• টইপত্তর  অন্যান্য

  • ফিল্ম / টিভি শো রিভিউ।

    S
    অন্যান্য | ২৬ এপ্রিল ২০২০ | ১৮৪৭ বার পঠিত
  • পছন্দ
    জমিয়ে রাখুন পুনঃপ্রচার
  • এখানে ফিল্ম আর টিভি শোয়ের রিভিউ দেব সময় সুযোগ করে।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • পাতা :
  • S | 2405:8100:8000:5ca1::229:5bfe | ১০ জুন ২০২০ ০২:১৩731953
  • হিন্দিতে এত ভালো ভালো কাজ হচ্ছে। কবে যে বাংলায় এরকম ভালো কন্টেন্ট দেখতে পাবো। বাংলার কন্টেন্ট মানেঃ

    ১) শাউড়ি বৌমা জা ননদ কলহ। সেখানে নায়কের আড়াই খানা বৌ, পোনে তিন খানা গার্লফ্রেন্ড। শহুরে মেয়ে মানেই বাজে। গ্রাম্য মেয়ে মানেই অশিক্ষিত, ধার্মিক, অদ্ভুত অ্যাকসেন্টে বাংলা বলে, এবং অবশ্যই খুব ভালো। এগুলো দিদি নাম্বার ওয়ানের পরই চ্যানেলে চ্যানেলে শুরু হয়ে যায়। হিন্দিতেও আছে, তবে তারা একধাপ আরো এগিয়ে। হিন্দি সিরিয়ালে আজকাল আর মানুষে হচ্ছে না। সেখানে সাপ, মাছি, এমনকি বাড়ির বৌএর সঙ্গে গরিলার প্রেমও দেখিয়েছে। প্লেটোনিক অবশ্যই।

    ২) ধম্মিয় গাঁজাখুড়ি। এটা বিগত ২-৩ বছরে খুব বেড়েছে। ২০২১ এর আগাম বার্তা বাংলার ঘরে ঘরে পৌঁছে দিতে হবে যে। হিন্দিতে তো এসব চিরকালই ছিল। এক সিরিয়ালে দেখি ধবধবে ফর্সা কৃষ্ণ।

    ৩) অভিযান। বেশিরভাগ অন্য কন্টিনেন্টে। সেখানে বিদেশিরা বাংলা বোঝে আর অদ্ভুতভাবে সব আদিবাসীরা লাফালাফি করে। ও হ্যাঁ আর বাজে সিজিআই দিয়ে তৈরী জাগুয়ার, সিংহ, চিতা, বাড়ির বিড়াল।

    ৪) যৌন সুড়সুড়ি। তাও সেরকম কিসুই দেখায় না। আজকাল ওটিটিতে হিন্দি কন্টেন্টে যেরকম জিনিস থাকে তার তুলনায় কিসুই না, তবুও দেখায়। কারা পয়সা খচ্চা করে এসব দেখে জানি না। এক বিখ্যাত ব্লগারের কথা থেকে ধার করে "ইউ কান্ট বাই কোয়ালিটি পর্ণ, বিকজ ইট'স ফ্রী"।

    এর বাইরে দক্ষিনী সিনেমার নকলে সামান্য কিছু কমার্শিয়াল সিনেমা যেগুলো আর চলছে না। আর নইলে সত্যজিত রায় হতে চাওয়া পরিচালকের আঁতেল সিনেমা যার মানে বুঝতে না পেরে বাঙালী দর্শক ইংরেজি সাবটাইটেল পড়ে ফেলে।
  • anandaB | 50.35.122.121 | ১০ জুন ২০২০ ০২:৫৬731954
  • পাতাল লোক দেখলাম গত উইকেন্ড এ, @S কে ধন্যবাদ রেকমেন্ডেশন এর জন্য, এখানে না পড়লে হয়তো ল্যাদ কাটিয়ে দেখাই হতো না

    ভালোই লাগলো, একচুয়ালি বেশ ভালো লাগলো কিন্তু খুব ভালো বোধহয় লাগলো না. "বোধহয়" বললাম কারণ সাধারণত "খুব ভালো" বা তার থেকেও বেশি মনোগ্রাহী হলে আমার একটা হ্যাং ওভার হয় :) এক্ষেত্রে সেটা হয় নি,

    এছাড়া আরও একটা প্যারামিটার আছে, যেটা হলো আবার ফিরে দেখার ইচ্ছা, সেটাও খুব একটা নেই - এখনো পর্যন্ত

    চিত্রনাট্যে কিছু দুর্বলতা রয়েছে, আমার মতে. বিশেষ করে যেখানে ইনভেস্টিগেশন একটা মুল আকর্ষণ এই থ্রিলার এর, শেষ দিকটা জোড়াতালি এবং অনাবশ্যক দীর্ঘ লেগেছে. সেক্রেড গেমস - 2 দেখার সময় ও এটা মনে হয়েছিল যদিও সেখানে বিষয় এবং তার প্রয়োগ অনেকটাই আলাদা, আমার মতে

    জয়দীপ কে নিয়ে কিছু বলার নেই, ব্যক্তিগত/পারিবারিক জীবনের বিভিন্ন টানাপোড়েনের সাথে কাজের জগতের নিরন্তর ট্রাপিজ ব্যালান্স অসাধারণ দক্ষতায় ফুটিয়ে তুলেছেন. খুব আশা ছিল অন্তত সেক্রেড গেমস 2 তে ওনাকে দেখবো.

    বাচ্ছা ছেলেটাও খুব ভালো করেছে

    অভিষেক ব্যানার্জি র অভিনয় দক্ষতা সম্পর্কে কোনো স্পষ্ট ধারণা হয় না, অন্তত এই ছবির নিরিখে, সারাক্ষণ এক-ই ডাইমেনশন এ অভিনয় করে গেলেন পাথুরে মুখ করে, হয়তো চিত্রনাট্য সেরকম ই দাবি করেছিল

    গুল পানাং নিয়ে আমি বায়াসড, সেই মনোরমা সিক্স ফিট আন্ডার থেকেই, সুতরাং ওনার উপস্থিতিই যথেষ্ট আমার কাছে :)

    স্বস্তিকা ঠিক কি করেছিলেন বোঝা গেলো না, ওনার কোনো হিন্দি ডায়লগ ছিল না গোটা সময়টা জুড়ে (যদি না কিছু মিস করে থাকি)

    আর ওই স্পোর্টস টিচার কে কোথায় যেন একটা দেখেছি কিছুতেই মনে করতে পারছিলাম না, সিরিজ টা শেষ করে উঠতেই মনে পড়লো, Jolly LLB -1 এ
  • S | 2405:8100:8000:5ca1::502:e2b1 | ১৩ জুন ২০২০ ০৭:১৮732107
  • অ্যামাজন প্রাইমে রিলিজ করেছে "গুলাবো সিতাবো"।

    অভিনয়ে রয়েছে অমিতাভ বচ্চন, আয়ুষ্মান খুরানা, বিজয় রাজে, ব্রিজেন্দ্র কালা, ফারুখ জাফর, এবং সৃষ্টি শ্রীবাস্তব। পরিচালনায় সুজিত সরকার। সঙ্গীত দিয়েছে শান্তনু মৈত্র।

    লাখনৌ শহরের এক পুরোনো প্রায় ভেঙে পড়া হাভেলির মালিক মির্জা শেখ (অমিতাভ)। মির্জা শেখ সেই হাভেলি থেকে বাঁকে রাস্তোগি (আয়ুষ্মান খুরানা) সহ বাকি সব ভাড়াটেদের বেড় করে দিতে চায়। কারণ তারা খুব কম ভাড়ায় থাকে, অনেক সময় ভাড়া দেয়ও না। সেই নিয়েই দুঘন্টার ড্রামা। কমেডি-ট্রাজেডি সবই আছে।

    সবার আগে বলতে হয় অমিতাভ বচ্চনের মেকাপ এবং পুরোনো হাভেলির ডেকরের কথা। অসাধারণ। তারপরেই প্রশংসা করতে হয় অমিতাভ বচ্চন এবং আয়ুষ্মান খুরানার অভিনয়ের জন্য। এবং অবশ্যই আবহ সঙ্গীত।

    সমস্যা হল গল্প নিয়ে। বহু লোকেরই পছন্দ হবেনা। আমাজনে দেখলাম ৪০% লোক ৫ রেটিং দিয়েছে, আর ৪০% দিয়েছে ১। এরকম সিনেমা খুব কমই আছে যেখানে একদল লোকের মনে হয় অসাধারণ, আরেকদল লোকেদের মনে হয় জঘণ্য। এই সিনেমা সেই জনারে জায়্গা করে নিয়েছে।

    গল্প খুবই মন্থর - পুরানো হাভেলির মত। সুজিত সরকার সাধারণত যেধরনের কর্কি কমেডি দিয়ে থাকে (ভিকি ডোনার, পিকু), এই সিনেমা সেরকম না। এখানে প্রতি দু মিনিটে হা হা করে হাসার মতন চুটকুলা নেই। এখানে কমেডি খুবই সাটল, অনেক সময় চোখেও পড়বে না। আর এই সিনেমার শেষে কোনও ম্যাসেজ বা জ্ঞান নেই। এমনকি সেরকম কোনও কনক্লুডিং এন্ডিং বা ক্লোজারও নেই। আমার মনে হয়েছে এটা আসলে কমেডির মোড়কে ট্রাজেডি। আসলে এটা একটা পাওয়া, না পাওয়ার গল্প।

    ট্রেলার দেখে মনে হয়েছিল রেগুলার হিন্দি সিনেমার কমেডির মতন হবে। সেখানে গালাগালি থাকবে, অন্যকে বিরেট করা ডায়ালগ থাকবে। সেসব প্রায় নেই বললেই চলে। ভুল এক্সপেক্টেশান সেট করা হয়েছে।

    এই সিনেমায় রেটিং দেওয়া খুবই মুশকিলের। যদি বলি মোটামুটি, তাহলে কেউ কেউ বলবে আমি সিনেমাটা বুঝিইনি। আর যদি বলি দারুন, তাহলে কেউ কেউ বলবে কি বোরিং সিনেমা।

    তাই আমার একেবারেই ব্যক্তিগত অভিমত দিচ্ছিঃ পুরো সিনেমাটা আমার কাছে শেষ ১০ মিনিটের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ মনে হয়েছে। মনে খুব দাগ রেখে যায়।

    অনেকের অন্যরকম মনে হতেই পারে।
  • anandaB | 50.35.122.121 | ১৩ জুন ২০২০ ০৭:৪২732108
  • S আমার অভ্যাস খারাপ করে দিচ্ছেন :) গুলাবো সিতাবো র ট্রেলার দেখে দেখার টেম্পো হয় নি, তায় আবার অমিতা বচ্চন

    এখন মনে হচ্ছে দেখাই যাক, কত আর খারাপ হবে :)
  • dc | 103.195.203.69 | ১৩ জুন ২০২০ ০৭:৪৫732109
  • অমিতাভের লাস্ট যে সিনেমাটা ভালো লেগেছিল সেটা অগ্নিপথ। আর হলে গিয়ে লাস্ট সিনেমা দেখছিলাম শাহেনশাহ। তারপর আর অমিতাভের কোন সিনেমা দেখিনি। কোথায় সেই ডন আর মুকাদ্দার কা সিকান্দার, আর কোথায় এখনকার সব ঢপের সিনেমা, ব্ল্যাক না কি সব নাম।
  • dc | 103.195.203.69 | ১৩ জুন ২০২০ ০৭:৪৫732110
  • অমিতাভের লাস্ট যে সিনেমাটা ভালো লেগেছিল সেটা অগ্নিপথ। আর হলে গিয়ে লাস্ট সিনেমা দেখছিলাম শাহেনশাহ। তারপর আর অমিতাভের কোন সিনেমা দেখিনি। কোথায় সেই ডন আর মুকাদ্দার কা সিকান্দার, আর কোথায় এখনকার সব ঢপের সিনেমা, ব্ল্যাক না কি সব নাম।
  • .. | 182.69.170.15 | ১৩ জুন ২০২০ ১৬:৪৭732124
  • গুলাবো সিতাবো ভালো লাগেনি। অ্যাক্টিং ঠিক আছে। কিন্তু গল্পটা একেবারেই পছন্দ নাহলে অ্যাক্টং লইয়া কি করিব।
  • .. | 182.69.170.15 | ১৩ জুন ২০২০ ১৬:৫০732125
  • এতোদিন পর এক্সট্রাকশান দেখলাম। অতি জঘন্য বললেও কম বলা হয়।
  • r2h | 49.37.12.111 | ২৩ জুন ২০২০ ১৯:৫৩732266
  • চমন বাহার বলে একটা সিনেমা দেখলাম। একটি ছেলে অস্থায়ী ফরেস্ট গার্ডের চাকরী করে, তার স্বপ্ন একটা পানের দোকান খোলা। পানের দোকানের উল্টোদিকের বাড়িতে সরকারী অফিসার ভাড়া আসে, তাদের স্কুল পড়ুয়া সুন্দরী মেয়ে।
    খুবই ভালো লাগলো।
    অত্যন্ত টিপিক্যাল নীরব নারী চরিত্র, সামাজিক স্তরনির্ভর পুরুষের অ্যাগ্রেসন বাড়তে থাকা, মেয়েদের চরিত্রহনন করে প্রতিশোধের চেষ্টা এসব আছে। এগুলো নিতান্ত গ্রহণযোগ্য বলে ধরে নেওয়া কিনা, সেটা নিয়ে আমার দ্বিধা আছে।

    তারকাবিহীন রাস্টিক পটভূমিকা, ছত্তিশগড়ের মফস্বল শহর।
  • S | 2405:8100:8000:5ca1::7a9:92ce | ০১ আগস্ট ২০২০ ১৩:৪২732465
  • নেটফ্লিক্সে রিলিজ হয়েছে রাত অকেলি হ্যায়।

    মার্ডার মিস্ট্রি। পরিচালক হানি ট্রেহান। অভিনয়ে নওয়াজ ভাই, রাধিকা আপ্তে, তিমাংশু ধুলিয়া, ইলা অরুন ছাড়াও আরো অনেকে।

    বিয়ের রাত্রে নিজের হাওয়েলিতে খুন হন ঐ এলাকার বড়লোক (অর্থে এবং প্রতিপত্তিতে) রঘুবীর যাদব। সেই খুনের ইনভেস্টিগেশান করতে পৌঁছয় ইনস্পেক্টার জটিল যাদব (নওয়াজ ভাই)। শুরু হয় একের পর এক লেয়ার সড়িয়ে সত্যে পৌঁছনো। এর থেকে বেশি কিছু লিখবো না, স্পয়লার হয়ে যাবে।

    ভালো লেগেছেঃ
    ১) মার্ডার মিস্ট্রি হিসাবে দিব্যি গল্প। প্রথম থেকেই বেশ কিছু ক্লু এদিক সেদিক ছড়িয়ে দিচ্ছে। অনেকগুলো লেয়ার রয়েছে। আসতে আসতে খুলেছে।
    ২) অভিনয় অবশ্যই ভালো হবেই। খুব ভালো অভিনেতাদের নেওয়া হয়েছে। হানি ট্রেহান আগে কাস্টিং ডিরেক্টার ছিল, কাজেই। যারা নওয়াজ ভাইকে অন্যরকম রোলে দেখতে চান, দেখতে পারেন।
    ৩) পরিচালনা মন্দ নয়। বিশেষ করে বেশ কিছু সীন, সীনারি, ক্যামেরার কাজ ভালই হয়েছে। হানি ট্রেহানের বোধয় প্রথম পরিচালনা। হাওয়েলিটা খুব ইন্টারেস্টিং লেগেছে।

    মন্দঃ
    ১) একটু বেশি লম্বা লেগেছে। সিনেমাটা দুঘন্টার মধ্যে শেষ হলে আরো ভালো হত। এখন রান টাইম ২ ঘন্টা ২৫ মিনিট।
    ২) হিন্দি বেল্টের কয়েকটা খুবই টিপিকাল জিনিস দেখিয়েছে। পলিটিকাল পাওয়ার, নেক্সাস, কেচ্ছা ইত্যাদি। এগুলো না দেখালেই ভালো হত। অনেকবার দেখা হয়ে গেছে।
    ৩) সাবপ্লটটা মাঝখানে একটা সময় একটু বেশিই টেনেছে। সেটা না করলে একটু বেশি টানটান থাকত।

    ভার্ডিক্টঃ অবশ্যই দেখবেন। মার্ডার মিস্ট্রিটার জন্য।

    এই লকডাউনের ফলে বড় বাজেটের হাবিজাবি মশলা সিনেমার রিলিজ বন্ধ হওয়ার পর থেকে মনে হচ্ছে যেন বলিউডের পূণর্জন্ম ঘটেছে।
  • hu | 2607:fcc8:ec45:b800:84d9:f918:65f7:2ba5 | ০২ আগস্ট ২০২০ ১০:১৩732467
  • চমনবাহার আমারও ভালো লেগেছে। প্রধান নারী চরিত্রের মুখে একটাও কথা না থাকা, পুরুষ চরিত্রগুলোর অ্যাগ্রেশন, স্লাট শেমিং - এগুলো সবই অস্বস্তিদায়ক। এগুলো নিয়ে অনেক সমালোচনাও হয়েছে প্রত্যাশা মতই। তবু অজস্র নেটফ্লিক্স রিলিজের মাঝে সিনেমাটা মনে থেকে গেছে (দেখেছি বেশ কিছুদিন আগেই)। রিয়েল এবং ভার্চুয়াল দুনিয়ায় তো সর্বত্র খাপ বসতে দেখি। প্রতিনিয়ত। প্রতিটি বিষয়ে। সামান্য কিছু লোক হয়ত এখনও পড়ে আছে যারা এককথায় গর্দান লাও বলতে পারছে না। সেই মায়াটুকুর জন্য সিনেমাটা মনে থেকে যাবে।
  • S | 2001:620:20d0::24 | ০২ আগস্ট ২০২০ ২০:৩৭732471
  • লূটকেস রিলিজ করেছে। ডার্ক কমেডি থ্রিলার হিসাবে মন্দ নয়। কুনাল খেমু, রসিকা দুগ্গাল, ভিজয় রাজে, রনভির শোরে, গজরাজ রাও অভিনয় করেছে। এছাড়া টিভিএফের বিভিন্ন স্কিটে কাজ করা কয়েকজন রয়েছে ছোটো রোলে। তবে কেন যেন মনে হচ্ছে যে এরকম সিনেমা আগেও দেখেছি।
  • anandaB | 50.125.255.146 | ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১০:৫৮732838
  • ইদানিং ইউটুবে কিছু শর্ট ফিল্ম দেখলাম , কয়েকটা বেশ ভালো আর তার মধ্যে এইটা অসাধারণ 


  • a | 203.185.220.173 | ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১১:২৪732839
  • আমাজনে দেখুন পন্চায়েত। বেশ ভালো। একটি নব্য আধুনিক ছেলে ক্যটের প্রেপ করার সাথে সাথে পন্চায়েতের সেক্রেটারির কাজ নেয়। ৮-১০ পর্বের সিরিজ। বেশ কিছু সামাজিক সমস্যাকে ছুয়ে গেছে কিন্তু একটা অদ্ভুত মজার আর মানবিক স্পর্শের ভিতর দিয়ে। ভালো লাগবে মনে হয়। 


    ইউটিউব থেকে উঠে আসা লিটল থিন্ক্স 2 দেখুন নেটাফিল্ক্সে। তার আগে দেখে নিন এদের প্রথম পর্ব। ইউতুবেই পাবেন নয়তো জানি না। আমি এই ফিল্টার্কপি গ্রুপের কাজ বছর দুয়েক ধরে দেখছি বেশ বেশ bhaalo

  • S | 2405:8100:8000:5ca1::3f:f405 | ১৮ নভেম্বর ২০২০ ১২:২৪733208
  • নেটফ্লিক্সে নতুন রিলিজ করেছে হিন্দি সিনেমা "লুডো"। অনুরাগ বসুর পরিচালনায় আড়াই ঘন্টার অ্যান্থোলজি সিনেমা।

    চারটে পৃথক গল্প। একজন সেন্ট্রাল ক্যারেকটার। কখনও কখনও এই আলাদা গল্পের ক্যারেকটারদের পথে দেখা হচ্ছে। কনফ্লিক্ট হচ্ছে। আবার আলাদা দিকে চলে যাচ্ছে। এই সিনেমায় প্রেম রয়েছে, প্রেম ভাঙা রয়েছে, অ্যাকশান আছে, গ্যাঙ্গস্টার আছে, প্রচুর কমেডির সাথে ট্রাজেডি মিশে রয়েছে, মরালিটি নিয়ে বাক্যালাপ রয়েছে। সব মিলিয়ে জমজমাট সিনেমা লুডো। এই ধরনের সিনেমা ভারতে নতুন হলেও হয়েছে। একটি তামিল সিনেমার কথা এখনি মনে পড়ছে। আরো নিশ্চই আছে।

    কাস্টিং খুব ইন্টারেস্টিং। স্ক্রীপ্টও খুবই স্মার্ট। সকলের অভিনয় ভালো হয়েছে। মিউজিকের ব্যাবহার ভালো। অনুরাগ বসু নিজে দিব্যি সিনেমাটোগ্রাফি করেছেন।  এইসব কিছুর পরেও যেটা আমার সবথেকে ভালো লাগে অনুরাগ বসুর সিনেমায় সেটা হল স্ক্রীনে রঙের ব্যবহার। পরিচালকের ক্ষেত্রে এইধরনের সিনেমা ঠিকমতন শ্যুট করে এডিট করে সমস্ত গল্পগুলোকে শেষ করা সত্যিই কৃতিত্বের।

    তার পরেও একটু খুঁত খুঁত করবো। নইলে আর ক্রিটিক কিসের। সিনেমাটা আমার অন্তত একটু লম্বা মনে হয়েছে। তার সঙ্গে মনে হয়েছে যে সব গল্পগুলোর দৈর্ঘ্য এবং গুরুত্ব যেন সমান নয়, অন্তত দেখার সময় সেরকমই মনে হয়েছে। কিন্তু অনুরাগ বসুর সিনেমার যেটা সবথেকে বড় সমস্যা সেটা যেন এই সিনেমাতে রয়েই গেলো। অরিজিনালিটির অভাব আছে।

  • anandaB | 50.125.255.229 | ৩১ ডিসেম্বর ২০২০ ০৮:২০733437
  • এইমাত্র AK vs AK দেখা দেশ করলাম , নেটফ্লিক্স এ 


    কনসেপ্ট খুব ইন্টারেষ্টিং কিন্তু অভিনব নয় , শুরুটা যতটা প্রমিসিং যত কাহিনী এগিয়েছে আস্তে আস্তে প্রেডিক্টবল এবং কিছুটা জোলো হয়ে গেলো 


    অনিল কাপুর বেশ ভালো অভিনয় করেছে , ওর ফ্যামিলির বাকি লোকজনের বিশেষ কিছু গুরুত্বপূর্ণ  ভূমিকা ছিল না (ভাগ্গিস :) )


    আভিনয় কাশ্যপের কাপ অফ টি নয় , মনে হয় মোটাওয়ানের উপরোধে রাজি হয়েছে 


    ক্যামেরা সম্ভবত পুরোটাই হ্যান্ডহেল্ড (আন্দাজে বললাম বোঝার মতো টেকনিকাল জ্ঞান নেই) 


    সব মিলিয়ে একবার দেখাই যায় 

আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • পাতা :
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। দ্বিধা না করে প্রতিক্রিয়া দিন