এই সাইটটি বার পঠিত
ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • খেরোর খাতা

  • নমোসম্ভব কাব্য

    সৈকত বন্দ্যোপাধ্যায় লেখকের গ্রাহক হোন
    ২৪ এপ্রিল ২০২৪ | ৩৪২ বার পঠিত | রেটিং ৫ (৪ জন)
  • লঙ্কায় তখন প্রচণ্ড যুদ্ধ। রামচন্দ্র হেবি বেকায়দায়। মোটাভাই বেআইনীভাবে ইন্দ্রজিৎকে মেরেছে বলে রাক্ষসরা হেগে আন্তর্জাতিক আদালতে যাবে বলছে। সমস্যা সেটা নয়, হেগে তো ওরা বড়া ভাজবে। গোটা প্যানেলটাই আর্যদের, ওখানে রাক্ষসরা কখনও জিতবেনা। সমস্যা হল, পাবলিক এই সব খুচরো জিনিস নিয়ে বহুত ঝামেলা পাকায়। সেবার বালি-সুগ্রীবের বাওয়ালে বালিকে পাইয়ে দিয়েছিলেন বলে, এক ফচকে ছোঁড়া ছড়া কেটেছিল, "তুমিও বানর, আমিও বানর, তফাত শুধু ল্যাজনাড়ায়", সেটাই ভাইরাল। এবারও মধু বলে কোন এক কেরেস্তান রামের হাতে বাটি ধরিয়ে দিয়ে মিম বানিয়েছে "আমি কি ডরাই কভু ভিখারি রাঘবে?"। আদেখলা পাবলিক দেখছে আর শেয়ার করছে। দুই দিনেই দেড় কোটি ভিউ। ব্যাটাকে ঢিট করতে রামিও স্কোয়াড বা বজরঙ্গী ভাইজান কাকে নামাবেন ভাবছেন, এমন সময় আর এক দুঃসংবাদ। সুষেণ এসে বিটকেল মুখ করে বলল, রাবণ ফাঁকতালে মোটাভাইকে পাইয়ে দিয়েছে মহারাজ। এখন-তখন অবস্থা।

    শুনে তো রামচন্দ্রের মাথায় হাত। শূর্পনখার নাক কাটা থেকে, ইন্দ্রজিতকে নিকেশ পর্যন্ত, যত অপকর্ম সবই তো একে দিয়েই করিয়েছি। এবার কী করা যায়? আর তো রক্ষে নেই। রামচন্দ্র ধনুক টনুক ফেলে মাথায় হাত দিয়ে বসে পড়লেন। সুষেণ মিউমিউ করে বলল, মহারাজ একটা উপায় হতে পারে। কিন্তু তার জন্য একটু অনুসন্ধান লাগবে। 
    - কী উপায়?
    - বিশল্যকরণী বলে এক ওষধি আছে। লাগালেই মোটাভাই আবার চাঙ্গা হয়ে উঠবেন।
    রামচন্দ্র ধড়মড় করে  উঠে বসে বললেন, তা এখানে বকবক করছ কেন, লাগাও।
    সুষেণ বিড়বিড় করে বলল, সে কি আর মুখের কথা। সে বস্তু আছে অনেক দূরে গন্ধমাদন পর্বতে। যেতে-আসতে সময় লাগবে। ততদিনে যুদ্ধ শেষ হয়ে যাবে।

    কোনো উপায় কি নেই? রামচন্দ্র সব ব্যাটাকে ডেকে পাঠালেন। কোনো কাজে তো লাগেনা, একটু পরামর্শ অন্তত দিক। শুনে টুনে হনুমান বলল, আমি হেবি লাফাতে পারি স্যার। যদি অনুমতি দেন তো যাব আর আসব।
    এত ভালো তো ভালো না। রামচন্দ্র সন্দিগ্ধ হয়ে জিজ্ঞাসা করলেন, তা বাবা টিএ বিলে ক পয়সা পড়বে? 
    হনুমান বলল, কী যে বলেন স্যার। আপনার আমার অচ্ছেদ্য বন্ড। নতুন আর কী লাগবে। আপনি শুধু একটু দেখবেন, তাহলেই হবে। 

    যেমন কথা তেমন কাজ। হনুমান লাফ দিয়ে চলে গেল অনেক দূরে। ভেবেছিল এ এমনকি ব্যাপার। কিন্তু গিয়ে দেখে, সব অপরাধীরই যেমন দুটো পা, সব মানুষেরই যেমন দুটো হাত, সব গাছেরই তেমনই সবুজ পাতা। এর মধ্যে বিশল্যকরণী পাবে কোথায়। জীবজন্তুরাও তেমন। পাখিদের জিজ্ঞাসা করতে তারা বলে পিউপিউ। ছাগলদের জিজ্ঞাসা করতে তারা বলে ব্যা। সহযোগিতার নামগন্ধ নেই। কিন্তু হনুমান তো হনুমানই। এর আগে ল্যাজে আগুণ দিয়ে লঙ্কা জ্বালিয়ে দিয়েছে। তাকে ঠেকায় কে। খুঁজে না পেয়ে আস্ত গন্ধমাদনটাই উপড়ে নিল। চারদিকে হইচই পড়ে গেল। হরিণ বলে আমার বাড়ি কোথায় গেল। পাখিরা বলে বসব কোথায়। বর্বর লোকেরা বলল, চাষের জায়গা না থাকলে তো না খেয়ে মরব। কিন্তু হনুমান ততক্ষণে যা করার করে পগারপার।

    ওদিকে ততক্ষণে রামচন্দ্র খুবই অস্থির। যাব আর আসব বলে গেল, আসেইনা। হঠাৎ ঘাড়ে আস্ত পাহাড় নিয়ে  হনুমানকে আসতে দেখে তো তিনি হাঁ। করেছিস কী ব্যাটা। 
    হনুমান ঘাড় থেকে পাহাড় নামিয়ে বলল, হেঁহেঁ, এ আর এমন কি।
    রামচন্দ্র ঘাড় ঘুরিয়ে সুষেণকে ডাকতে যাবেন, এমন সময় হনুমান আবার বলল, স্যার। 
    - এবার কী? 
    - আমার ব্যাপারটা দেখবেন বলেছিলেন যে। 

    তাও তো বটে। রামচন্দ্র এক কথার মানুষ। সন্তুষ্ট হলে যে যা চায় তাকে তাইই দিয়ে দেন। হনুমানের মাথায় হাত ঠেকিয়ে বললেন, যা, তোকে হাইকোর্টের জজ করে দিলাম। 

    সেই থেকে জগতে রামরাজ্য প্রতিষ্ঠিত হল।
    পুনঃপ্রকাশ সম্পর্কিত নীতিঃ এই লেখাটি ছাপা, ডিজিটাল, দৃশ্য, শ্রাব্য, বা অন্য যেকোনো মাধ্যমে আংশিক বা সম্পূর্ণ ভাবে প্রতিলিপিকরণ বা অন্যত্র প্রকাশের জন্য গুরুচণ্ডা৯র অনুমতি বাধ্যতামূলক। লেখক চাইলে অন্যত্র প্রকাশ করতে পারেন, সেক্ষেত্রে গুরুচণ্ডা৯র উল্লেখ প্রত্যাশিত।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • সৃষ্টিছাড়া | 117.241.230.172 | ২৫ এপ্রিল ২০২৪ ০৭:০০530986
  • আইন নিয়ে চটি চাতুকারি ও অবজ্ঞা সূচক বট তলা লিখন ও শিক্ষা এবং সবিধানের অবমাননা।
    Pil প্রত্যাশিত 
  • হিজি - বিজ -বিজ  | 2603:8000:a403:4186:a4fd:c0a8:b8fc:1edc | ২৫ এপ্রিল ২০২৪ ০৯:৩৩530990
  • এটা কি পোষা চাড্ডি না দু টাকার ? 
  • dc | 2402:e280:2141:1e8:c44b:90a5:b1f4:fae | ২৫ এপ্রিল ২০২৪ ০৯:৪০530991
  • "রাবণ ফাঁকতালে মোটাভাইকে পাইয়ে দিয়েছে মহারাজ। এখন-তখন অবস্থা" 
     
    এখানটা পড়ে আবার আমার মনে নানারকম দৃশ্য ভেসে উঠলো।  
  • Argha Bagchi | ০৩ মে ২০২৪ ০৯:১৬531336
  • ব্যা-পক | এরকম আরও চাই | 
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। যা মনে চায় প্রতিক্রিয়া দিন