Binary RSS feed

Binary এর খেরোর খাতা।

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • দক্ষিণের কড়চা
    গরু বাগদির মর্মরহস্য➡️মাঝে কেবল একটি একক বাঁশের সাঁকো। তার দোসর আরেকটি ধরার বাঁশ লম্বালম্বি। সাঁকোর নিচে অতিদূর জ্বরের মতো পাতলা একটি খাল নিজের গায়ে কচুরিপানার চাদর জড়িয়ে রুগ্ন বহুকাল। খালটি জলনিকাশির। ঘোর বর্ষায় ফুলে ফেঁপে ওঠে পচা লাশের মতো। যেহেতু এই ...
  • বাংলায় এনআরসি ?
    বাংলায় শেষমেস এনআরসি হবে, না হবে না, জানি না। তবে গ্রামের সাধারণ নিরক্ষর মানুষের মনে তীব্র আতঙ্ক ছড়িয়েছে। আজ ব্লক অফিসে গেছিলাম। দেখে তাজ্জব! এত এত মানু্ষের রেশন কার্ডে ভুল! কয়েকজনের সাথে কথা বলে জানলাম প্রায় সবার ভোটারেও ভুল। সব আইকার্ড নির্ভুল আছে এমন ...
  • যান্ত্রিক বিপিন
    (১)বিপিন বাবু সোদপুর থেকে ডি এন ৪৬ ধরবেন। প্রতিদিন’ই ধরেন। গত তিন-চার বছর ধরে এটাই বিপিন’বাবুর অফিস যাওয়ার রুট। হিতাচি এসি কোম্পানীর সিনিয়র টেকনিশিয়ন, বয়েস আটান্ন। এত বেশী বয়েসে বাড়ি বাড়ি ঘুরে এসি সার্ভিসিং করা, ইন্সটল করা একটু চাপ।ভুল বললাম, অনেকটাই চাপ। ...
  • কাইট রানার ও তার বাপের গল্প
    গত তিন বছর ধরে ছেলের খুব ঘুড়ি ওড়ানোর শখ। গত দুবার আমাকে দিয়ে ঘুড়ি লাটাই কিনিয়েছে কিন্তু ওড়াতে পারেনা - কায়দা করার আগেই ঘুড়ি ছিঁড়ে যায়। গত বছর আমাকে নিয়ে ছাদে গেছিল কিন্তু এই ব্যপারে আমিও তথৈবচ - ছোটবেলায় মাথায় ঢুকিয়ে দেওয়া হয়েছিল ঘুড়ি ওড়ানো "বদ ছেলে" দের ...
  • কুচু-মনা উপাখ্যান
    ১৯৮৩ সনের মাঝামাঝি অকস্মাৎ আমাদের বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ(ক) শ্রেণী দুই দলে বিভক্ত হইয়া গেল।এতদিন ক্লাসে নিরঙ্কুশ তথা একচ্ছত্র আধিপত্য বিস্তার করিয়া ছিল কুচু। কুচুর ভাল নাম কচ কুমার অধিকারী। সে ক্লাসে স্বীয় মহিমায় প্রভূত জনপ্রিয়তা অর্জন করিয়াছিল। একটি গান অবিকল ...
  • 'আইনি পথে' অর্জিত অধিকার হরণ
    ফ্যাসিস্ট শাসন কায়েম ও কর্পোরেট পুঁজির স্বার্থে, দীর্ঘসংগ্রামে অর্জিত অধিকার সমূহকে মোদী সরকার হরণ করছে— আলোচনা করলেন রতন গায়েন। দেশে নয়া উদারবাদী অর্থনীতি লাগু হওয়ার পর থেকেই দক্ষিণপন্থার সুদিন সূচিত হয়েছে। তথাপি ১৯৯০-২০১৪-র মধ্যবর্তী সময়ে ...
  • সম্পাদকীয়-- অর্থনৈতিক সংকটের স্বরূপ
    মোদীর সিংহগর্জন আর অর্থনৈতিক সংকটের তীব্রতাকে চাপা দিয়ে রাখতে পারছে না। অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন শেষ পর্যন্ত স্বীকার করতে বাধ্য হয়েছেন যে ভারতের অর্থনীতি সংকটের সম্মুখীন হয়েছে। সংকট কতটা গভীর সেটা তার স্বীকারোক্তিতে ধরা পড়েনি। ধরা পড়েনি এই নির্মম ...
  • কাশ্মীরি পন্ডিত বিতাড়নঃ মিথ, ইতিহাস ও রাজনীতি
    কাশ্মীরে ডোগরা রাজত্ব প্রতিষ্ঠিত হবার পর তাদের আত্মীয় পরিজনেরা কাশ্মীর উপত্যকায় বসতি শুরু করে। কাশ্মীরি ব্রাহ্মণ সম্প্রদায়ের মানুষেরাও ছিলেন। এরা শিক্ষিত উচ্চ মধ্যবিত্ত ও মধ্যবিত্ত শ্রেনি। দেশভাগের পরেও এদের ছেলেমেয়েরা স্কুল কলেজে পড়াশোনা করেছে। অন্যদিকে ...
  • নিকানো উঠোনে ঝরে রোদ
    "তেরশত নদী শুধায় আমাকে, কোথা থেকে তুমি এলে ?আমি তো এসেছি চর্যাপদের অক্ষরগুলো থেকে ..."সেই অক্ষরগুলোকে ধরার আরেকটা অক্ষম চেষ্টা, আমার নতুন লেখায় ... এক বন্ধু অনেকদিন আগে বলেছিলো, 'আঙ্গুলের গভীর বন্দর থেকে যে নৌকোগুলো ছাড়ে সেগুলো ঠিক-ই গন্তব্যে পৌঁছে যায়' ...
  • খানাকুল - ২
    [এর আগে - https://www.guruchan...


বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

বার্সিলোনা - পর্ব ২

Binary

বার্সিলোনা আসলে স্পেনের শহর হয়েও স্পেনের না। উত্তর পুর্ব স্পেনের যেখানে বার্সিলোনা, সেই অঞ্চল কে বলা হয় ক্যাটালোনিয়া। স্বাধীনদেশ না হয়েও স্বশাসিত প্রদেশ। যেমন কানাডায় কিউবেক। পৃথিবীর প্রায় সব দেশেই মনে হয় এরকম একটা জায়গা থাকে, দেশি হয়েও দেশি না। ইতিহাসের পাতার ক্ষোভের দলিল। গোষ্ঠী সংঘাতের ইতিহাস। কেবল আমাদের দক্ষিন পশ্চিম এশিয়ায় এনিয়ে এখনো রক্ত ঝরে কোথাও কোথাও, স্পেন বা কানাডা রক্ত ঝরে না , চলে সাংবিধানিক বিতর্ক দশকের পর দশক ধরে। সে যাই হোক। বার্সিলোনা আসলে ক্যাটালোনিয়ার রাজধানী। বার্সিলোনাতে স্প্যানিশ-এর সাথেও যে ভাষা তাল মিলিয়ে চলে সেটা ক্যাটালান। ক্যাটালান-এর মিল স্প্যানিশ-এর থেকেও বেশি ফ্রেঞ্চ আর ইতালিয়ান-এর সাথে। বার্সিলোনায় দেখলাম সমস্ত প্রধান বিল্ডিঙের মাথায় পতাকা। এটা অবশ্য প্রায় সমস্ত পশ্চিমি দেশেই দেখেছি। ইউরোপেতো বটেই , কানাডা-আমেরিকাতেও। আমাদের ভারতের আঁতেলরাই খালি জাতীয় পতাকা নিয়ে ঝগড়া করে। কিন্তু বার্সিলোনায় দেখলাম স্প্যানিশ আর ক্যাটালোনিয়ান পতাকা একসাথে উড়ছে।

আমরা টোরোন্টোয় ৫ ঘন্টা লে-ওভার নিয়ে ১৭ ঘন্টা উড়োজাহাজ ভ্রমণ করে বার্সিলোনা পৌঁছাই সকাল ১১টায়। তাও আবার এরপোর্ট-এর ট্যাক্সি ড্রাইভার নামিয়ে দিলো একটা ভুল হোটেলের সামনে। ভুলটা আমার বলার-ও হতে পারে আবার ট্যাক্সি ড্রাইভার মহাশয়ের বোঝারও হতে পারে। ভুল হোটেলের রিসেপসনিস্ট মহিলা আমাদের মালপত্র নিয়ে বেঘোরে অসুবিধায় পড়া নিয়ে চিন্তিত হয়ে রিসেপশন থেকে বেরিয়ে ঠিক হোটেলের পথ বাতলে দিলেন। খুব বেশি দূর না, রাস্তা পেরিয়ে ডানদিকে গিয়ে বামদিকে। আর আমরা তিনজনে তিনটে (আমার ভাগ্যে আরো একটা অতিরিক্ত) ভারী সুটকেস হেঁইও বলে টানতে টানতে চড়াই উৎরাই পথে ঘামতে ঘামতে নির্দিষ্ট হোটেলে পৌঁছে শুনি , সবই ঠিক আছে বাছাধনরা , কিন্তু বিকেল তিনটের আগে চেকইন করা যাবে না , লবিতে অপেক্ষাকরুন। তবে রিসেপশনের লবিতে বসে আমার মেয়ে ঘুমিয়ে পড়ল , তাই না দেখে রিসেপনিস্ট ছোকরা দয়াপরবসত হয়ে দুটোর মধ্যে চেকিং করে দিল। আমরা ঘরে গিয়ে চানটান করে ঘুম লাগলাম। প্রসঙ্গত বলে রাখি , সারা বার্সিলোনা শহরের রাস্তা চড়াইউৎরাই বেশি , সমতল কম।

ক্যাসমিলা বা যাকে চলতি ভাষায় বলে লা-পেদেরা , একশো বছর আগের তৈরী একটি বসত বাটি। গত শতকের প্রথমার্ধে নামকরা স্প্যানীয় আর্কিটেক্ট এন্টনি গাউদি-র ডিসাইন করা। একটু অপ্রচলিত নিয়মানুযায়ী নকশা। এই বাড়ির মাথায় যত চিমনি, ভেন্টিলেশন টাওয়ার আছে সব গুলো ঘিরে বিমূর্ত গঠন। কোনটা স্ফীঙসের মত, কোনটা ড্রাগন আকারের। সেখানে রাতের বেলা লাইট আর সাউন্ড শো হয়। আমরা সেদিন সন্ধ্যেবেলা ঘুম থেকে উঠে সেই লাইট-সাউন্ডের রাত ১০টার শো দেখতে গেলাম। তার আগে প্যাসিং-দে-গ্রাসিয়া , মানে যে রাস্তায় ক্যাসমিলা, সেই রাস্তার ওপরে একটা মোটামুটি ছিমছাম রেস্তোরায় ক্যাটালিনিয়ান খাবার খেলাম। মেনুতে দেখি প্রায় ৫০ রকমের পদ , কিন্তু সব গুলোই স্ন্যাক সাইজ। চিকেন টোম্যাটো আর পাউরুটি ছোট ছোট স্কিউয়ার করা, ছোট্ট বাটিতে ডালের পেস্ট আর চিংড়িমাছ তাতে কিসমিস আর পাইন বাদাম, পাউরুটির ওপরে হরেক রকম গ্রিল্ড সবজি (যার নাম এস্কেলিভাদা), সেদ্ধ করা ঝিনুক, টোম্যাটো আর পেঁয়াজ দেওয়া কড মাছের স্যালাড ইত্যাদি। আমি বিয়ার অর্ডার করতে জিজ্ঞেস করলো একলিটার না দুলিটার ? আঁতকে উঠে বললাম 'না না হাফ লিটার বা তার কম নেই ?' তো, মিচকে হেসে করুনা করে হাফ লিটারের জাগ্ দিয়ে গেল। পরে দেখেছি ওখানে দোকানে লোকজন এক লিটারের কম মদ খায় না , সে বিয়ার-ই হোক বা সাংগ্রিয়া।

রেস্তোরায় রাতের খাওয়া সেরেছি ৯টার সময়। স্ন্যাক সাইজের প্রায় ১৫ রকম ভ্যারাইটি খাবার আর হাফ লিটার বিয়ার খেয়ে শরীর চাঙ্গা। তখনও এক ঘন্টা বাকি ক্যাসমিলার ছাদের লাইট-সাউন্ড শো শুরু হতে। আমি প্যাসিং-দে-গ্রাসিয়া ধরে গদাইলস্কর চালে হেঁটে বেড়াচ্ছি। রাস্তায় প্রচুর লোকজন , আলোর মেলা , বড় বড় দোকানের কাঁচের শোরুমে আলোর রোশনাই , খাবারের দোকান গুলোর সাইডওয়াকের প্যাটিওতে খানাপিনার হল্লা আর গুলতানি, মিউসিক বক্সের গানের সাথে জোড়ায় জোড়ায় নাচছে মেয়ে পুরুষ। আমার বৌ আর মেয়ে একটা বেঞ্চিতে বসে সান্ধ্য ফটোসেশনে ব্যস্ত। এমন সময় দেখি একজন মাঝ বয়সী লোক, দোহারা চেহারা, মাঝারি উচ্চতার আকাশি বুশার্ট আর বাদামি ট্রাউসার পরা, চেহারায় আমাদের মতো সাউথ এশিয়ান, হাতে প্রায় ৫০টা গোলাপ ফুলের একটা গোছা নিয়ে হাসি হাসি মুখে আমাদের দিকে আসছে। লোকটা আমাদের কাছে এসে সরাসরি হিন্দি (অথবা ঊর্দু) জিজ্ঞেস করলো
-- আপলোগ কিধারসে ?
-- ইন্ডিয়া (কানাডা চেপে গেলুম) , আপ ?
-- পাকিস্তান, আপ ঘুমনে আয়ে হো ?
-- হাঁ
-- ইন্ডিয়া কিধার ?
-- কলকাতা
-- আচ্ছা , দাদাকা সিটি
-- ...
-- আপকা বেটি ? বহত সুইট , উমর ?
-- (মেয়ে ভেবলে আছে, হিন্দি জানে না তাই)
-- (আমি বললুম) নাইনটিন
-- মেরে ভি ঠিক আইসা বেটি

বলে একটা সাদা গোলাপ মেয়েকে আর একটা মেয়ের মা কে অফার করলো ? শুধু শুধু দুটো গোলাপফুল কেনার ইচ্ছে একেবারেই ছিল না , তাই আমরা ক্রমাগত নানানানা করতে লাগলাম। লোকটা বলে 'রাখ লিজিয়ে, খরিদকে লিয়ে নেহি'। বলে জোর করে হাতে গুঁজে দিয়ে চলে গেল। আমরা খানিক্ষন হাতে নিয়ে নাড়াচাড়া করে কি করব ভাবছি, একদম ওয়েস্টবিনে ফেলে দিতে মন চায়না, শেষে রাস্তার ধারের একটা ফুলের টবে বসিয়ে দিলাম।

বাড়ি এসে নেট খুলে দেখতে দেখতে বৌ বলল , 'ওই দ্যাখো, ভুলে গেছিলাম এখন তো রমাদান, লোকটা বোধয় খুশির ফুল বিলি করছে'।

ঘুমোনোর আগে ভাবলাম , লোকটার নাম জিজ্ঞেস করতে ভুলে গেছি।

(চলবে)

247 বার পঠিত (সেপ্টেম্বর ২০১৮ থেকে)

শেয়ার করুন


Avatar: Binary

Re: বার্সিলোনা - পর্ব ২


Avatar: ন্যাড়া

Re: বার্সিলোনা - পর্ব ২

আমার বেড়াতে যাবার প্রধান উদ্দেশ্য থাকে খাওয়া। কাছাকাছি স্প্যানিশ খাবারের দোকান হয়ে যাওয়ায় আমার আর স্পেন যাওয়া হবেনা। ওই ছোট স্ন্যাক সাইজের ছোট প্লেটকেই টাপাস বলে না?

বাইনারিদার বেড়ানর আর সেখানে মানুষ দেখার লেখাগুলো বড়ই ভাল হয়।
Avatar: .

Re: বার্সিলোনা - পর্ব ২

পর্ব ১টা কোথায় গেল?
Avatar: Binary

Re: বার্সিলোনা - পর্ব ২

হ্যাঁ টাপাস, আমি প্রথমে তাপস পড়ছিলাম যদিও :)
Avatar: দ

Re: বার্সিলোনা - পর্ব ২

বা বা বা
Avatar: lcm

Re: বার্সিলোনা - পর্ব ২

যথারীতি, হেব্বি হচ্ছে।

বাইনারি,
ক্যাগানের (Caganer) খেলনা দেখলে, ফুটপাথে এবং রাস্তার ধারের দোকানে ভর্তি, বিখ্যাত লোকেদের ছোট ছোট মূর্তি সেখানে তারা পেন্টুল খুলে হাগু করতে বসেছেন, এটা অবশ্য ক্রিসমাসের সময়ই বেশি দেখা যায়, মূলত ক্যাটালান অঞ্চলে।
Avatar: Binary

Re: বার্সিলোনা - পর্ব ২

হ্যাঁ হ্যাঁ দেখিছি । প্রথমে বুঝিনি পরে উইকি দেখলাম । সেটাও লেখার কথা। তবে সব গুলো বিখ্যাত মানুষের মূর্তি কিনা জানি না । আমার মনে হল নেটিভ ক্যাটালান লোকজন


আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন