• টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। যে কোনো নতুন আলোচনা শুরু করার আগে পুরোনো লিস্টি ধরে একবার একই বিষয়ে আলোচনা শুরু হয়ে গেছে কিনা দেখে নিলে ভালো হয়। পড়ুন, আর নতুন আলোচনা শুরু করার জন্য "নতুন আলোচনা" বোতামে ক্লিক করুন। দেখবেন বাংলা লেখার মতো নিজের মতামতকে জগৎসভায় ছড়িয়ে দেওয়াও জলের মতো সোজা।
  • আগামীর অবয়ব

    dri
    বিভাগ : অন্যান্য | ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১১ | ৪১৬৬৬ বার পঠিত
  • আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা ভাইরাস

  • lcm | 172.69.22.205 | ০৬ মে ২০২০ ০৮:৩৭731187
  • হ্যামিলট্ন-রথচাইল্ড -- ইকোয়েশন আছে, আছে।

    এই যে একটি সেন্ট্রাল ব্যাংকের আইডিয়াটা - এটা নিয়ে জর্জ ওয়াশিংটন তেমন নিশ্চিত ছিলেন না, একটু সন্দিহান ছিলেন। কিন্তু রথচাইল্ড-এর অঙ্গুলিহেলনে হ্যামিলটন ১৫০০০ শব্দের এমন দামড়া একটু ডকুমেন্ট লিখলেন, তাতে কুপোকাত হয়ে জর্জ-রা হ্যাঁ বলে দিলেন।

    খেয়াল রাখতে হবে, হ্যামিলটনের বিয়ে হয়েছিল রথচাইল্ড ফ্যামিলিতে ১৭৮০ সালে।

    তৈরি হল ফার্স্ট ন্যাশনাল ব্যাংক। এই ব্যাংকে ঢেলে টাকা জমা রাখলেন ইউরোপিয়ান এলিটরা, সর্বাধিক ইনভেস্টমেন্ট যাদের তাদের মধ্যে ওপরের দিকে রথচাইল্ড নিজে। এবং বিভিন্ন ইউরোপিয়ান রাজপরিবার।

    এরপরে, ১৮১১ সালে যখন ফার্স্ট ন্যাশনাল ব্যাংক রিনিউ হল না, তখন ইউরোপিয়ান এলিট ইনভেস্টরারা পেছন থেকে যুদ্ধ ফান্ড করলেন - ওয়ার অফ ১৮১২।

    এই হল --- হ্যামিলটন/রথচাইল্ড সাগা।
  • S | 162.158.106.11 | ০৬ মে ২০২০ ০৮:৪৫731188
  • "কিন্তু রথচাইল্ড-এর অঙ্গুলিহেলনে হ্যামিলটন ১৫০০০ শব্দের এমন দামড়া একটু ডকুমেন্ট লিখলেন"

    "হ্যামিলটনের বিয়ে হয়েছিল রথচাইল্ড ফ্যামিলিতে ১৭৮০ সালে।"

    অন্য মহিলা দেখছি তো। তাদের সাথে রথসচাইল্ডের কোনও সম্পর্ক নেই বলেই তো মনে হচ্ছে। রথসচাইল্ডরা তখন ইয়োরোপ নিয়েই ব্যস্ত। আমেরিকাকে বোধয় তেমন পাত্তা দিতনা।

    ১৮১২ সালের যুদ্ধ হয়েছিল ইউএস আর ক্যানাডার মধ্যে। ক্যানাডা বোধয় ইউকের হয়ে যুদ্ধ করেছিল। কিন্তু রথসচাইল্ড তো তখন জার্মানিতে। ইয়োরোপ

    এগুলোর একটারও কোনও ভ্যালিড সোর্স আছে?
  • Dipanjan | 172.68.132.26 | ০৬ মে ২০২০ ০৮:৪৭731189
  • "সেন্ট্রাল ব্যাংকের রোল নিয়ে বেশ বিস্তারিত আলোচনা থাকে।" -

    সেটা তো ক্লাসিকাল আলোচনা | সেটা বুঝতেই হবে, ঠিক, কিন্তু সেখানেই শেষ নয় | একের পর এক ক্রাইসিস সামলাতে গিয়ে যেভাবে ফেডের ব্যালান্স এক্সপ্যান্ড করছে আর কল্যাটেরাল এর নেচার বদলাচ্ছে (কর্পোরেট বন্ড কিনবে এবার), ফেডের ভরসায় মরাল হ্যাজার্ড কতটা বাড়ছে, সেগুলো তো এখনো টেক্সটবুক এ ঢোকেনি | এবার তো শুনছি স্টক ও কিনবে কিছুদিন পর, ব্যাঙ্ক অফ জাপান এর মতো | আমি সে ভরসায় সব শর্ট করে বসে আছি, যখন ফেড আর বাফেট স্টক কেনা শুরু করবে 30-50% তলায় , তখন আমিও কিনবো :)

    https://www.cnn.com/2020/05/04/investing/fed-junk-bonds-etfs-debt/index.html

    "Action is coming soon, though. The New York Fed, which is quarterbacking the Fed's bond-buying programs, announced Monday that the Secondary Market Corporate Credit Facilities (SMCCF) is expected to begin buying corporate bond ETFs in early May. Corporate bond purchases will come "soon thereafter." And a separate Fed facility, the Primary Market Corporate Credit Facility (PMCCF), is also expected to launch soon."
  • dc | 162.158.166.40 | ০৬ মে ২০২০ ০৮:৪৭731190
  • সেন্ট্রাল ব্যাংকের ইতিহাসঃ উইকি লিখছে যে ব্যাংক অফ আমস্টারডাম নাকি সেন্ট্রাল ব্যাংকিং আইডিয়ার জনক। আর এখনকার সেন্ট্রাল ব্যাংকের যে রোলস আর রেসপনসিবিলিটিস, তার বেশীর ভাগ এসেছে ব্যাংক অফ ইংল্যান্ডের মডেল থেকে।
  • dc | 162.158.166.40 | ০৬ মে ২০২০ ০৮:৫৩731192
  • "সেটা তো ক্লাসিকাল আলোচনা "

    ইয়ে, ভারি লজ্জার সাথে বলতে বাধ্য হচ্ছি, দ্রি যে প্রশ্নগুলো করেছেন তার বোধায় ৯০% ওই ক্লাসিকাল আলোচনার মধ্যে পড়ে। ফেড আর ট্রেজারির রোল, ফেড এর মনেটারি পলিসি রোল আর কি ইন্টারেস্ট সেটিং রোল, ডুয়াল ম্যান্ডেট ইত্যাদি ইত্যাদি বেশীর ভাগ একটু অ্যাডভান্সড টেক্সটবইতে কভার করা থাকে। অব্শ্য টেক্সট বইতে শন হ্যানিটির ভেলপুরি আর ব্রেটবার্টের আলু চাট থাকেনা, সেটা ঠিক।
  • Dipanjan | 172.68.132.26 | ০৬ মে ২০২০ ০৮:৫৫731193
  • ঠিক, আমি বলছি ওখানে থেমে থাকলে হবে না, দিনকাল বদলাচ্ছে
  • dc | 162.158.166.40 | ০৬ মে ২০২০ ০৮:৫৬731194
  • কোন এক জায়গায় থেমে থাকলে হয় না এতে ১০০% সহমত।

    তবে কিনা বেসিকগুলো কভার করা থাকলে এগোতে সুবিধে হয় এই আর কি।
  • S | 108.162.246.82 | ০৬ মে ২০২০ ০৮:৫৭731195
  • দীপান্জন যেটা বলেছে সেটা ঠিক কথা। সেন্ট্রাল ব্যান্কের প্রচুর সমালোচনা করাই যায়। কিন্তু সেটা করতে গেলে অবশ্যই আসল সাবজেক্টটা একটু জানতে হয়। নইলে সবই "রথ্সচাইল্ডের অঙ্গুলীলেহন" আর "ফেড আসলে প্রাইভেট ব্যান্ক হুঁ হুঁ বাওয়া" টাইপের শোনায়।

    এখানে একজন কনফিডেন্স নিয়ে লিখেছেন যে ফেডের আসল মালিক হল এই ৮টি ইহুদী চালিত ইনস্টিটিউশান বা প্রতি বছর এরা নাকি কতশত বিলিয়ন ডলার লাভ করে। এদিকে ফেডের ফাইনানিসিয়াল স্টেটমেন্ট খুলেও দেখেনি। সেটা চার মিনিট দেখলেই বোঝা যায় যে এগুলো সব ভুল তথ্য।

    এই দুটো অ্যাপ্রোচের মধ্যে পার্থক্য আছে। ফেডের পলিসির ওয়েল থটাউট এবং ইনফর্মড সমালোচনা। আর ফেড প্রাইভেট ব্যান্ক বা রথসচাইল্ড (এখন হয়েছে গোল্ডম্যান) নিয়ে বোকাবোকা মন্তব্য।
  • S | 162.158.106.173 | ০৬ মে ২০২০ ০৯:০৫731196
  • যেকোনও সেন্ট্রাল ব্যান্কের সমালোচনা করা যায় ঐযে সেন্ট্রাল ব্যান্কের রোলগুলো বলেছি সেগুলোর উপরেই। কারণ সেগুলই ওদের দায়িত্ব, নইলে আলোচনা এগোনো যায় না।

    যেমন ফেড যেকোনও ক্রাইসিসেই বেশ কিছু ডেসপারেট মুভ নেয়। যেমন আগের ক্রাইসিসে একগাদা এমবিএস কিনেছে, যেগুলো এখনও তাদের ব্যালেন্স শিটে বড় একটা জায়্গা নিয়ে বসে আছে। এবারে কর্পোরেট বন্ড মার্কেটে ঢুকবে। মোটিভেশান হয়ত খুবই ভালো, নইলে বন্ড মার্কেট বা পুরো ফাইনান্সিয়াল সিস্টেম কোলাপ্স করে যাবে। কিন্তু সমালোচান হল যে এগুলো কি আদৌ ফেডের কাজ। বা ফেডের এসব করার এক্সপার্টাইজ আছে কিনা। কিন্তু ফাইনানশিয়াল স্টেবিলিটির নামে সবই চলছে। এটা অনেকটা চাইনিজ সেন্ট্রাল ব্যান্কের মতন কাজ হয়ে যাচ্ছে। ক্রমাগত প্রাইস সাপোর্ট দিয়েই যায়।

    আরেকটা সমালোচনা প্রায় সব সেন্ট্রাল ব্যান্ককেই শুনতে হয়। সেটা হল রেগুলেটরি ফেইলিওর। আমাদের দেশে ইয়েস ব্যান্ক। ২০০৮-০৯ তে বেশ কিছু কমার্শিয়াল ব্যান্কও কেন ঝামেলায় জড়ালো সেইসব নিয়ে আরকি।
  • lcm | 172.68.132.176 | ০৬ মে ২০২০ ০৯:১৩731197
  • রথচাইল্ড ফ্যামিলি -- আলাদা চ্যাপ্টার ডিমান্ড করে।

    শুধু ইউরোপ না - সারা পৃথিবী জুড়ে ব্যাংকিং, ফাইন্যান্সিং - একছত্র ব্যবসা।

    এদের ব্যবসার রমরমা ছিল উনবিংশ দশকে। ঐ শতকে রেলপথ নির্মান ছিল ইনফ্রাস্ট্রাকচার ইনভেস্টমেন্টের একটি অন্যতম এলাকা - রথচাইল্ড-দের রেলওয়ে ইনভেস্টমেন্ট ছিল না এমন দেশ খুব কমই ছিল। এমনকি সুয়েজ ক্যানেলেও ইনভেস্টমেন্ট ছিল এদের।

    আর - ইউএস। ফেড রিজার্ভ -- বড় ইনভেস্টেমেন্ট। অর কি চাই।

    এই সব আর কি।
  • lcm | 172.68.132.176 | ০৬ মে ২০২০ ০৯:১৬731198
  • আরে বাবা - রথচাইল্ডের প্রভাবের কথা এসেছে - ফেড-এর ইতিহাস, ঐতিহাসিক পরিপ্রেক্ষিতে - সে দিন কি আর আছে, কবে গেছে তাদের আধিপত্য।
  • S | 162.158.106.173 | ০৬ মে ২০২০ ০৯:১৬731199
  • তবে ডিসি এবং আমি বোধয় একটু বেশিই চেয়ে ফেলেছি। এটা বোধয় ফেডের পলিসি বা মনিটারি পলিসি নিয়ে সিরিয়াস কথাবার্তার টই নয়। এখানে সব আলোচনাই আসলে নীচের ফর্মুলা অনুযায়ী চলে।

    [হিলারি ক্লিন্টন + গোল্ডম্যান স্যাকস - (বিল গেটস * ফাউচি)^(ওয়ারেণ বাফেট ডিভাইডেড বাই মানুষ চাঁদে যায়নি)] * ম্যাক্স অব (স্পুটনিক নিউজ, ফক্স নিউজ, ব্রাইটবার্ট, অ্যালেক্স জোন্স) = রথসচাইল্ড^( ইনভার্স অব গোল্ডম্যান) - কোরোনা বা মাস শুটিং হয়নি।
  • lcm | 172.68.132.176 | ০৬ মে ২০২০ ০৯:২৩731202
  • ফেড পলিসি -

    যদি গভর্নমেন্ট কন্ট্রোল করত তাহলে সব টাকা করাপ্ট গভর্নমেন্ট লুটে সাফ করে দিত।

    আর নইলে, অন্যান্যরা লুটে সাফ করে দিত।
  • dc | 172.69.135.57 | ০৬ মে ২০২০ ০৯:৩৫731215
  • আমি তো অনেকবারই S কে বলেছি এই টইএর সুর না কাটতে ঃ-)

    ফেড নিয়ে অন্য টই খোলার জন্য ধন্যবাদ।

    আর আগামীর অবয়বকে আবার নিজের মেজাজে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য পাঁচবার আউড়ে নিনঃ Swamp gas from a weather balloon was trapped in a thermal pocket and reflected the light from Venus.

    লেট আস ডাইভ ব্যাক ইনটু দ্য র‌্যাবিটহোল! :d
  • S | 162.158.106.173 | ০৬ মে ২০২০ ০৯:৫০731218
  • অনেকে যে ফেডের ইন্ডিপেন্ডেন্সের ব্যাপারটাই বোঝেনি সেটা দেখাই যাচ্ছে। অন্তত আরবিআইকে নিয়ে চার লাইন পড়লেই এই ব্যাপারটা জানা যায়। সেটা যখন করবে না ডিসাইড করেছেন, তখন হি ইজ মোস্ট ওয়েলকাম টু এন্জয় হিজ ইগনোরেন্স।
  • PM | 162.158.166.58 | ০৬ মে ২০২০ ০৯:৫২731219
  • আন্ধের হস্তি দর্শন হচ্ছে। ফেড এর নিজের ওয়েব সাইট বলছে "The Federal Reserve is not a private corporation. It is part private and part public, "

    এক্ষেত্রে, সরকার আর প্রাইভেট দু ধরনের ক্যারেকটার ই থাকবে- এটাই স্বাভাবিক

    টাকা ছাপানোর ডিসিসনে প্রাইভেট কনট্রোল , ইন্ফ্লুয়েন্স কতটুকু এটা নিয়েই প্রশ্ন ।

    জানা থাকলে বলতে পারেন । না হলে কাটিয়ে দিন ঃ)
  • S | 162.158.106.173 | ০৬ মে ২০২০ ০৯:৫৪731221
  • ফেড টাকা ছাপায় না। ট্রেজারি ছাপায়।
  • Dipanjan | 172.68.141.21 | ০৬ মে ২০২০ ১০:২৫731223
  • আমি dc এর সাথে একমত | এই সুতো আবার ডিপ স্টেটের ছুঁচের মধ্যে ঢুকলেই ভালো হয় | নিন, থ্রিলারের লেটেস্ট টুইস্ট -

    "Bing Liu, 37, a researcher at the University of Pittsburgh School of Medicine, was found dead Saturday inside a home in Ross Township, north of Pittsburgh, the Allegheny County medical examiner said. He had been shot in the head and the neck, the agency said.

    "Bing was on the verge of making very significant findings toward understanding the cellular mechanisms that underlie SARS-CoV-2 infection and the cellular basis of the following complications."

    https://www.nbcnews.com/news/us-news/researcher-verge-making-very-significant-coronavirus-findings-shot-death-n1200896
  • PM | 162.158.166.190 | ০৬ মে ২০২০ ১৫:৪০731231
  • ফেড টাকা ছাপায় না। ট্রেজারি ছাপায়। --S এটা আগেও বলেছেন আর ঠিক ই বলেছেন। আমরাই তাড়াহুড়ো তে উল্টোপাল্টা লিখি।

    ওটা "ফেড পলিসি ডিসিসনে প্রাইভেট কনট্রোল , ইন্ফ্লুয়েন্স কতটুকু এটা নিয়েই প্রশ্ন ।" পড়তে হবে
  • দ্রি | 162.158.89.234 | ০৬ মে ২০২০ ১৬:৫৬731233
  • "লাভ তো ৫৫ বিলিয়ন ডলার। আপনি যেটা বলছেন সেটা হল রিটেইন্ড আর্নিঙ্গস। মানে লাভের কতটা কোম্পানি নিজের কাছে রেখে দিল (অংশিদারদের ডিভিডেন্ড দেওয়ার পরে)। হ্যাঁ সেটা শুণ্য ঠিক নয়। সেটার লিমিট ছিল ১০ বিলিয়ন ডলার। গত বছর সেটা বদলে ৬.৮ বিলিয়ন মতন করে দিয়েছে। এটা কিন্তু এক বছরের প্রফিট নয়। এটা যত প্রফিট জমেছে, তার মধ্যে ফেড কতটা নিজের কাছে রাখতে পারে তার পরিমাণ (সারপ্লাস)। এই কারণে গত বছর প্রায় ৩.২ বিলিয়ন ডলার এককালীন ট্রেজারিকে ফেরত দেয় ফেড।

    এই ৬.৮ বিলিয়ন ডলার + মেম্বার ব্যান্কদের দেওয়া ক্যাপিটাল (সাড়ে ৩৮ বিলিয়ন ডলার) + প্রয়োজনে বিভিন্ন ব্যান্কের যে ডিপোজিট থাকে (দেড় ট্রিলিয়ন ডলার) সেই দিয়ে ফেড ট্রেজারি কেনে। এমনকি ট্রেজারিও তার টাকা ফেডের কাছে রাখে (৪০০ বিলিয়ন+)। এছাড়াও ফেডের অনেক অ্যাসেট আছে।

    মনে করুন আপনি ব্যান্ক অব আমেরিকার বড় ইনভেস্টার। বছরের শেষে ৫৫ বিলিয়ন প্রফিট পেয়েছেন। সেটা ব্যান্ক অব আমেরিকাতেই রাখলেন।"

    আপনার কথা বুঝলাম। কিন্তু একটা জিনিষ মনে হয় মিস হচ্ছে। সেটা হল ফেড, যদিও টাকা ছাপাতে পারে না (সেটা ট্রেজারী করে), টাকা ক্রিয়েট করতে পারে। দ্যাট ইজ, ব্যাঙ্ক যদি ট্রেজারী ফেডকে বিক্রি করে, ফেডকে নিজের অ্যাকাউন্টের টাকা ব্যাঙ্ককে দেওয়ার দরকার নেই। ফেড জাস্ট ঐ ব্যাঙ্কের অ্যাকাউন্টে টাকাটা ইলেক্ট্রনিকালি অ্যাড করে দিতে পারে। পরে ব্যাঙ্ক শুধু সুদটা ফিরত দিতে পারে। আসলটা যেমন শুন্য থেকে এসেছিল, সেরকম শুন্যেই মিলিয়ে যায়। এটা কি সত্যি নয়?

    The Federal Reserve, also known as the Fed, is the central bank of the United States, and it monetizes U.S. debt when it buys U.S. Treasury bills, bonds, and notes. When the Fed purchases these Treasuries, it doesn't have to print money to do so; it issues a credit to its member banks that hold the Treasuries by adding funds to reserve deposits.1 The debt then transfers from the member bank to its own balance sheet. It does this through an office at the Federal Reserve Bank of New York. The credit is treated just like money, even though the Fed doesn't print actual cash.

    https://www.thebalance.com/how-is-the-fed-monetizing-debt-3306126
  • S | 172.68.132.34 | ০৬ মে ২০২০ ১৭:০২731234
  • "ব্যাঙ্ক যদি ট্রেজারী ফেডকে বিক্রি করে"
    মানে বুঝলাম না? কোন ব্যান্ক?
  • দ্রি | 172.68.146.199 | ০৬ মে ২০২০ ১৭:১১731235
  • ধরুন মেম্বার ব্যাঙ্ক। সে তার ট্রেজারী নোট ফেডকে দিল। তার বদলে সে টাকা চায়। আমাকে যদি চাইত, তাহলে আমার কাছে সমপরিমাণ টাকা থাকল তবেই আমি দিতে পারতাম। কিন্তু ফেডের তা থাকার দরকার নেই। ফেড জাস্ট ক্রেডিটটা ক্রিয়েট করতে পারে।
  • S | 172.68.132.26 | ০৬ মে ২০২০ ১৭:১২731236
  • বুঝেছি। অন্যত্র উত্তর দেব। এই টইকে নীচের ইকোয়েশানের বাইরে নিয়ে যেতে চাইনা।

    [হিলারি ক্লিন্টন + গোল্ডম্যান স্যাকস - (বিল গেটস * ফাউচি)^(ওয়ারেণ বাফেট ডিভাইডেড বাই মানুষ চাঁদে যায়নি)] * ম্যাক্স অব (স্পুটনিক নিউজ, ফক্স নিউজ, ব্রাইটবার্ট, অ্যালেক্স জোন্স) = রথসচাইল্ড^( ইনভার্স অব গোল্ডম্যান) - কোরোনা বা মাস শুটিং হয়নি।
  • দ্রি | 162.158.93.20 | ০৬ মে ২০২০ ১৮:৩৭731238
  • "এবারে ফেড যদি কোনও পার্টির থেকে ট্রেজারি কেনে যার অলরেডি ফেডের কাছে অ্যাকাউন্ট আছে, তাহলে ফেড সেই অ্যাকাউন্টের ব্যালেন্স বাড়িয়ে দেয়। এর ফলে একদিকে অ্যাসেট (ট্রেজারি) বাড়লো, আবার অন্যদিকে লায়াবিলিটিও বাড়লো।"

    অর্থাৎ, ফেডের কাছে ঐ পরিমাণ টাকা আছে কি নেই সেটা ম্যাটার করে না। ফেড নিজের সঞ্চিত টাকা থেকে এটা দিচ্ছে না। যেটা করছে সেটা একটা অ্যাকাউন্টিং মেজার। তাই তো?

    কেউ যদি আমার ১০০ টাকা চায় আর বলে এক মাস পরে আমার ১০১ টাকা ফেরত দেবে, আমি টাকাটা দিতে পারি যদি আমার কাছে অলরেডি ১০০ টাকা সঞ্চিত থাকে। কিন্তু ধরুন আমার কাছে ১০০ টাকা নেই। কিন্তু আমি একটা ম্যাজিক জানি। সেই ম্যাজিকে আমি আপনার অ্যাকাউন্টে ১০০ টাকা বাড়িয়ে দিতে পারি। কিন্তু আবার ১ মাস পরে ম্যাজিক করে আপনার অ্যাকাউন্ট থেকে ১০১ টাকা কেটে আনতে পারি, যার মধ্যে শুধু ১ টাকা আমার অ্যাকাউন্টে যোগ হবে, আর বাকি ১০০ টাকা শুন্যে মিলিয়ে যাবে। এই এক মাসের জন্য সিস্টেমে ১০০ টাকা বেড়ে গেল। অবশ্যই আমি যদি এই ম্যাজিকটা করতে যাই, আমায় পুলিশে ধরে নিয়ে যাবে, যদিও করতে পারলে খুবই ভালো হত, টাকা ধার দেওয়ার জন্য টাকা থাকার কোন দরকার নেই। কিন্তু ফেড এটা লীগালি করতে পারে। এটা খুব বড় পাওয়ার।

    নর্মাল ব্যাঙ্কও টু আ লার্জ এক্সটেন্ট এটা করতে পারে শুনেছি। থ্রু ফ্রাকশানাল রিজার্ভ ব্যাঙ্কিং। রিজার্ভ রেশিও যদি ১ঃ১০ হয়, তাহলে ব্যাঙ্কে ১০০ টাকা ডিপোজিট থাকলে সে ১০০০ টাকা লোন দিতে পারে। ৯০০ টাকা জাস্ট ইলেকট্রনিকালি গজিয়ে ওঠে, তারপর যথাসময়ে মিলিয়ে যায়।
  • S | 162.158.107.152 | ০৬ মে ২০২০ ১৮:৪৪731239
  • একটু পার্থক্য আছে। এটা প্রায় সবাই করতে পারে। যেকোনও ক্রেডিট বিজনেসই তাই। মুদি দোকানে খাতায় লিখে জিনিস নেওয়াও প্রায় একই ব্যাপার।
  • S | 162.158.107.152 | ০৬ মে ২০২০ ১৮:৫২731240
  • পার্থক্য হল এক্ষেত্রে মার্কেট থেকে সমপরিমাণ ট্রেজারি সড়িয়ে নেওয়া হচ্ছে। তার বদলে ডলারের পরিমাণ বাড়ানো হচ্ছে। ফলে মার্কেটে ট্রেজারি+ডলারের পরিমাণ একই থাকছে। তাছাড়া ট্রেজারি ডিপার্টমেন্ট যে ডলার তৈরী করে, সেটা তো এইভাবেই বাজারে ছড়ানো হয়। (এটা একটা উপায়)
  • দ্রি | 162.158.167.19 | ০৬ মে ২০২০ ১৯:১২731241
  • "মুদি দোকানে খাতায় লিখে জিনিস নেওয়াও প্রায় একই ব্যাপার।"

    কিছুটা এক হত, যদি মুদি দোকানে খাতায় লিখে ১০০ টাকার জিনিষ নিয়ে এক মাস বাদে ১০১ টাকা দিলে।

    তাও এক হত না। মুদি আপনাকে এমন জিনিষ দিচ্ছে যেটা তাকে হোলসেল থেকে নিজের পয়সা দিয়ে কিনতে হয়েছে। ফেডকে সেসব কিছু করতে হল না।
  • S | 162.158.107.158 | ০৬ মে ২০২০ ১৯:২২731242
  • ঐ ১ টাকাটা সুদ। মুদি দোকানও আমাকে ধার দেয়, ০% ইন্টারেস্ট রেটে। ওটা কোনও ফ্যাক্টার নয়।

    মুদি দোকানের ক্ষেত্রে আপনি মানি ক্রিয়েট করছেন। একই সঙ্গে আপনার ব্যান্কেও টাকা থাকলো আবার জিনিসটাও কিনছেন। ক্রেডিট ব্যবস্থা না থাকলে সেটা হতনা।

    তাছাড়া মুদিও হোলসেল থেকে ক্রেডিটেই কেনে।
  • S | 162.158.107.158 | ০৬ মে ২০২০ ১৯:২৫731243
  • ধরে নিন মুদি দোকানির বদলে খাতাটা যদি আপনার কাছে থাকত (আগে তাই হত)। তাহলে আপনি মুদি দোকানির কাছ থেকে জিনিস নিয়ে বলে দিতেন যে এইতো লিখে নিলাম যে তুমি ১০০ টাকা পাও। পরে যখন হালখাতা আসবে তখন সব হিসাব বরাবর করে দেব সঙ্গে ১ টাকা হালখাতা উপলক্ষে দেব।

    তাহলে একদম একই ব্যাপার হল।
  • দ্রি | 162.158.165.55 | ০৬ মে ২০২০ ২০:৪৫731247
  • "ঐ ১ টাকাটা সুদ। মুদি দোকানও আমাকে ধার দেয়, ০% ইন্টারেস্ট রেটে। ওটা কোনও ফ্যাক্টার নয়।"

    ওটা একটা বড় ফ্যাক্টার। ফেড যদি ০% রেটে ব্যাঙ্কে ধার দিত, তাহলে আর বিশেষ কিছু বলার ছিল না।

    "ধরে নিন মুদি দোকানির বদলে খাতাটা যদি আপনার কাছে থাকত (আগে তাই হত)। তাহলে আপনি মুদি দোকানির কাছ থেকে জিনিস নিয়ে বলে দিতেন যে এইতো লিখে নিলাম যে তুমি ১০০ টাকা পাও। পরে যখন হালখাতা আসবে তখন সব হিসাব বরাবর করে দেব সঙ্গে ১ টাকা হালখাতা উপলক্ষে দেব।"

    এই উদাহরণে, মাসের শুরুতে মুদির দোকানে ছিল ১০০ টাকার জিনিষ আর আমার কাছে ১০১ টাকা। মাসের শেষে আমার কাছ এল ১০০ টাকার জিনিষ, আর মুদির কাছে ১০১ টাকা। মুদি ১ টাকা সুদ উপার্জন করল বটে, কিন্তু তার জন্য তাকে ১০০ টাকার জিনিষ দোকানে রাখতে হয়েছে।

    ফেডের ক্ষেত্রে মাসের শুরুতে ফেডের কাছে কিছু নেই, মেম্বার ব্যাঙ্কের কাছে ১০০ টাকার ট্রেজারী নোট। মাসের শেষে সব শোধবোধের পর মেম্বার ব্যাঙ্কের কাছে ১০০ টাকার ট্রেজারে নোট আর ফেডের কাছে ১ টাকা।

    আমাকে চয়েস দিলে আমি কিন্তু মুদির দোকানী না হয়ে ফেডই হতে চাইব।
  • S | 108.162.246.184 | ০৬ মে ২০২০ ২০:৫১731248
  • ফেড তো উল্টে ১ টাকা দিচ্ছে ব্যান্ককে। উপার্জন করছে কি করে?
  • দ্রি | 162.158.167.149 | ০৬ মে ২০২০ ২০:৫৯731249
  • "ফলে মার্কেটে ট্রেজারি+ডলারের পরিমাণ একই থাকছে।"

    এই তত্ত্বে একদম রাজি।

    কিন্তু ট্রেজারী তো ক্রিয়েট করা যায়? তাই না? মানে ট্রেজারী ট্রেজারী নোট ক্রিয়েট করতে পারে।

    এইবার একটা সিকোয়েন্স বলছি। ধরুন ট্রেজারী একটা ট্রেজারী নোট ক্রিয়েট করল। একটা ব্যাঙ্ক সেটা কিনে নিল। তার মানে ট্রেজারীকে এখন সুদ দিতে হবে। এবার ব্যাঙ্ক সেটা ফেডের কাছে রেখে পয়সা নিল। ফেড সুদ পাবে ব্যাঙ্কের কাছ থেকে।

    পুরো সাইকলটার শেষে কি দাঁড়াল? সরকারের টাকা চাই। সে ব্যাঙ্কের থেকে টাকা পেল। তার বদলে তাকে সুদ গুনতে হবে। ব্যাঙ্কের শুরুতে টাকা ছিল। শেষেও টাকা হল। সে সুদ পাবে সরকারের থেকে, আর সুদ দেবে ফেডকে। ফেডের কিছু ছিল না, কিন্তু সে সুদ পাবে ব্যাঙ্কের থেকে।

    আপনি কি হতে চান? সরকার, ব্যাঙ্ক, না ফেড?
  • দ্রি | 162.158.167.149 | ০৬ মে ২০২০ ২১:০০731250
  • ফেড ব্যাঙ্কের থেকে ইন্টারেস্ট পাবে না?
  • S | 108.162.246.184 | ০৬ মে ২০২০ ২১:০২731251
  • আপনি সুদের ব্যাপারটাতে বারবার গোলমাল করছেন। ব্যান্ক যখন ফেডের কাছে রেখে পয়সা নিল। তখন ফেড সুদ পাবে (লোকসানও হতে পারে) ট্রেজারির থেকে আর সুদ দেবে সেই ব্যান্ককে। ফলে এখানে ফেডের তেমন কোনও লাভ নেই।
  • S | 108.162.246.184 | ০৬ মে ২০২০ ২১:০৪731252
  • এসবিআইতে আপনার ডিপোজিট অ্যাকাউন্ট = আপনি এসবিআইকে ধার দিয়েছেন।

    ফেড যখন মেম্বার ব্যান্ক থেকে ট্রেজারি কেনে তখন সেই মেম্বার ব্যান্কের অ্যাকাউন্ট ব্যালেন্স বেড়ে যায়, ফলে ফেডের কাছ থেকে অতিরিক্ত সুদ পায়।
  • দ্রি | 172.68.146.247 | ০৬ মে ২০২০ ২১:২২731253
  • "তখন ফেড সুদ পাবে (লোকসানও হতে পারে) ট্রেজারির থেকে আর সুদ দেবে সেই ব্যান্ককে।"

    আই সী। তাহলে ফেডের কোন লাভ নেই। এই দুই সুদে কোন ডিফারেন্শিয়ালও নেই? তাহলে ফেড লাভটা করে কোথা থেকে? ঐ ইনকাম স্টেটমেন্টে ১০০ বিলিয়ান ইনকাম আর প্রায় ৫০ বিলিয়ান সুদ দেওয়া ইত্যাদি মিলিয়ে ৫০ বিলিয়ান লাভ ছিল (ডিভিডেন্ট দেওয়ার আগে)।
  • S | 108.162.246.184 | ০৬ মে ২০২০ ২১:২৪731254
  • সেটা এখানে আগেই লিখেছি।
  • S | 108.162.246.184 | ০৬ মে ২০২০ ২১:৩০731255
  • লাভ একটা আছে। অন্তত সম্ভাবনা আছে। ফেড যখন ইন্টারেস্ট রেট কমানোর জন্য ট্রেজারি কিনছে তখন ট্রেজারির দাম বাড়তে থাকবে। আবার যখন ইন্টারেস্ট রেট বাড়ানোর জন্য ট্রেজারি বিক্রি করছে তখন ট্রেজারির দাম পড়বে। ফলে একটা লাভ হতে পারে ওভার দ্য টাইম। কিন্তু আমেরিকার ইন্টারেস্ট রেট যে রেন্জে থাকে, সেই লাভটা খুব সামান্যই হবে।
  • দ্রি | 162.158.159.127 | ০৬ মে ২০২০ ২২:০৮731257
  • তার মানে ট্রেজারীর দাম কখন বাড়বে আর কমবে সেটা ফেড অন্যদের চেয়ে বেশী জানে? কারণ তারাই ইন্টারেস্ট রেট কখন বাড়াবে আর কখন কমাবে জানে? খানিকটা ইনসাইডার ট্রেডিং এর মত?
  • S | 108.162.246.184 | ০৬ মে ২০২০ ২২:২০731259
  • অন্যত্র উত্তর দিয়েছি। ইনসাইডার ট্রেডিং নয়। কারণ ইনটারেস্ট রেট চেন্জ করানোর জন্য যেটুকু ট্রেজারি ট্রেড করতে হয়, ফেড সেটুকুই করতে পারে। আর লাভ হবেই, এর কোনও গ্যারান্টি নেই। লাভ হলেও খুব সামান্যই হয়, তাও ওভার টাইম। ফলে লাভটা (যদি আদৌ হয়) অনেকটা ইনসিডেন্টাল।
  • দ্রি | 162.158.158.142 | ০৬ মে ২০২০ ২৩:৪১731261
  • হ্যাঁ অন্য থ্রেডটা পড়ছি। কিন্তু এখানে একটা থট ট্রেইল রাখতে চাইছি।

    তাহলে মেম্বার ব্যাঙ্ককে সুদ দিয়ে ফেডের তেমন লাভ নেই। ট্রেজারি বেচা কেনা করেও তেমন লাভ নেই। তাহলে বাম্পার লাভটা কিসে হয়? বছরে ৫০ বিলিয়ান প্রফিট নেহাত কম নয়।

    ফেড তো মোর অর লেস ফিক্সড ম্যানপাওয়ারে চলে। এক্সপ্যান্ড করতে হয় না। নিত্য নতুন রিক্রুট করতে হয় না। বছরে স্যালারি বাবদ ২ বিলিয়ান খরচা। আর ডিভিডেন্ট বাবদ ধরি ১ বিলিয়ান। ভালো মার্জিন।

    একটা ব্যাপার আছে। ফেডকে কোন রকম ট্যাক্স দিতে হয় না। ফেডারাল নয়, স্টেট নয়। অন্য ব্যাঙ্কের এই সুবিধে নেই।
  • দ্রি | 162.158.158.142 | ০৬ মে ২০২০ ২৩:৫২731262
  • ফেড তো দেখলাম প্রতি বছরের শেষে বেশ কিছু টাকা ট্রেজারীকে ফেরত পাঠায়।

    প্লাস সরকার ট্যাক্স কালেক্ট করে। অতয়েব সরকারের ঘরে অনেক টাকা থাকা উচিত।

    কিন্তু ১৯৮৪ সালে গ্রেস কমিশান একটা আজব জিনিষ বার করেছিল। যে ট্যাক্সের টাকার একটি নিকেলও প্রোগ্রামে (যেই যেই প্রোগ্রাম প্রমিস করে ট্যাক্স ডলার খরচা হবে বলে ভোটে বলা হয়েছিল) পৌঁছয় না। পুরোটাই ডেট সার্ভিস করতে চলে যায়। প্রোগ্রামের জন্য খরচা করতে আবার নতুন ডেট নিতে হয়।

    Tne commission found that: one tnird of all income taxes is consumed by waste and inefficiency; one third is not collected due to the underground economy; and 100 pelcent of all income taxes are absorbed by interest plus government contributions to transfer payments.

    https://digital.library.unt.edu/ark:/67531/metacrs9044/m1/1/high_res_d/IP0281G.pdf
  • দ্রি | 141.101.98.93 | ০৬ মে ২০২০ ২৩:৫৮731264
  • আর করোনা বাবদ ২ না ৩ ট্রিলিয়ান ডলার বেলাউট দেওয়া হবে শুনছি। কে দেবে এত লোন? চীন তো দেবে বলে মনে হয় না।

    জাপান? ফেড? নাকি অন্য কেউ? ২ ট্রিলিয়ান কম কথা নয়। কার কাছে এত টাকা আছে?
  • S | 162.158.106.71 | ০৬ মে ২০২০ ২৩:৫৯731265
  • ফেডারাল ব্যান্ক আসলে সরকার আর ব্যান্কদের ব্যান্ক। ব্যান্কগুলোর যখন একটু বেশি টাকা হয়ে যায় (সারপ্লাস ফান্ড) তখন সেগুলো ফেডের মতন সেফ জায়্গায় রাখে। কিছু সুদ পায়। আবার প্রয়োজন হলে ফেড থেকে স্বল্প সময়ের জন্য লোন নেয়। তখন সুদ দেয়।

    সরকারের ঘরে (মানে ট্রেজারির কাছে) যে টাকা থাকে সেটা ট্রেজারি ফেডের কাছেই রাখে। অন্তত অনেকটা তো বটেই।

    গত কয়েক বছর ধরে যে বিশাল লাভ করছে ফেড তার কারণ ইন্টারেস্ট রেট বাড়ানোর জন্য প্রচুর ট্রেজারি বিক্রি করছিল।
  • S | 162.158.106.71 | ০৭ মে ২০২০ ০০:০৪731266
  • কোনও ফেডারাল এজেন্সিকেই ট্যাক্স দিতে হয়্না। দেশেও সেটাই নিয়ম। কোম্পানি নয় কিন্তু, এজেন্সি। নইলে সরকার নিজেই নিজেকে ট্যাক্স দেবে।

    ট্রেজারি কেনার প্রচুর লোক আছে। বিদেশে যেতেও হবেনা। এখন মার্কেট ভালো না। ইন্টারেস্ট রেট কমছে। এইটাই তো সময় যখন প্রচুর ফান্ড মানি মার্কেটে ট্রান্সফার হবে।
  • দ্রি | 162.158.158.180 | ০৭ মে ২০২০ ০০:০৭731267
  • কারা? হেজ ফান্ড? ইনভেস্টমেন্ট ব্যাঙ্কার? গোল্ডম্যান স্যাক্স?
  • S | 162.158.106.71 | ০৭ মে ২০২০ ০০:০৯731268
  • অতদূর যেতে হবেনা। আমি নিজেই স্বল্প ক্ষমতায় করেছি।
  • S | 162.158.106.71 | ০৭ মে ২০২০ ০০:১১731269
  • এত গোল্ডম্যান গোল্ডম্যান করেন কেন? ওরা এমন কিস্যু একটা হাতি ঘোড়া নয়। ওরকম ১০০ বিলিয়ন ডলারের ওয়ার চেস্ট পেলে আর সপ্তাহে ১০০ ঘন্টা কাজ করবে এমন লোকজন পেলে আমি ওদের থেকেও বেটার পোর্টফোলিও ম্যানেজ করে দেখিয়ে দিতাম। ছাড়ুন তো।
  • দ্রি | 162.158.107.212 | ০৭ মে ২০২০ ০০:২৭731271
  • ফেডকে ফেডারাল এজেন্সি বলছেন। ফেড কিন্তু ফ্রিডম অফ ইনফর্মেশান অ্যাক্টের আওতায় পড়ে না। অতয়েব ফেড নিজের সম্বন্ধে পাবলিককে যা বলে রেখেছে সেইটাই একমাত্র অ্যাভেলেবল ইনফর্মেশান।

    ধরুন যে সব অ্যালিগেশান ফেড সম্বন্ধে আছে, যেমন ফেড ইজ রিমোটলি কন্ট্রোলড বায় ফিউ ইন্ডিভিজুয়ালস ইন্ডায়রেক্টলি (ডায়রেক্টলি নয় কিন্তু, মানে ধরুন এমন যদি হয় টপ দশটা বড় মেম্বার ব্যাঙ্কের মেজর শেয়ারহোল্ডার যদি হয় গোল্ডম্যান স্যাক্স (উফ, আবার সেই ...)) -- এগুলো তো ইন্টারনাল ডকুমেন্টস না বার করতে পারলে কোনদিনও বেরোবে না। কিন্তু ফেড ফ্রিডম অফ ইনফর্মেশান অ্যাক্টের আওতায় নয়। তাই এগুলো ডিসকাভার করে পাবলিকের সামনে প্রুফ আনা খুবই শক্ত।

    সিআইএ তো অন্তত ৫০ বছর পর কিছু কিছু ডকুমেন্ট ডিক্লাসিফাই করে। ফেড তো তাও করবে না।
  • করোনা ভাইরাস

  • গুরুর মোবাইল অ্যাপ চান? খুব সহজ, অ্যাপ ডাউনলোড/ইনস্টল কিস্যু করার দরকার নেই । ফোনের ব্রাউজারে সাইট খুলুন, Add to Home Screen করুন, ইন্সট্রাকশন ফলো করুন, অ্যাপ-এর আইকন তৈরী হবে । খেয়াল রাখবেন, গুরুর মোবাইল অ্যাপ ব্যবহার করতে হলে গুরুতে লগইন করা বাঞ্ছনীয়।
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত