এই সুতোর পাতাগুলি [1]     এই পাতায় আছে1--1


           বিষয় : সোশ্যাল মিডিয়া, মরা যোনি ও আমরা
          বিভাগ : অন্যান্য
          শুরু করেছেন : nayantara chakravarty
          IP Address : 60.24.91.146 (*)          Date:14 May 2017 -- 08:14 AM




Name:   nayantara chakravarty           

IP Address : 60.24.91.146 (*)          Date:14 May 2017 -- 08:15 AM

কখনো ভেবে দেখেছেন, মহুয়াদি যেদিন পুড়ে মরলো, ফেসবুক থাকলে কিরকম প্রতিক্রিয়া আসতো?
জাস্টিস ফর ফায়ার, জাস্টিস ফর কেরোসিন, জাস্টিস ফর ওয়াটার, এইসবে হয়তো ফেসবুক ছেয়ে যেত। আজকে যেমন হয়েছে, জাস্টিস ফর এয়ারব্যাগ। জাস্টিস ফর ইলেকট্রিক পোলস। রোড সাইড ডিভাইডার্স।

ধরা যাক, আমাদের নাটকের নায়িকার নাম যোনি আর নায়ক লিঙ্গ। যোনি আর লিঙ্গ সারা রাত ধরে মদ খেয়ে, বেলেল্লাপনা করে একটা গাড়িতে উঠে রওনা দিলো মৃত্যুপথের দিকে। নাইটক্লাব হপিং করে যখন বেপরোয়া, জীবন যখন ফুরফুরে, রাতের কলকাতায় যখন আর কেউ নেই তাদের ওপর চোখ রাখার জন্য, ভুস করে গাড়ি হাঁকিয়ে ১০৫-এ লিঙ্গ দিলো ঠুকে, দেয়ালে, রেলিঙে, যোনির মাথায়।

ঠুকে।

নায়িকার আঘাত, আর কিছুক্ষন পর, যোনির মৃত্যু। কি ভয়াবহ! কি আকস্মিক ! মর্মান্তিক এন্ড হোয়াট নট !

যোনি কি লিঙ্গর সাথে মারপিট করছিলো? হাতাহাতি? যোনি আর লিঙ্গ নিশ্চয় দুত্তু করছিলো, গাড়িতে। গাড়ি অটোম্যাটিক হলেই বাঁ হাত আর বাঁ পা ফাঁকা থাকতো লিঙ্গের, তাহলে এই দুর্ঘটনা ঘটতো না। মদ খেকো লিঙ্গের গাড়িতে উঠতে গ্যালো ক্যানো যোনি? তাহলেই এই "দুর্ঘটনা" ঘটতো না। ম্যারা, রুবি কি তোর বাপের নাকি রে! NG মেডিকেয়ার বা আমরি নয় ক্যানো? মানুষের কত্ত প্রশ্ন লিঙ্গ আর যোনির জন্য। লিঙ্গ বেঁচে গ্যালো, যোনি মরে গ্যালো, লোকেরা ৫-১০টা কমিউনিটি খুলে ফেললো।

ভয়েস ফর লিঙ্গ, জাস্টিস ফর যোনি।

ভয়েস ফর লিঙ্গতে ৫০০০ জন মেম্বার জুটে গ্যালো, প্ল্যান হলো থানায় হাঁটি প্রতিযোগিতার! বিশ্বাস করতে পারেন? লিঙ্গের জন্মদিনে, সবাই হেঁটে যাবেন কসবা নিমতলা থেকে থানা, টালিগঞ্জ। লিঙ্গের মুখোশ বানানো হবে, সবাই পরবে। হাতে প্ল্যাকার্ট, পোঁদে মশাল গুঁজে সবাই হাটবে, লিঙ্গবাঁচাও আন্দোলনে। ফেস বুকে দিচ্ছে ডাক, ধর্মতলায় চিচিং fuck। হাঁটুক। হাঁটা আর হত্যা, গুগল ইনপুটে একটা টাইপো মাত্র ফারাক। ফাক ফাক ফাক।

জাস্টিস ফর যোনিতে অন্য ঠেক। যোনির ছবি সেঁটে কেউ খেয়াতরী বাইতে নারাজ, আবার কেউ যোনি দিদির জন্য কেঁদেই আকুল। কষ্ট কেষ্ট কুষ্ঠ খিস্তো সাইকেল শুরু থেকে শেষ হওয়ার আগেই যোনির বলাৎকার কমপ্লিট। হবে নাই বা কেন? যোনিতো সেই রাত্তিরে বেরিয়েই কমপ্লিটলি fuckable হয়ে গেছে ! বার হপের চক্করে সবাই তার লালস্যময়ী রূপটা যে দেখে নিয়েছে ! মানুষ? ভ্যাট। যোনি আবার মানুষ নাকি ! বালের মানুষ, যোনি ইস অনলি টু কিস মাই ব্ল্যাক লিঙ্গ। ইয়েস। শি ইস স্টিল কমপ্লেটেলি fuckable, সো হোয়াট শি ইস ডেড? দ্যাট লিঙ্গ বাস্টার্ড কিল্ড হার, নট আই ! আমি তো আর মাল খেয়ে বৌ/মেয়েছেলে নিয়ে গাড়ি চালাইনা। আমার তো আর ঐরকম উদ্দাম লাইফস্টাইল নয়। আমি আমি আমি। বাট আমার একটা সোশ্যাল মিডিয়া একাউন্ট আছে। চোর ধরা পড়েছে, চল, সবাই গিয়ে কেলিয়ে আসি।

আমি কোথায়? আমি তো হারিয়ে গেছে, যোনি লিঙ্গের মাঝে আমি তো আর নেই। দরকার কি আমির? আমি তো এমনিতেই আমীর। গাড়ি আছে, ফ্ল্যাটবাড়ি আছে, বৌ আছে, দুদিন পরে বাচ্চাও হয়ে যাবে, বাচ্চাগুলো ছেলে হলে ডন বস্কো, মেয়ে হলে লরেটো, কন্ফার্মড। গত বছরের রিউনিয়ন ফান্ডে ডোনেশন দিয়ে কন্ফার্মড। আমার আর দরকার কিসে? দুটো চাড্ডী পেলে খিস্তি দেব, বাকি সময়, খাস্তা দিয়ে চা খাবো। ও হ্যাঁ, ওই জালি নারীবাদীগুলোকে পেলেই ভূত ভাগাব। ওদের আবার পাওনা কি? যোনি লিঙ্গকে দেখে বোঝেনা, রাতের অন্ধকারে বেরোলে লিঙ্গ যোনিকে চুদবেই ? কোলে বসিয়ে চুদে ফাক করুক, কিংবা গাড়ি ঠুকে মাথা fuck করুক, রাত্তিরে বেরোলে এইসব হতেই পারে।

আর ওই মদের নেশা? বাঞ্চোৎ লিঙ্গ কথা বললে ঐসব বালবিচিই বকবে। পোস্টারে ফেস্টুনে মদের নেশা সর্বনাশা, খালি গাড়ি চালানোর সময় ড্রাঙ্ক বাট নট ইনটক্সিকেটেড। লিঙ্গরে, একটু ভাব হারামজাদা, ভাবা প্র্যাক্টিস কর! ভাবতে ট্যাক্স লাগে না, লিঙ্গ খাঁড়া রাখতে গেলে ভাব। নিদেনপক্ষে ৩০০ দেখ। না ভাবলে তুই ও থাকবি না দুদিন পর। খুনের দায়ে হয় জেল খাটবি, নয়তো পাব্লিক খিঁচে মাল ফেলে কুচিয়ে নুন মাখিয়ে তোকেই খাইয়ে দেবে। মিডনাইট ট্রিস্ট উইথ দি মেহুলান্স পার্ট ৩ লেখার আগে ভেবে দেখ, মেহুলায় আদৌ আছিস কিনা।

ভগবান। একটু মুখ তুলে তাকাও। অথবা ভূমিকম্পে মেরে ফেলো এই নির্বোধের রাজত্বকে। আর ভালো লাগছে না।

এই সুতোর পাতাগুলি [1]     এই পাতায় আছে1--1