এই সাইটটি বার পঠিত
ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • খেরোর খাতা

  • কালি, কলম, মন...

    Satarupa Mukherjee লেখকের গ্রাহক হোন
    ১৭ এপ্রিল ২০২৩ | ৮৩৪ বার পঠিত | রেটিং ৫ (১ জন)
  • “কালি, কলম, মন / লেখে তিনজন” …….. এই তিনজনের মধ্যে প্রথম দুজনের প্রভাব প্রতিপত্তি ক্রমশঃ পড়তির দিকে। মন এখন অনেকটাই কী বোর্ড নির্ভর, বিশেষ করে লেখালেখির জগতের সাথে যুক্ত মানুষজনদের, যাদের কাছে এখন পেনের থেকে অনেক কাছের মানুষ তাদের ল্যাপটপখানি। আমরা কেউই এর ব্যতিক্রম নই। ছাত্র ছাত্রীদের হাতে হাতে, লেখো এবং ফেলে দাও পেনের ছড়াছড়ি, রিফিল করা বা কালি ভরার ঝামেলা থেকে মুক্ত, বেশিরভাগই প্লাস্টিক বডি। আমরা ওদের নিরুৎসাহ করি না, বরং  আমরাই  নির্দ্বিধায় নিজের হাতের প্লাস্টিকের পেনখানিকেও কালি শেষের পর  ডাস্টবিনে বিসর্জন দিয়ে ওদের নিয়েই শামিল হই প্লাস্টিক হটাও অভিযানে। অথচ, দু খানা ফাউন্টেন পেন আর সুলেখা বা চেলপার্কের একটি কালির দোয়াত দিয়েই কিন্তু আমাদের যাত্রা শুরু হয়েছিল। আমরা প্রযুক্তিমুখী, বলা বাহুল্য, বিজ্ঞান যদি শর্টকাট তৈরি করেই দেয় তাহলে আর লং রুট ধরা কেন? যারা নিয়মিত লেখেন তারা যদি একখানা অপছন্দের লাইনকে কাটাকুটি না করে এক নিমেষে ডিলিট করতে পারেন তাহলে কাজ অনেক তাড়াতাড়ি হয়। সবাই তো আর রবীন্দ্রনাথ নন যে যে সেই বাতিল শব্দমালাকে নান্দনিক রূপে সাজিয়ে তাকেই একটা নতুন আর্ট ফর্মের চেহারা দেবেন? কবিগুরুও কি দিতেন তাঁর সময় ল্যাপটপ আবিষ্কৃত হয়ে গেলে? ভাববার  বিষয়। উপরন্তু লেখা পাঠানোর জায়গাগুলিও এখন ডিজিটাল ফর্মেই লেখা নিতে বেশি স্বচ্ছন্দ্য, তৈরি হয়েছে অসংখ্য ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম, যারা এক লহমায় একটি লেখাকে সারা পৃথিবীর পাঠক জগতে এনে হাজির করছে। অতএব, এতো খুবই স্বাভাবিক যে পেনের বা কালির রমরমা আজকের এই ডিজিটাল বাজারে ক্রমশই কমবে, কমতেই থাকবে। যেভাবে ইমেল বা হোয়াটসঅ্যাপ চিঠির জগৎটিকে সম্পূর্ণ বিলুপ্ত করতে সক্ষম হয়েছে, ধীরে ধীরে মন ও কালি কলমের বিচ্ছেদের এই অধ্যায়টিও এর সঙ্গেই জুড়ে যাবে। কিন্তু তারপরও কোথাও কিন্তু থাকে। কালি ও কলম যাদের ভালোবাসার জায়গা, এখনো যারা চেষ্টা করেন নিজে ও নিজের প্রিয়জনদের হাতে থাকুক ফাউন্টেন পেন তাদের জন্য এ হেন আকালেও একটি ভালো খবর। কিছু মানুষের পরিশ্রম, ভালোবাসা আর অক্লান্ত চেষ্টায় কলকাতায় গতকালই শেষ হলো দ্বিতীয় পেন মহোৎসব। অসংখ্য কলম ও কালিপ্রেমী মানুষেরা ICCR এ জড়ো হয়েছিলেন এই উৎসবে, স্টল দিয়েছিলেন সারা ভারতের অনেক পেন ব্যবসায়ী, দেশ বিদেশের হাজার পেন ও কালির সম্ভার নিয়ে। সত্যিই মন ভরে যাওয়া এক অভিজ্ঞতা। একশ থেকে শুরু করে এক লাখি পেন - Montblanc, Sailor, Pilot, Pelican, Platinum, Kako, Twisbi, Parker, Sheaffer, Cross, Leonardo, Sulekha, Likhit, Lotus, Gama, Diplomat, Arista, Lami … দেশী ও বিদেশী অজস্র পেন, কাকে ছেড়ে কার কথা বলি! সামর্থ্যের মধ্যে হলে সংগ্রহ করুন অথবা শুধুই হাতে নিয়ে, লিখে বা মন ভরে চোখের দেখা দেখে নিন।

    পেনের পরেই আসে কালি। প্রথমেই সুলেখার ফিরিঙ্গি কালির কথা না বললে এ লেখা অসম্পূর্ণ থেকে যাবে। ফিরিঙ্গি কালির বোতলগুলো মা দিদিমার আলতার শিশির কথা মনে করিয়ে দেয়। আর কালিরও যে এমন ভুবনমোহিনী রং হতে পারে তা‌ পেনে না ভরলে বোঝা মুশকিল। ওই কালি একটি পছন্দসই ঝর্না কলমে ভরে সুলেখার যামিনী রায়ের প্রচ্ছদ আঁকা প্যাডটিতে আঁচড় কাটলে অতি বড় বেরসিকের হাতেও ও দু ছত্র কবিতা উঠে আসা অবশ্যম্ভাবী। সুলেখার সুদৃশ্য কাঠের বাকসোটি সহ ফিরিঙ্গি কালির বোতলগুলো যে কোনো পেন প্রেমীর স্বপ্ন হতে পারে।

    পাইলটের iroshizuku কালিগুলো আরওই স্বপ্নালু - kiri same, kosumosu, yama budo - এই নামাঙ্কিত কালিগুলি যেন জাপানের শরৎকালের ঝরা পাতার সমাহারের কথা মনে করিয়ে দেয়। এছাড়াও Lapis Bard, Color verse, Pelican, Sailor কালির বোতলগুলো যেমন মনোরম, তেমনি সুন্দর প্রতিটি কালির শেড।

    আধুনিক জীবনে প্রযুক্তি অনস্বীকার্য। তার সাথে না হয় একটু ঐতিহ্যও রইলো। পকেট বা ব্যাগে মোবাইল ফোনের সাথে ব্যবহারের জন্য রইলো একটি ডিপ্লোম্যাট, ক্রস বা সুলেখার ঝর্না কলমও। পরের প্রজন্মকে আমরা বিভিন্ন উৎসবে, অনুষ্ঠানে উপহার হিসেবে দিতে পারি ফাউন্টেন পেন, এবং সঙ্গে একটি কালির দোয়াত। প্লাস্টিক বডির পেনের ব্যবহার কমিয়ে ওরাও হয়ে উঠুক না পরিবেশ বন্ধু।
    পুনঃপ্রকাশ সম্পর্কিত নীতিঃ এই লেখাটি ছাপা, ডিজিটাল, দৃশ্য, শ্রাব্য, বা অন্য যেকোনো মাধ্যমে আংশিক বা সম্পূর্ণ ভাবে প্রতিলিপিকরণ বা অন্যত্র প্রকাশের জন্য গুরুচণ্ডা৯র অনুমতি বাধ্যতামূলক। লেখক চাইলে অন্যত্র প্রকাশ করতে পারেন, সেক্ষেত্রে গুরুচণ্ডা৯র উল্লেখ প্রত্যাশিত।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • সঞ্জয় ভট্টাচার্য | 2401:4900:1c3e:66b7:d55f:e7c1:c868:3d71 | ১৭ এপ্রিল ২০২৩ ১৭:২২518779
  • বেশ সুন্দর লেখা। ভালো লাগলো পড়ে। 
  • সপ্ না সাহা। | 45.113.88.202 | ১৭ এপ্রিল ২০২৩ ১৭:৩৯518780
  • খুবই ভালো লাগলো লেখাটা---আমিও গিয়েছিলাম এই পেন উৎসবে ---সবচেয়ে আনন্দদায়ক বিষয়টি হল কোন না কোন রকম ভাবে আমরা বারবার অতীতেই ফিরে যাই---আর সেভাবেই ফিরে এলো নিস্তর কালি ও কলম এর সম্ভার। উত্তর প্রজন্মের কাছে কালি কলমের মাহাত্ম্য সুন্দর করে তুলে ধরার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ লেখিকাকে।
  • শ্রুতি চক্রবর্তী | 2401:4900:47f7:bde2:aee7:a3ce:2111:636 | ১৭ এপ্রিল ২০২৩ ১৮:২৭518782
  • নির্মেদ, সুন্দর লেখা। সবথেকে বড় কথা হলো, প্রয়োজনীয় লেখা। সত্যিই তো, আধুনিকতার সাথে কি একটু পরিবেশবান্ধব হওয়া যায় না? একটি ঝর্ণা কলম আর কালির দোয়াত পরবর্তী প্রজন্মের সাথে আমাদের সম্পর্ক আরও নিবিড় করতেই পারে 
  • তন্ময় দাস | 2402:3a80:1cd0:81f:e720:4e56:4724:c4dc | ১৭ এপ্রিল ২০২৩ ১৯:১৩518783
  • দারুণ লেখা...আধুনিকতা আসলে দ্বিত নির্ভর যুক্তিতে চলে...ডিজিটাল মাধ্যম না- ডিজিটাল মাধ্যমের মধ্যে ডিজিটাল মাধ্যমকেই বেছে নিয়েছে...কারণ সেই ফাস্ট একউমুলেশন...তবুও এই ঠাস বুনোটের ছিদ্র খুঁজে চিরায়ত অভ্যাস গুলিকে চৰ্চা করাই যায়...
  • সুতপা দত্ত দাস | 2409:4060:2e03:689:959:3a4:1f9e:833a | ১৭ এপ্রিল ২০২৩ ২০:১৩518788
  • খুব বাস্তবিক লেখা,আমরাই পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলনে নামি,আবার use and thorow pen এ ডাস্টবিন ভরিয়ে দিই।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। পড়তে পড়তে মতামত দিন