এই সাইটটি বার পঠিত
ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • খেরোর খাতা

  • আয় মন 'বাজারে' যাবি ২

    ঋ ফ ন লেখকের গ্রাহক হোন
    ০৭ মার্চ ২০২৩ | ৫১৭ বার পঠিত
  • রঙ
     

    আমার যে রঙ ভালোলাগে, সেই রঙে কি তোমার খুব মন কেমন হয়? অথবা যে রঙ আমি ফেলে এসছি, সে রঙেই তোমার বিষন্নতা লুকানো আছে? পথ আমার এসব কথাই পথ জানে..

    বালক বয়েসে যে তিন আঙ্গুলের রঙ লাগিয়েছিল বসন্তের, সে এখন যুবা। ফেলে আসা রঙ এখন মুছে গেছে বালিকা যুবতীর গাল থেকে, বসন্ত সমীরণ তাই দৃশ্যমান এখন। লেডি বার্ড সাইকেল কোচিং এর শেষে মিশে যায়, মফস্বলে সন্ধ্যে হয় হয় যেন.. এসবই বয়স বেধে দেয়। নড়া হয়না, মন স্থির হয়ে থাকে কৈশোরে পড়া উপন্যাসে। কি নাম ছিল সেই বইয়ের ? ডিমাই সাইজে রাঙানো প্রচ্ছদ, রঙিন নরনারী মুখ। প্রথম যখন সে সব লেখা পড়ি, তখনই যেন বড়ো হয়েছিলাম। আমার রঙিন জীবনের  শুরু তখন।  তখনই লোক সাইড থেকে প্রচ্ছদ দেখে, তাই তাকে মলাট দাও, বন্ধুরা সে পাতায় চোখ রাখলে চোখ কেতা নিয়ে থেমে যেতে পারে, তাই লুকিয়ে লুকিয়ে পড়ো.. ক্লাসের অন্য প্রান্তে কেউ শিস দিতে পরে এই টিনএজ উপন্যাসের নাম শুনলে, তাই রোক কে পড়ো বাপু.. এসবই তাই ফিরিস্তি আমার, বড়ো হওয়ার। বড়ো হওয়া আর বেড়ে ওঠা এসবেই আমার আটকে, আমি তাই এটাকেই রঙ মনে করি। রাতে যেদিন পড়তে গিয়ে আমার চোখ মুখ লাল হয়ে যায় অথবা হাত থেকে বই পড়ে যায় শিরশিরানিতে সেই দৃশ্যেই তাই আমার রঙ থাকে। নিভৃত বেড়ে ওঠার রঙ আমার..

    আবার রাস্তাই বলে দেয়, এই যে দেখো ঝান্ডা ঝুলছে পর পর.. ফ্লেক্সের রঙ বলে দেয় নেত্রীর রঙ, দেওয়াল লিখনে নেতা বাতলান দিন বদলের রঙ.. সেসবও তো আমারই রঙ, আমার শহরের রঙ। একে বাদ দিই কি করে? আমি জানি, আমি যতটা হাঁটতে থাকবো জীবনে সেখানেই আমার রঙ দাড়িয়ে থাকবে, আমার হরেক রাঙা নিশানের তুবড়ি ছেটানো জীবনে, সেই তুবড়ির ক্লান্তি বেদনায় জীবন উঠবে রাঙা হয়ে, পান্না হবে সবুজ.. 

    টিনএজ বয়সের ক্লান্তি তাই একটা দীর্ঘ রঙ রেখে যাবে। বিষাদ রেখে যাবে.. আমার স্কুল কলেজের পথ জুড়ে, আমি তাই হাঁটতে হাঁটতে একদিন টাইম ট্রাভেলের মতো আমার সমস্ত রঙ কে ছুঁয়ে দেখতে আসব। দেখব তারা কেমন তরতর করে বুড়ো হলো। এইযে সেদিনই স্কুলের বাসস্টপে স্কুলের ছেলেদের জামা দেখে , আরও খুঁটিয়ে দেখছিলাম, আমারই স্কুল কিনা? ওদের জামার রঙ কতটা চকচকে হলো, প্যান্টে লোগোওয়ালা নতুন বেল্ট লাগাতে শিখল কিনা ওরা.. এসব দেখে তাই আমি বয়সের রঙ চিনতে পারছি। কচ্ছপের মতো যেভাবে বেড়ে উঠলাম, সেখানেই আমার সংযোজনের রঙ..

    আর এই সব সব রঙকে ছাপিয়ে যে এক খানা রঙ সর্বেসর্বা হয়ে যায় কখনও, যাকে ছুঁতে গেলে যে আমায় ফ্ল্যাশ ব্যাকের কিস্যা শোনায়, সেই রঙ কে আমি মনি মুক্তের মতো বাঁচিয়ে রাখি, আমার নাম মাত্র বোধ, আমার চেতনা ছুঁয়ে যে রঙ গাছের মতো বড়ো হয় মাঝে মাঝে, আবার যে রঙ বসন্তের কোকিলের মতো জীবন ম্যায়ফিলের কোনায় মিলিয়ে গিয়েও লুকিয়ে থাকে, সে রঙ আমার মন খারাপ, মন খারাপের রঙ.. এই বাতাসে কারণে অকারণেই তাকে ডাক পাঠাই আমি, যেন আমার মর্মে লাগে সেই রঙের আঁচ, আমার বন্ধু হওয়ার দোলাচলে সে যেন আমায় জাগিয়ে দিয়ে যায়..

     

    পুনঃপ্রকাশ সম্পর্কিত নীতিঃ এই লেখাটি ছাপা, ডিজিটাল, দৃশ্য, শ্রাব্য, বা অন্য যেকোনো মাধ্যমে আংশিক বা সম্পূর্ণ ভাবে প্রতিলিপিকরণ বা অন্যত্র প্রকাশের জন্য গুরুচণ্ডা৯র অনুমতি বাধ্যতামূলক। লেখক চাইলে অন্যত্র প্রকাশ করতে পারেন, সেক্ষেত্রে গুরুচণ্ডা৯র উল্লেখ প্রত্যাশিত।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • kk | 2601:14a:500:e780:3879:2c02:5e0f:d8a6 | ০৭ মার্চ ২০২৩ ২১:০৬517096
  • ভালো লাগলো। তবে 'টিনএজ বয়স' কথাটা শুনতে একটু যেন কেমন লাগছে। টিনএজ মানেই তো একটা বিশেষ বয়স, নয় কি?
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। আলোচনা করতে মতামত দিন