এই সাইটটি বার পঠিত
ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • খেরোর খাতা

  • উতঙ্কের নয়নবারি ও আর্তি

    ইন্দ্রাণী লেখকের গ্রাহক হোন
    ৩০ মার্চ ২০২৪ | ২৬৭ বার পঠিত | রেটিং ৫ (১ জন)
  • দিতি ও মহারানি
    মৃণাল শতপথী
    গুরুচ্ন্ডা৯
    দাম ৬৬ টাকা

    সাতটি গল্প এই বইতে। ব্লার্বে যথার্থই বলা হয়েছে- এই গল্পগুলিতে পাঠকের পরিণতমন প্রাসঙ্গিক বিষয় খুঁজে নেবে। বস্তুত যে বয়সে 'বুদ্ধির এলাকায় বৈজ্ঞানিক সার্ভে ' আরম্ভ হয় না,'সম্ভব-সম্ভবের সীমাসরহদ্দের চিহ্ন থাকে পস্পর জড়ানো', মৃণালের বইটি সেই নবীন সংবেদনশীল মনটির অন্বেষণে বেরিয়েছে।
    চিরঞ্জিত সামন্তের প্রচ্ছদ এবং রমিত চট্টোপাধ্যায়ের অলঙ্করণে বইটি রূপময়।

    গল্পগুলির ভাষা, বিষয়, গোত্র বদলে বদলে গেছে - অথচ প্রতিটি গল্পেই প্রকৃতির, মানবসম্পর্কের বিপন্নতা, দুঃসময় ও পারস্পরিক সহযোগিতায় উত্তরণ। কখনো আখ্যান যেন রূপকথা, কখনও সায়েন্ন্স ফিকশন, অথবা ম্যাজিক রিয়ালিজম। গল্পের নামকরণও শৈশবের চৌকাঠ পার হয়ে কৈশোরে পা রাখছে ক্রমশ। রয়েছে জলের তলায় মাছেদের দুনিয়া, কোথাও ডিস্টোপিয়ান জগতে একটি শিশুকে বাঁচিয়ে রাখার যুদ্ধ, কখনও সর্বার্থে কোণঠাসা বালিকার এক অলীক জগতে উড়ে বেড়ানো, আবার বনের মা আর গৃহের মা মুখোমুখি কোনো গল্পে-হৃদয়ে অভিন্ন অনুভূতি, আবার পরিণত বয়স্ক কখনও সময়কে পিছু হাঁটিয়ে নিয়ে যান তাঁর রঙীন শৈশবে, যেখানে উঁকি দিয়ে যায় বড়দের জগৎ- বিচ্ছেদময় এবং অবশ্যম্ভাবী মনোক্রোম, কোনো গল্পে এ বিশ্বকে শিশুর বাসযোগ্য করে যাওয়ার জন্য আত্মাহুতি ।

    বইটি শেষ করে, একটি গল্প মনে পড়ে।

    মহাভারতে আছে, মহর্ষি গৌতমের হাজার শিষ্যর মধ্যে প্রিয়তম শিষ্য ছিলেন উতঙ্ক। সব শিষ্যই শিক্ষান্তে গৃহে ফিরে গেলেন, উতঙ্ক রয়ে গেলেন। গৌতম স্নেহভরে তাঁকে বাড়ি যাওয়ার অনুমতি দিলেন না। উতঙ্ক এভাবে বৃদ্ধাবস্থায় উপনীত হলেন কিন্তু গৌতমের আশ্রমের কাজকর্ম , গুরুসেবায় এতই মগ্ন নিজে তা বুঝতেই পারলেন না। অবশেষে একদিন, মাথায় করে কাঠ আনছিলেন, আশ্রমে পৌঁছেই তাড়াতাড়ি কাঠের বোঝা মাথা থেকে মাটিতে ফেললেন ক্ষুধার্ত, ক্লান্ত উতঙ্ক- অবিলম্বে স্নান খাওয়া আবশ্যক। ঐ সময় তাঁর জটা থেকে রূপালী কগাছা চুল ছিঁড়ে গিয়ে কাঠের সঙ্গে মাটিতে পড়ল। সেই জটার শুক্লতা তাঁর অবিশ্বাস্য বোধ হল প্রথমে তারপর নিজের অনবধানে এতকাল পার হয়ে বৃদ্ধাবস্থায় উপস্থিত হওয়ার বেদনায় আর্ত্তস্বরে রোদন করতে লাগলেন উতঙ্ক। গৌতম তাঁর কন্যাকে বললেন, অঞ্জলি পেতে উতঙ্কের নয়নজল ধারণ করতে। কিন্তু সেই অশ্রুতে বিষাদের এতই তীব্রতা ছিল, চোখের জলে কন্যার হাত পুড়ে গেল। তখন সর্বংসহা ধরণী অতিকষ্টে উতঙ্কের সেই নয়নবারি ধারণ করতে লাগলেন।

    ঝড়ের রাতে প্রদীপশিখাটি বাঁচিয়ে রাখার যে আকিঞ্চনে প্রবীণ এসে হাত ধরে নবীনের, গোটা বইতে সেই যেন অন্তর্লীন সুর; সে এক জলস্রোতের মতো বহমান, সেই স্রোতে পাঠক উতঙ্কের নয়নবারি ও আর্তিকে প্রত্যক্ষ করে।
    পুনঃপ্রকাশ সম্পর্কিত নীতিঃ এই লেখাটি ছাপা, ডিজিটাল, দৃশ্য, শ্রাব্য, বা অন্য যেকোনো মাধ্যমে আংশিক বা সম্পূর্ণ ভাবে প্রতিলিপিকরণ বা অন্যত্র প্রকাশের জন্য গুরুচণ্ডা৯র অনুমতি বাধ্যতামূলক। লেখক চাইলে অন্যত্র প্রকাশ করতে পারেন, সেক্ষেত্রে গুরুচণ্ডা৯র উল্লেখ প্রত্যাশিত।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। মন শক্ত করে মতামত দিন