এই সাইটটি বার পঠিত
ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • খেরোর খাতা

  • ও শাইলক! মাই শাইলক!

    Diponkar Chanda লেখকের গ্রাহক হোন
    ১৮ এপ্রিল ২০২২ | ৪৯৯ বার পঠিত
  • স্ট্রিটলাইট হয়ে দাঁড়িয়ে থাকতে ইচ্ছে করে ভীষণ!
    ইলেকট্রিকের তার শরীরে জড়িয়ে স্থির হয়ে থাকতে ইচ্ছে করে সারারাত!
    ভাবতে ভালো লাগে দেহের ভেতর দিয়ে বয়ে যাচ্ছে উচ্চশক্তিসম্পন্ন বিদ্যুতের তীব্র স্রোত!
    কেউ জানছে না কেউ বুঝছে না! আপাতশান্ত বহিরঙ্গ! অন্তরে জটিল তরঙ্গের দুর্নিবার আস্ফালন!

    ঘরে ফিরে আসি রাতে!
    অনেক রাত!
    কাগজ কলম নিয়ে বসি!
    লিখি, ‘প্রিয়তমা আমার, তোমার শেষ চিঠিতে তুমি লিখেছো মাথা আমার ব্যথায় টনটন করছে, দিশেহারা আমার হৃদয়। তুমি লিখেছো, যদি ওরা তোমাকে ফাঁসি দেয় তোমাকে যদি হারাই, আমি বাঁচবো না।’...১

    না-না! 
    কথাগুলো নাজিম হিকমতের, আমার নয়!
    আমি জানি, মণিকাঞ্চনে মুুদ্রিত চিঠির প্রহর ফেলে এসেছি আমরা সন্তাপের বালুকাবেলায়!
    এখন মুঠোফোনের সময়!
    প্রত্যেকের পরিচয় এখন বিশেষ সংখ্যায়!
    সামান্য সংখ্যা তবু কী অসামান্য তাদের আচরণ! 
    চিঠির অপূর্ব অক্ষরের মতো ইচ্ছে হলেই ছোঁয়া যায় না সংখ্যাগুলো!
    সংখ্যায় সংখ্যায় সম্পর্ক সৃষ্টি হয় না সহজে!
    এক এক মিলে এক হয় না!
    দুইও হয় না!
    কোনো ফলপ্রসূ সংখ্যার জন্মই হয়তো হয় না আদৌ!
    আমি তাকিয়ে থাকি অবাক যন্ত্রটির দিকে!
    নীলার সংখ্যা নিদ্রামগ্ন যন্ত্রের অভ্যন্তরে!
    নিশ্চয়ই নীলা ঘুমাচ্ছে এখন!
    এই রাতে খুব ইচ্ছে করছে ঘুম ভাঙাই তার!
    যৌক্তিক কোনো কারণের অভাবে কত ইচ্ছের অপমৃত্যু হয়!
    আমরা বসবাস করি ভিন্ন পৃথিবীতে!
    আমাদের ইচ্ছে-অনিচ্ছেগুলো লোকলজ্জা নৈতিকতা বিবেচনাবোধ সুবেশী ভদ্রতার দাসত্বে লিপ্ত!

    নীলার কুহক সময়ের প্রতি কি মুগ্ধতা দিন দিন বাড়ছে আমার? 
    হয়তো! অথবা আদৌ জানি না আমি মুগ্ধতার সংজ্ঞা!
    শুধু এক পরাবাস্তব বেদনা টের পাই মাঝে মাঝে!
    এমন সাধের জনম আর কি হবে? 
    এই জনমে কি মিটবে না খুব করে চাওয়া সাধগুলো? 
    দীর্ঘশ্বাস নামে রাতের বাতাসে একের পর এক!
    এত দীর্ঘশ্বাস কোথায় লুকিয়ে থাকে, জানতে ইচ্ছে করে ভীষণ!
    কোন মানস সরোবরে জন্ম নেয় দীর্ঘশ্বাসের নদী? 
    দীর্ঘশ্বাস ছাড়া আর কী দেবার আছে নীলাকে আমার?
    দেয়া আর নেয়া বিহীন একটা নির্জন পুকুরঘাট যদি থাকত আমাদের অথবা খানিকটা নিশ্চল কাকচক্ষু জলের স্থিরতা, তাহলে আমার চির অবনত চোখ দুটো সেই জলে খুঁজত আকাশের নীল ছায়া!

    নীলা গতকাল জানতে চাইছিল, আপনার প্রিয় কবি কে?
    আমি বলেছিলাম জীবনানন্দ দাশ! 
    মনের ভেতর একটা গোপন ইচ্ছের বীজ রোপিত হয়েছিল উত্তর দেবার পূর্বক্ষণে!
    আহ! যদি আমার এই অসম্ভব প্রিয় মেয়েটির সাথে প্রিয় কবির নাম মিলে যায়!
    এতটুকু মিলে যাওয়াও কি কম বড় পাওয়া!
    নীলা হাসতে হাসতে বলেছিল, জীবনানন্দ দাশের চোখগুলো দেখেছেন? কেমন বোকা বোকা! অনেকটা আপনার মতো! আচ্ছা আপনি এত বোকা কেন?

    আমার ভীষণ খারাপ হয়েছিল মন!
    বিষণ্ন কিছু মেঘ জড়ো হয়েছিল বুকের ভেতরের আকাশে!
    আমি অতি কষ্টে সেই মেঘ সরিয়ে জানতে চেয়েছিলাম নীলার প্রিয় কবির নাম।
    অন্যদিন বলব, একথা বলেই অন্য প্রসঙ্গের ভেতর প্রবেশ করেছিল মেয়েটি!
    প্রিয় কবির নাম অমীমাংসিত রেখে নীলা বলেছিল, মার্চেন্ট অব ভেনিস আপনার কেমন লাগে?
    অসাধারণ! আমি আমার ক্ষুদ্র জ্ঞান নীলার সামনে প্রজাপতির মতো উড়ে বেড়াতে দিয়েছিলাম!
    প্রিয় চরিত্র নিশ্চয়ই পোর্শিয়া?
    আমি নীলার বোধিতাত্ত্বিক বিবেচনায় আপ্লুত হয়ে মাথা নাড়াই, বলি, কীভাবে বুঝতে পারো তুমি?
    নীলা প্রশংসাটুকু স্পর্শ না করেই বলে, শাইলক?
    ঘৃণিত চরিত্র সর্বার্থে! বেশ জোর দিয়ে ব্যক্ত করি প্রায় সর্বজনগ্রাহ্য অভিমত।
    নীলা আহত হয় যেন শব্দের আঘাতে!
    মুখ কালো করে এগিয়ে যায় বুকসেলফের কাছে! 
    ফিরে আসে ধীরপায়ে! 
    হাতে রাজিন্দর পালের বিভিন্ন ব্যাখ্যা সংযুক্ত সুপরিজ্ঞাত টেক্সট! মার্চেন্ট অব ভেনিস। 
    পাতা নাড়তে নাড়তে নীলা বিষণ্ন কণ্ঠে বলে, শাইলকের প্রতি এত ঘৃণা কেন জগৎ সংসারের?
    আমি সংশয়ে নিপতিত হই আপাদমস্তক!
    মানে কী?
    শাইলকের প্রতি নীলার মনে কি কোনো পক্ষপাতের সম্ভাবনা সৃষ্টি হওয়া সম্ভব?
    শেক্সপিয়ারের চিত্রিত সবচাইতে ঘৃণিত চরিত্র কি শাইলক নয়?

    নীলা আমার চোখের সামনে তুলে ধরে বইটির একশ সতের নাম্বার পৃষ্ঠা। দেখুন!
    কী? আমি অবোধ্যতায় সম্পূর্ণ নিমজ্জিত হতে হতে প্রশ্ন করি।
    পড়ুন এই জায়গাটা, দেখুন অ্যান্টোনিও কী বলছে-
    আমি নীলার কথা অনুযায়ী চোখ রাখি অ্যান্টোনিওর সংলাপে!
    অ্যান্টোনিও শাইলককে বলছে, ...It is very probable that I shall call you a dog again, spit on you again, and kick you again…২

    নীলা বলে, আমি জানি আপনি খণ্ডিত সত্য বলবেন বাক্যগুলোকে! কিন্তু জানবেন, এই সব ঘৃণিত বাক্য একজন মানুষকে বদলে দিতে পারে আমূল! আদ্যপ্রান্ত বদলে দিতে পারে তার চরিত্র! হৃদয়ের সুকুমার বৃত্তিগুলো মরে যেতে পারে তার! পরিচর্যাহীন অনুর্বর মনের জমিতে জন্ম নিতে পারে ঘৃণার বিষবৃক্ষ! ঘৃণার প্রত্যুত্তরে ঘৃণা ছাড়া আর কিছুই পায় না মানুষ! হিংসার বিনিময়ে হিংসা! মানুষ ভালোবাসা পায় ভালোবাসার বিনিময়ে!
    আমি শাইলক প্রসঙ্গ ভুলে যাই!
    হিংসা ঘৃণার প্রসঙ্গ ভুলে যাই!
    ভালোবাসার বিনিময়ে ভালোবাসা পাবার প্রসঙ্গ ভীষণ উজ্জীবিত হতে সাহায্য করে আমাকে! নতুন আশায়!

    ১. জেলখানার চিঠি, মূল : নাজিম হিকমত, অনুবাদ : সুভাষ মুখোপাধ্যায়
    ২. The Merchant of Venice, William Shakespeare, Edited with a Critical Introduction & Complete Paraphrase of the Text by Rajinder Paul
    পুনঃপ্রকাশ সম্পর্কিত নীতিঃ এই লেখাটি ছাপা, ডিজিটাল, দৃশ্য, শ্রাব্য, বা অন্য যেকোনো মাধ্যমে আংশিক বা সম্পূর্ণ ভাবে প্রতিলিপিকরণ বা অন্যত্র প্রকাশের জন্য গুরুচণ্ডা৯র অনুমতি বাধ্যতামূলক। লেখক চাইলে অন্যত্র প্রকাশ করতে পারেন, সেক্ষেত্রে গুরুচণ্ডা৯র উল্লেখ প্রত্যাশিত।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। ঠিক অথবা ভুল প্রতিক্রিয়া দিন