জান্নাতুল ফেরদৌস লাবণ্য RSS feed

জান্নাতুল ফেরদৌস লাবণ্যের খেরোর খাতা।

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • দক্ষিণের কড়চা
    গরু বাগদির মর্মরহস্য➡️মাঝে কেবল একটি একক বাঁশের সাঁকো। তার দোসর আরেকটি ধরার বাঁশ লম্বালম্বি। সাঁকোর নিচে অতিদূর জ্বরের মতো পাতলা একটি খাল নিজের গায়ে কচুরিপানার চাদর জড়িয়ে রুগ্ন বহুকাল। খালটি জলনিকাশির। ঘোর বর্ষায় ফুলে ফেঁপে ওঠে পচা লাশের মতো। যেহেতু এই ...
  • বাংলায় এনআরসি ?
    বাংলায় শেষমেস এনআরসি হবে, না হবে না, জানি না। তবে গ্রামের সাধারণ নিরক্ষর মানুষের মনে তীব্র আতঙ্ক ছড়িয়েছে। আজ ব্লক অফিসে গেছিলাম। দেখে তাজ্জব! এত এত মানু্ষের রেশন কার্ডে ভুল! কয়েকজনের সাথে কথা বলে জানলাম প্রায় সবার ভোটারেও ভুল। সব আইকার্ড নির্ভুল আছে এমন ...
  • যান্ত্রিক বিপিন
    (১)বিপিন বাবু সোদপুর থেকে ডি এন ৪৬ ধরবেন। প্রতিদিন’ই ধরেন। গত তিন-চার বছর ধরে এটাই বিপিন’বাবুর অফিস যাওয়ার রুট। হিতাচি এসি কোম্পানীর সিনিয়র টেকনিশিয়ন, বয়েস আটান্ন। এত বেশী বয়েসে বাড়ি বাড়ি ঘুরে এসি সার্ভিসিং করা, ইন্সটল করা একটু চাপ।ভুল বললাম, অনেকটাই চাপ। ...
  • কাইট রানার ও তার বাপের গল্প
    গত তিন বছর ধরে ছেলের খুব ঘুড়ি ওড়ানোর শখ। গত দুবার আমাকে দিয়ে ঘুড়ি লাটাই কিনিয়েছে কিন্তু ওড়াতে পারেনা - কায়দা করার আগেই ঘুড়ি ছিঁড়ে যায়। গত বছর আমাকে নিয়ে ছাদে গেছিল কিন্তু এই ব্যপারে আমিও তথৈবচ - ছোটবেলায় মাথায় ঢুকিয়ে দেওয়া হয়েছিল ঘুড়ি ওড়ানো "বদ ছেলে" দের ...
  • কুচু-মনা উপাখ্যান
    ১৯৮৩ সনের মাঝামাঝি অকস্মাৎ আমাদের বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ(ক) শ্রেণী দুই দলে বিভক্ত হইয়া গেল।এতদিন ক্লাসে নিরঙ্কুশ তথা একচ্ছত্র আধিপত্য বিস্তার করিয়া ছিল কুচু। কুচুর ভাল নাম কচ কুমার অধিকারী। সে ক্লাসে স্বীয় মহিমায় প্রভূত জনপ্রিয়তা অর্জন করিয়াছিল। একটি গান অবিকল ...
  • 'আইনি পথে' অর্জিত অধিকার হরণ
    ফ্যাসিস্ট শাসন কায়েম ও কর্পোরেট পুঁজির স্বার্থে, দীর্ঘসংগ্রামে অর্জিত অধিকার সমূহকে মোদী সরকার হরণ করছে— আলোচনা করলেন রতন গায়েন। দেশে নয়া উদারবাদী অর্থনীতি লাগু হওয়ার পর থেকেই দক্ষিণপন্থার সুদিন সূচিত হয়েছে। তথাপি ১৯৯০-২০১৪-র মধ্যবর্তী সময়ে ...
  • সম্পাদকীয়-- অর্থনৈতিক সংকটের স্বরূপ
    মোদীর সিংহগর্জন আর অর্থনৈতিক সংকটের তীব্রতাকে চাপা দিয়ে রাখতে পারছে না। অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন শেষ পর্যন্ত স্বীকার করতে বাধ্য হয়েছেন যে ভারতের অর্থনীতি সংকটের সম্মুখীন হয়েছে। সংকট কতটা গভীর সেটা তার স্বীকারোক্তিতে ধরা পড়েনি। ধরা পড়েনি এই নির্মম ...
  • কাশ্মীরি পন্ডিত বিতাড়নঃ মিথ, ইতিহাস ও রাজনীতি
    কাশ্মীরে ডোগরা রাজত্ব প্রতিষ্ঠিত হবার পর তাদের আত্মীয় পরিজনেরা কাশ্মীর উপত্যকায় বসতি শুরু করে। কাশ্মীরি ব্রাহ্মণ সম্প্রদায়ের মানুষেরাও ছিলেন। এরা শিক্ষিত উচ্চ মধ্যবিত্ত ও মধ্যবিত্ত শ্রেনি। দেশভাগের পরেও এদের ছেলেমেয়েরা স্কুল কলেজে পড়াশোনা করেছে। অন্যদিকে ...
  • নিকানো উঠোনে ঝরে রোদ
    "তেরশত নদী শুধায় আমাকে, কোথা থেকে তুমি এলে ?আমি তো এসেছি চর্যাপদের অক্ষরগুলো থেকে ..."সেই অক্ষরগুলোকে ধরার আরেকটা অক্ষম চেষ্টা, আমার নতুন লেখায় ... এক বন্ধু অনেকদিন আগে বলেছিলো, 'আঙ্গুলের গভীর বন্দর থেকে যে নৌকোগুলো ছাড়ে সেগুলো ঠিক-ই গন্তব্যে পৌঁছে যায়' ...
  • খানাকুল - ২
    [এর আগে - https://www.guruchan...


বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

চিন্তা

জান্নাতুল ফেরদৌস লাবণ্য

:আচ্ছা লাবণ্য তুমি কি করো?

আমি গম্ভীর গলায় জবাব দিলাম, আমি চিন্তা করি।

:কি চিন্তা করো?

-অনেক গুরুত্বপূর্ণ চিন্তা করি। দেশের সব লেটেস্ট নিউজগুলো তো আমাকেই সবার আগে আগে ফেসবুকে আপডেট দিতে হয়! সেখান থেকে শেয়ার হয়ে ছড়িয়ে পড়ে।

সদ্য বিসিএস ক্যাডার হ‌ওয়া অনিক অবাক হয়ে আমার দিকে তাকালো।

আমরা বসে আছি H20 রেস্টুরেন্টে। আজকাল নতুন একটা রীতি হয়েছে। কনে দেখাদেখি বাড়িতে না হয়ে রেস্টুরেন্টে হচ্ছে। আমার জন্য ভালো হয়েছে। মন খুলে আলাপ করা যাবে। ইদানিং আমার কর্মকাণ্ডে আমার কোন ফ্রেন্ড‌ই বেশীদিন লাস্টিং করছে না। কোম্পানি হিসেবে আমি খুব বেশী ভালো না।

অনিক অবাক হয়ে প্রশ্ন করলো, আমি জানতে চাইছি এমনিতে তুমি কি করো? পড়াশোনা ছাড়া তোমার আর হবি কি?

আমি পুনরায় এক‌ই জবাব দিলাম, চিন্তা করা।

অনিক বললো,ঘরে বসে এত কি চিন্তা করো?

আমি বললাম,এত কি চিন্তা করি মানে! আমার চিন্তার শেষ আছে? এই ধরেন সকালে উঠে ফুচকা খাবো না চটপটি, এইটা চিন্তা করি। তারপর চা খাবো না কফি। কফি কি ক্রিম মিশিয়ে খাবো না কালো? তারপর মুভি দেখতে বসে চিন্তা করি তামিল দেখবো না তেলেগু। কাটাপ্পা কেন বাহুবালীকে মেরেছিলো?অনুশকা শেট্টি বেশী সুন্দর না সামান্থা? সালমান খানের কি ক্যাটরিনার সাথে রিলেশন চলে? দীপিকার বরের ড্রেসিং সেন্স এত খারাপ কেন? তারপর ধরেন রিফাত যে মারা গেল সেখানে মিন্নির দোষ কতখানি? সারেগামাপায় নোবেলকে থার্ড করা হলো কেন? সালমান জেসিয়া কিভাবে সমাজটা ধ্বংস করে দিচ্ছে? আর্জেন্টিনা সাপোর্টাররা কি দেখে আর্জেন্টিনা সাপোর্ট করে? প্রতিবার ভারত বিশ্বকাপ কেন পায়? জয়া আহসান আর রশিদ খানের বয়স কেন বাড়ে না? তারপর ধরেন.........

অনিক আমাকে থামিয়ে দিয়ে লম্বা লম্বা শ্বাস নিতে শুরু করলো। কি আশ্চর্য! কথা বলছি আমি দম আটকে গেছে তার!

:লাবণ্য! আমার সম্ভবত হার্ট অ্যাটাক হবে!

বলতে বলতে অনিক বুকে হাত দিল। আমি জ্ঞান দেয়ার ভঙ্গিতে বললাম, নো টেনশন! হার্ট অ্যাটাক হলে হবে! ৮০% মুভিতে দেখা যায় হার্ট অ্যাটাক হলে মানুষ মরে না। আপনার হার্ট এটাক হলে আমি রক্ত দেবো। ইনফ্যাক্ট আপনার যাই হোক আমি রক্ত দেবো। রক্ত নিয়ে ভাববেন না।

: রক্ত নিয়ে ভাববো না কেন?

-কারণ এখন আমি আপনার নায়িকা! আপনার যা কিছু হোক রক্ত দিয়ে আপনাকে বাঁচানো আমার দায়িত্ব! বাই দা ওয়ে,আপনার রক্তের গ্রুপ কি?

অনিক বুক থেকে হাত নামিয়ে সোজা হয়ে বসলো। আমার দিকে খানিকক্ষণ তাকিয়ে থেকে বললো, তোমার জীবনের লক্ষ্য কি?

আমি হাসিমুখে বললাম,ওয়ান মিলিয়ন লাইক। ফেসবুকে একটা স্ট্যাটাস দিয়ে ওয়ান মিলিয়ন লাইক পেতে চাই। তারপর ধরেন, তামিল আর তেলেগু যত মুভি আছে সব দেখে শেষ করতে চাই। তারপর চাই যে,আমার যে বর হবে মানে আপনি! আমরা দুইজন একটা জোশ কাপল পিক তুলবো সেটা ফেসবুকে মিনিমাম ত্রিশ হাজার লাইক পাবে। কি বুঝলেন?

অনিক হতাশ চোখে তাকিয়ে আছে। তারপর বললো, সরি!! এ বিয়েটা হচ্ছে না।

আমি অবাক হয়ে বললাম, কেন হচ্ছে না? বিয়ে না হলে তো আপনার সাথে এসব গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো নিয়ে আমি আলোচনা করতে পারবো না! আমার কোনো বন্ধুও নাই। এইগুলা আলোচনা করার জন্য আমার আপনাকে চাই।

অনিক বললো, তুমি কখনো বিসিএস দেয়ার ব্যাপারে ভেবেছো? চাকরি বাকরি এসবের ব্যাপারে?

আমি অবাক গলায় বললাম, চাকরি! কিন্তু কেন? আপনি তো চাকরি করবেন‌ই! আপনার ইনকামে আমাদের চলে যাবে না?

: হ্যাঁ! তা যাবে! তাই বলে কি তুমি চাকরির চিন্তা করবা না?

আমি উপদেশ দেয়ার ভঙ্গিতে বললাম, এই দেশে দারিদ্র্যতা আর বেকারত্বের হার সম্পর্কে আপনার ধারণা আছে? কত ছেলে আছে তার চাকরীর ওপরে তার পুরো পরিবার আশা করে আছে। যেহেতু আপনার ইনকামে আমাদের সংসার চলে যাবে সুতরাং কেন আমি চাকরির বাজারে একটা জায়গা অকারণে দখল করে বসে থাকবো? সেটা একটা গরীব ছেলের জন্য ছেড়ে দেয়া ভালো!

অনিক বিস্ফারিত চোখে তাকিয়ে বললো, এইজন্য তুমি বিশ্ববিদ্যালয়েও এডমিশন পরীক্ষা দাওনি?

আমি হাসিমুখে জবাব দিলাম, অবশ্যই! খামাখা একজন মেধাবী ছাত্রের সিট দখল করে কি লাভ! আর তাছাড়া আমার জরুরী কাজ থাকে।

:কি এমন কাজ থাকে তোমার?

-বাহ! এতক্ষণ কি বললাম? দেশের লেটেস্ট আপডেটগুলো নিয়ে ফেসবুকে আলোচনা সমালোচনা করা,সাউথ ইন্ডিয়ান মুভি নিয়ে গবেষণা আর........

অনিক আমাকে থামিয়ে দিয়ে বললো, আচ্ছা! আচ্ছা! আচ্ছা! আমার একটু কাজ আছে! পরে কথা হবে?

বলেই দৌড় লাগালো। আমি উঠলাম না। বসে বসে একটা গুরুত্বপূর্ণ চিন্তা করতে লাগলাম, মানুষ যখন একেবারেই চলে যাবে তখন বলবে,গুডবাই! কিন্তু বাঙ্গালী বলে,পরে কথা হবে! এমন কেন?

লেখা- জান্নাতুল ফেরদৌস লাবণ্য

286 বার পঠিত (সেপ্টেম্বর ২০১৮ থেকে)

শেয়ার করুন


Avatar: কল্লোল

Re: চিন্তা

বেশ শিক্ষামূলক।

Avatar: বিপ্লব রহমান

Re: চিন্তা

পুরাই বোম্বে সুইটস চানাচু! আমোদ পাইলাম 😝


আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন