এই সাইটটি বার পঠিত
ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • খেরোর খাতা

  • অন্ধকারের সপক্ষে অথবা তেতো কথা

    Emanul Haque লেখকের গ্রাহক হোন
    ২৫ মার্চ ২০২১ | ৬৯৯৯ বার পঠিত | রেটিং ৫ (১ জন)
  • অন্ধকারের সপক্ষে অথবা তেতো কথার ফুলঝুরি অথবা ভুলেও পড়বেন না


    ইমানুল হক


    আমরা যা শিখি ভুল শিখি! 


    অথবা যা শেখাই ভুল শেখাই!


    সত্যি অথবা সত্যি নয়।


    আসলে প্রশ্ন করানো শেখানোই যে শিক্ষকের কাজ তা ভুলিয়ে দেওয়া হয়েছে। শুধু উত্তর এবং উক্ত উত্তরের জন্য প্রাপ্য উত্তরীয়টি তথা মার্কশিট তথা শংসাপত্র আমাদের লক্ষ্য।


    শিক্ষা উপলক্ষ মাত্র।


    দ্রোণাচার্যের নামে পুরস্কার।


    কেন?


    উচিত ছিল তো তিরস্কার চালু করা। কারণ এক শিষ্যের স্বার্থে একজন স্বশিক্ষিতর বৃদ্ধাঙ্গুলি কর্তন।


    ছেলেটি, তথা একলব্যের অপরাধ কী?


    সে দ্রোণাচার্যকে গুরু পদে মনে মনে বরণ করেছে।


    তার মনে তো ক্ষত্রিয় বা ব্রাহ্মণের প্রশংসালাভ লক্ষ্য।


    সেই লক্ষ্য যে ভুল তা তো তাকে কেউ বলে নি।


    বলে নি। কিন্তু বললেও যে খুব লাভ হতো তা নয়।


    কারণ তথাকথিত উচ্চ ও নীচের ধারণা তার মজ্জায় এমন ঢুকে গেছে বের হওয়া মুশকিল।


    আর্যটাই গালাগাল হওয়ার কথা হয়ে গেল অনার্যটা।


    আর্যরা অসভ্য যাযাবর জাতি।


    লিপি জানে না। পড়তে পারে না। শুনে শুনে মনে রাখে। বেদের অপর নাম শ্রুতি। এতো প্রশংসাবাক্য হওয়ার কথা নয়।


    শুনে শুনে মনে রাখে কেন? পড়তে পারে না বলে।


    অনার্য ময়দানব ইন্দ্রপ্রস্থ নির্মাণ করে। নগর সভ্যতা তিনি জানেন।


    ইন্দ্রের অপর নাম পুরন্দর। তিনি পুর বা নগর অনুসন্ধান করে ধ্বংস  করেন তাই।


    বৃত্র কোনো অসুর নয়। 'ঐতরেয় আরণ্যক' পড়ুন। বৃত্র মানে জলাধার।


    নগর নগরজীবনকে ধ্বংস করতে হলে জলাধার ধ্বংস জরুরি।


    ২.


    আমরা বলি কালো হাত ভেঙ্গে দাও।


    কারা বলি? কালোরা।


    মানে সাদা হাত ভালো।


    পৃথিবীর সবকটি মহাযুদ্ধ শ্বেতাঙ্গ অবদান।


    বড়ো বড়ো গণহত্যার সিংহভাগ শ্বেতাঙ্গদের সম্পাদিত।


    লিখি কালোবাজার, কালোবাজারি, কালোটাকা।


    কেন?


    আমাদের চিন্তা চেতনায় গলদ আছে। অন্ধকার বা কালো খারাপ হবে কেন?


    কালো যদি মন্দ তবে চুল পাকিলে কান্দ ক্যানে?


    তারাশঙ্করের 'কবি' নিতাইয়ের প্রশ্ন তো আমাদেরও।


    ৩.


    বাংলা ও বাঙালি নিয়ে দেশের কিছু লোকের ঘুম নাই।


    তাঁরা চার্টার্ড প্লেনের মান্থলি বা মাসিক টিকিট কেটে দৈনিক যাত্রা শুরু করেছেন।


    যাত্রাই বটে। 


    উঁচু তারে কন্ঠ বাঁধা। 'নামভূমিকা'য় যাত্রার শেখর গাঙ্গুলির মতো এক সংলাপে তিন রকম কথা বলেন।


    আসামে এক বাংলায় এক কেরলে আরেক।


    বাংলা ও বাঙালির ইতিহাস ওঁদের জানতে হবে।


    বাঙালি বীরের জাতি। 


    বাঙালি শিক্ষা দীক্ষায় উন্নত জাতি।


    গৌতম বুদ্ধ তখন বালক।


    শিক্ষার জন্য গুরু বিশ্বামিত্র এসেছেন। গুরুকে জিজ্ঞেস করলেন: কোন লিপি শেখাবেন আমাকে। বলে ৬৪টি লিপির উল্লেখ করলেন।


    এর মধ্যে একটি বঙ্গলিপি।


    আপাতত ৬৪টি লিপির কথা জানি: 


    পাঠশালায় গিয়ে গৌতম গুরুকে জিজ্ঞেস করেন—“আপনি আমাকে কোন্ লিপি শেখাতে চান ?


    ৫. কিংবা বঙ্গের


    ১, এটা কি ব্রাহ্মী


    ২, অথবা খরােষ্ঠী


    ৩. অথবা পুষ্করশরি


    ৪. অথবা অঙ্গের


    ৬. অথবা মগধের


    ৭, অথবা মাঙ্গল্য


    ৮. অথবা মনুষ্য লিপি


    ৯, অথবা অঙ্গুলি লেখন


    ১০, অথবা শকারী লিপি


    ১১, অথবা ব্রহ্মবল্লীর লিপি


    ১২, অথবা দ্রাবিড়দের লিপি


    ১৩, অথবা কানাড়ীদের লিপি


    ১৪. অথবা দক্ষিণের


    ১৫, অথবা উগ্রাদের


    ১৬, অথবা আকার লিপি


    (চিত্র লিপি?)


    ১৭, অথবা অনুলােম লিপি


    ১৮. অথবা অর্ধধনু লিপি


    ৩৭, অথবা অন্তরক্ষিদেবদের


    ৩৮, অথবা উত্তর কুরুদের


    ৩৪৯, অথবা পূর্ণ বিদেহর


    ৪০, অথবা উৎক্ষেপ লিপি


    ৪১, অথবা নিচেপ লিপি।


    ৪২, অথবা বিক্ষেপ লিপি


    ৪৩, অথবা প্রক্ষেপ লিপি।


    ৪৪. অথবা সাগর লিপি।


    ৪৫. অথবা বজ্র লিপি।


    ৪৬. লেখ-প্রতিলেখ


    ৪৭. অথবা অনুদ্রুত লিপি



    ১৯, অথবা দারদ অথবা


    ২০. অথবা ফসদের অথবা


    ২১. অথবা চীনের


    ২২, অথবা হুনদের


    ২৩, অথবা মধ্যাক্ষর বিস্তরা।


    ২৪. অথবা পুষ্পল লিপি


    ২৫, অথবা দেবদের লিপি


    ২৬, অথবা নাগদের লিপি।


    ২৭. অথবা যক্ষদের।


    ২৮. অথবা গন্ধর্বের লিপি।


    ২৯. অথবা কিন্নরদের।


    ৪৮. অথবা শাস্রাবর্ত লিপি


    ৪৯, অথবা গণনাবর্ত লিপি


    (গণিত-সংখ্যা লিপি)


    ৫০. অথবা উৎক্ষেপাবর্ত লিপি।


    ৫১, নিক্ষেপাবর্ত লিপি।


    ৫২, পাদলিখিত লিপি


    ৫৩. দ্বিরুত্তর পদসন্ধি লিপি


    ৫৪. যবদ্দেসত্তরা পন্ধি লিপি


    ৫৫. অধ্যয়হরিনী লিপি।


    ৫৬. সর্বারুত সংগ্ৰহণী লিপি


    ৩০. অথবা মহােরগদের।


    ৩১, অথবা অসুরদের


    ৩২, অথবা গরুড়দের


    ৩৩, অথবা মৃগচক্রদের


    ৩৪, অথবা চক্রলিপি


    (উড়িয়া লিপি ?)


    ৩৫, অথবা বায়ুমরুদের


    ৩৬, অথবা ভৌমদেবদের


    ৫৭. অথবা বিদ্যানুলােম লিপি


    ৫৮. অথবা বিমিশ্রিত লিপি


    ৫৯. ঋষিতপস্তপ্তন লিপি।


    ৬০. রােচমনন ধারণী প্রেক্ষণ লিপি


    ৬১, অথবা গগনপ্রেক্ষণী লিপি


    ৬২, সবৌরসাধিনীস্যন্দ লিপি।


    ৬৩. সর্বসার-সংগ্ৰহণী লিপি।


    ৬৪, অথবা সর্বভূতরুত গ্রহণী লিপি।


    ( ঋণ: 'ললিতবিস্তার' নাটক এবং বাঙালা লিপির উৎস ও বিকাশের অজানা ইতিহাস: এস এম লুৎফর রহমান)


    পুনঃপ্রকাশ সম্পর্কিত নীতিঃ এই লেখাটি ছাপা, ডিজিটাল, দৃশ্য, শ্রাব্য, বা অন্য যেকোনো মাধ্যমে আংশিক বা সম্পূর্ণ ভাবে প্রতিলিপিকরণ বা অন্যত্র প্রকাশের জন্য গুরুচণ্ডা৯র অনুমতি বাধ্যতামূলক। লেখক চাইলে অন্যত্র প্রকাশ করতে পারেন, সেক্ষেত্রে গুরুচণ্ডা৯র উল্লেখ প্রত্যাশিত।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • দীপ | 42.110.147.119 | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ ০০:১৮512007
  • কোথায় রামের একাধিক পত্নীর উল্লেখ আছে, মাতব্বর মহোদয়?
  • দীপ | 42.110.147.119 | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ ০০:১৯512008
  • দীপ | 42.110.147.119 | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ ০০:২১512009
  • ব্রহ্মরাক্ষসেরা বেদপাঠ করছেন।
     কিন্তু রাক্ষস মানেই অনার্য! ব‌ইপত্র ছুঁয়েছেন, মাতব্বর মহোদয়?
  • দীপ | 42.110.147.119 | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ ০০:২৩512010
  • গুলগপ্পো | 2405:8100:8000:5ca1::f5:aa39 | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ ০০:২৫512011
  • ছোটমামা আমাকে বলেছিল রামায়ণ মহাভারত গুলগপ্পো। তাই শুনে দিদা বলেছিল - চুপ কর তুই, ভগবান নিয়ে অমন বলতে নেই।
  • দীপ | 42.110.147.119 | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ ০০:২৫512012
  • রাবণ নিজের পরিচয় দিয়ে বলছেন‌ তিনি মহর্ষি পুলস্ত্যের বংশধর, মহর্ষি বিশ্রবা তাঁর পিতা। তাই তিনি বৈশ্রবণ। 
    সংস্কৃত তো জানেনই না, বাংলাও মনে হয় বোঝেন না! 
    আপনার তথ্যসূত্রের অপেক্ষায় র‌ইলাম।
     
  • দীপ | 42.110.147.119 | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ ০০:২৮512013
  • অন্যদিকে যথারীতি নামপরিচয়হীন সারমেয়কুল লাঙ্গুল উত্তোলনপূর্বক ধাবমান হয়েছে!
  • গুলবাজ | 31.171.154.166 | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ ০০:৩৭512014
  • ছোটমামা রামায়ণ-মহাভারত ভাল জানত, আড়ালে দাদু ওর জ্ঞানের জন্য ওকে বেশ সম্ভ্রমও করত।
    খবরে দাদু পড়েছে যে হেমামালিনীর নির্দেশনায় নাকি রামায়ণ নিয়ে নাটক হচ্ছে, হেমার মেয়ে এষা তাতে সীতার ভূমিকায় অভিনয় করবে।
    তাই শুনে ছোটমামা বলল, সেটা ভাল আইডিয়া না।
    দাদু জিগ্গেস করল, কেন।
    ছোটমামা বলল - হেমা কে জানো? হেমা হল রাবণের শাশুড়ী, মন্দোদরীর মা, হেমা কি করে নিজের মেয়েকে সীতার ভূমিকায় নির্দেশনায় দেবে, সব গুলিয়ে না দেয়।  
  • Emanul Haque | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১২:৫৩512024
  • সীতারামদাস ওঙ্কারনাথের নাম শুনেছেন? তাঁর প্রতিষ্ঠিত 'আর্যশাস্ত্র' পত্রিকায় সংস্কৃত রামায়ণ ছাপা হয়েছিল। একটু কষ্ট স্বীকার করে পড়ুন। সংক্ষিপ্ত রামায়ণ আর মনগড়া ব্যাখ্যা ভুলে পড়ুন।
    পড়ে কথা বলতে আসুন।
    আর যে নিয়ে লেখা সে-নিয়ে কথা বলুন।
  • দীপ | 2402:3a80:196c:ac89:77ae:72e3:1bb7:c367 | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৩:০২512026
  • অ, হেমচন্দ্র ভট্টাচার্য, রাজশেখর বসু- সবাই মনগড়া। সত্য একমাত্র পাঁঠার নাচ! 
    আপনার কাছে তথ্যসূত্র চাইছি, সেটা না‌ দিয়ে এভাবে নেচে বেড়াচ্ছেন কেন? 
    খালি নাদিয়ে বেড়াচ্ছেন?
  • দীপ | 2402:3a80:196c:ac89:77ae:72e3:1bb7:c367 | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৩:০৫512027
  • আপনার কাছে তথ্যসূত্র চেয়েছি, আপনার‌ নাচ দেখতে চাইনি।
    হেমচন্দ্র ভট্টাচার্যের প্রামাণ্য অনুবাদে কোথায় রামের একাধিক পত্নীর উল্লেখ আছে? 
    তথ্য দিন।
    রাজশেখর বসুর অনুবাদ কোথায় মনগড়া? প্রমাণ দিন।
  • দীপ | 42.110.145.106 | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৩:১৩512028
  • আর এর‌ আগেও বলেছি, যা লিখেছেন সব ভুল লিখেছেন। হয় কিছু জানেন না, নয় চূড়ান্ত মিথ্যাবাদী!
  • দীপ | 42.110.145.106 | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৩:২২512029
  • বৃত্র জলপ্রবাহকে বাধা দেয়, ইন্দ্র সেই বৃত্রকে বধ করে জলপ্রবাহের পথ সুগম করেন, সভ্যতা সৃষ্টি করেন।
    আর অসুর , দৈত্য , দানব এরা সকলেই ইন্দো-ইউরোপীয়ান ভাষাগোষ্ঠীর অন্তর্গত।
    তাই বৃত্রকে বধের জন্য ইন্দ্রের ব্রহ্মহত্যা পাপ হয়! 
    অসুর শব্দের অর্থ অসামান্য প্রাণশক্তিসম্পন্ন, মহাবলসম্পন্ন। বেদে দেবতাদের‌ও একাধিক জায়গায় অসুর বলে উল্লেখ করা হয়েছে।
    দেবতা ও অসুর বৈমাত্রেয় ভাই। অসুররা মধ্যপ্রাচ্যে তাদের বসতি ও সভ্যতা স্থাপন করে। Assyrian Civilization.
  • দীপ | 42.110.145.106 | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৩:২৫512030
  • সীতারামদাস ওঙ্কারনাথ আপনার মতো মিথ্যাবাদীকে সামনে পেলে খড়মপেটা করতেন!
    কোনো তথ্যসূত্র ছাড়াই ভুলভাল বলছেন!
  • দীপ | 42.110.145.106 | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৩:৪৭512031
  • দীপ | 42.110.145.106 | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৩:৫১512032
  • চিন্তা করবেন না, এইসব গপ্পিবাজি আমরা অনেক শুনেছি।
    এর আগেও বলেছি, ইংরেজ আমাদের একটা দারুণ জিনিস শিখিয়ে গেছে। "Divide and rule."
    ভারতীয় বজ্জাতরা সেটা খুব ভালোভাবেই শিখেছে। কেউ বলছে হিন্দুরাষ্ট্র চাই, কেউ বলছে দলিত-মুসলিম ঐক্য জিন্দাবাদ।
    সব রঙের শূকরশাবকদের খুব ভালোভাবেই চিনি!
  • জ্ঞানচক্ষু বাবা | 2405:8100:8000:5ca1::1bc:6114 | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৪:৩২512035
  • দীপ,
    বাছা!
    তুমি তোমার অজ্ঞান এবং কুজ্ঞান বিতরণ থেকে বিরত থাকো। রামায়ণ, মহাভারত, গীতা, বেদ - ইত্যাদি বিষয়ে তোমার সম্যক জ্ঞানের অভাব। কিছু ক্ষেত্রে প্রাথমিক বোধও নাই। তোমার হাবভাব মস্ত পন্ডিতের ন্যায়, কিন্তু যাহা জানো তাহা যে সম্পুর্ণ ভুল জানো সে সম্বন্ধে তুমি অবহিত নও। ভারী অর্বাচীন।

    সুবিশাল প্রান্তরহীন এই নেট জগৎ হইতে খাবলাইয়া খুবলাইয়া ছবি ও বাক্য উৎপাটন করিয়া পোস্টের পর পোস্টে উন্মাদের ন্যায় চিপকাইতে থাকো। অথচ, উহার বদলে মন শান্ত করিয়া পুস্তক পড়িয়া ফেলো। দেখিবে তুমি কিছু জ্ঞান লাভ করিবে।

    অপরকে কটু কথা বলিবার জন্য পড়িও না, নিজের মনকে বুঝাইবার জন্য পড়ো। দেখিবে আনন্দ পাইবে। তোমার মনের ভিতরে এক আনন্দের খনি লুকাইয়া আছে। উহাকে জাগাইয়া তোলো।

    ইতি,
    তোমার এক শুভানুধ্যায়ী

    জ্ঞানচক্ষু বাবা
     
  • দীপ | 42.110.146.224 | ২৬ অক্টোবর ২০২২ ১৩:৫৫513198
  • দীপ | 42.110.146.224 | ২৬ অক্টোবর ২০২২ ১৩:৫৭513199
  • এর আগেও বলেছি ধান্দাবাজি তে বিজেপির লোক আর এই বজ্জাতেরা এক‌ই মুদ্রার এপিঠ-ওপিঠ মাত্র!
    ধান্দাবাজি ক্রমশ প্রকাশিত হচ্ছে!
  • Falguni Mazumder | ২৬ অক্টোবর ২০২২ ২২:১৫513214
  • দ্রোণাচার্য  নাম দেবার পেছনে বর্ণবাদ কাজ করেছে। ভারতে আজো এক জন তথাকথিত
    দলিত,অস্পৃশ্য প্রধান মন্ত্রী হয় নি।  ১৮৮৫ থেকে ২০২২ পর্যন্ত প্রায় ১৩৭ বছরে মাত্র দুইজন রাষ্টপতি হয়েছেন তথাকথিত নিম্নবর্গের মানুষ।  ভারতের কোন ক্ষেপানাস্তের নাম দেয়া হয়নি একলব্য, রাবণ অথবা বালী।  অনার্য মানেই কালো,বন্য। আপনার লেখা ভালো লেগেছে তবে এক প্রশ্ন আছে। ভারতে কি চিহ্ন লিপি ব্যাবহার করা হোত?
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। ভেবেচিন্তে প্রতিক্রিয়া দিন