Ritwik Gangopadhyay RSS feed

Ritwik Gangopadhyayএর খেরোর খাতা।

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • আমাদের চমৎকার বড়দা প্রসঙ্গে
    ইয়ে, স-অ-অ-অ-ব দেখছে। বড়দা সব দেখছে। বড়দা স্রেফ দেখেনি ওইখানে এক দিন রাম জন্মালেন, তার পর কারা বিদেশ থেকে এসে যেন ভেঙেটেঙে মসজিদ স্থাপন করল, কেন না বড়দা তখন ঘুমোচ্ছিলেন। ঘুম ভাঙল যখন, চোখ কচলেটচলে দেখলেন মস্ত ব্যাপার এ, বড়দা বললেন, ভেঙে ফেলো মসজিদ, জমি ...
  • ধর্ষকের মৃত্যুদন্ড দিলেই সব সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে ?
    যেকোন নারকীয় ধর্ষণের ঘটনা সংবাদ মাধ্যমে প্রতিফলিত হয়ে সামনে আসার পর নাগরিক হিসাবে আমাদের একটা ঈমানি দায়িত্ব থাকে। দায়িত্বটা হল অভিযুক্ত ধর্ষকের কঠোরতম শাস্তির দাবি করা। কঠোরতম শাস্তি বলতে কারোর কাছে মৃত্যুদন্ড। কেউ একটু এগিয়ে ধর্ষকের পুরুষাঙ্গ কেটে নেওয়ার ...
  • তোমার পূজার ছলে
    বাঙালি মধ্যবিত্তের মার্জিত ও পরিশীলিত হাবভাব দেখতে বেশ লাগে। অপসংস্কৃতি নিয়ে বাঙালি চিরকাল ওয়াকিবহাল ছিল। আজও আছে। বেশ লাগে। কিন্তু, বুকে হাত দিয়ে বলুন, আপনার প্রবল ক্ষোভ ও অপমানে আপনার কি খুব পরিশীলিত, গঙ্গাজলে ধোওয়া আদ্যন্ত সাত্ত্বিক শব্দ মনে পড়ে? না ...
  • The Irishman
    দা আইরিশম্যান। সিনেমা প্রেমীদের জন্য মার্টিন স্করসিসের নতুন বিস্ময়। ট্যাক্সি ড্রাইভার, গুডফেলাস, ক্যাসিনো, গ্যাংস অব নিউইয়র্ক, দা অ্যাভিয়েটর, দ্য ডিপার্টেড, শাটার আইল্যান্ড, দ্য উল্ফ অব ওয়াল স্ট্রিট, সাইলেন্টের পরের জায়গা দা আইরিশম্যান। বর্তমান সময়ের ...
  • তোকে আমরা কী দিইনি?
    পূর্ণেন্দু পত্রী মশাই মার্জনা করবেন -********তোকে আমরা কী দিইনি নরেন?আগুন জ্বালিয়ে হোলি খেলবি বলে আমরা তোকে দিয়েছি এক ট্রেন ভর্তি করসেবক। দেদার মুসলমান মারবি বলে তুলে দিয়েছি পুরো গুজরাট। তোর রাজধর্ম পালন করতে ইচ্ছে করে বলে পাঠিয়ে দিয়েছি স্বয়ং আদবানীজীকে, ...
  • ইশকুল ও আর্কাদি গাইদার
    "জাহাজ আসে, বলে, ধন্যি খোকা !বিমান আসে, বলে, ধন্যি খোকা !এঞ্জিনও যায়, ধন্যি তোরে খোকা !আসে তরুণ পাইওনিয়র,সেলাম তোরে খোকা !"আরজামাস বলে একটা শহর ছিল। ছোট্ট শহর, অনেক দূরের, অন্য মহাদেশে। অনেক ছোটবেলায় চিনে ফেলেছিলাম। ভৌগোলিক দূরত্ব টের পাইনি।টের পেতে দেননি ...
  • ছন্দহীন কবিতা
    একদিন দুঃসাহসের পাখায় ভর করে,ছুঁতে চেয়েছিলাম কবিতার শরীর ।দ্বিখন্ডিত বাংলার মত কবিতা হয়ে উঠলোছন্দহীন ।অর্থহীন যাত্রার “কা কা” চিৎকারে,ছুটে এলোপ্রতিবাদী পাঠক।ছন্দভঙ্গের নায়কডানা ভেঙ্গে পড়িপুঁথি পুস্তকের এক দোকানে।আলোক প্রাপ্তির প্রত্যাশায়,যোগ ধ্যানে কেটে ...
  • হ্যালোউইনের ভূত
    হ্যালোউইন চলে গেল। আমাদের বাড়িতে হ্যালোউইনের রীতি হল মেয়েরা বন্ধুদের সঙ্গে ট্রিক-অর-ট্রিট করতে বেরোয় দল বেঁধে। পেছনে পেছনে চলে মায়েদের দল। আর আমি বাড়িতে থাকি ক্যান্ডি বিতরণ করব বলে। মুহূর্মুহূ কলিং বেল বাজে, আমি হাসি-হাসি মুখে ক্যান্ডির গামলা নিয়ে দরজা ...
  • হয়নি
    তুমি ভালবাসতে চেয়েছিলে।আমিও ।হয়নি।তুমিঅনেক দূর অব্দি চলে এসেছিলে।আমিও ।হয়নি আর পথ চলা।তুমি ফিরে গেলে,জানালে,ভালবাসতে চেয়েছিলেহয়নি। আমি জানলামচেয়ে পাইনি।হয়নি।জলভেজা চোখে ভেসে গেলআমাদের অতীত।স্মিত হেসে সামনে এসে দাঁড়ালোপথদুজনার দু টি পথ।সেপ্টেম্বর ২২, ...
  • তিরাশির শীত
    ১৯৮৩ র শীতে লয়েডের ওয়েস্টইন্ডিজ ভারতে সফর করতে এলো। সেই সময়কার আমাদের মফস্বলের সেই শীতঋতু, তাজা খেজুর রস ও রকমারি টোপা কুলে আয়োজিত, রঙিন কমলালেবু-সুরভিত, কিছু অন্যরকম ছিলো। এত শীত, এত শীত সেই অধুনাবিস্মৃত কালে, কুয়াশাআচ্ছন্ন পুকুরের লেগে থাকা হিমে মাছ ...


বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

আনকথা যানকথা

Ritwik Gangopadhyay

*****আনকথা যানকথা*****

মোটরবাইক ঃ ইহা একটি দ্বিচক্রী স্থলযান। পেট্রল ডিজেল জাতীয় জীবাশ্ম জ্বালানির সাহায্যে চলে। বিভিন্ন আকারের ও বিভিন্ন ক্ষমতাসম্পন্ন মোটরবাইক আমরা দেখিতে পাই। কোন কোন বাইকের পাশে ক্যারিয়ার থাকে। শোলে বাইক আজকাল সেরকম দেখিতে পাওয়া যায়না। যানজট জনিত সমস্যায় বাইক অকুতোভয়, অত্যল্প জায়গার ভেতর দিয়েও ইহা নিষ্ক্রান্ত হইতে পারে। বাইকে চড়িবার পর হেলমেট পরিবার প্রয়োজন। অন্যথা ফেজ টুপি চলিতে পারে। রাস্তার মোড়ে পুলিশ দেখিতে পেলে শীর্ন গলিপথ ধরিয়া অন্তর্হিত হওয়াই শ্রেয় কারন বাইক বড়ই জরিমানাপ্রবণ। পুলিশের বাইকের অবশ্য সে ভয় নাই।বাইক আমাদের সময় বাঁচায়। যদিও বাইক চড়িয়াছে কিন্ত হাত পা মাজা ভাঙে নাই এমন লোক পাওয়া দুষ্কর।

বিধিবদ্ধ সতর্কীকরন ঃ রাত্রিকালে উচ্চগতিসম্পন্ন কিছু বাইক শহরের রাস্তায় দাপাইয়া বেড়ায়। উহারা ধরা ছোঁয়ার বাইরে থাকা নূতন যৌবনের দূত। উহাদের দেখা পাইলে রাস্তা ছাড়িয়া দেওয়াই ভালো। অন্যথা বিস্তর হেনস্থা হইতে পারে। এই বাইকগুলির একটি অদ্ভুত ক্ষমতা হইলো যে পুলিশ ইহাদের দেখিতে পায়না। এই প্রযুক্তি অভাবনীয়।

মনে রাখিবেন বাইকের কোন ধর্ম নাই।

ট্রাক ঃ ন্যূনতম চার চাকা বিশিষ্ট স্থলযান। ইহা ছাড়া আট, ষোল, বত্রিশ চাকারও হইতে পারে। পরিবহণ শিল্পে ইহারা ব্যবহৃত হয়। পেট্রোল বা ডিজেলে চলে। মূলত শহরাঞ্চলের বাইরেই এদের আনাগোনা যদিও কোন মন্ত্রবলে ইহারা ব্যস্ত প্রহরে শহরের কেন্দ্রস্থলে ঢুকিয়া পড়ে সে এক রহস্য। ইহা উচ্চগতিসম্পন্ন যান নহে কিন্ত দূরত্ব বজায় রাখাই কাম্য কারন ইহাদের ভরবেগ ও স্বাভিমান অত্যন্ত বেশী। ট্রাকে চড়িয়া যাওয়া বড়োই আনন্দদায়ক তাহা আলিয়া ভাট মাত্রেই জানেন।

বিধিবদ্ধ সতর্কীকরন ঃ একশ্রেণীর দুষ্ট ট্রাক মাঝে মাঝে নিরীহ জনতার উপরে ঝাঁপাইয়া পড়িয়া উহাদের পিষিয়া দ্যায়৷ এই ঘটনা বিদেশের সুদৃশ্য জনগনের উপরেই ঘটিয়া থাকে কারন উহাদের প্রাণের মূল্য বেশী।

মনে রাখিবেন ট্রাকের কোন ধর্ম নাই।

উড়োজাহাজ ঃ দ্বিপক্ষ বিশিষ্ট ভূযান। ইহা ছাড়া ল্যাজের কাছেও ক্ষুদ্রাকায় পাখা থাকে ভারসাম্যের জন্য। শীতাতপনিয়ন্ত্রিত এবং আরামপ্রদ এই খোঁদলের মধ্যে বসিয়া নব্য বিত্তশালীরা শ্লাঘাবোধ করিতে করিতে দ্রুত বিভিন্ন জায়গায় গমন করেন। উড়োজাহাজে উঠিতে গেলে নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থার ভেতর দিয়ে যাইতেই হইবে। ফেজটুপিধারীদের এই জায়গায় খুবই হেনস্থার সম্মুখীন হইতে হয়। সুহাসিনী সেবিকা দ্বারা পরিচালিত এই অর্ণবপোত উচ্চজাতের পেট্রল দ্বারা চলাচল করে। উড়োজাহাজ ভাঙিয়া পড়িলে দ্রুত পরলোকগত হওয়া যায়। যুদ্ধের কাজে এদের ভূমিকা অনস্বীকার্য।পড়শী দেশের কাক ইহাদের খুবই ভয় পায়। ইহাদের ক্রয় বিক্রয় সংক্রান্ত কিছু ধোঁয়াশা আপাতত গেরুয়া ঝড়ে ভাসিয়া গিয়াছে।

বিধিবদ্ধ সতর্কীকরন ঃ উঁচু বাড়ির সাথে আলিঙ্গনবদ্ধ হওয়ার প্রবণতা আছে। অতএব ইহাদের খুব নীচে নামিতে দেখিলে মোবাইল তাক করিতে ভুলিবেন না। শব্দের চেয়েও জোরে ছুটিতে ছুটিতে শ্রীরাধিকা ও বাসুদেবের সেই প্রেমডোরে মিশে যাওয়া দেখিতে পাওয়া এক অভূতপূর্ব দৃশ্য।

মনে রাখিবেন উড়োজাহাজের কোন ধর্ম হয়না।

367 বার পঠিত (সেপ্টেম্বর ২০১৮ থেকে)

শেয়ার করুন


Avatar: ষষ্ঠ পাণ্ডব

Re: আনকথা যানকথা

"উড়োজাহাজ ঃ দ্বিপক্ষ বিশিষ্ট ভূযান" - এটাকে শুধু 'ভূযান' বললে কি ঠিক হয়, নাকি 'ভূ-ব্যোমযান' বললে ঠিক হয়? কখনো কখনো এটা অবশ্য 'ভূপাতিতযান'ও হয়।
Avatar: কল্লোল

Re: আনকথা যানকথা

একখানা যান ছিলো বেশ কিছুকাল আগে। আজকাল বড় চোখে পড়ে না।
একটি বা দুটি ছোট তক্তা জোড়া দিয়া চওড়ায় একফুট লম্বায় দেড় ফুট। পিছনে দুটি চাকা - আদতে দুটি বল বেয়ারিং। সামনে একটি কাঠের ফালি আড়াই ফুট লম্বা তক্তার তলা দিয়ে লাগানো তার সাথে একটি বল বেয়ারিং। এটি দিয়ে দিক পরিবর্তন করা যায়।
একজন বসে থাকে - সে কনট্রোলার, অন্যজন ঠেলে ও জোরে ঠেলে চড়ে বসে - সে ড্রাইভার। উভয়েই সওয়ারও বটে।

Avatar: dd

Re: আনকথা যানকথা

ভালো লাগলো
Avatar: Du

Re: আনকথা যানকথা

লরেন পার্টি সাধ্বীপন্থী।


আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন