বইমেলা হোক বা নাহোক চটপট নামিয়ে নিন রঙচঙে হাতে গরম গুরুর গাইড ।

[38295]  [38294]  [38293]  [38292]  [38291]  [38290]  [38289]  [38288]  [38287]  [38286]  [38285]  [38284]  [38283]  [38282]  [38281]  [38280]  [38279]  [38278]  [38277]  [38276]  [38275]  [38274]  [38273]  [38272]  [38271]  [38270]  [38269]  [38268]  [38267]  [38266]  [38265] 

name:  দ               mail:                 country:                

IP Address : 52.107.87.61 (*)          Date:10 Nov 2017 -- 09:13 AM

উফ একসাথে পুরোটা টাইপাও না খোকা। দু লাইন তিন লাইন লিখে চলেছে


name:  T               mail:                 country:                

IP Address : 165.69.191.249 (*)          Date:10 Nov 2017 -- 09:12 AM

তো, রেগেমেগেই বলেছি, আরে ছিলে কোথায়। ভাস্কর্য করছিলে নাকি! এদিকে এরা কান নিয়ে অস্থির। যদিও সুজয়দা এসে পড়াতে আদ্দেক মিলিয়ে গেছে।


name:  Atoz               mail:                 country:                

IP Address : 161.141.85.8 (*)          Date:10 Nov 2017 -- 09:11 AM

মথুরা বৃন্দাবনও যে ঐখানেই, সেইটা জেনে আরো আনন্দ হয়েছিল। মীরাবাঈ ভজন গাইছেন,আকবর এসে ছদ্মবেশে শুনছেন, বাড়ি থেকে বেরিয়ে হেঁটে হেঁটে এসে পড়েছেন বীরবলের সঙ্গে। দুজনেই ছদ্মবেশে।


name:  T               mail:                 country:                

IP Address : 165.69.191.249 (*)          Date:10 Nov 2017 -- 09:11 AM

তো, ধরেও না কেউ ফোন। মোটামুটি এইবার কিছু একটা করতে হবে ভেবে বেশ ধমকেই উঠেছি একপ্রকার। এই কাঠি ফাঠি লেকে ভাগো সব। কান ঠিক হ্যায়। সাফ নেহী চাহিয়ে। এবং সেই সময়ই সুজয়দা পশ্চিমদিকের দরজা দিয়ে হাসিমুখে বেরিয়ে এলো। ঘড়িতে দেখলাম ছ টা পনেরো মতন। হতভাগা কাঁহিকা। আমার দ্যাখাটা বরবাদ করে দিল।


name:  T               mail:                 country:                

IP Address : 165.69.191.249 (*)          Date:10 Nov 2017 -- 09:09 AM

এদিকে রীতিমতো ভীড় জমে গ্যাচে। প্রত্যেকেই আমাকে কাঠি কত্তে চাইছে। এই উটকো বিপদের সামনে পড়ে আমি ভাবলুম এই গোলমালে কেউ যদি ক্যামেরার ব্যাগটা আন্দাজ করে তুলে নিয়ে চম্পট দেয় তো জাস্ট ফ্যাল ফ্যাল করে দেখতে হবে। আরে সুজয়দা বেরোও ভাই, গেলে কোথায়। রিরিরিং রিরিরিং।


name:  i               mail:                 country:                

IP Address : 147.157.8.253 (*)          Date:10 Nov 2017 -- 09:08 AM

আমিও তাই জানতাম-দিল্লি আগ্রা মথুরা বৃন্দাবন-দিল্লির দরজা দিয়ে বেরিয়ে আগ্রায় পড়্লাম, তাজমহলের খিড়কি দিয়ে মথুরা, জাস্ট পাশেই বৃন্দাবন। অ্যাকচুআলি এখনও তাই জানি। তবে আগ্রার দরজাটা খুঁজে পাই নি।

টির গল্পটা হোক।
ওরিয়েন্ট এক্সপ্রেস দেখলে টি?


name:  Atoz               mail:                 country:                

IP Address : 161.141.85.8 (*)          Date:10 Nov 2017 -- 09:08 AM

বন্যা কোন্নগরেও হয়েছিল। আটাত্তুরের বন্যা। খুবই ভয়ানক বন্যা। তবে জল নেমে গেল কয়েকদিনেই।


name:  pi               mail:                 country:                

IP Address : 24.139.209.3 (*)          Date:10 Nov 2017 -- 09:08 AM

হ্যাঁ, আরেকবার লিখেই ফেলি।

শিবসেনার রাজ্যে বৃহন্মুম্বই সত্যি বৃহৎবিস্ময়। মুম্বই আমার বড় প্রিয় শহর। মানে কোলকাতার পরে আর কি। তবে বিশেষ টানটা হল কোলাবা কজওয়ে রিগাল সিনেমা কালাঘোড়া চত্বর। এখনো সে বম্বে ভেলভেটের আমেজ রয়ে গেছে, গথিক স্থাপত্য, কালো বড় বড় পাথর পাতা রাস্তায়, হলুদ আলো আর বেশিটা অন্ধকারে। এখনো নিয়ন আলোর দৌরাত্ম্য আসেনি বলে। অবশ্য আমি তো বেষ কয়েকবছ্হর আগের কথাই জানি, বদলেছে কি ?
কালাঘোড়া ফেস্টিভাল, রাস্তাময় আঁকাআঁকি, নাটক, গান, এসব বেশ মিস করি। টিআয়্যএফার নভিনগর থেকে আরবসাগরতীরের সূর্যাস্তগুলোও।

কিন্তু দিল্লিও তো এসবের হাব। ঐ যে , রাজীব চৌক না কনট প্লেস, সিকি কোন জায়গাটা যেন, আমি সেই একটা পরিত্যক্ত মেট্রো স্টেশনের মধ্যে কী দারুণ এক টুকরো রাজস্থান আবিষ্কার করলাম ? ওর পাশেই তো কী দারুণ একটা জায়গা, কেমন একটা ছোট্ট আম্ফিথিয়েটারের মতন। সিঁড়িতে সিঁড়িতে কত ছবি ! সন্ধে নামার আগে ওখানেই বসে থাকা যায়। অন্য পাশে রাস্তার বাচ্চাগুলোকে নিয়ে কোন এনজিও র দিদিমণিই হবে, পড়াতে বসার চেষ্টায়। পরের পর লিট্টির দোকানে। সেই ফুটপাথের উল্টোদিকেই বিশাল ঝাঁচককে সব দোকান। আমাদের বিশ্ববঙ্গও আছেন। পরের পর পর ব্র্যাণ্ডের দোকান। আর তাদের কাঁচকলা দেখিয়ে, তাদেরকে মাছি তাড়াতে ব্যস্ত রেখে রাস্তার ওপারের ফুটপাথের দোকানগুলোয় ভিড়। মেট্রো স্টেশন খুঁজতে রাস্তা হারিয়ে ফেলে আবিষ্কার করি কী বিশাল দারুণ এক নার্সারি, অন্ধকারে, রাস্তা ফুঁড়ে !
কিন্তু সেসব বলেও না। যেখানে ঢিল মারলে কোন না কোন কিল্লা, সৌধে গিয়ে লাগে, সে জায়গা এমনিই বাজে হতে পারেনা। আর কোন কিছু না থাকলেও , শুধু ঐ পুরানা কিলা আর তার শো টা থাকলেই ফেলে চুমু দেওয়া যায়। মানে, সকালবেলায় উঠে পথলাম, আর মনে হল কি ফ্হাঁকা কুতুব মিনারে গিয়ে বসে বসে আকাশ কালো ঝড় উঠতে দেখলাম, আর পায়রা টিয়ার ওড়াউড়ি, কি পা ঝুলিয়ে বাদামভাজা খেতে খেতে হুমায়ূন টম্ব থেকে সূর্য ডোবা, এতো মানে যাকে বলে ব্যাপকই একটা ব্যাপার !
এত ইতিহাসের গন্ধ নিয়ে ( এর মধ্যে এখন দূষণের দুর্গন্ধটন্ধ এনে ভাবভঙ্গ করবেন না) থাকা কোন শহর খাজা হওয়া অসম্ভব।

আর লোক ? আমি তাহলে বেশ লাকি বলতে হবে, কারণ এই পাঁছ ছবার দু তিনদিনের জন্য গিয়ে যে ক'তা অটূয়ালা পেয়েছ্হি, মেট্রো কি রাস্তায় যতজন লোক কি দোকানদার , বেশ ভাল ব্যবহার পেয়েছি কিন্তু। রাস্তা হারালে, ভুলভাল উল্টো ট্রেনে উঠে পড়লে, জায়গা বুঝতে না পারলে সবাই ভারি সাহায্য করেছেন। এমনকি মেট্রোতে স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে নিজেরা ফোন করে আমার গন্তব্যের ডায়রেকশন জেনে বুঝিয়েও দিয়েছেন। আর আমি কিন্তু মেট্রোতে বেশ অনেক মেয়েও দেখেছি। ঐ যেদিন আমি রাজস্থান আবিষ্কার করে নানা অভিযান করে ফিরলাম, সাড়ে সাতটার পর মেট্রো প্রায় ফাঁকা, কিন্ত্তু আমার কামরায় যে কজন ছিল, সবই প্রায় মেয়ে। নেমে অবশ্য দেখি ত্রিপুরা ভবনে যাওয়ার রাস্তা সব শুনশান। তবু ঐ ফাঁকা রাস্তাতেই অটো পেয়ে গেলাম। অটূয়ালাদের সাথেও প্রচুর গপ্পো করেছি। অনেকেই দেখলাম, ইউপি র মুসলিম।ইউপি ভোটের পর ওঁদের এলাকার বিজেপি কীকরে জিতল সে নিয়ে বিস্ময় প্রকাশ করছিলেন। ইউপি র গ্রাম থেকে আসা হিন্দু হোক কি মুসলিম, খুব ইন্টারেস্টিংলি , সবাই বেশ প্রচণ্ড মাত্রায় অসাম্প্রদায়িক। ধার্মিক হলেও। ঐ ঈশ্বর আল্লা তেরো নাম মার্কা ফিলোসফি প্রিচ করতেন, একথা সেকথা বলতে বলতে। মোদির গ্যাস কানেকশনের গুপি নিয়ে বলছিলেন। একজন কেজরির মহল্লায় কাজেরও প্রশংসা করছিলেন, এইসব। আমার স্যাম্প্লিং সেট খুব ছোট জানি, তবে খুব বায়সড না, র‌্যাণ্ডমই।
নিত্য থাকলে হয়তো খারাপ দিক বেশি দেখতাম।
তবে এটাও ঠিক, কোন জায়গা আমার ঠিক ততটা খারাপও লাগেনা।


প্রচুর লোকজন, প্রচণ্ড ব্যস্ততার কোলকতা, মুম্বই , দিল্লিও ভাল্লাগে, এই গণ্ডাছড়া, কি জিরানিয়া, আম্বাসা, ডিব্রুগড় , বকুলও কোন না কোন কারণে ভালই লাগে ।

পুণেও ভারি ভাল্লেগেছিল। ভাল পাহাড়ের জন্য আর ভাল ভাল ক্লাসিকাল প্রোগ্রামগুলোর জন্য। উইকেন্ড হলেই কোথাও না কোথাও অনুষ্ঠান, সে ঘরোয়া হলেও। আর কী ভাল কোয়ালিটির গানবজানা। আমার দুমাসের সামারে কত যে শুনেছি। এন সি এল এর ল্যাবের কর্ণটকী সিনিয়র ছিলো বড় সমঝদার। সব সুলুকসন্ধ্হান জানা ছিল তার, আমিও জুটে যেতাম।

কিন্তু কথা হল, খাজা কথাটা কোত্তেকে এসেছ্হে ? ঐ খাজা মইনুদ্দিন চিস্তির খাজা ? যার মানে প্রভু গোছের কিছু ? ভাল ওড়িয়া মিষ্টির নামাই বা খাজা হয়ে গেল কীকরে ? আর সেই খাজার মানে আমদের কাছে এমন খাজা হয়ে গেল কোদ্দিয়ে ?




name:  T               mail:                 country:                

IP Address : 165.69.191.249 (*)          Date:10 Nov 2017 -- 09:07 AM

চোখ টা বোজো। কানটা এগিয়ে দাও। দুমিনিট লাগবে। কিচ্ছু না, কিচ্ছু না।

সেকী উপদ্রব। বিরক্ত হয়ে বল্লাম, না না লাগবে না। দরকার নেই। তো সেই বুড়ো আরেকজনকে হাজির করল। তারও একই আবদার। আরে আচ্ছা তো! ক্রমশঃ আরো একজন। দুমদাম সুজয়দাকে ফোন কচ্চি। রিরিরিং হচ্চে ধচ্চে না।


name:  T               mail:                 country:                

IP Address : 165.69.191.249 (*)          Date:10 Nov 2017 -- 09:05 AM

তার কাঁধে ইয়াব্বড় ব্যাগ। ভিস্তিওলা মাফিক। কিছু একটা। প্রাচীন লোক। আমাকে আপাদমস্তক দেখল। তারপর একটা সরু মতন কাঠি বার করে বলল, তোমার কান থেকে ময়লা বার করতে পারি।




    পরের পাতা         আগের পাতা
**এই বিভাগের কোনো মন্তব্যের জন্যই এই সাইট দায়ী নয়৷ যে যা মন্তব্য করছেন, তা ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত মতামত৷ গুরুচন্ডালি সাইটের বক্তব্য নয়৷