয়ে ফেটানো দইএ মিশিয়ে দিতে হবে। চাটুতে সেঁকা জিরে গুড়ো করে নিয়ে ছোট চামচে আধ চামচেরও কম জিরেগুড়ো, নুন, বিট নুন স্বাদমত।

    ঠান্ডা খেতে চাইলে খানিকটা বরফকুচি গ্লাসে নেওয়া যেতে পারে। তবে বরফ না দিয়ে ঠান্ডা জল ঠান্ডা দই দিয়ে বানানো বেটার।

    অরিজিত,
    বুরহানি কি করে বানায় লিখে দিলাম। এটা পুরান ঢাকার স্পেশাল। যে কোন নেমন্তন্ন বাড়িতে বুরহানি থাকবেই, ফরয!
  • d | 202.54.214.198 | ১৩ ডিসেম্বর ২০০৬ ১৫:২৪695274
  • সামরান, থ্যাঙ্কু। থ্যাঙ্কু।
  • shrabani | 220.227.146.21 | ১৩ ডিসেম্বর ২০০৬ ১৫:৫৬695275
  • দম,
    এদিকের লোকে আর একটা চটজলদি জিনিষ বানায় যেটা রায়তা বা স্যালাডের মাঝামাঝি কিছু হয় কিন্তু খেতে খারাপ হয় না।

    শসা, টমেটো, পেঁয়াজ আর কাঁচালংকা (যদি ঝাল কম খাও, তবে একটু দিও গন্ধের জন্য) আর আলুসেদ্ধ খুব ছোটো ছোটো করে কেটে নাও আর তার সঙ্গে কিছু স্প্রাউটও মেশালে ভালো হয়। এবার সব একসাথে নিয়ে ওতে কয়েক চামচ দই, পরিমান মত গোলমরিচ গুঁড়ো, বীটনুন আর একটু চাট মসলা দাও।
    পুরো ব্যাপারটা রায়তার মত লিক্যুইড হবেনা মাখামাখা হবে।
    খুব চটপট হয়ে যায়
  • d | 202.54.214.198 | ১৩ ডিসেম্বর ২০০৬ ১৭:২৭695276
  • উফ্‌ শ্রাবনী, FC FC FC FC। আরে আমি এইটাই চাইছিলাম কিন্তু ঠিক বোঝাতে পারছিলাম না। ভয়ে স্প্রাউটের কথাও বলতে পারছিলাম না, ডিডি তাপ্পরে আমারে আরো কি না কি খেতে বলবেন এই ভয়ে।

    তোমায় কয়েকশো FC গো।
  • dd | 58.68.4.2 | ০২ জানুয়ারি ২০০৭ ২০:৫৭695277
  • সারা বিশ্ব গ্লোবালাইজেশনের বন্যায় ডুবে আছে আর আপনেরা এখনো আলু পোস্তওয় আটকে ? ওরে এবার তোরা মানুষ হ।

    চিকেন টেট্রাজিনি খান। যেমনি নাম তেমনি টেস্ট।

    . পোয়াটাক বোনলেস চিকেনকে কুচি কুচি করুন।
    .চিকেন ম্যারিনেড করুন (দই সস পিজ্জার সীজনিঙ)।
    .পেশার কুকারে সিদ্ধ করুন । আমি দি জোর আঁচে এক সিটি -তাপ্পর ঢিমে আঁচে আরেক। ব্যাস।

    .বাজার থেকে knorr'এর মাশরুম স্যুপ এক প্যাকেট কিনে রান্না করুন, একটু বেশী ফুটিয়ে ঘন করুন।

    .বেকিং ডিশে জলঝরা চিকেন কুচির উপর স্যুপ ঢেলে দিন।

    . এদের উপর আচ্ছাসে চীজ দিন। ১৮০ এন্টিতে আধ ঘন্টাটাক বেক করুন।

    হয়ে গ্যালো।

    এটাকে যদি চিকেন টেট্রাজিনি না বলেন তো বয়ে গ্যাছে, কিন্তু খে একবার দেখুন। যেমন অস্বাস্থ্যকর তেম্নি ভালো খেতে।
  • dd | 58.68.4.2 | ০২ জানুয়ারি ২০০৭ ২১:০১695278
  • আরে আরে কি মুশকিল। হাক্কা নুডুল হাক্কা নুডল। লিখয়ে ভুলে গেছি।

    হাক্কা নুডল নিয়ে পাকামী করবেন না। গরম জলে (ফুটন্ত নয়) মিনিট তিনেক সেদ্দ করে নামায়ে দিন। য়েট্টু কাঁচা থাকাই ভালো।

    বেকিঙ ডিশে যথক্রমে নুডল, তর পর চিকিন,তারপর স্যুপ,সব শেষ চীজ।

    খান।
  • dd | 58.68.4.2 | ০২ জানুয়ারি ২০০৭ ২১:২৮695279
  • রেগে মেগে শেফার্ডস পাই ও কল্লাম। কিন্তু উবরে আলুর ক্রাস্টটা তেমন জমলো নি। কিরম একটা ক্যাবলা কাত্তিক হয়ে রইলো।

    আলু সেদ্দর লগে কর্ন ফ্লাওয়ার,দুধ,মেয়ো দিয়েছিলাম (অন্যান্য হাবিজাবির সাথে)- ডিমের কুসুম দিলে কি তেমন আঁট পেতো?

    কে জানেন ?
  • dd | 58.68.4.2 | ০৫ জানুয়ারি ২০০৭ ২১:০০695280
  • বাংলালাইভের রেসিপি থেকে কল্লাম মুর্গী পোস্তো। যারা এতই অলস যে ও পাতায় খুঁজবার ইচ্ছা নেই - তাদের জন্য লিখে দিচ্ছি :

    . ম্যারিনেড করুন দই,লাল লংকা,নুন আর রসুন দিয়ে। দিন না দিন - এট্টু গোলমরিচ ও থেঁতো করে দিয়ে দিন। আমি চাট্টি অরেগেনো ও দিয়েছিলাম।

    .ইত্যবসরে বাটুন পোস্ত জিরা ধনে আর মৌরি

    .তেল গরম করে ভাজুন প্যাঁজ আর আদা। মুর্গী দিন। বাটা মসলা দিন।

    .চাট্টি গরম জল ঢেলে সিদ্দ করুন (আমি দি জোর আঁচে এক সিটি- ঢিমে আঁচে এক)

    .ব্যাস হয়ে গ্যালো
  • dd | 58.68.4.2 | ০৭ জানুয়ারি ২০০৭ ১৭:০৭695281
  • হ্যাঁ হ্যাঁ এই ই করো। নন্দীগ্রাম কৃষিজমি । শিল্পায়ন ও আন্দোলনের একাল সেকাল। অর্থনীতি। (কথা কও কথা কও) সাব ওলঠান।

    খাওয়া দাওয়া নিয়ে কারো কোনো মাথাব্যাথা নেই।
  • d | 61.246.151.39 | ০৭ জানুয়ারি ২০০৭ ১৭:৩৯694640
  • এই পোস্ত মুরগীটা আমি করেছি। মৌরী না দিলে বেশী ভাল হয়। আর মাংস টাংসয় আবার মৌরী কি?
  • d | 61.246.73.53 | ১৪ জানুয়ারি ২০০৭ ২০:০৮694641
  • গোকুল পিঠে
    -----------

    প্রথমে চিনির ঘন রস তৈরী করে নিন। দুই কাপ জলে এক কাপ চিনি, এই অনুপাতে ফুটিয়ে রস তৈরী করে রেখে দিন।

    দুধ ঘন করে ক্ষীর বানিয়ে নিন। ক্ষীরের নাড়ুর পাক হওয়া চাই। নাড়ুর সাইজের ছোট ছোট ক্ষীরের লেচি বানিয়ে রাখুন। এবারে ময়দায় খুব ভাল করে ময়ান দিয়ে মেখে নিন। জল দেবেন না, শুধু ময়দা আর হোয়াইট অয়েল , অথবা ঘী। এমন ময়ান হওয়া চাই যাতে ময়দাটা চুপচুপে হয়ে যায়। এইবার জল দিয়ে গুলে ময়দার ঘন গোলা (পকোড়ার জন্য যেমন ঘন বেসনের গোলা হয়, সেরকম ঘনত্বের ) তৈরী করুন। ঐ ক্ষীরের লেচিগুলো ময়দার গোলয় ভাল করে ডুবিয়ে ঘীয়ে ভাজুন, লালচে বাদামী করে। তুলে আগে করে রাখা রসে ফেলে দিন। সবগুলো রসে ফেলা হয়ে গেলে, পুরোটা ২ মিনিট সীমে বসিয়ে নিতে পারেন, তাড়াতাড়ি রস ঢুকবে।

    #মাদার ডেয়ারীর দুধের ক্ষীর ভাল হয় না। আমি আমূল বা মেট্রো ডেয়ারীর ফুলক্রীম মিল্ক দিয়ে করি।
  • d | 61.246.155.165 | ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০০৭ ১৯:০৭694642
  • পালক পনিরের রেসিপী চাই।
  • Appan | 212.139.212.57 | ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০০৭ ১৯:৩৬694643
  • নেটের চোথা থেকে টুকে দিলে হবে?
  • dd | 58.68.81.3 | ১২ মার্চ ২০০৭ ২০:৩৪694644
  • বলিহারি আপনেদের ! সারা দুনিয়া ভেসে যাচ্ছে বিশ্বায়নের বন্যায় আর আপনেরা এখনো পালক পনীরের খুঁটীতে নিজেদের বেঁধে রেখেছেন।

    ওরে এবার তোরা মানুষ হ' (কবি কয়েচেন)। নিন -পাস্তা খান।

    1. পাস্তা (ম্যাকারনী) অল্প সেদ্দ করুন।

    2. আর উদিকে বোনলেস চিকেন ছিন্ন ভিন্ন করে ম্যারিনেড করুন। ক্রিয়েটিভিটি উজাড় করেদিন। আদা রসুন নানান সসের সাথে আমি দিয়েছিলাম অনেকটা মিক্সড হার্ব।

    3. গার্লিক অয়েল। অলিভ অয়েলে রসুন থেঁতো করে ফোটান।

    4. এবার একটা ঘ্যাঁট করুন। ফুলকফি,বাঁধাকপি,পোচুর মাশরুম,প্যাঁজ,টমাটো। বেবী কর্ন। অল্প ভাজুন। যা খুসী তাই মশল্লা দিন।

    5. এবারে ঘ্যাঁট আর মাখা চিকেন পেসার কুকারে সেদ্দ করুন।

    6 আদ সেদ্দ ম্যাকরনী এট্টু তেলে নেড়েচেড়ে নিন। চিকেন আর ঘ্যাঁটটা ঢেলে দিন । হাতের কাছে পিজ্জার চীজ থাকলে সেটাই গলিয়ে উবরে ঢেলে দিন। দোকান থেকে কেনা পিজ্জা সস ও মেশান।

    7 এ জিনিস খেলে তর হয়ে যাবেন। দু:স্বপ্নেও পালক পনীর খেতে চাইবেন না। গ্রান্টী।

  • petuk | 193.32.3.83 | ১২ মার্চ ২০০৭ ২২:১৫694645
  • গোকুল পিঠে ময়েদা দিয়ে না কোরে বিউলির ডাল দিয়ে করলে আরো ভালো লাগে।
  • Arijit | 82.39.106.133 | ২৯ এপ্রিল ২০০৭ ২১:৫৪694646
  • মামীর জন্যে রোগন জোশ (গীতা থেকে) -

    উপকরণ

    গোটা ধনে - ১ টেবিলচামচ
    আস্ত জিরে - ২ চা-চামচ
    পোস্ত - ১ টেবিলচামচ
    কাঠবাদাম - ১৬
    বড় এলাচ - ২ (খোসা ছাড়ানো)
    গোলমরিচ - ১/৪ চা-চামচ
    লবঙ্গ - ৪
    জয়িত্রী - এক চুটকি
    নারকোল কোরা - ২ টেবিলচামচ
    আস্ত শুকনো লঙ্কা (কাশ্মিরী) - ৫ (১/২ কাপ গরম জলে ১৫ মিনিট ভিজিয়ে জল ঝরিয়ে রাখো, জলটাও রাখো)
    আদা - ২০ গ্রাম
    রসুন - ৮ কোয়া
    জায়ফল গুঁড়ো - এক চুটকি
    তেল - ১/২ কাপ
    তেজপাতা - ২
    দারচিনি - আড়াই সেন্টিমিটার স্টিক
    ছোট এলাচ - ৫
    পেঁয়াজ - ২ (১/৪ কেজি) - গ্রেটেড (আমি বাটা দিই)
    টোমেটো - ২ (টুকরো)
    হউল গুঁড়ো - ১ চা-চামচ
    লাল লঙ্কা গুঁড়ো - ১ টেবিলচামচ
    দই - ৩/৪ কাপ
    ল্যাম্ব - সওয়া কিলো - কাঁধের পিস
    নুন
    জল - ১ কাপ

    (১) একটা প্যানে গোটা ধনে, জিরে, পোস্ত, কাঠবাদাম, বড় এলাচ, গোলমরিচ, লবঙ্গ, জয়িত্রী, নারকোল কোরা রোস্ট করে মিক্সিতে লঙ্কা, আদা, রসুন, জায়ফল মিশিয়ে বাটো - লঙ্কা ভেজানো জলটা অল্প অল্প করে দিয়ে

    (২) কুকারে তেল গরম করো (২ মিনিট)। তেজপাতা, দারচিনি, ছোট এলাচ দিয়ে অল্প নাড়ো। এবার পেঁয়াজ দাও, অল্প বাদামি হওয়া অবধি ভাজো। তারপর বাটা মশলা (আগের স্টেপে) দাও, টমেটো, হলুদ আর লংকা গুরঁড়ো দাও। ভালো করে ঘাঁটো।

    (৩) এক টেবিলচামচ দই দাও - মেশাও ভালো করে। একই ভাবে (এক টেবিলচামচ করে) বাকি দইটা দাও - মেশাও। তেল বেরনো অবধি ভাজো (প্রায় ৩ মিনিট)। মাংস দাও, নুন দাও - আবার নাড়তে থাকো মাংসগুলো হালকা ভাজা হওয়া অবধি।

    (৪) কুকার বন্ধ করে পুরো আঁচে ফুল প্রেসারে আনো। তারপর আঁচ কমিয়ে দাও। দশ মিনিট রাখো।

    (৫) কুকার নামিয়ে ঠাণ্ডা হতে দাও নিজে নিজে...

    আমি অল্প চেঞ্জ করি - যেমন আলু অর্ধেক করে ভেজে দিয়ে দিই। ধনেপাতা দিই (এটা অবশ্য চেষে)। আর প্রেসারকুকারে না করে স্লো-কুকারে করি - মিডিয়াম সেটিং-এ ঘন্টা চারেক।

  • kd | 72.95.134.254 | ৩০ এপ্রিল ২০০৭ ০১:৩৯694647
  • অরিজিত, আমার ছেলে এইসব রাঁধতে খুব ভালোবাসে, কিন্তু মশলাগুলোর দিশী নাম জানে না, আর আমি সারাজীবন রান্নাঘর থেকে দূরে থেকেছি তাই ট্র্যানস্লেট করতে পারছিনা। প্লীজ ধনে, জিরে, জয়িত্রী, জায়ফল আর হউলের ইঞ্জিরি নামগুলো বলে দেবে? কাশ্মিরী লঙ্কা অ্যামেরিকায় (NYC) কী নামে পাওয়া যায় - না গেলে alternative কী? আমি এব্যাপারে পুরো উজবুক, প্রশ্ন পড়ে হেসোনা।
  • SB | 202.78.232.152 | ৩০ এপ্রিল ২০০৭ ০৬:৫৮694649
  • কাবলিদ,
    ধনে (coriender), জিরে্‌র (cumin), জয়িত্রি (mace), জায়ফল (nutmeg), আর কাশ্মিরী লংকা কে (kashmiri chilli) বলে থাকে, এগুলোর উৎপাদন প্রধাণত জম্মু-কাশ্মিরেই হয়ে থাকে আর এগুলোর ব্যাবহার প্রাধাণত কাশ্মীর আর উত্তর ভারতেই বেশী দেখা যায়। আপনার ওখানে ভারতীয় বা পাকিস্থানি গ্রসারিতে কাশ্মিরী চিলি নামেই প্যাকেট পাবেন।
    ডানদিকে বাংলা না থাকায় বানান ভুল হলে ক্ষমাপ্রার্থী।
  • kd | 72.95.134.254 | ৩০ এপ্রিল ২০০৭ ০৮:০৯694651
  • SBকে ধন্যবাদ।
    অপ্পনের দেওয়া সাইটটাও দেখলুম। হউল নেই - ওটা কি by any chance হলুদের টাইপো?
    এবার দেকি কবে ছেলের কৃপা হয়।
  • Arijit | 128.240.233.197, 128.240.229.6 | ৩০ এপ্রিল ২০০৭ ১৪:০৮694652
  • হউল = হলুদ

    সরি সরি। বাকিগুলো তো বলে দিয়েছে। আর গীতা (মানে হকিন্সের বই - যেটা প্রেসারকুকারের সঙ্গে দেয়) - সেখানে একটা বিরাট টেবিল আছে এই নামগুলো দিয়ে।
  • Debu | 170.213.132.253 | ৩০ এপ্রিল ২০০৭ ২১:৩৮694653
  • গ্রাউন্ড চিকেন দিয়ে কি কোরে শিক-কাবাব বানবো?বাড়িতে তন্দুর নেই কিন্তু অভেন, গ্রিল BBQ অছে।
    দেবু
  • vikram | 89.234.101.75 | ০১ মে ২০০৭ ০০:০৪694654
  • চাপলি কাবাব বা অনুরূপ কাবাব মশলা আর গ্রাউন্ড চিকেনের সঙ্গে অল্প কোনো বাইন্ডার দিয়ে মাঝারি আঁচে আভেন বেক বা গ্রিল করুন (গ্রিল এ সময় কম, বেশি তাপে ওপরে প্‌ড়বে ভেতর কাঁচা থাকবে)। মাঝে একবার উল্টে নেবেন।
    তা না হলে বহুত লেবার দিয়ে লংকা, রশুন, গরম মশলা এটা ওটা দিয়ে ফ্রেশলি গ্রাউন্ড নিজের মনপসন্দ এক্সপেরিমেন্টাল কাবাব মশলা বানাঅতে পারেন।
    বিক্রম
  • vikram | 89.234.101.75 | ০১ মে ২০০৭ ০০:০৫694655
  • গ্রাউন্ড চিকেনের আবার শিক কাবাব কি? বহুত টাফ হবে।

    বিক্রম
  • Debu | 69.232.69.220 | ০২ মে ২০০৭ ০৯:১৩694656
  • ভিকিদা ,বহুত আফসোস যে তোমার ওখানে সিক/সীস কাবাব গ্রাউন্ড চিকেনের কাবাব পাওআ যায়্‌না।
    বস , মালের সঙ্গে এর থেকে ভালো চাট আর হয়্‌না।
    তোমার ফর্মুলা টা ট্রাই করবো
    দেবু
  • vikram | 134.226.1.234 | ০২ মে ২০০৭ ১৫:১৬694657
  • আরে শিক কাবাব হাইলি হয়। কিন্তু গ্রাউন্ড চিকেনের শিক কাবাব হয় না, মানে আমি জানি না।
    খুব চটজলদি যদি কিছু খেতে চাও তাহোলে পোকাহীন পর্ক অল্প তাপে ডাইস করে শিকে গেঁথে কাঅবাঅব করো। বহুত ভালো চাট।

    বিক্রম
  • byaas | 24.60.249.125 | ০২ মে ২০০৭ ১৬:১১694658
  • এই সব রান্না করতে পারবে তেমন রাঁধুনি কোথায় পাবো বলুন তো? খুব লোভ লাগছে, এতো স্বাদু রান্নার লোভ দেখিয়ে কেটে পড়লে আপনাদের পাপ হবে। ব্যাস আজ থেকে দুর্বাশা হলাম।
  • Arijit | 128.240.233.197, 128.240.229.6 | ০২ মে ২০০৭ ১৬:২১694659
  • বারে - রেসিপিই তো দিয়ে দিলুম - এবার তো যে কেউ রান্না করতে পারবে।
  • DB | 170.213.132.253 | ২৮ জুন ২০০৭ ০০:১১694660
  • গাছে অনেক প্লাম হোয়েছে।।বেশ মিস্টি। জ্যাম-জেলী কি কোরে বানাবো?
  • Amreeta | 71.157.175.147 | ২৮ জুন ২০০৭ ০২:৩৬694662
  • পারমিতা আদির জন্য:

    "অ্যাসপ্যারাগাসের ইয়ে":

    প্রথমে অ্যাসপ্যারাগাসের বাইরেটা একটু পিল করে খোসা একটু ছাড়িয়ে নেবে। নীচের দিক আর মাথার পোর্শন-টা কেটে বাদ দেবে। নইলে ছিবড়ে ভাব থেকে যাবে। তার্পর ওগুলোকে দেড় ইঞ্চ মতন লম্বা টুকরো করে কাটবে।

    এবার পিঁয়াজ, অল্প আদা, রসুন, আর ১ টা টম্যাটো ব্লেন্ডারে বেটে নেবে। এই পেস্ট-টা ঐ অ্যাসপ্যারাগাসের টুকরো গুলোর সাথে মাখিয়ে রেখে দেবে।
    তেল গরম করে কালো জিরে, গোটা শুকনো লংকা ফোড়ন দিয়ে তাতে ঐ ম্যারিনেট করা অ্যাসপ্যারাগাস গুলো ছেড়ে দেবে। তেল-টা একটু বেশী হলেই ভাল হয় :)। নইলে ঐ বাটা পিঁয়াজ সব তেল টেনে নেবে। এবার নুন, অল্প হলুদ আর খুব অল্প চিনি দিয়ে (টম্যাটোর টক আর নুনের মধ্যে ব্যালান্স আনার জন্য) নেড়ে চেড়ে একদম মিডিয়াম টেম্পারেচারে রান্না করবে অনেকক্ষন ধরে। পিঁয়াজ বাটা গুলো যখন কষে তেল ছাড়তে শুরু করবে আর অ্যাসপ্যারাগাস গুলো-ও সেদ্ধ হয়ে যাবে তখন -ই রান্না শেষ। তবে অনেকটা সময় নিয়ে কষালে খুব টেস্টি হয়। যখন জিনিষ-টা একটু আঁট হয়ে আসবে আর পিঁয়াজের জল জল ভাব আর থাকবেনা তখনি বুঝবে এবারে গরম ভাত দিয়ে খাবার সময় হয়ে এসেছে:)
    আর এতে নামানোর আগে ভাজা চিংড়ি-ও ছড়িয়ে দিই আমি মাঝে মাঝে।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:

কুমুদি পুরস্কার   গুরুভারআমার গুরুবন্ধুদের জানান


  • কোনোরকম কর্পোরেট ফান্ডিং ছাড়া সম্পূর্ণরূপে জনতার শ্রম ও অর্থে পরিচালিত এই নন-প্রফিট এবং স্বাধীন উদ্যোগটিকে বাঁচিয়ে রাখতে
    গুরুচণ্ডা৯-র গ্রাহক হোন
    গুরুচণ্ডা৯তে প্রকাশিত লেখাগুলি হোয়াটসঅ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হোন। টেলিগ্রাম অ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলটির গ্রাহক হোন।
    • কি, কেন, ইত্যাদি
    • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
    • আমাদের কথা
    • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
    • বুলবুলভাজা
    • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
    • হরিদাস পালেরা
    • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
    • টইপত্তর
    • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
    • ভাটিয়া৯
    • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
    গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
    মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


    পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। বুদ্ধি করে মতামত দিন