এই সাইটটি বার পঠিত
ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • খেরোর খাতা

  • একটি ফ্রড, গুরগাঁও সাইবার ক্রাইম বিভাগ এবং টাকা উদ্ধারের গল্প

    লেখকের গ্রাহক হোন
    ০৩ মার্চ ২০২৩ | ৫৩৮ বার পঠিত | রেটিং ৪ (৩ জন)
  • হ্যাপীইজিগো, এদের সাইট আর অ্যাপ দুইই আছে। অনেকসময়ই অন্য সাইটের তুলনায় ৫০০- ৬০০ টাকা কমে টিকিট পাওয়া যায়। ২০১৯ থেকে আমি মাঝে মাঝেই কাটতাম। ২০২২এও কেটেছি, কোনও সমস্যা হয় নি। এমনকি একবার সকাল বিকেল গুলিয়ে রাত দুটোর টিকিট কেটে বসেছিলাম, সেও ওদের ফোন করে দিব্বি বদলে বিকেলের নিয়েছিলাম। গোলমাল হল ১৫ই নভেম্বর। পুণে থেকে বাগডোগরার টিকিট বুক করতে গেলে বার তিনেক পেমেন্ট ফেল হল। তখনই থামা উচিৎ ছিল কিন্তু ভাবলাম আরেকবার চেষ্টা করি। চতুর্থবারে পেমেন্ট দিব্বি গেল, ট্যাংট্যাং করে ৮৭৬৪/- টাকা কাটার ঘন্টিও বাজল ফোনে। কিন্তু টিকিট হল না। কি একটা এরর দেখিয়ে ভ্যানিশ হয়ে গেল। এত দ্রুত হল যে স্ক্রিনশটও নেবার সময় পেলাম না।

    তা আমি তখনও নিশ্চিন্ত যে ঠিকাছে এদের মেল আইডিতে মেল করলেই হবে, যেমন বরাবর করি। এর মধ্যে আবার ফোনে বার্তা এলো যে হ্যাপীইজিগো থেকে আমার ওমুক অর্ডার আইডির রিফান্ড মঞ্জুর হয়েছে। তাতে আরোই নিশ্চিন্ত হয়ে ওদের সাইটে দেওয়া সাপোর্ট আইডিতে মেল করলাম। ব্যাস্স সেই শুরু। তারপর মেল করি উত্তর আসে না। ফোন করি, প্রথম দিকে দুই একবার ধরেছে কিন্তু ঘটনার বর্ণনায় রিফান্ড অবধি পৌঁছতেই কটাশ। তারপরে আর ফোন ধরে না। ১৮ই নভেম্বর থেকে দেখি ফোন নাম্বার নট রিচেবল। এবারে আমাকে ব্লক করেছে না ফোন নাম্বারই ছেড়ে দিয়েছে জানিনা। এদিকে টিকিট কাটার ছিল ১০ই ডিসেম্বরের জন্য, ২০ নভেম্বর নাগাদ দেখি দাম বাড়ছে। বাধ্য হয়ে মেকমাইট্রিপ থেকে কেটে নিলাম।
     
    এরপরে শুরু হল শুন্যে মাথা ঠোকা, ট্যুইটারে হ্যাপীইজিগোকে ট্যাগ করে পোস্ট, মেল করে এফ আই আর করার ভয় দেখানো কিছুতেই কিছু কাজ হয় না। অ্যাপ থেকে হেল্প সাপোর্টেও যায় না। ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহও পেরিয়ে যাবার পরে ট্যুইটারে খুব দুঃখ করে লিখেছিলাম যে এরকমভাবে ঠাকিয়ে এতগুলো টাকা মেরে দিচ্ছে কেউ কি কোনও উপায় বলতে পারে? পুণেরই আরেক ভদ্রমহিলা এসে GetMyRefund এর কথা জানালেন। বললেন তাঁরও এরকম টাকা আটকে রেখেছিল গেটমাইরিফান্ডের সাহায্যে ফেরত পেয়েছেন। তাড়াতাড়ি ওদের সাইটে গিয়ে নিজের কেস নথিবদ্ধ করলাম। এঁদের নিয়োগ করার সময় কোনও টাকাকড়ি দিতে হয় না। টাকা ফেরত পেলে ফেরত পাওয়া অঙ্কের ১০% দিতে হয়।
     
    এঁদের তরফ থেকে আমোল পাটিল যোগাযোগ করে পুরো ডিটেলস চাইলেন। সমস্ত মেল এসেমেসের ছবি ইত্যাদি। সে হল ডিসেম্বরের ১৫-১৬ নাগাদ। এরপরে ওঁরা ওঁদের প্রসেস ফলো করলেন, প্রথমে চিঠি দেওয়া, ১৫ দিন অপেক্ষা করা ইত্যাদি। তারপরে লিগ্যাল নোটিস পাঠানো। কিসের কি কোনও উত্তরই নেই। এরপরে আমাকে একটা চিঠি ড্রাফট করে দিয়ে মেল করতে বললেন। সে চিঠি লেখা হয়েছে পীযুষ গোয়াল, জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া, গুরগাঁওয়ের পুলিশ কমিশনার ইত্যাদিকে। এর সাথে আবার একটা চাইনিজ অক্ষরে লেখা ইমেলও ছিল, বোধয় HEG হেডকোয়ার্টারের আইডি হবে। তো এইবারে হেগ নড়েচড়ে বসল, বলল আমাকে নাকি টিকিট দেওয়া হয়েছে।
     
    আমি টিকিটের ছবি দেখতে চাইলাম, সৌরভ নামে হেগের প্রতিনিধি একটা পিডিএফ পাঠালো। আমি রেগেমেগে গুরগাঁও পুলিশ কমিশনারকে অ্যাড্রেস করে এটা সাইবার ফ্রড আমায় সাহায্য করুন বলে মেল করলাম। কি আশ্চর্য্য ৩ দিনের মাথায় গুরগাঁও সাইবার সেল থেকে সত্যিই কেউ একজন ফোন করে পুরো কেস শুনলেন। আমায় বললেন গুরগাঁওতে গিয়ে এফ আই আর করতে। অপারগতা জানালাম, আমি পুণে থাকি। বললেন ঠিকাছে দেখছি কী করা যায়। আমোলকে বলতে বলল না এখন যাবার দরকার নেই। (দরকার থাকলেও যেতে পারতাম না অবশ্য) । গেল আরো দিন পনেরো কুড়ি।
    আমোল আবার আরেকটা মেল করতে বলল, এবারে পিএমও ইন্ডিয়ার ইমেল আইডি যোগ হল ডিস্ট্রো লিস্টে। করলাম, তবে ওদের বয়ান না লিখে নিজের মত করে মডিফাই করে সাইবার ফ্রডের উপরে জোর দিলাম, পুণে সাইবার ক্রাইম বিভাগের আইডিও জুড়ে দিলাম। আর বললাম এই সাইট আর অ্যাপ অবিলম্বে ডাউন করা উচিৎ। আবার ৩-৪ দিনের মধ্যেই মেল এলো এক শনিবার রাত্রে, সোমবার সকাল ১০টায় গুরগাঁওয়ের কমিশনারের দপ্তরে কত নম্বর ঘরে যেন উপস্থিত হতে বলেছে। আবার মেলব্যাক করলাম পুণে থাকি যাওয়া সম্ভব নয়। পুণে সাইবার ক্রাইমও মেল করল নিকটস্থ থানায় উপস্থিত হয়ে এফ আই আর লজ করতে, তারপর ওরা দেখে নেবে। মোটামুটি ভাবছি গেটমাইরিফান্ড পারবে না, এইবারে থানায়ই যাই।
     
    কনজ্যুমার ফোরামেও কেস করব ঠিক করলাম। তা গত পরশু ভর দুপুরে অফিসে কন্ফারেন্স কল চলছে এমত সময় গুরগাঁও সাইবার ক্রাইম বিভাগ থেকে জনৈক নবীন কুমার ফোন করলেন। তারপর দীর্ঘ জেরা। আবার জিগ্যেস করেন এই গুরগাঁওয়ের উকিলকে পেলাম কোত্থেকে যিনি নোটিশ দিয়েছেন? বারেবারেই জিগ্যেস করেন উকীলকে কত ফী দিয়েছি? বললাম আমি জানি না, গেটমাইরিফান্ড করেছে। টাকা পেলে ১০% নেবে। উনি কেমন রেগে গেলেন, ওহ উকীলকে ১০% দেবে? পুলিশ এদিকে কাজ করছে! বললাম তা পুলিশকেও পয়সা দিতে হবে নাকি? (ফোনে রেকর্ডার অন ছিল)। উনি আরো রেগে গেলেন 'পুলিশ ফ্রী তে কাজ করে, ফ্রীতেই তোমার টাকা ফেরত পাবে যদি সত্যি খোয়া গিয়ে থাকে। '
     
    তারপর ঐ হেগের একজনকে কনফারেন্স কলে নিলেন। রাজেশ নাম। সে ব্যটা বলে অর্ডার আইডি দাও টাকা রিফান্ডের জেনুয়িন কেস হলে এক্ষুণি করে দিচ্ছি। নবীন বললেন হ্যাঁ এক্ষুণি দিচ্ছি। যাই হোক সেসব কল টল ছেড়ে উনি হোয়াটস্যাপে একটু পরে পাঠালেন দুটো স্ক্রিনশট, ঐ রাজেশ হতচ্ছাড়া শেয়ার করেছে একটায় টাকা যায় নি (ঐ ব্যর্থ অ্যাটেম্প্ট এর একটা ) আরেকটায় বলছে টিকিট জেনারেট হচ্ছে আর সাথে সেইই পিডিএফ যেটা ওদের সৌরভ দিয়েছিল। আমি রেগেমেগে আবার ব্যাঙ্কের কনফার্মেশান, রিফান্ডের জালি এসেমেসের স্ক্রিনশট, আমার লাগাতার মেল করে যাওয়া সব পাঠালাম সাইবার পুলিশকে।
     
    সে আবার আমাকে ফোন করে বলে তোমায় রাজেশের নাম্বার দিচ্ছি ওকে বল সব ফাইল ওকে পাঠাও, আর না হলে পুণে পুলিশের কাছে যাও। আমি আর কিছু না বলে ঐ রাজেশের হোয়াটস্যাপে সব পাহিয়ে দিলাম। মনে মনে ভাবলাম শুক্রবার যাব হিঞ্জেওয়াড়ি থানায় আর সোম মঙ্গলবারে কনজ্যুমার কোর্টে। তা সেসব তো পরশুর কথা। কাল হঠাৎ মেসেজ এলো হ্যাপীইজিগো তোমার ৮৩৬৪/- টাকা রিফান্ড মঞ্জুর করেছে এবং ব্যাঙ্কে পাঠিয়েছে। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিকাও। ক্লিকিয়ে দেখি লিখেছে ৪০০-টাকা ক্যাশ রিফান্ড আর বাকী ৮৩৬৪/-টাকা ব্যাঙ্কে যাবে। আমরা এয়ারলাইন্সের কাজে চেয়েছি।
    আবার লেখা এয়ারলাইন্স থেকে আসতে ৪৫-৯০ দিনের মত লাগতে পারে। আমি প্রায় নিশ্চিত হয়ে গেলাম যে এটা ওদের নতুন ফ্রড। আবার দেড় থেকে তিনমাস। একবার ভাবলাম সেই মেলে সবাইকে লিখি আবার ভাবলাম দুত্তোর। কিন্তু নাহ আজ দুপুরে অবশেষে সত্যিই দেখি অ্যাকাউন্টে ৮৩৬৪/- টাকা ফেরত চলে এসেছে। নিজের চোখকেই বিশ্বাস করতে পারছিলাম না দেখে। যাক সাড়ে তিনমাস লড়ে শেষ পর্যন্ত উদ্ধার করতে পেরেছি। শুধু ৪০০/- টাকার ক্যাশ রিফান্ডটা একটু শিশি বোতল হয়ে রইল (যাদিও আন্দাজ করছি কেসটা কী হয়েছে wink)।
    Getmyrefund yesyes

    পুনঃপ্রকাশ সম্পর্কিত নীতিঃ এই লেখাটি ছাপা, ডিজিটাল, দৃশ্য, শ্রাব্য, বা অন্য যেকোনো মাধ্যমে আংশিক বা সম্পূর্ণ ভাবে প্রতিলিপিকরণ বা অন্যত্র প্রকাশের জন্য গুরুচণ্ডা৯র অনুমতি বাধ্যতামূলক। লেখক চাইলে অন্যত্র প্রকাশ করতে পারেন, সেক্ষেত্রে গুরুচণ্ডা৯র উল্লেখ প্রত্যাশিত।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • | ০৩ মার্চ ২০২৩ ১০:১০516927
  • এখানেও তুলে রাখলাম, যদি কারোর কোনও কাজে লাগে পর পর ধাপগুলো এবং  তথ্যগুলো। 
  • dc | 2401:4900:1cd0:d170:c98d:7ab5:be22:e2f1 | ০৩ মার্চ ২০২৩ ১১:০৯516928
  • এটা খুব গুরুত্ত্বপূর্ণ লেখা। গেটমাইরিফান্ড এর কথা জানতাম না, পরে কখনো দরকার হলে যোগাযোগ করবো। 
     
    একটা ব্যাপার খেয়াল করেছি - মোটামুটি ২০১৮ বা ১৯ সাল অবধি বেশীরভাগ ট্রাভেল সাইট, যেমন ইজিগো বা মেকমাইট্রিপ ইত্যাদি, এদের কাস্টোমার কেয়ার নম্বর থাকতো। আগে এইসব নম্বরে যোগাযোগ করে কথাও বলেছি, এবং নানান ইস্যুতে যথেষ্ট ভালো ব্যবহারও পেয়েছি। কিন্তু তারপর দেখলাম বেশীরভাগ ট্রাভেল বা হোটেল বুকিং সাইটে আস্তে আস্তে কাস্টোমার কেয়ার নম্বর সরিয়ে দেওয়া হলো, আর নেটে খুঁজে যদিও বা সেই নম্বর পাওয়া যেতো, বেশীরভাগ সময়ে সেগুলোয় অটোমেটেড রেসপন্স আসে, কাস্টোমার রিপ্রেসেন্টেটিভ নয়। এসব নাকি তথাকথিত "এআই" চালিত রেসপন্স, বিশেষ করে আজকাল তো প্রেশার কুকার থেকে চ্যাট জিপিটি, সবই "এআই" নামের ঢপ দিয়ে চালানোর চেষ্টা চলছে। তো যেসব সাইটের কোন কাস্টোমার কেয়ার রিপ্রেজেনটেটিভ থাকে না, সেগুলো আমি এড়ানোর চেষ্টা করি। তার চেয়ে ডাইরেক্ট এয়ারলাইন বা হোটেলে ফোন করে, তাদের সাথে কথা বলে বুক করার চেষ্টা করি। তবে এও ঠিক যে সবসময়ে ওরকম সম্ভব না, সেজন্যই দ দির লেখাটা জরুরি।  
  • | ০৩ মার্চ ২০২৩ ১১:৫৬516929
  • না হ্যাপীইজিগো'র সাইটে আর অ্যাপে ফোন নাম্বার ছিল। অক্টোবরেও ফোন করে রাত দুটোর টিকিট বদলে বিকেল পাঁচটা করে নিয়েছি। ইন ফ্যাক্ট এই কেসেরও শুরুর দিকে ফোন ধরেছে কয়েকবার। কিন্তু যেই বলেছি টাকা কেটে গেছে কিন্তু টিকিট পাই নি, হয় টিকিট পাঠাও পিএনআর শেয়ার করো নয়ত রিফান্ড করো অমনি কটাশ করে কেটে দিত।  কদিন পরে থেকে তো আর ফোন লাগছিলই না, নট রিচেবল। হয় আমার নাম্বার ব্লক করেছে নয় ফোন নাম্বারই বদলেছে কিন্তু সাইটে আপডেট করে নি। 
     
    এগুলো সব আমি ঐ নবীন কুমারকে বলেছি। ইমেলেও লিখেছিলাম যে সাইবার ক্রাইম ফোনের সার্ভিস প্রোভাইডারের ডেটা চেক করলেই দেখতে পাবে ৩৭টা কল করেছি। ইমেল করেছি রেসপন্স আসে নি তাও দেখতে পাবে। 
     
    মজা হল যেই সাইবার ক্রাওম বিভাগ যুক্ত হল সঙ্গে সঙ্গে হতচ্ছাড়া ফ্রডগুলো কোত্থেকে একটা পিএনার / টিকিট পিডিএফ বানিয়ে পাঠালো। এটাও সেদিনের জেরায় জিগ্যেস করছিল যে ওরা তো টিকিট দেখাচ্ছে। আমি বললাম থার্ড পার্টি দিয়ে বুক করলেও এয়ারলাইন্স থেকেও পিএনার আসে এসেমেস আসে। যাত্রার দিনের আগে ওয়েব চেক ইন করার মেসেজ আসে। তোমরা সার্ভিস প্রোভাইডারের থেকে ডেটা চেক করলেই দেখবে এসব কিছুই আসে নি।  
  • বাপরে | 2405:8100:8000:5ca1::f4:f0e1 | ০৩ মার্চ ২০২৩ ২১:২৩516953
  • আপনার ধৈর্য আছে বটে।  এই চাইনিজ অ্যাপগুলো সবকটা চোরচোট্টা। লোকে কত ঘুরবে এদের পেছনে? যাক গেটমাইরিফান্ডের কথা জানা রইল। 
  • Kuntala | ০৪ মার্চ ২০২৩ ১৬:২৭516976
  • ইস , আপনি  কি  সুন্দর  করে  গুছিয়ে  কাজটা  সারতে  পেরেছেন.  বেশির  ভাগ  লোকে  পেরে  উঠবে না .
    বেশ  শিক্ষা  মূলক  রচনা 
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। দ্বিধা না করে প্রতিক্রিয়া দিন