এই সাইটটি বার পঠিত
ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • খেরোর খাতা

  • কলতান আর চিউয়িং গাম - ৮ 

    Anjan Banerjee লেখকের গ্রাহক হোন
    ২২ জুলাই ২০২৩ | ২৮৬ বার পঠিত | রেটিং ৫ (২ জন)
  • টেবিলের ওদিকে সুগত সেন আর প্রিয়নাথ রায় ছাড়া টেকনিক্যাল এক্জিকিউটিভ অদ্রিজা বাসুও বসেছেন।
    সি ভি-র ফাইল উল্টে পাল্টে দেখে সুগত সেন বললেন, ' হুমম্ ... ভেরি গুড। ইংলিশে মাস্টার্স করেছেন ... ', তিনি ফাইলটা পি এন আর -এর দিকে এগিয়ে দিলেন। তিনি একটু দেখে নিয়ে কোন কথা না বলে ফাইলটা অদ্রিজা বাসুর হাতে দিলেন।
    সুগতবাবু বললেন, ' আপনার পক্ষে তো টিচিং প্রফেশান মোস্ট সুটেবল ছিল। আপনি ওটা ছেড়ে আমাদের লাইনে আসতে চাইছেন কেন? জানেন তো ... অ্যাড রিলেটেড জব খুব কমপ্লিকেটেড এবং হাইলি ডিমানডিং। তাছাড়া বায়োডাটায় যা দেখছি অ্যাড জবে আপনার কোন পাস্ট এক্সপিরিয়েন্সও নেই .... স্টিল .... '
    ------ ' স্যার, কমার্শিয়াল ক্রিয়েটিভ জব-এ আমার খুব আগ্রহ আছে। আপনারা যদি আমাকে যোগ্য বিবেচনা করে সুযোগ দেন তা হলে আমার দিক থেকে চেষ্টার কোন ত্রুটি হবে না এটুকু কথা দিতে পারি ... '
    ------ ' হুমম্... কাজ কেউ শিখে কর্মস্থলে আসে না। কর্মস্থলে ঢুকেই লোকে কাজ শেখে। বাট অ্যাপটিচিউড ইজ দা কি ফ্যাক্টর  ... ইফ ইউ হ্যাভ জেনুইন অ্যাপটিচিউড, দেন দেয়ার ইজ নো স্টপিং।  '
    ------ ' অ্যাবসোলিউটলি ট্রু স্যার ... ', যতটা বিনম্র হয়ে বলা সম্ভব, তিতির বলল। বলে চুপ করে রইল। সে ঠিক বুঝতে পারছে না, এরপর কি বাঁশ আসতে চলেছে।
    মিস্টার সেন পিএন আর -এর দিকে তাকিয়ে বললেন, ' মিস্টার রায় ... আপনি যদি কিছু বলতে চান ... '
    পিএনআর স্যার কোন ভূমিকা না করে তিতিরকে বললেন,  ' একটা সাইকেলের বিজ্ঞাপনের ওয়ান লাইন ক্যাপশান কি হতে পারে? ইংরিজী  এবং বাংলায়। এই নিন কাগজ। তিন মিনিটের বেশি সময় নেবেন না। টেক্সট লিখতে হবে না, শুধু ক্যাপশান লিখলে চলবে। '
    তিতির চিরশ্রীর কাছে শুনে এ ধরণের ব্যাপারে একটা মানসিক প্রস্তুতি নিয়ে এসেছিল ।
    বলল, ' চেষ্টা করছি স্যার ... '
    সে কাগজ কলম নিয়ে মাথা নীচু করে কাগজের দিকে তাকিয়ে মনসংযোগ করল ।
    দেড় মিনিটের মধ্যে একটা বাংলা ক্যাপশান তৈরি করল ---- 'বন্য হাওয়ায় সওয়ার '
    আর ইংরেজীতে ----- Riding the wild air
    নীচে একটা চলন্ত সাইকেলের ছবিও স্কেচ করে দিল। সাইকেলটা প্রায় উড়ন্ত। তীব্র হাওয়ার টানে চালকের জামা এবং মাথার চুল উড়ছে। তিন মিনিটের মধ্যেই শেষ করল তিতির। প্রথমে প্রিয়নাথ রায় দেখলেন। মন দিয়ে দেখলেন তিনি। তারপর বললেন , ' হুমম্ ,  ঠিক আছে ... তবে  আর একটু ক্রিসপ করতে হবে .... অ্যাড এক্সপ্রেশনে একটা ওয়ার্ডও অতিরিক্ত হলে চলে না। এভররি ওয়ার্ড শুড বি পিন পয়েন্টেড ।
    ------ ' বুঝতে পেরেছি স্যার  ... ', তিতির শিক্ষার্থীর ভঙ্গীতে বলল ।
    অদ্রিজা ম্যাডাম কাগজটা নিলেন
    ------ ' আপনার স্কেচিং এবিলিটি আছে ? '
    ----- ' না ম্যাডাম তেমন এবিলিটি কিছু নেই। কিছুটা ঝোঁক আছে বলতে পারেন। চেষ্টা করি। '
    ------ ' আচ্ছা আচ্ছা ... '
    আঁকাটা ভাল হয়েছে কি খারাপ হয়েছে সেসব কিছু বললেন না । কপাল দু আঙুল দিয়ে টিপে  একটুখানি ভেবে নিয়ে বললেন , ' আচ্ছা আর একটা ফ্রেম করবেন ? '
    ----- ' হ্যাঁ বলুন ম্যাডাম । '
    ----- ' একটা কনডোম-এর  অ্যাড কম্পোজ করুন ।
    একটু অফ বিট নেচারের ফ্রেমিং চাইছি ।  যদি পারেন .... একটা ভিসুয়াল হিন্ট দেবেন। '
    তিতির বেশ চাপ অনুভব করতে লাগল । বুঝতে
    দিল না অবশ্য । সে বলল , ' চেষ্টা করছি ম্যাডাম .... '
    মাথা নীচু করে কাগজে চোখ রেখে চিন্তায় ডুব দিল ।
    মিনিট আড়াই সময় নিল তিতির ।
    বাংলায় লিখল ' বসন্ত উচ্ছ্বাস মানে না মানা '
    ইংরেজীতে করল ----- '  Exuberance of spring unbound ' 
    পেন্সিল স্কেচে একটা ইলাস্ট্রেশান আউটলাইন দিল ---- অনাবৃত উর্দ্ধাঙ্গের মুখোমুখি দুটি নারী পুরুষের মুখ । দুজনেরই চোখ বোঝা গভীর আবেশে ।
    অদ্রিজা বাসু কাগজটা নিয়ে বেশ খানিকক্ষণ ধরে
    দেখে নিয়ে পি এন আর -এর হাতে দিলেন ।
    পিএন আর একবার চোখ বুলিয়ে ওটা সুগত সেনের হাতে দিলেন । তিনি কাগজটা সামনে রেখে প্যান্টের পকেট থেকে একটা প্লাস্টিকের পাউচ বার করে , সেটা ছিঁড়ে একটা কমলা রঙের চিউয়িং গাম বার করে মুখে দিলেন । তার চোখমুখ তৃপ্তিতে ভরে উঠল । সুগতবাবু চোখে চশমাটা লাগিয়ে  তিতিরের কম্পোজিশনটা চোখের সামনে ধরে বললেন , ' আই সি ... ' , বলে আর কিছু বললেন না ।
    পিএনআর বললেন , ' আচ্ছা ... আর একটা করুন তো ... খুব কমন একটা আইটেম ... বডি সোপ । গায়ে মাথার সাবান । ইউনিক কিছু ট্রাই করুন । '

    তিতিরের জড়তা এতক্ষণে অনেকটা কেটে গেছে ।
    সে আবার মনোনিবেশ করল ।
    লিখল  ----- ' মদীর সুখের মনোরম আলিঙ্গন ' আর ' ইনটক্সিকেশান অফ প্লেজ্যান্ট হাগ '
    নীচে ঝর্ণার জলে এক মদীর লাস্যময়ীর স্নান করার ছবি । চটজলদি স্কেচটা করার পর ভাবল, এটা খানিকটা লিরিল -এর অনুকরণ হয়ে গেল । কিন্তু কি আর করা যাবে । এত কম সময়ে আর কিছু চট করে মাথায় এল না ।
    সুগত সেন চিউয়িং গাম চিবোতে চিবোতে দেখতে লাগলেন । একটু পরে বললেন , ' একটু ক্লিশে টাইপ হয়ে গেছে .... ইলাসট্রেশানটাও ফ্যামিলিয়ার।  অ্যাকচুয়ালি উই প্রেফার টিন্ট  অফ ইনোভেশান অ্যান্ড নভেলটি ইন আওয়ার প্রেজেন্টেশন । '
    তিতির মনে মনে ভাবল,  তুমি ভালই জান দু আড়াই মিনিটের মধ্যে ইনোভেশান হয় না।  আসলে আমায় ছেঁটে ফেলার কৌশল করছ । কপাল আমার  ....
    মুখে বলল, ' আই আন্ডারস্ট্যান্ড স্যার ... '
    তারপর আরও অনেক কথাবার্তা হল। যেমন, তিতির কোথায় থাকে , সে বিবাহিত কিনা,  আউটডোরে কখনও কাজ করেছে কিনা , বিজ্ঞাপনী সংস্থায় দায়িত্ব সামলানোর ধকল সে নিতে দৈহিক এবং মানসিকভাবে নিতে প্রস্তুত কিনা ইত্যাদি । এ প্রশ্নবাণগুলো তিতির দক্ষতার সঙ্গে সামলালো । তার অনেক জায়গায় ইন্টারভিউ দেবার অভিজ্ঞতা  আছে স্কুলে চাকরি পাবার আগে ।
    সবশেষে,  যথারীতি ফর্মূলা বাঁধা প্রশ্ন এল ----   'আপনি কত রেমুনারেশান আশা করেন যদি  আপনি সিলেক্টেড হন ? '
    তিতিরও নিজস্ব ছকে উত্তর দিল , ' আপনারা আমাকে যে পারিশ্রমিকের যোগ্য বিবেচনা করবেন স্যার । আপনাদের বিবেচনার ওপর আমার সম্পূর্ণ আস্থা আছে । '
    সুগত সেন বললেন , ' ওকে ... থ্যাঙ্ক ইউ ভেরি মাচ... আপনি বাইরে বসুন । আমরা আমাদের সিদ্ধান্ত কিছুক্ষণের মধ্যে আপনাকে জানিয়ে দেব। ভাল থাকবেন । '
    তিতির আশ্চর্যজনকভাবে লক্ষ করল তার স্কুলের টি সি সংক্রান্ত ব্যাপারে কেউ একটি প্রশ্নও করল না। চিরু কি পিএনআর -এর মাধ্যমে কোন মলম মাখিয়ে রেখেছে ! কি জানি .... 

    প্রায় আধঘন্টার ইন্টারভিউয়ের শেষে বাইরে বেরিয়ে তিতির দেখল চিরশ্রী বাইরে ঘোরাঘুরি করছে।
    তিতিরকে দেখে প্রায় ছুটে এল ।
    ------ ' কি রে ... হল ? '
    ----- ' হ্যাঁ ... ওই হল আর কি ... '
    ------ ' চল চল ... ওদিকে ... আরও চারজনকে ইন্টারভিউয়ে ডেকেছে। ভেকেন্ট পোস্ট অবশ্য একটাই। একজন অবশ্য আসেনি। রেজাল্ট আউট হতে টাইম লাগবে। ওদিকে চল। আমি বাড়ি থেকে লুচি বানিয়ে এনেছি। চল চল ... শ্রীতমাও আছে। চিরশ্রীর মনের চাপটা মনে হচ্ছে চাপা পড়ে আছে এই মুহুর্তে। নইলে লুচি বানালো কি করে .....

    শ্রীতমা তিতিরকে দেখে বলে উঠল , ' আ..রে তিতির .... তুই ! কতদিন পরে .... কি ব্যাপার ? বল ...বল ... '
    চিরশ্রী গম্ভীর মুখে বলল, ' ধীরে বৎস ধীরে ... ক্রমশ .... থুড়ি কিছুক্ষনের মধ্যে প্রকাশ্য  । '

    ********* ***** ************  ***********   ***

    সকলের ইন্টারভিউ মিটতে মিটতে বিকেল সাড়ে চারটে বাজল । মাঝে অবশ্য আধঘন্টার লাঞ্চ ব্রেক ছিল । সুগতবাবু যখন লাঞ্চ করছেন সেই সময়ে তার মোবাইলে একটা ফোন এল ।
    ----- ' হ্যালো ... সুগত সেন বলছি '
    ----- ' গুড আফটারনুন স্যার । আমি আপনার একটা অ্যাপয়েন্টমেন্ট চাইছি । কিছু কথা ডিসকাশান করার ছিল । '
    ----- ' কি ব্যাপারে বলুন।  কোন কোম্পানি থেকে বলছেন ? '
    ------ ' এই একটা সেল্ফ ওরিয়েন্টেড কোম্পানি মিস্টার সেন। আমি একাই তার সবকিছু। ইনফ্যাক্ট, ইনওয়ার্ড আউটওয়ার্ড সবকিছু। হিউজ রেসপনসিবিলিটি স্যার... কি আর বলব ... '
    ----- ' মানে ? সি এ বা কোন কলসালটেন্সি ফার্ম ধরণের কিছু ? '
    ----- ' কলসালটেন্সি ফার্ম ? হ্যাঁ তা বলতে পারেন। কলসালটেন্সি তো বটেই। '
    ------ ' এনিওয়ে, আমার সঙ্গে কি দরকার একটু বলবেন? ইনডিভিজুয়াল ফার্মের তো অ্যাড ক্যাম্পেইনিং হয় না । '
    ----- ' না না ... ঠিক অ্যাড ক্যাম্পেইনিং-এর ব্যাপার না । মানে, আমার নিজের ব্যাপারই না । আমার চেনা জানা একটা ক্লায়েন্টের  ব্যাপার আর কি ....খুব মালদার পার্টি ... '
    ------ ' সে না হয় বুঝলাম । কিন্তু ঠিক কি জন্য আমার সঙ্গে দেখা করতে চাইছেন সেটাই তো জানতে পারলাম না এখনও .... '
    ----- ' সে সব কিছু সাক্ষাতেই বলতে চাই স্যার ... '
    ------ ' না না .... এভাবে অ্যাপয়েন্টমেন্ট দেওয়া যায় না ...সরি , আপনি মিছিমিছি আমার সময় নষ্ট করছেন । আমি খুব টাইট শিডিউলের মধ্যে আছি এখন .... সরি ... '
    ------ ' ছাড়বেন না স্যার .... ছাড়বেন না ... জানি স্যার , আপনি হাইলি প্রিঅকুপায়েড .... আমার কথাটা এক মিনিট শুনুন ... পার্টি মালদার ছিল ...ঠিকমতো কনভিন্স করতে পারলে ফায়দা ছিল ।'
    ------ ' আপনি কি বলছেন কিছুই বুঝতে পারছি না .... ফালতু কথা বলে কেন সময় নষ্ট করছেন বলুন তো? আপনি জানেন কি আগাগোড়া কল রেকর্ড করা হচ্ছে ? '
    ------ ' কেন স্যার.... আমি কি খারাপ কথা কিছু বললাম? ওই জীবনবাবু, মানে জীবনকৃষ্ণ সরকারই তো আমাকে আপনার সঙ্গে যোগাযোগ করতে বলল ... '
    -----' হোয়াট রাবিশ ..... স্টপ টকিং ননসেন্স! !'
    কোঁয়াক করে ফোন কেটে গেল ।
    ওদিকের লোকটি সাগ্রহে অপেক্ষা করতে লাগল , কখন মিস্টার সেনের রাগ পড়বে এবং তিনি তাকে কল ব্যাক করবেন ।
    সুগত সেন মশায় তাকে ফিরে ডাক দেন কিনা তার ওপর নির্ভর করছে লোকটার পরবর্তী পদক্ষেপ ।

    বিকেল পাঁচটার সময় তিতির গাঙ্গুলীকে সুগত সেনের চেম্বারে ডেকে নেওয়া হল। শ্রী সেন তাকে বললেন , ' কনগ্রাচুলেশান মিসেস গাঙ্গুলী , ইউ আর গোয়িং টু বি আওয়ার কলিগ ফ্রম মানডে অ্যাজ এ রেজাল্ট অফ ইউন্যানিমাস ডিসিশন অফ আওয়ার ইন্টারভিউয়ারস প্যানেল অন বিহাফ  অফ ডেবোনেয়ার প্রাইভেট লিমিটেড। আপনি পরমব্রত ব্যানার্জীর কাছে রিপোর্ট করবেন সোমবার সকাল দশটায় । এই নিন, আপনার লেটার .... এর মধ্যে সমস্ত ডিটেইলড সার্ভিস কন্ডিশান  অ্যান্ড ইমোলিউমেন্টস ব্রেক আপ দেওয়া আছে।'

    দরজার বাইরে অধীর আগ্রহে কান পেতে দাঁড়িয়ে আছে চিরশ্রী।

       ( চলবে )
    ********************************************
    পুনঃপ্রকাশ সম্পর্কিত নীতিঃ এই লেখাটি ছাপা, ডিজিটাল, দৃশ্য, শ্রাব্য, বা অন্য যেকোনো মাধ্যমে আংশিক বা সম্পূর্ণ ভাবে প্রতিলিপিকরণ বা অন্যত্র প্রকাশের জন্য গুরুচণ্ডা৯র অনুমতি বাধ্যতামূলক। লেখক চাইলে অন্যত্র প্রকাশ করতে পারেন, সেক্ষেত্রে গুরুচণ্ডা৯র উল্লেখ প্রত্যাশিত।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • যোষিতা | ২৩ জুলাই ২০২৩ ০২:০৭521571
  • কলতান এবং চিউয়িং গাম উভয়েই নাট্যমঞ্চে এসে গেছে...
  • Anjan Banerjee | ২৩ জুলাই ২০২৩ ০৭:২৫521574
  • হুঁ ...
  • Mousumi Banerjee | ২৫ জুলাই ২০২৩ ০০:৪১521688
  • ভালো এগোচ্ছে। 
     
    কনসালটেন্সি তে কলসালটেন্সি.... টাইপো নিশ্চয়ই
  • Anjan Banerjee | ২৫ জুলাই ২০২৩ ১৫:২৩521721
  • মৌসুমী ব্যানার্জী ,
        ধন্যবাদ।  হ্যাঁ, টাইপো তো বটেই ...
  • বিপ্লব রহমান | ০৩ আগস্ট ২০২৩ ১৭:৪৪522060
  • বিজ্ঞাপনের আইডিয়াগুলো সেরাম devil
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। ভ্যাবাচ্যাকা না খেয়ে প্রতিক্রিয়া দিন