এই সাইটটি বার পঠিত
ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • খেরোর খাতা

  • মিলক গ্রহে মানুষ

    Pradhanna Mitra লেখকের গ্রাহক হোন
    ১৭ মার্চ ২০২৩ | ৩৩২ বার পঠিত
  •  


    উপন্যাসটা পড়ার ইচ্ছে জেগেছিল মূলত দুটো কারণে --- এক, এর অদ্ভুত প্রচ্ছদ, এবং দুই, অদ্রীশ বর্ধনের মৌলিক লেখা।

    এরকম একটা প্রচ্ছদের ওপরে আকর্ষণের কারণ আমি প্রথমে বুঝতে পারি নি। অনেকদিন ধরেই বইটা চোখের সামনে ঘোরাফেরা করছিল, এমনিই ফেলে রেখেছিলাম, কিন্তু তবুও, টানছিল আমাকে নিতাই ঘোষের আঁকা ওই অদ্ভুত প্রচ্ছদটা। কিছু একটা চেনা, তবুও যেন চিনতে পারছিলাম না।

    অবশেষে একটানে বইটা শেষ করলাম। কিশোর উপন্যাস। পড়তে পড়তে একটা কনসেপ্টে এসে আসল ব্যাপারটা খোলসা হল। তা হল, মগজ ধোলাই টাইপের মেশিন, যার নাম এখানে ‘মগজ’। ‘হীরক রাজার দেশে’ ১৯৮০ সালে নির্মিত, আর ‘মিলক গ্রহে মানুষ’ লেখা হয়েছে ১৯৮৪ সালে। আমি জোর করে অবশ্যই মিল টানতে চাইছি না। কিন্তু ছবি, সিনেমা আর উপন্যাসটাকে যদি এক সরলারেখায় টানার চেষ্টা করা যায়, তাহলে হয়তো রেখার খুব কাছাকাছিই তিনটে থাকবে।

    দ্বিতীয় কারণ, অদ্রীশ বর্ধন। ওনার অনেক অনুবাদ পড়েছি। জুল ভের্ন থেকে শুরু করে এডগার এলান পো --- আমার একটুকরো ছোটবেলায় কোথাও ওনার মৌলিক লেখা পড়ি নি। বিগত আড়াই মাস ধরে সায়েন্স ফিকশান পড়ে চলেছি, কিন্তু কোথাও বাংলার মাটির গন্ধ নেই। এমতাবস্থায় এমন একটা বই হাতছাড়া করা যায় না কি? ফলে বইটা টেনে নিয়েছিলাম।

    প্রথমেই বলে রাখি কিশোরদের জন্যে লেখা মনে করে যদি পড়া যায়, তাহলে, মূল কনসেপ্টটা কিন্তু বেশ মজার। এখানে ছোটরা রাষ্ট্র চালায়। তারাই পুলিশ, তারাই প্রশাসক, তারাই রাজনীতিবিদ, এক মিনিট, আরেকটা কথা ভেবে দেখার মতো, রাজনীতিবিদেরা মগজ ধোলাই দিচ্ছে এখানে, এখানেও সরলরৈখিক লাইনটাই আবার চলে এলো কিন্তু... যাই হোক, মূল কথায় ফিরে আসি, মোট কথা ছোটরাই এখানকার হর্তা-কর্তা-বিধাতা। বড়রা এখানে শিশু। তারা যত বড়ো হয়, আস্তে আস্তে কর্মে অক্ষম হয়ে পড়ে এবং অবশেষে শিশুদের মতন খেলনা নিয়ে মেতে থাকে এবং মারা যায়। কনসেপ্টটা আমার কিন্তু বেশ ভালো লাগল।

    তো এই মিলক গ্রহে এসে পড়ে তিনজন মানুষ, যাদের একজন রাশিয়ান, একজন আমেরিকান এবং অবশ্যই একজন বাঙালী। তারা জড়িয়ে পড়ে এক ভয়ঙ্কর ষড়যন্ত্রে। এই ষড়যন্ত্র ভেদ করে উপন্যাসটা শেষ হয়। একটানে পড়ে শেষ করার মতো উপন্যাস। গল্পটা বলে রসভঙ্গ করার কোন ইচ্ছাই আমার নেই।

    অদ্রীশ বর্ধনের অনুবাদের একটা নিজস্ব শৈলী আছে। সেই শৈলীতে একটা টানটান ভাব থাকে, সেটা কীভাবে উনি পারতেন আমার কাছে বিস্ময়। তার এই মৌলিক লেখাটিতেও পেলাম। আমার মনে হয় এটাই ওনার ‘সিগনেচার’। আমার খুব ভাল লাগল, কল্পবিশ্ব ওনার লেখা প্রকাশের উদ্যোগ নিয়েছে এবং ইতিমধ্যে অনেকগুলো প্রকাশও করে ফেলেছে। তাদের সাধুবাদ জানাই।

    আমি অদ্রীশ বর্ধনের রাজনৈতিক মনোভাব জানি না। কিন্তু বইটা পড়তে পড়তে মনে হচ্ছিল, শিশুদের গুরুত্ব দেওয়ার সাথে সাথে, তাদের জন্য একটা সাই-ফাই গল্প নির্মাণ, এবং তার পাশাপাশি, ক্ষীণধারাতে সমকালীন সমাজের কিম্বা রাজনৈতিক পটভূমিকার যে ছাপ রেখে গেছেন, সেটা প্রশংসনীয় এবং ভেবে দেখার মতো। বড়রা যখন পড়বেন, নিশ্চই শিশু হয়ে পড়বেন না। যদি পড়েন, তাহলে অদ্রীশ বর্ধনের আরেকটা দিক কিন্তু আড়ালেই থেকে যাবে।

    =============================
    মিলক গ্রহে মানুষ
    অদ্রীশ বর্ধন
    কল্পবিশ্ব পাবলিকেশান
    মুদ্রিত মূল্যঃ ১৬০ টাকা
    ছবি কৃতজ্ঞতাঃ সমর্পিতা

    পুনঃপ্রকাশ সম্পর্কিত নীতিঃ এই লেখাটি ছাপা, ডিজিটাল, দৃশ্য, শ্রাব্য, বা অন্য যেকোনো মাধ্যমে আংশিক বা সম্পূর্ণ ভাবে প্রতিলিপিকরণ বা অন্যত্র প্রকাশের জন্য গুরুচণ্ডা৯র অনুমতি বাধ্যতামূলক। লেখক চাইলে অন্যত্র প্রকাশ করতে পারেন, সেক্ষেত্রে গুরুচণ্ডা৯র উল্লেখ প্রত্যাশিত।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। সুচিন্তিত মতামত দিন