এই সাইটটি বার পঠিত
ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • খেরোর খাতা

  • কর্মফল

    Swapan Chakraborty লেখকের গ্রাহক হোন
    ২৬ মে ২০২৩ | ২৩৩ বার পঠিত
  • চাকুরীর শেষে ভেবেছিনু হেসে আরামে কাটবে জীবন,
    এদেশ ওদেশ ঘুরবোই বেশ একাকী তীর্থভ্রমণ।
    কিন্তু কি রোষে ভাগ্যের দোষে হল ঠিক বিপরীত !
    কপাল মন্দ নাইকো সন্দ কদলী বাকলে চিৎ।

    দপ্তর হতে বিদায় বেলাতে মন ছিল না ত’ ভাল,
    গোদের উপরে বিষফোঁড়া চড়ে গিন্নীর মুখ কালো।
    হল কি হল কি ওগো প্রাণসখী মুখ কেন তব ভার !
    মোর অবসর তাই বুঝি ডর চলবে না সংসার !

    আরে বোকা মেয়ে এই বোধ নিয়ে নিজেরে বল কি চালাক !
    শোনো আজ আমি তোমার এই স্বামী পেয়েছি পঁচিশ লাখ।
    মোরা দুটি প্রাণী তুমি আমি জানি হবে বা খরচ কত !
    ভাবনাটি কিসে রব মিলে মিশে বাঁচব আগের মত।

    একটিই ছেলে পড়ে নেই জলে শিখেছেও লেখাপড়া,
    চাকুরীটি তার দিয়ে সরকার পরায়েছে ধড়াচূড়া।
    তবে আর কেন চিন্তা এহেন আননে আন গো হাসি,
    ওগো সুবাসিনী মধুরভাষিণী হিয়াতে বাজাও বাঁশি।

    শুনি মোর কথা গিন্নীর মাথা ঠাণ্ডাটি অবশেষে,
    তবে বাধা কিসে চল দূর দেশে সুমুখী বলেন হেসে।
    বলে কি শ্রীমতি বুঝি মতিগতি ভাল ত’ ঠেকে না আজ,
    যেন মোর মাথে পড়ে একসাথে হাজার কয়েক বাজ।

    ভাবি আমি মনে কি কুক্ষণে দিয়েছিনু আশ্বাস !
    অহেতুক ব্যয় শোভা নাহি দেয় এই ছিল বিশ্বাস।
    তীর্থভ্রমণ শুন সাধুজন যেতে পারি একা আমি,
    পতির পুণ্য সতীরও জন্য কথাটি কত না দামী !

    প্রিয়ার কষ্ট তবুও স্পষ্ট কয়ে দিনু সেই কথা,
    হয়ত সুমুখী হয়েছিল দুখী লেগেছিল প্রাণে ব্যাথা।
    মনের কষ্ট মনেই পিষ্ট রা কাড়েনি সে মুখে,
    সুখেদুখে জায়া আমারই সে ছায়া বিদায় সজল চোখে।

    আমার বদলে রাম শ্যাম হলে হত সব থরহরি,
    একা একা যাবে কেমনে সে কবে ভেঙে যেত জারিজুরী।হৃদয়ের কথা ঘাড়ে কটি মাথা বলবে পত্নীসনে !
    অর্থ নষ্ট হিয়ার কষ্ট চাপা থাকতই মনে।

    কিন্তু আমার সাহস দেদার জায়াকে কিসের ভয় !
    আমার প্রতাপে সেই ভয়ে কাঁপে পুরুষকারের জয়।
    হর কি দুয়ার বদরী কেদার লাভ করবোই মোক্ষ,
    দিলেম রওনা রাস্তা অজানা তীর্থভ্রমণ লক্ষ্য।

    ডাকি মনেমনে দেবদেবীগণে থেকো সর্বদা সাথে,
    যাচ্ছি একাকী তবু আমি সুখী ব্যয় সঙ্কোচ পথে।
    ডাকো মন থেকে ভক্তের ডাকে ভগবান দেন সাড়া,
    হাড়েহাড়ে টের পেয়েছি ত’ ঢের অপচয় তোড়াতোড়া।

    ছিল খুবই তাড়া করেছিনু ত্বরা জায়াটির কথা ভুলে,
    হায়রে বরাত হই চিৎপাৎ চরণ কদলী বাকলে।
    মাথা ও কোমর ভেঙে হাড়গোড় সেবাসদনেই শুয়ে,
    কত ছিল আশা দিন যাবে খাসা এখন পড়েছি নুয়ে।

    সেতু বঙ্কিমে যান চলে ঢিমে হয়রান যানজটে,
    নেমে গাড়ী থেকে চলি এঁকেবঁকে মাল হাতে মুটে ছোটে।
    কতশত কথা কালো কালো মাথা কি করে দেখবো ঝুঁকে !
    তারই পরিণাম শুধাচ্ছি দাম কোন মতে আছি টিঁকে॥

    কি যে কুক্ষণে তীর্থের টানে বেরুলেম ঘর হতে !
    হয়ত সময় ছিল শুভ নয় গুপ্ত পাঁজির মতে।
    তাই আজ জেনো বেদনা এহেনো তনুমন দুই ক্লিষ্ট,
    মুখে নেই হাসি আঁখিজলে ভাসি কি ঘোর অদৃষ্ট !

    করেছিনু পাপ তারই অভিশাপ বহন করছি মাথে,
    ঘরণীকে ছাড়া পুরী কি মথুরা ফল তারই হাতেনাতে।
    হলেই সুস্থ হবোই ব্যস্ত দোঁহেই তীর্থভ্রমণ,
    পত্নী বিহনে শয়নে স্বপনে পতির জীবনে শমন।
    =============================

    স্বপন চক্রবর্তী
    পুনঃপ্রকাশ সম্পর্কিত নীতিঃ এই লেখাটি ছাপা, ডিজিটাল, দৃশ্য, শ্রাব্য, বা অন্য যেকোনো মাধ্যমে আংশিক বা সম্পূর্ণ ভাবে প্রতিলিপিকরণ বা অন্যত্র প্রকাশের জন্য গুরুচণ্ডা৯র অনুমতি বাধ্যতামূলক। লেখক চাইলে অন্যত্র প্রকাশ করতে পারেন, সেক্ষেত্রে গুরুচণ্ডা৯র উল্লেখ প্রত্যাশিত।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। আলোচনা করতে প্রতিক্রিয়া দিন