জান্নাতুল ফেরদৌস লাবণ্য RSS feed

জান্নাতুল ফেরদৌস লাবণ্যের খেরোর খাতা।

আরও পড়ুন...
সাম্প্রতিক লেখালিখি RSS feed
  • ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা... বাংলাদেশের রাজনীতির গতিপথ পরিবর্তন হওয়ার দিন
    বিএনপি এখন অস্তিত্ব সংকটে আছে। কিন্তু কয়েক বছর আগেও পরিস্থিতি এমন ছিল না। ক্ষমতার তাপে মাথা নষ্ট হয়ে গিয়েছিল দলটার। ফলাফল ২০০৪ সালের ২১ আগস্টে তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেত্রী শেখ হাসিনাকে গ্রেনেড মেরে হত্যার চেষ্টা। বিরোধীদলের নেত্রীকে হত্যার চেষ্টা করলেই ...
  • তোমার বাড়ি
    তোমার বাড়ি মেঘের কাছে, তোমার গ্রামে বরফ আজো?আজ, সীমান্তবর্তী শহর, শুধুই বেয়নেটে সাজো।সারাটা দিন বুটের টহল, সারাটা দিন বন্দী ঘরে।সমস্ত রাত দুয়ারগুলি অবিরত ভাঙলো ঝড়ে।জেনেছো আজ, কেউ আসেনি: তোমার জন্য পরিত্রাতা।তোমার নমাজ হয় না আদায়, তোমার চোখে পেলেট ...
  • বার্সিলোনা - পর্ব ২
    বার্সিলোনা আসলে স্পেনের শহর হয়েও স্পেনের না। উত্তর পুর্ব স্পেনের যেখানে বার্সিলোনা, সেই অঞ্চল কে বলা হয় ক্যাটালোনিয়া। স্বাধীনদেশ না হয়েও স্বশাসিত প্রদেশ। যেমন কানাডায় কিউবেক। পৃথিবীর প্রায় সব দেশেই মনে হয় এরকম একটা জায়গা থাকে, দেশি হয়েও দেশি না। ...
  • বার্সিলোনা - পর্ব ১
    ঠিক করেছিলাম আট-নয়দিন স্পেন বেড়াতে গেলে, বার্সিলোনাতেই থাকব। বেড়ানোর সময়টুকুর মধ্যে খুব দৌড় ঝাঁপ, এক দিনে একটা শহর দেখে বা একটা গন্তব্যের দেখার জায়গা ফর্দ মিলিয়ে শেষ করে আবার মাল পত্তর নিয়ে পরবর্তী গন্তব্যের দিকে ভোর রাতে রওনা হওয়া, আর এই করে ১০ দিনে ৮ ...
  • লাল ঝুঁটি কাকাতুয়া
    -'একটা ছিল লাল ঝুঁটি কাকাতুয়া।আর ছিল একটা নীল ঝুঁটি মামাতুয়া।'-'এরা কারা?' মেয়েটা সঙ্গে সঙ্গে চোখ বড়ো করে অদ্ভুত লোকটাকে জিজ্ঞেস করে।-'আসলে কাকাতুয়া আর মামাতুয়া এক জনই। ওর আসল নাম তুয়া। কাকা-ও তুয়া বলে ডাকে, মামা-ও ডাকে তুয়া।'শুনেই মেয়েটা ফিক করে হেসে ...
  • স্টার্ট-আপ সম্বন্ধে দুচার কথা যা আমি জানি
    স্টার্ট-আপ সম্বন্ধে দুচার কথা যা আমি জানি। আমি স্টার্ট-আপ কোম্পানিতে কাজ করছি ১৯৯৮ সাল থেকে। সিলিকন ভ্যালিতে। সময়ের একটা আন্দাজ দিতে বলি - গুগুল তখনও শুধু সিলিকন ভ্যালির আনাচে-কানাচে, ফেসবুকের নামগন্ধ নেই, ইয়াহুর বয়েস বছর চারেক, অ্যামাজনেরও বেশি দিন হয়নি। ...
  • মৃণাল সেন : এক উপেক্ষিত চলচ্চিত্রকার
    [আজ বের্টোল্ট ব্রেশট-এর মৃত্যুদিন। ভারতীয় চলচ্চিত্রে যিনি সার্থকভাবে প্রয়োগ করেছিলেন ব্রেশটিয় আঙ্গিক, সেই মৃণাল সেনকে নিয়ে একটি সামান্য লেখা।]ভারতীয় চলচ্চিত্রের ইতিহাসে কীভাবে যেন পরিচালক ত্রয়ী সত্যজিৎ-ঋত্বিক-মৃণাল এক বিন্দুতে এসে মিলিত হন। ১৯৫৫-তে মুক্তি ...
  • দময়ন্তীর সিজনস অব বিট্রেয়াল পড়ে
    পড়লাম সিজনস অব বিট্রেয়াল গুরুচন্ডা৯'র বই দময়ন্তীর সিজনস অব বিট্রেয়াল। বইটার সঙ্গে যেন তীব্র সমানুভবে জড়িয়ে গেলাম। প্রাককথনে প্রথম বাক্যেই লেখক বলেছেন বাঙাল বাড়ির দ্বিতীয় প্রজন্মের মেয়ে হিসেবে পার্টিশন শব্দটির সঙ্গে পরিচিতি জন্মাবধি। দেশভাগ কেতাবি ...
  • দুটি পাড়া, একটি বাড়ি
    পাশাপাশি দুই পাড়া - ভ-পাড়া আর প-পাড়া। জন্মলগ্ন থেকেই তাদের মধ্যে তুমুল টক্কর। দুই পাড়ার সীমানায় একখানি সাতমহলা বাহারী বাড়ি। তাতে ক-পরিবারের বাস। এরা সম্ভ্রান্ত, উচ্চশিক্ষিত। দুই পাড়ার সাথেই এদের মুখ মিষ্টি, কিন্তু নিজেদের এরা কোনো পাড়ারই অংশ মনে করে না। ...
  • পরিচিতির রাজনীতি: সন্তোষ রাণার কাছে যা শিখেছি
    দিলীপ ঘোষযখন স্কুলের গণ্ডি ছাড়াচ্ছি, সন্তোষ রাণা তখন বেশ শিহরণ জাগানাে নাম। গত ষাটের দশকের শেষার্ধ। সংবাদপত্র, সাময়িক পত্রিকা, রেডিও জুড়ে নকশালবাড়ির আন্দোলনের নানা নাম ছড়িয়ে পড়ছে আমাদের মধ্যে। বুঝি না বুঝি, পকেটে রেড বুক নিয়ে ঘােরাঘুরি ফ্যাশন হয়ে ...


বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

ঈদ শপিং

জান্নাতুল ফেরদৌস লাবণ্য

টিভিটা অন করতেই দেখি অফিসের বসকে টিভিতে দেখাচ্ছে। সাংবাদিক তার মুখের সামনে মাইক ধরে বলছে, কতদূর হলো ঈদের শপিং?

বস হাসিহাসি মুখ করে বলছেন,এইতো! মাত্র ছেলের পাঞ্জাবী আমার স্যুট আর স্ত্রীর শাড়ি কেনা হয়েছে। এখনো সব‌ই বাকি।

সাংবাদিক:কত টাকার শপিং হলো এ পর্যন্ত?

বস: এইতো গতকাল আর আজ দিয়ে মাত্র আড়াই লাখের মতো হয়েছে। এখনো যদিও সব‌ই বাকি!

আমি বিস্ফারিত চোখে তাকিয়ে আছি। এদিকে আমরা কেউ ঈদ বোনাস পাইনি। বস সবাইকে ডেকে নিয়ে দুঃখী দুঃখী গলায় বলেছেন,

এবারের মতো তোমরা একটু ম্যানেজ করো। কোরবানির ঈদে ডাবল বোনাস দেবো সবাইকে। জানোই তো প্রাইভেট কোম্পানি!অবস্থা কত খারাপ যাচ্ছে!লোন‌ই রয়েছে সাড়ে তিন কোটি টাকার।
সবাই মন দিয়ে কাজ করো সামনেরবার যেন এরকম অবস্থা না হয়। কেউ মন খারাপ করবা না।

বসকে সবাই খুব মানে। সবাই জানে বস খুব ভালো মনের মানুষ। বস যখন বলছে এত মন্দা যাচ্ছে তখন নিশ্চয়ই বসের হাতে টাকা নেই।

আমাদের কলিগদের মধ্যে মুন্না ভাই একটু লিডার ক্যাটাগরির। মুন্না ভাই একটা ছোটখাটো ভাষন দিয়ে আমাদের বুঝিয়েছেন,

"আজ বসের যে অবস্থা এরজন্য কারা দায়ী? আমরা দায়ী,আমরা! আমরা যদি আমাদের কাজ ঠিকমতো করতাম তাহলে এতদিনে একটা কোম্পানিতেও প্রোডাক্ট অর্ডার মিসিং থাকতো না।
কোম্পানির এই মন্দার সময়ে আমরা কোম্পানির উন্নয়নের কথা না ভেবে নিজেদের ঈদ শপিংয়ের কথা ভাববো? কখনো না! নেভার! আমরা মন লাগিয়ে কাজ করবো। ঈদ বোনাস না, কোম্পানির উন্নতিতেই আমাদের মনের প্রশান্তি! আমরা নিজেরা থাকি যেমন তেমন,কোম্পানি থাকুক দুধে ভাতে। কোম্পানিই আমাদের মা-বাবা। যখন আমাদের কেউ ছিলো না,এই কোম্পানি আমাদের আশ্রয় দিয়েছিলো......."

বাকিটা আর বললাম না।‌ এখন কথা হচ্ছে যে বসের অভাবের দিনে আমরা সবাই ঈদ বোনাসের কথা ভুলে গিয়ে মন লাগিয়ে অফিসের কাজ করছি সেই বস আড়াইলাখ টাকার শুধু জামাকাপড়‌ই কিনেছেন। আর লজ্জাও নাই,সেটা আবার টিভিতে ফলাও করে বলছেন!

"কালকেই আন্দোলন ডাকব!" এরকম কথা ভাবতে ভাবতে আমি শক্ত হয়ে বসে র‌ইলাম। একবার ভাবছিলাম অফিসের কাউকে ফোন দিয়ে সবটা বলি। আবার ভাবলাম, না! ফোনে বলার মধ্যে মজা নাই। সবার এক্সপ্রেশন দেখতে হবে কি হয়।

পরদিন সকাল সকাল অফিসের দিকে র‌ওনা হয়ে গেলাম। মাঝপথে জ্যামে গাড়ি আটকেছে। চুপচাপ বসে বসে এদিক ওদিক তাকাতে গিয়ে এক অদ্ভুত দৃশ্য দেখলাম।

রাস্তার পাশের ফুটপাতের দোকান থেকে বস একটা পাঞ্জাবী দামাদামি করছেন।

ছানাবড়া চোখে তাকিয়ে থাকতে থাকতে কখন গাড়ি ছেড়ে দিয়েছে সেই খেয়াল‌ও নাই আমার।

কি মনে করে অফিসে গিয়ে আর কাউকে কিছু বললাম না। বিষয়টা নিয়ে ভালোভাবে ইনভেস্টিগেট করতে হবে। বস ফুটপাত থেকে শপিং করছেন,আবার টিভিতে বলছেন আড়াইলাখ টাকার কেনাকাটা করেছেন, ব্যাপারটাতে আমার খটকা লাগছে।

রাতে মোবাইলে বসে বসে আজকের টিভি চ্যানেলগুলো শপিং বিষয়ক কি কি ভিডিও আপলোড দিয়েছে সেগুলো মন দিয়ে দেখতে লাগলাম।

নামকরা আরেক টিভি চ্যানেলে বসকে আবার দেখতে পেলাম। বসুন্ধরা শপিং মলের সামনে তিনি কেবল গাড়ি থেকে নেমেছেন। সেই সময়ে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন।

সাংবাদিক:তো আজ আপনি কি কি কেনাকাটা করলেন?

বস আফসোসের সুর তুলে জবাব দিলেন,বেশী কিছু এখনো কিনতে পারি নাই। আমার ওয়াইফ আবার খুব খুঁতখুঁতে,তার সহজে কিছুই পছন্দ হয় না। এই একটা পাঞ্জাবী কিনেছি। তিনশ ইউরো দিয়ে।

বস আকাশী রংয়ের ফুটপাতের পাঞ্জাবীটা মেলে ধরে দেখালেন।

লেখা- জান্নাতুল ফেরদৌস লাবণ্য

408 বার পঠিত (সেপ্টেম্বর ২০১৮ থেকে)

শেয়ার করুন


Avatar: বিপ্লব রহমান

Re: ঈদ শপিং

"সাংবাদিক:কত টাকার শপিং হলো এ পর্যন্ত?

বস: এইতো গতকাল আর আজ দিয়ে মাত্র আড়াই লাখের মতো হয়েছে। এখনো যদিও সব‌ই বাকি!"

নুহাশ আহমেদের বিজ্ঞাপনচিত্রের স্ক্রিপ্টে এমন আজগুবিসাংবাদিকতা হইলেও হইতে পারে। 😝
Avatar: PM

Re: ঈদ শপিং

ঢাকায় দেখলাম সক্কলে ২ ইদ এটো বোনাস পায়। এক মাসের মাইনে। এক্সপ্যাট রা ২ মসের বোনাস পয় ডলারে , কিন্তু ঈদ এ নয়।

এদিকে দোকানদারেরা উৎসবে সকলের গলা কাটে। এমনিতেই জিনিষের দাম বেশী , ইদ উপলক্ষে তার ও দুগুন হয়।


ইদানিং আমার অফিসের লোকজনেদের দেখছি সবাই ঈদ এ কলকাতা গিয়ে শপিং করছে। কলকাতার দোকানে নাকি ডিসাইন বেশী ভালো, দাম কম আবার ঈদ উপলক্ষে ডিসকাউন্ট ও দেয় আজকাল। অনেকেই কলকাতায় গিয়ে ৩-৪ লাখ টাকার বাজার করে আসছে বলছে।





আপনার মতামত দেবার জন্য নিচের যেকোনো একটি লিংকে ক্লিক করুন